হাজী সেলিমের ১০ বছর কারাদণ্ডের পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ

আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য হাজী মো. সেলিমের ১০ বছরের কারাদণ্ড বহাল রেখে দেওয়া হাই কোর্টের পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ করা হয়েছে।

বিচারপতি মো. মঈনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি এ কে এম জহিরুল হক স্বাক্ষরিত রায়টি বুধবার প্রকাশ করা হয়।

এ মামলায় হাজী সেলিম বর্তমানে জামিনে রয়েছেন।

 

গত বছরের ৯ মার্চ বিচারপতি মো. মঈনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি এ কে এম জহিরুল হকের বেঞ্চ অবৈধ সম্পদ অর্জনের মামলায় প্রায় ১৪ বছর আগে বিচারিক আদালতের দেওয়া ১০ বছরের কারাদণ্ড বহাল রেখে রায় দেন।

 

ওই রায়ে সম্পদের তথ্য গোপনের অভিযোগে জজ আদালতের দেওয়া তিন বছরের কারাদণ্ড থেকে অব্যাহতি পেয়েছিলেন সেলিম।

 

রায়ের অনুলিপি পাওয়ার ৩০ দিনের মধ্যে বিশেষ জজ আদালত-৭ এ আত্মসমর্পণ করতে বলা হয় তাকে। এই সময়ের মধ্যে আত্মসমর্পণ না করলে তার জামিননামা বাতিল করে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির নির্দেশও দিয়েছিলেন হাই কোর্ট।

 

এর আগে ২০০৭ সালের ২৪ অক্টোবর হাজী সেলিমের বিরুদ্ধে লালবাগ থানায় অবৈধভাবে সম্পদ অর্জন ও তথ্য গোপনের অভিযোগে মামলা করে দুদক। ওই মামলায় ২০০৮ সালের ২৭ এপ্রিল অবৈধ সম্পদ অর্জনের দায়ে ১০ বছর ও তথ্য গোপনের দায়ে তিন বছরসহ মোট ১৩ বছরের কারাদণ্ড দেন বিচারিক আদালত।

 

এর পর ২০০৯ সালের অক্টোবরে রায়ের বিরুদ্ধে হাই কোর্টে আপিল করেন হাজী সেলিম। ২০১১ সালের জানুয়ারিতে হাই কোর্ট এক রায়ে তার সাজা বাতিল করেন। পরে ওই রায়ের বিরুদ্ধে আবার আপিল করে দুদক।

 

ওই আপিলের শুনানি শেষে ২০১৫ সালের ১২ জানুয়ারি হাইকোর্টের সাজা বাতিলের রায় বাতিল করে হাইকোর্টে শুনানির নির্দেশ দেন আপিল বিভাগ।

 

এর পর ২০২০ সালের ১১ নভেম্বর এ মামলার বিচারিক আদালতে থাকা যাবতীয় নথি (এলসিআর) তলব করেন উচ্চ আদালত। সে আদেশ অনুসারে নথি আসার পর আপিল শুনানির জন্য দিন ধার্য করা হয়। গত বছরের ৩১ জানুয়ারি এই মামলায় পুনরায় শুনানি শুরু হয়। এর পর ২৪ ফেব্রুয়ারি শুনানি শেষ করে ৯ মার্চ রায়ের জন্য দিন ধার্য করেন আদালত। ওই রায়ের দিন মামলাটি আদালতের কার্যতালিকায় এক নম্বরে ছিল।  সূএ:ঢাকাটাইমস

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» হিরো আলমকে দাঁড় করিয়ে নির্বাচনকে হাস্যকর করার চেষ্টা হচ্ছে

» মানসম্মত চিকিৎসায় আর ছাড় নয় : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

» বায়ান্নর দুটি ছড়া

» রাজধানীতে ট্রেন থেকে পড়ে পরিচ্ছন্নতাকর্মীর মৃত্যু

» ভবন নির্মাণে কী কী ছাড়পত্র লাগে?

» জাপা চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করতে পারবেন জিএম কাদের

» অটোরিকশা চালককে হত্যা করে অটোরিকশা ছিনতাই

» কসবায় গাঁজাসহ যুবক আটক

» আমরা অভিবাসন ব্যয় কমিয়ে আনতে চাচ্ছি: মালয়েশিয়ার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

» সাংবাদিক-কলামিস্ট পীর হাবিবের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি।(দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...

হাজী সেলিমের ১০ বছর কারাদণ্ডের পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ

আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য হাজী মো. সেলিমের ১০ বছরের কারাদণ্ড বহাল রেখে দেওয়া হাই কোর্টের পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ করা হয়েছে।

বিচারপতি মো. মঈনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি এ কে এম জহিরুল হক স্বাক্ষরিত রায়টি বুধবার প্রকাশ করা হয়।

এ মামলায় হাজী সেলিম বর্তমানে জামিনে রয়েছেন।

 

গত বছরের ৯ মার্চ বিচারপতি মো. মঈনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি এ কে এম জহিরুল হকের বেঞ্চ অবৈধ সম্পদ অর্জনের মামলায় প্রায় ১৪ বছর আগে বিচারিক আদালতের দেওয়া ১০ বছরের কারাদণ্ড বহাল রেখে রায় দেন।

 

ওই রায়ে সম্পদের তথ্য গোপনের অভিযোগে জজ আদালতের দেওয়া তিন বছরের কারাদণ্ড থেকে অব্যাহতি পেয়েছিলেন সেলিম।

 

রায়ের অনুলিপি পাওয়ার ৩০ দিনের মধ্যে বিশেষ জজ আদালত-৭ এ আত্মসমর্পণ করতে বলা হয় তাকে। এই সময়ের মধ্যে আত্মসমর্পণ না করলে তার জামিননামা বাতিল করে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির নির্দেশও দিয়েছিলেন হাই কোর্ট।

 

এর আগে ২০০৭ সালের ২৪ অক্টোবর হাজী সেলিমের বিরুদ্ধে লালবাগ থানায় অবৈধভাবে সম্পদ অর্জন ও তথ্য গোপনের অভিযোগে মামলা করে দুদক। ওই মামলায় ২০০৮ সালের ২৭ এপ্রিল অবৈধ সম্পদ অর্জনের দায়ে ১০ বছর ও তথ্য গোপনের দায়ে তিন বছরসহ মোট ১৩ বছরের কারাদণ্ড দেন বিচারিক আদালত।

 

এর পর ২০০৯ সালের অক্টোবরে রায়ের বিরুদ্ধে হাই কোর্টে আপিল করেন হাজী সেলিম। ২০১১ সালের জানুয়ারিতে হাই কোর্ট এক রায়ে তার সাজা বাতিল করেন। পরে ওই রায়ের বিরুদ্ধে আবার আপিল করে দুদক।

 

ওই আপিলের শুনানি শেষে ২০১৫ সালের ১২ জানুয়ারি হাইকোর্টের সাজা বাতিলের রায় বাতিল করে হাইকোর্টে শুনানির নির্দেশ দেন আপিল বিভাগ।

 

এর পর ২০২০ সালের ১১ নভেম্বর এ মামলার বিচারিক আদালতে থাকা যাবতীয় নথি (এলসিআর) তলব করেন উচ্চ আদালত। সে আদেশ অনুসারে নথি আসার পর আপিল শুনানির জন্য দিন ধার্য করা হয়। গত বছরের ৩১ জানুয়ারি এই মামলায় পুনরায় শুনানি শুরু হয়। এর পর ২৪ ফেব্রুয়ারি শুনানি শেষ করে ৯ মার্চ রায়ের জন্য দিন ধার্য করেন আদালত। ওই রায়ের দিন মামলাটি আদালতের কার্যতালিকায় এক নম্বরে ছিল।  সূএ:ঢাকাটাইমস

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি।(দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Design & Developed BY ThemesBazar.Com