৭ মিনিটের জন্য বিশ্বের সবচেয়ে ধনী

 

বিশ্বের সবচেয়ে ধনী মানুষ হওয়ার ঠিক ৭ মিনিট পরই তিনি নিজের ইচ্ছাতেই সেই পদ ছেড়ে দেন।। শুধু পদই না, নিজের মালিকানায় থাকা যা কিছু, সবই ত্যাগ করলেন। ম্যাক্স ফস নামের সেই ব্যক্তি কেন এমনটা করেছিলেন আর কীভাবেই বা হলেন এত সম্পত্তির মালিক চলুন জেনে নেওয়া যাক-

ম্যাক্স ফস পেশায় একজন ইউটিউবার। বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি হয়ে ওঠার কাহিনি নিজেই বলেছেন ম্যাক্স। নিজের ইউটিউব চ্যানেলে তিনি জানিয়েছেন, ইংল্যান্ডে কোম্পানি তৈরি করা খুবই সহজ। একটি ফর্ম ফিলআপ করলেই হলো।

 

আর সেভাবেই ম্যাক্স তৈরি করে ফেলেন নিজের কোম্পানি। কোম্পানির নামের শেষে শুধু লিমিটেডে (Ltd) লেখাটি থাকতে হবে। তিনি নিজের কোম্পানির নাম দেন আনলিমিটেড মানি লিমিটেডে (Unlimited Money Ltd)।

 

অনেকের মনেই প্রশ্ন আসছে এই কোম্পানি কী করে? ম্যাক্স সেখানে লেখেন, তার কোম্পানি ফ্যারিনাসিয়াস (farinaceous) তৈরি করে। ম্যাক্সের বক্তব্য এই ফ্যারিনাসিয়াস (farinaceous) শব্দের মানেও তিনি জানেন না। হাতের কাছে পেয়েছেন, তাই বসিয়ে দিয়েছেন।

xs

এবার শেয়ারের পালা। কোম্পানির এক হাজার কোটি শেয়ারের কথা ঘোষণা করেন ম্যাক্স। তিনি বলেছেন, যদি আমি এক হাজার কোটি শেয়ারের কোম্পানি হিসেবে নাম নথিভুক্ত করি আর প্রতিটি শেয়ার ৫০ পাউন্ডে ছাড়ি, তাহলে কোম্পানির দাম গিয়ে দাঁড়ায় ৫০ হাজার কোটি পাউন্ডে। আর তাতেই বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তিতে পরিণত হন ম্যাক্স।

 

যেই ভাবনা সেই কাজ, তিনি নেমে পড়েন ব্যবসায়। লন্ডনের রাস্তায় টেবিল চেয়ার পেতে বসে পড়েন দোকান সাজিয়ে। প্রথম এক নারী একটি শেয়ার কিনে নেন। তিনি ম্যাক্সের কোম্পানিতে ৫০ পাউন্ড শেয়ার কিনেছিলেন। এরপর আরও অনেকে কিনে নেন ম্যাক্সের কোম্পানির শেয়ার।

 

তবে জটিলতা শুরু হয় এরপরেই। সরকারের পক্ষ থেকে ম্যাক্সকে জানানো হয়, তিনি নিজের কোম্পানির সম্পর্কে যে দাবি করেছেন, তার সপক্ষে যথাযথ বিনিয়োগ এবং মূলধন দেখাতে পারেননি। তাই শেয়ার বিক্রি করা বন্ধ করতে হবে তাকে। এমন চললে, তার বিরদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এসব শুনে সঙ্গে সঙ্গে কোম্পানি গুটিয়ে ফেলেন ম্যাক্স।

 

ম্যাক্সের মাত্র ৭ মিনিট লেগেছিল তার প্রথম শেয়ার বিক্রি করতে। আর সেই সময়টুকুতেই তিনি বিশ্বের সবচেয়ে ধনী হয়েছেন বলে দাবি করেন ম্যাক্স। কারণ সরকারের পক্ষ থেকে আসা চিঠিতে লেখা ছিল, ম্যাক্স আপনার আনলিমিটেড মানি লিমিটেডের মার্কেট ক্যাপ ৫০০ বিলিয়ন পাউন্ড হিসেবে মূল্যায়ন করা হয়েছে। তবে রাজস্ব ক্রিয়াকলাপের অভাবে আপনার কাজটি প্রতারণামূলক বলে অভিযুক্ত হয়েছে।  সূত্র: হিন্দুস্থান টাইমস/ এনডিটিভি

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» দুর্ভিক্ষের আগে দুর্বৃত্ত সরকারকে বিদায় দিতে হবে: নুর

» কলা হাতে কী বার্তা দিলেন শ্রীলেখা?

» ‘সুস্থ মানবসম্পদ তৈরির অন্যতম মাধ্যম খেলাধুলা’

» ভোটকেন্দ্র কমিটি করে এখন থেকেই প্রস্তুতি নিন: ফারুক খান

» জনসভায় যাওয়ার চিন্তা থাকলে খালেদা জেলে যাবেন: তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী

» কোম্পানীগঞ্জে আ.লীগের নেতৃত্বে কাদের মির্জা-বাদল

» পাড়া উৎস হবে ঢাকা শহরের সব এলাকায় : আতিক

» রাজধানীতে বাবার সঙ্গে অভিমানে ছেলের আত্মহত্যা

» পাঁচবিবিতে মেয়র কাপ মিনি ফুটবল নাইট টুর্নামেন্টের উদ্বোধন

» পাহাড়ের পরিবেশ অশান্ত করেছেন জিয়া: সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি।(দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...

৭ মিনিটের জন্য বিশ্বের সবচেয়ে ধনী

 

বিশ্বের সবচেয়ে ধনী মানুষ হওয়ার ঠিক ৭ মিনিট পরই তিনি নিজের ইচ্ছাতেই সেই পদ ছেড়ে দেন।। শুধু পদই না, নিজের মালিকানায় থাকা যা কিছু, সবই ত্যাগ করলেন। ম্যাক্স ফস নামের সেই ব্যক্তি কেন এমনটা করেছিলেন আর কীভাবেই বা হলেন এত সম্পত্তির মালিক চলুন জেনে নেওয়া যাক-

ম্যাক্স ফস পেশায় একজন ইউটিউবার। বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি হয়ে ওঠার কাহিনি নিজেই বলেছেন ম্যাক্স। নিজের ইউটিউব চ্যানেলে তিনি জানিয়েছেন, ইংল্যান্ডে কোম্পানি তৈরি করা খুবই সহজ। একটি ফর্ম ফিলআপ করলেই হলো।

 

আর সেভাবেই ম্যাক্স তৈরি করে ফেলেন নিজের কোম্পানি। কোম্পানির নামের শেষে শুধু লিমিটেডে (Ltd) লেখাটি থাকতে হবে। তিনি নিজের কোম্পানির নাম দেন আনলিমিটেড মানি লিমিটেডে (Unlimited Money Ltd)।

 

অনেকের মনেই প্রশ্ন আসছে এই কোম্পানি কী করে? ম্যাক্স সেখানে লেখেন, তার কোম্পানি ফ্যারিনাসিয়াস (farinaceous) তৈরি করে। ম্যাক্সের বক্তব্য এই ফ্যারিনাসিয়াস (farinaceous) শব্দের মানেও তিনি জানেন না। হাতের কাছে পেয়েছেন, তাই বসিয়ে দিয়েছেন।

xs

এবার শেয়ারের পালা। কোম্পানির এক হাজার কোটি শেয়ারের কথা ঘোষণা করেন ম্যাক্স। তিনি বলেছেন, যদি আমি এক হাজার কোটি শেয়ারের কোম্পানি হিসেবে নাম নথিভুক্ত করি আর প্রতিটি শেয়ার ৫০ পাউন্ডে ছাড়ি, তাহলে কোম্পানির দাম গিয়ে দাঁড়ায় ৫০ হাজার কোটি পাউন্ডে। আর তাতেই বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তিতে পরিণত হন ম্যাক্স।

 

যেই ভাবনা সেই কাজ, তিনি নেমে পড়েন ব্যবসায়। লন্ডনের রাস্তায় টেবিল চেয়ার পেতে বসে পড়েন দোকান সাজিয়ে। প্রথম এক নারী একটি শেয়ার কিনে নেন। তিনি ম্যাক্সের কোম্পানিতে ৫০ পাউন্ড শেয়ার কিনেছিলেন। এরপর আরও অনেকে কিনে নেন ম্যাক্সের কোম্পানির শেয়ার।

 

তবে জটিলতা শুরু হয় এরপরেই। সরকারের পক্ষ থেকে ম্যাক্সকে জানানো হয়, তিনি নিজের কোম্পানির সম্পর্কে যে দাবি করেছেন, তার সপক্ষে যথাযথ বিনিয়োগ এবং মূলধন দেখাতে পারেননি। তাই শেয়ার বিক্রি করা বন্ধ করতে হবে তাকে। এমন চললে, তার বিরদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এসব শুনে সঙ্গে সঙ্গে কোম্পানি গুটিয়ে ফেলেন ম্যাক্স।

 

ম্যাক্সের মাত্র ৭ মিনিট লেগেছিল তার প্রথম শেয়ার বিক্রি করতে। আর সেই সময়টুকুতেই তিনি বিশ্বের সবচেয়ে ধনী হয়েছেন বলে দাবি করেন ম্যাক্স। কারণ সরকারের পক্ষ থেকে আসা চিঠিতে লেখা ছিল, ম্যাক্স আপনার আনলিমিটেড মানি লিমিটেডের মার্কেট ক্যাপ ৫০০ বিলিয়ন পাউন্ড হিসেবে মূল্যায়ন করা হয়েছে। তবে রাজস্ব ক্রিয়াকলাপের অভাবে আপনার কাজটি প্রতারণামূলক বলে অভিযুক্ত হয়েছে।  সূত্র: হিন্দুস্থান টাইমস/ এনডিটিভি

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি।(দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Design & Developed BY ThemesBazar.Com