ছয় অভ্যাস আপনাকে দরিদ্র করে তুলছে

জীবনে সফল হতে সবাই চায়। এমন কাউকে খুঁজে পাওয়া কঠিন যে চায় না যে তার জীবনে সচ্ছলতা থাকুক। দারিদ্রতা কারোই কাম্য নয়। জানেন কি, সচ্ছল জীবনের জন্য সঞ্চয় খুব প্রয়োজন। কিন্তু যদি এমন হয় যে, প্রতি মাসে আপনি অনেক ভালো টাকাই উপার্জন করছেন। তবে মাস শেষে গিয়ে দেখলেন যে আপনার হাতে কোনো টাকাই নেই। টাকা কোথায় খরচ করেছেন তার হিসাবও আপনি জানেন না। তবেই বিপদ!

 

এমন সমস্যার সমস্যার সমাধান হলো, আপনি কোথায় কোথায় ব্যয় করেছেন তা লিখে রাখা। একটি ডায়েরি তৈরি করুন যেখানে আপনি আপনার প্রতিদিনের খরচগুলো নোট করতে পারবেন, যদি ছোট্ট একটি ক্যান্ডিও কেনেন, সেটিও লিখে রাখুন। এর পাশাপাশি এই ৬টি অভ্যাস আপনাকে বাদ দিতে হবে, নয়তো এগুলো আপনাকে দরিদ্র করে তুলবে-

অপ্রয়োজনীয় কেনাকাটা

ক্রেডিট কার্ডের মতো সহজ অ্যাক্সেসের কারণে, বেশিরভাগ মানুষ অনলাইনে কেনাকাটা করতে পছন্দ করে। অনেক সময় তারা কোনটি প্রয়োজনীয় এবং কোনটি অপ্রয়োজনীয় তা না বুঝেই পণ্য কেনাকাট করেন। এই অভ্যাস আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্টের জন্য ক্ষতিকর। এটি থেকে বিরত থাকার উপায় খুঁজে বের করতে হবে। আপনার ফোন থেকে সমস্ত শপিং অ্যাপ আনইনস্টল করুন। সেইসঙ্গে সময় কাটানোর জন্য বই পড়া বা উপকারী কোনো কার্যকলাপ বেছে নিন।

 

রিকশা কিংবা গাড়িতে চড়ার অভ্যাস

রিকশা বা গাড়ি নিয়ে কম দূরত্বে না গিয়ে হেঁটে যান। ওয়ান ওয়ে ট্রিপের জন্য ১০ টাকা হলেও আপনি অনেকটা টাকা নষ্ট করছেন। সেই টাকাটি এক সপ্তাহের জন্য একটি ছোট ব্যাংকে রাখুন এবং দেখুন আপনি অলসতা বন্ধ করলে কতটা সঞ্চয় করতে পারবেন।

কেনাকাটার পরিকল্পনা না করা

দৈনন্দিন প্রয়োজন অনুযায়ী আপনার ঘরের সদাইপাতি সুপারশপ থেকে কেনা বন্ধ করুন। মুদির দোকানে যান, যেখানে আপনি এর পরিবর্তে কম দামে প্রচুর পরিমাণে সবকিছু পাবেন। আপনি যদি এই জিনিসগুলোর ক্ষেত্রে পরিকল্পনা করেন তবে অনেক অর্থ সাশ্রয় করতে পারবেন।

 

বাইরে খাওয়া

আপনি যদি মাসে একবার বা দুবার বাইরে খান বা যখন কারো সঙ্গে দেখা করতে যান তখন এটি ঠিক আছে। তবে প্রতিদিন বাইরে খাওয়া বা অর্ডার করা মানে অর্থের অপচয়, আপনার স্বাস্থ্য নষ্ট করা ছাড়া কিছুই নয়। আপনি যদি অভিনব কিছু খেতে চান তবে সেটি বাড়িতে তৈরি করুন, অনলাইনে সেই রেসিপির ভিডিও দেখে শিখে নিন। এভাবে আপনি অনেক টাকা সাশ্রয় করতে পারবেন। কারণ বাইরের খাবার মোটেই সস্তা নয়।

 

ধূমপান

ধূমপান শুধুমাত্র ক্যান্সার সৃষ্টি করে না, এটি আপনার পকেটও ধীরে ধীরে খালি করে। কারণ সিগারেট সস্তা নয়। বিশটি সিগারেটের এক প্যাকেটের দাম প্রায় ৩০০ টাকা বা তার বেশি। আপনি সপ্তাহে যতবার আপনার প্যাকেটগুলো কেনেন সেই সংখ্যার সঙ্গে সেই পরিমাণকে গুণ করুন। তাদের যোগ করুন এবং দেখুন আপনি কত টাকা অপচয় করছেন।

 

ছাড়ে কেনাকাটা না করা

প্রতি বছর বিভিন্ন অনুষ্ঠান হয় যখন ব্র্যান্ডগুলো শুধু দোকানে নয় অনলাইনেও ছাড়ে বিক্রি করে। আপনি যদি সব কিছু নগদেই কেনাকাটা করেন এবং যখন ছাড়ে বিক্রি হয় তখন না কেনেন, তার মানে হলো আপনি আপনার অর্থ নষ্ট করছেন। এর পরিবর্তে আপনি যা চান তার একটি তালিকা তৈরি করুন এবং যখন সেসবে ছাড় চলে তখন সেগুলো কিনুন।  সূূএ:ডেইলি বাংলাদেশ

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» নাশকতার মামলায় র‌্যাবের অভিযানে গ্রেফতার ২২৮

» নাশকতাকারী যেই হোক, কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

» মৃত্যুযন্ত্রণা সম্পর্কে কোরআন-হাদিসে যা বলা হয়েছে

» চট্টগ্রামে ২৪ ঘণ্টায় গ্রেপ্তার ৩৫ ‌

» নাইকো দুর্নীতি মামলায় পরবর্তী সাক্ষ্য ২০ আগস্ট

» বিতর্ক আর শঙ্কা নিয়ে শুরু হচ্ছে প্যারিস অলিম্পিক

» নাশকতাকারীরা যেন ঢাকা না ছাড়তে পারে সেই পরিকল্পনা করছে ডিএমপি : বিপ্লব কুমার

» দেশের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছে: নৌবাহিনী প্রধান

» হামলার নীলনকশা আগেই প্রস্তুত করে রেখেছিল বিএনপি: কাদের

» সহিংস আন্দোলনের জন্য অহিংস আন্দোলনকে ব্যবহার করেছে বিএনপি-জামায়াত: জয়

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ,বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি। (দপ্তর সম্পাদক)  
উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা
 সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ,
ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন,
ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু,
নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

 

 

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল :০১৫৩৫১৩০৩৫০

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...

ছয় অভ্যাস আপনাকে দরিদ্র করে তুলছে

জীবনে সফল হতে সবাই চায়। এমন কাউকে খুঁজে পাওয়া কঠিন যে চায় না যে তার জীবনে সচ্ছলতা থাকুক। দারিদ্রতা কারোই কাম্য নয়। জানেন কি, সচ্ছল জীবনের জন্য সঞ্চয় খুব প্রয়োজন। কিন্তু যদি এমন হয় যে, প্রতি মাসে আপনি অনেক ভালো টাকাই উপার্জন করছেন। তবে মাস শেষে গিয়ে দেখলেন যে আপনার হাতে কোনো টাকাই নেই। টাকা কোথায় খরচ করেছেন তার হিসাবও আপনি জানেন না। তবেই বিপদ!

 

এমন সমস্যার সমস্যার সমাধান হলো, আপনি কোথায় কোথায় ব্যয় করেছেন তা লিখে রাখা। একটি ডায়েরি তৈরি করুন যেখানে আপনি আপনার প্রতিদিনের খরচগুলো নোট করতে পারবেন, যদি ছোট্ট একটি ক্যান্ডিও কেনেন, সেটিও লিখে রাখুন। এর পাশাপাশি এই ৬টি অভ্যাস আপনাকে বাদ দিতে হবে, নয়তো এগুলো আপনাকে দরিদ্র করে তুলবে-

অপ্রয়োজনীয় কেনাকাটা

ক্রেডিট কার্ডের মতো সহজ অ্যাক্সেসের কারণে, বেশিরভাগ মানুষ অনলাইনে কেনাকাটা করতে পছন্দ করে। অনেক সময় তারা কোনটি প্রয়োজনীয় এবং কোনটি অপ্রয়োজনীয় তা না বুঝেই পণ্য কেনাকাট করেন। এই অভ্যাস আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্টের জন্য ক্ষতিকর। এটি থেকে বিরত থাকার উপায় খুঁজে বের করতে হবে। আপনার ফোন থেকে সমস্ত শপিং অ্যাপ আনইনস্টল করুন। সেইসঙ্গে সময় কাটানোর জন্য বই পড়া বা উপকারী কোনো কার্যকলাপ বেছে নিন।

 

রিকশা কিংবা গাড়িতে চড়ার অভ্যাস

রিকশা বা গাড়ি নিয়ে কম দূরত্বে না গিয়ে হেঁটে যান। ওয়ান ওয়ে ট্রিপের জন্য ১০ টাকা হলেও আপনি অনেকটা টাকা নষ্ট করছেন। সেই টাকাটি এক সপ্তাহের জন্য একটি ছোট ব্যাংকে রাখুন এবং দেখুন আপনি অলসতা বন্ধ করলে কতটা সঞ্চয় করতে পারবেন।

কেনাকাটার পরিকল্পনা না করা

দৈনন্দিন প্রয়োজন অনুযায়ী আপনার ঘরের সদাইপাতি সুপারশপ থেকে কেনা বন্ধ করুন। মুদির দোকানে যান, যেখানে আপনি এর পরিবর্তে কম দামে প্রচুর পরিমাণে সবকিছু পাবেন। আপনি যদি এই জিনিসগুলোর ক্ষেত্রে পরিকল্পনা করেন তবে অনেক অর্থ সাশ্রয় করতে পারবেন।

 

বাইরে খাওয়া

আপনি যদি মাসে একবার বা দুবার বাইরে খান বা যখন কারো সঙ্গে দেখা করতে যান তখন এটি ঠিক আছে। তবে প্রতিদিন বাইরে খাওয়া বা অর্ডার করা মানে অর্থের অপচয়, আপনার স্বাস্থ্য নষ্ট করা ছাড়া কিছুই নয়। আপনি যদি অভিনব কিছু খেতে চান তবে সেটি বাড়িতে তৈরি করুন, অনলাইনে সেই রেসিপির ভিডিও দেখে শিখে নিন। এভাবে আপনি অনেক টাকা সাশ্রয় করতে পারবেন। কারণ বাইরের খাবার মোটেই সস্তা নয়।

 

ধূমপান

ধূমপান শুধুমাত্র ক্যান্সার সৃষ্টি করে না, এটি আপনার পকেটও ধীরে ধীরে খালি করে। কারণ সিগারেট সস্তা নয়। বিশটি সিগারেটের এক প্যাকেটের দাম প্রায় ৩০০ টাকা বা তার বেশি। আপনি সপ্তাহে যতবার আপনার প্যাকেটগুলো কেনেন সেই সংখ্যার সঙ্গে সেই পরিমাণকে গুণ করুন। তাদের যোগ করুন এবং দেখুন আপনি কত টাকা অপচয় করছেন।

 

ছাড়ে কেনাকাটা না করা

প্রতি বছর বিভিন্ন অনুষ্ঠান হয় যখন ব্র্যান্ডগুলো শুধু দোকানে নয় অনলাইনেও ছাড়ে বিক্রি করে। আপনি যদি সব কিছু নগদেই কেনাকাটা করেন এবং যখন ছাড়ে বিক্রি হয় তখন না কেনেন, তার মানে হলো আপনি আপনার অর্থ নষ্ট করছেন। এর পরিবর্তে আপনি যা চান তার একটি তালিকা তৈরি করুন এবং যখন সেসবে ছাড় চলে তখন সেগুলো কিনুন।  সূূএ:ডেইলি বাংলাদেশ

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ,বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি। (দপ্তর সম্পাদক)  
উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা
 সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ,
ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন,
ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু,
নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

 

 

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল :০১৫৩৫১৩০৩৫০

Design & Developed BY ThemesBazar.Com