ফল কিনেই ফ্রিজে রাখছেন! তরতাজা রাখতে কয়েকটি টিপস

সুস্থ থাকতে ফল খাওয়ার বিকল্প নেই। এজন্য আমরা ফল কিনে ফ্রিজে সংরক্ষণ করি। স্বাস্থ্যকর খাওয়াদাওয়ার কথা উঠলে সবার প্রথমেই যেটা মনে আসে সেটা হচ্ছে ফল। প্রাকৃতিক চিনি, খাদ্যতালিকাগত ফাইবার, ভিটামিন এবং খনিজ সমৃদ্ধ। পুষ্টিগুণে ভরপুর। কিন্তু সমস্যা হল, ফল দ্রুত পচে যায়। একসঙ্গে বেশি কেনা যায় না।

 

কিছু টিপস মেনে চলুন। যেগুলো মেনে চললে ফলমূল দীর্ঘদিন তাজা রাখা যায়। ফলে বার বার বাজার যেতে হয় না, টাকাপয়সাও বাঁচে।

 

বিশেষজ্ঞরা দিনে দুই টুকরা ফল খাওয়ার পরামর্শ দেন। শরীরকে সুস্থ রাখতে এতটুকুই যথেষ্ট। তাই ফল কেনার সময় হিসেবি হতে হবে।

 

কয়টা ফল আছে, কতগুলো কেনা হচ্ছে গুণে রাখতে হবে। তাহলেই ফল নষ্ট হবে না। ফেলে দেওয়ারও প্রয়োজন পড়বে না।

 

প্রচুর ফল কিনে সেসব ধুয়ে ফ্রিজে ঢুকিয়ে রাখার অভ্যাস অনেকেরই আছে। কিন্তু শুধু ধোয়া নয়। সেগুলো শুকিয়েও রাখতে হয়। না হলে আর্দ্রতার কারণে তাড়াতাড়ি নষ্ট হয়ে যেতে পারে। হয় কেনার পর যেমন আছে তেমনই ফ্রিজে ঢোকাতে হবে। আর ধুলে তোয়ালে দিয়ে মুছে তারপর। খাওয়ার আগে ধোয়া সবচেয়ে ভালো।

 

এই কৌশলে ফল দীর্ঘদিন তাজা থাকে। বেশিরভাগ সময় আপেল বা নাসপাতির মতো ফল কিনে ফ্রিজের ড্রয়ারে ঢুকিয়ে দেওয়া হয়। এতে লাভ কিছু হয় না। বরং কাগজ বা প্লাস্টিক দিয়ে মুড়ে রাখলে ফল অনেক দিন তাজা রাখা যাবে। বিক্রেতারাও ফলকে দীর্ঘ দিন তাজা রাখতে এই কৌশল ব্যবহার করেন।

 

দীর্ঘদিন ফল তাজা রাখার এটা সবচেয়ে সহজ পদ্ধতি। যেটা করতে হবে তা হল, সিঙ্কের ড্রেন পাইপটা বন্ধ করে জল ছাড়তে হবে। এবার ফলগুলো ডুবিয়ে দিতে হবে সেই জলে। এবার তাতে সামান্য নুন এবং এক কাপ ভিনিগার মিশিয়ে নেড়ে নেড়ে নিতে হবে। এতে ফলে থাকা যে কোনও ধরনের মোম এবং ময়লা তো পরিষ্কার হবেই, চোখে দেখা যায় না এমন পোকামাকড়ও মরে যাবে।

 

ভিনেগারের এই মিশ্রণে অন্তত ৮ থেকে ১০ মিনিট ফলগুলোকে ডুবিয়ে রাখতে হবে। এতে ছাঁচ পড়বে না। ১০ মিনিট হয়ে গেলে ফলগুলোকে তুলে সাধারণ জলে ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে। তারপর সেগুলো শুকিয়ে বা তোয়ালে দিয়ে মুছে প্যাকেটে মুড়ে ফ্রিজে ঢোকাতে হবে। এতে ফল যে কতদিন তাজা থাকবে কল্পনাও করা যাবে না!

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» নারী পুলিশ অত্যন্ত দক্ষতার সাথে দেশে-বিদেশে দায়িত্ব পালন করছে : শিক্ষামন্ত্রী

» শেখ মনির জন্মদিন উপলক্ষে যুবলীগের তিন দিনের কর্মসূচি

» সরকারকে কঠোর হতে বাধ্য করবেন না: বিএনপিকে তথ্য ও  সম্প্রচার মন্ত্রীর

» অস্ত্র-গুলিসহ ৩০ মামলার আসামি গ্রেফতার

» ১৬ সোনারবারসহ এক চোরাকারবারী আটক

» গাইবান্ধা-৫ আসনে উপ-নির্বাচনের তারিখ আগামী সপ্তাহে: সিইসি

» ৫০ কোটি মানুষকে ডিজিটাল আর্থিক সেবার আওতায় আনতে কাজ করবে হুয়াওয়ে

» বায়োলজিক ওষুধের ব্যবহার বাড়াতে সব পর্যায়ে সচেতনতা প্রয়োজন

» বীরগঞ্জে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর মাঝে ভেড়া বিতরণ

» জুমার নামাজের গুরুত্ব ও ফজিলত

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি।(দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...

ফল কিনেই ফ্রিজে রাখছেন! তরতাজা রাখতে কয়েকটি টিপস

সুস্থ থাকতে ফল খাওয়ার বিকল্প নেই। এজন্য আমরা ফল কিনে ফ্রিজে সংরক্ষণ করি। স্বাস্থ্যকর খাওয়াদাওয়ার কথা উঠলে সবার প্রথমেই যেটা মনে আসে সেটা হচ্ছে ফল। প্রাকৃতিক চিনি, খাদ্যতালিকাগত ফাইবার, ভিটামিন এবং খনিজ সমৃদ্ধ। পুষ্টিগুণে ভরপুর। কিন্তু সমস্যা হল, ফল দ্রুত পচে যায়। একসঙ্গে বেশি কেনা যায় না।

 

কিছু টিপস মেনে চলুন। যেগুলো মেনে চললে ফলমূল দীর্ঘদিন তাজা রাখা যায়। ফলে বার বার বাজার যেতে হয় না, টাকাপয়সাও বাঁচে।

 

বিশেষজ্ঞরা দিনে দুই টুকরা ফল খাওয়ার পরামর্শ দেন। শরীরকে সুস্থ রাখতে এতটুকুই যথেষ্ট। তাই ফল কেনার সময় হিসেবি হতে হবে।

 

কয়টা ফল আছে, কতগুলো কেনা হচ্ছে গুণে রাখতে হবে। তাহলেই ফল নষ্ট হবে না। ফেলে দেওয়ারও প্রয়োজন পড়বে না।

 

প্রচুর ফল কিনে সেসব ধুয়ে ফ্রিজে ঢুকিয়ে রাখার অভ্যাস অনেকেরই আছে। কিন্তু শুধু ধোয়া নয়। সেগুলো শুকিয়েও রাখতে হয়। না হলে আর্দ্রতার কারণে তাড়াতাড়ি নষ্ট হয়ে যেতে পারে। হয় কেনার পর যেমন আছে তেমনই ফ্রিজে ঢোকাতে হবে। আর ধুলে তোয়ালে দিয়ে মুছে তারপর। খাওয়ার আগে ধোয়া সবচেয়ে ভালো।

 

এই কৌশলে ফল দীর্ঘদিন তাজা থাকে। বেশিরভাগ সময় আপেল বা নাসপাতির মতো ফল কিনে ফ্রিজের ড্রয়ারে ঢুকিয়ে দেওয়া হয়। এতে লাভ কিছু হয় না। বরং কাগজ বা প্লাস্টিক দিয়ে মুড়ে রাখলে ফল অনেক দিন তাজা রাখা যাবে। বিক্রেতারাও ফলকে দীর্ঘ দিন তাজা রাখতে এই কৌশল ব্যবহার করেন।

 

দীর্ঘদিন ফল তাজা রাখার এটা সবচেয়ে সহজ পদ্ধতি। যেটা করতে হবে তা হল, সিঙ্কের ড্রেন পাইপটা বন্ধ করে জল ছাড়তে হবে। এবার ফলগুলো ডুবিয়ে দিতে হবে সেই জলে। এবার তাতে সামান্য নুন এবং এক কাপ ভিনিগার মিশিয়ে নেড়ে নেড়ে নিতে হবে। এতে ফলে থাকা যে কোনও ধরনের মোম এবং ময়লা তো পরিষ্কার হবেই, চোখে দেখা যায় না এমন পোকামাকড়ও মরে যাবে।

 

ভিনেগারের এই মিশ্রণে অন্তত ৮ থেকে ১০ মিনিট ফলগুলোকে ডুবিয়ে রাখতে হবে। এতে ছাঁচ পড়বে না। ১০ মিনিট হয়ে গেলে ফলগুলোকে তুলে সাধারণ জলে ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে। তারপর সেগুলো শুকিয়ে বা তোয়ালে দিয়ে মুছে প্যাকেটে মুড়ে ফ্রিজে ঢোকাতে হবে। এতে ফল যে কতদিন তাজা থাকবে কল্পনাও করা যাবে না!

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি।(দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Design & Developed BY ThemesBazar.Com