কেমন এসি কিনবেন

প্রশ্ন হচ্ছে কেমন এসি কিনবেন? বাজারে এখন বিভিন্ন ধরন, মডেলের এসি পাওয়া যায়। সেখান থেকে আপনার পছন্দসই এসি বেছে নেয়ার জন্য পড়ুন ।

 

 

এসি কেনার আগে করণীয়:এসি কেনার আগে কিছু বিষয় মাথায় রাখা দরকার। যেকোন হোম অ্যাপলায়েন্স কেনার আগে ওয়্যারেন্টি সম্পর্কে জেনে নেওয়া প্রয়োজন। বিশেষ করে এয়ার কন্ডিশনারের ক্ষেত্রে ওয়্যারেন্টি খুব গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। যেকোন উইন্ডো টাইপ এসি কেনার আগে কত দিনের ওয়্যারেন্টি মিলবে জেনে নিন। বেশিরভাগ কোম্পানি উইন্ডো এয়ার কন্ডিশনারের সঙ্গে এক বছরের ওয়্যারেন্টি দেয়।

উইন্ডো টাইপ এসি:দ্রুত ইন্সটলেশন ও তুলনামূলক কম দামের জন্য এখনও উইন্ডো টাইপ এসি দারুণ জনপ্রিয়। বিশেষ করে এক জায়গা থেকে অন্যত্র গেলে সঙ্গে নিয়ে যেতে সুবিধা হয় এই এয়ার কন্ডিশনারগুলো। এছাড়াও উইন্ডো এসি রক্ষণাবেক্ষণের খরচও অনেকটা কম। ঘরে একটি জানালা থাকলেই এই এসি খুব কম সময়ে ইনস্টল করা যায়।

 

স্প্লিট এসি: স্প্লিট এসিতে কম্প্রেশারটি ঘরের বাইরে থাকে বলে মেশিনের আওয়াজ শোনা যায় না বললেই চলে। কিন্তু সমস্যা হল, স্প্লিট এসির কম্প্রেশার বসানোর জন্য ঘরের দেওয়াল ভাঙতে হবে।

স্প্লিট না উইন্ডো টাইপ এসি কিনবেন?

উইন্ডো এয়ার কন্ডিশনারে একটি মাত্র ইউনিট থাকে যা খুব সহজে ইনস্টল করা যায়। স্প্লিট এসির থেকে অনেকটা সস্তা উইন্ডো এসি। দুর্দান্ত কুলিং পাওয়া যায় উইন্ডো এসিতে। কোন ঝামেলা ছাড়াই দ্রুত ইনস্টল করা যায় উইন্ডো এসি

 

এসি কি ইনভার্টার?

বর্তমানে বিদ্যুৎ বিল সাশ্রয় করার জন্য ইনভার্টার এসি জনপ্রিয় হয়ে উঠছে বাজারে। এই এসিতে ঘর প্রয়োজন মতো ঠান্ডা হয়ে গেলে বন্ধ হয়ে যায় কমপ্রেশার। ঘর আবার গরম হতে শুরু করলে আবার ফুল ক্যাপাসিটিতে চালু হয় কমপ্রেশার। তাই ইনভার্টার এসির কমপ্রেশার সবসময় প্রয়োজন মতো ক্যাপাসিটিতে কমে গিয়ে চলতে থাকে ও ঘরকে ঠান্ডা রাখে। যেহেতু এই এসির কমপ্রেশার কম ক্যাপাসিটিতেও চলতে পারে তাই সাধারণ এসির থেকে এই এসিতে বিদ্যুৎ খরচ হয় বেশ খানিকটা কম।

কত টনের এসি কিনবেন?

ঘরের আয়তনের উপরে নির্ভর করবে এসির ক্ষমতা। কত টনের এসি কিনতে হবে তা জানার জন্য ঘরের দৈর্ঘ্য, প্রস্থ মেপে নিন। তুলনামূলক ছোট ঘরে ১ টনের কম ক্ষমতার এসি যথেষ্ট হলেও বড় ঘরে প্রয়োজন হতে পারে ২ টন ক্ষমতার এসি।

 

১২০ বর্গফুটের ছোট ঘরের জন্য ০.৭৫ টন এসি ব্যবহার করা যাবে। ১২০-১৫০ বর্গফুটের ঘরে প্রয়োজন হবে একটি ১ টন এসি। ১৫০-১৮০ বর্গফুটের ঘর হলে প্রয়োজন হবে একটি ১.৫ টন এসি। এছাড়াও ১৮০-২২০ বর্গফুটের ঘর হলে ২ টন এসি ব্যবহার করতে হবে।

 

বিদ্যুৎ খরচ:কম খরচে এয়ার কন্ডিশনার কিনতে চাইলে আপনাকে উইন্ডো এসি দেখতে হবে। তবে এসি কেনার সময় স্টার রেটিং দেখে নিন। চেষ্টা করুন ৫ স্টার এসি কেনার। এই এসি গুলো সবথেকে কম বিদ্যুৎ খরচ করে। যা দীর্ঘ সময়ে আপনাকে অনেকটা সাশ্রয়ে সাহায্য করবে।

 

ওয়্যারেন্টি ও সার্ভিস:যেকোন হোম অ্যাপলায়েন্স কেনার আগে ওয়্যারেন্টি সম্পর্কে জেনে নেওয়া প্রয়োজন। বিশেষ করে এয়ার কন্ডিশনারের ক্ষেত্রে ওয়্যারেন্টি খুব গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। এসি কেনার আগে কত দিনের ওয়্যারেন্টি মিলবে জেনে নিন। বেশিরভাগ কোম্পানি এয়ার কন্ডিশনারের সঙ্গে এক বছরের ওয়্যারেন্টি দেয়। তবে কমপ্রেসরে বেশি দিকের ওয়্যারেন্টি পাওয়া যায়। যেহেতু এসির সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ যন্ত্রাংশ কমপ্রেসরে তাই কেনার আগে কমপ্রেসরের ওয়্যারিন্টি সম্পর্কে বিস্তারে জেনে নিন।

 

স্টেবিলাইজার:এসির সঙ্গে স্টেবিলাইজার ব্যবহার করতে হবে? আজকাল বেশিরভাগ এয়ার কন্ডিশনারের সঙ্গে ইন বিল্ট ভোল্টেজ স্টেবিলাইজার থাকে। তবে এসির সঙ্গে পৃথক ভোল্টেজ স্টেবিলাইজার ব্যবহার করলে এয়ার কন্ডিশনারের আয়ু বাড়ে।

 

 

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» ১৫ টাকায় ম্যাগনেট মামার খিচুড়ি

» একাত্তর ছেড়ে ডিবিসিতে যোগ দিলেন নাজনীন মুন্নী

» উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দুর্বৃত্তের গুলিতে শিশু নিহত

» প্রশ্নফাঁস চেষ্টাকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে :

» থানাকে জনগণের ভরসাস্থল করতে চাই: আইজিপি

» করোনা আক্রান্ত মেয়র আতিক

» চুমু নিয়ে রাশমিকার তিক্ত অভিজ্ঞতা

» আপিল বিভাগে জানা যাবে শিশুটির বাবা কে?

» সমুদ্রবন্দরে তিন নম্বর সতর্ক সংকেত, নদীবন্দরে ১

» মোবাইল ছিনিয়ে পালানোর সময় ছিনতাইকারী আটক

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি।(দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...

কেমন এসি কিনবেন

প্রশ্ন হচ্ছে কেমন এসি কিনবেন? বাজারে এখন বিভিন্ন ধরন, মডেলের এসি পাওয়া যায়। সেখান থেকে আপনার পছন্দসই এসি বেছে নেয়ার জন্য পড়ুন ।

 

 

এসি কেনার আগে করণীয়:এসি কেনার আগে কিছু বিষয় মাথায় রাখা দরকার। যেকোন হোম অ্যাপলায়েন্স কেনার আগে ওয়্যারেন্টি সম্পর্কে জেনে নেওয়া প্রয়োজন। বিশেষ করে এয়ার কন্ডিশনারের ক্ষেত্রে ওয়্যারেন্টি খুব গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। যেকোন উইন্ডো টাইপ এসি কেনার আগে কত দিনের ওয়্যারেন্টি মিলবে জেনে নিন। বেশিরভাগ কোম্পানি উইন্ডো এয়ার কন্ডিশনারের সঙ্গে এক বছরের ওয়্যারেন্টি দেয়।

উইন্ডো টাইপ এসি:দ্রুত ইন্সটলেশন ও তুলনামূলক কম দামের জন্য এখনও উইন্ডো টাইপ এসি দারুণ জনপ্রিয়। বিশেষ করে এক জায়গা থেকে অন্যত্র গেলে সঙ্গে নিয়ে যেতে সুবিধা হয় এই এয়ার কন্ডিশনারগুলো। এছাড়াও উইন্ডো এসি রক্ষণাবেক্ষণের খরচও অনেকটা কম। ঘরে একটি জানালা থাকলেই এই এসি খুব কম সময়ে ইনস্টল করা যায়।

 

স্প্লিট এসি: স্প্লিট এসিতে কম্প্রেশারটি ঘরের বাইরে থাকে বলে মেশিনের আওয়াজ শোনা যায় না বললেই চলে। কিন্তু সমস্যা হল, স্প্লিট এসির কম্প্রেশার বসানোর জন্য ঘরের দেওয়াল ভাঙতে হবে।

স্প্লিট না উইন্ডো টাইপ এসি কিনবেন?

উইন্ডো এয়ার কন্ডিশনারে একটি মাত্র ইউনিট থাকে যা খুব সহজে ইনস্টল করা যায়। স্প্লিট এসির থেকে অনেকটা সস্তা উইন্ডো এসি। দুর্দান্ত কুলিং পাওয়া যায় উইন্ডো এসিতে। কোন ঝামেলা ছাড়াই দ্রুত ইনস্টল করা যায় উইন্ডো এসি

 

এসি কি ইনভার্টার?

বর্তমানে বিদ্যুৎ বিল সাশ্রয় করার জন্য ইনভার্টার এসি জনপ্রিয় হয়ে উঠছে বাজারে। এই এসিতে ঘর প্রয়োজন মতো ঠান্ডা হয়ে গেলে বন্ধ হয়ে যায় কমপ্রেশার। ঘর আবার গরম হতে শুরু করলে আবার ফুল ক্যাপাসিটিতে চালু হয় কমপ্রেশার। তাই ইনভার্টার এসির কমপ্রেশার সবসময় প্রয়োজন মতো ক্যাপাসিটিতে কমে গিয়ে চলতে থাকে ও ঘরকে ঠান্ডা রাখে। যেহেতু এই এসির কমপ্রেশার কম ক্যাপাসিটিতেও চলতে পারে তাই সাধারণ এসির থেকে এই এসিতে বিদ্যুৎ খরচ হয় বেশ খানিকটা কম।

কত টনের এসি কিনবেন?

ঘরের আয়তনের উপরে নির্ভর করবে এসির ক্ষমতা। কত টনের এসি কিনতে হবে তা জানার জন্য ঘরের দৈর্ঘ্য, প্রস্থ মেপে নিন। তুলনামূলক ছোট ঘরে ১ টনের কম ক্ষমতার এসি যথেষ্ট হলেও বড় ঘরে প্রয়োজন হতে পারে ২ টন ক্ষমতার এসি।

 

১২০ বর্গফুটের ছোট ঘরের জন্য ০.৭৫ টন এসি ব্যবহার করা যাবে। ১২০-১৫০ বর্গফুটের ঘরে প্রয়োজন হবে একটি ১ টন এসি। ১৫০-১৮০ বর্গফুটের ঘর হলে প্রয়োজন হবে একটি ১.৫ টন এসি। এছাড়াও ১৮০-২২০ বর্গফুটের ঘর হলে ২ টন এসি ব্যবহার করতে হবে।

 

বিদ্যুৎ খরচ:কম খরচে এয়ার কন্ডিশনার কিনতে চাইলে আপনাকে উইন্ডো এসি দেখতে হবে। তবে এসি কেনার সময় স্টার রেটিং দেখে নিন। চেষ্টা করুন ৫ স্টার এসি কেনার। এই এসি গুলো সবথেকে কম বিদ্যুৎ খরচ করে। যা দীর্ঘ সময়ে আপনাকে অনেকটা সাশ্রয়ে সাহায্য করবে।

 

ওয়্যারেন্টি ও সার্ভিস:যেকোন হোম অ্যাপলায়েন্স কেনার আগে ওয়্যারেন্টি সম্পর্কে জেনে নেওয়া প্রয়োজন। বিশেষ করে এয়ার কন্ডিশনারের ক্ষেত্রে ওয়্যারেন্টি খুব গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। এসি কেনার আগে কত দিনের ওয়্যারেন্টি মিলবে জেনে নিন। বেশিরভাগ কোম্পানি এয়ার কন্ডিশনারের সঙ্গে এক বছরের ওয়্যারেন্টি দেয়। তবে কমপ্রেসরে বেশি দিকের ওয়্যারেন্টি পাওয়া যায়। যেহেতু এসির সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ যন্ত্রাংশ কমপ্রেসরে তাই কেনার আগে কমপ্রেসরের ওয়্যারিন্টি সম্পর্কে বিস্তারে জেনে নিন।

 

স্টেবিলাইজার:এসির সঙ্গে স্টেবিলাইজার ব্যবহার করতে হবে? আজকাল বেশিরভাগ এয়ার কন্ডিশনারের সঙ্গে ইন বিল্ট ভোল্টেজ স্টেবিলাইজার থাকে। তবে এসির সঙ্গে পৃথক ভোল্টেজ স্টেবিলাইজার ব্যবহার করলে এয়ার কন্ডিশনারের আয়ু বাড়ে।

 

 

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি।(দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Design & Developed BY ThemesBazar.Com