সিডনিতে ৯৬৯৮ অস্ট্রেলিয়া’র আয়োজনে রজত জয়ন্তীর বর্ণাঢ্য পুনর্মিলনী

সংগৃহীত ছবি

 

১৯৯৮ সালে বাংলাদেশের সকল শিক্ষাবোর্ডের অধীনে এইচএসসি সম্পন্ন করা শতাধিক শিক্ষার্থীরা তাদের পরিবার-পরিজন নিয়ে ৯৬৯৮ অস্ট্রেলিয়া‘র উদ্যোগে গত  ১৮ নভেম্বর (শনিবার) সিডনির লিভারপুলের স্কাই ভিউ রিসেপশন সেন্টারে পঁচিশ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে এক বর্ণাঢ্য পুনর্মিলনীর আয়োজন করে।

 

মারজান এলিজা ও কাজী ইসলামের উপস্থাপনা ও শাহরিয়ারের তত্ত্বাবধানে ল্যান্ড ওনার স্টেটমেন্ট ও বাংলাদেশ ও অস্ট্রেলিয়ার জাতীয় সংগীতের মধ্যে দিয়ে বিকাল সাড়ে ৬ টায় অনুষ্ঠান শুরু হয়। গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা আরিফ ইসলামের স্বাগত বক্তব্যের পর এর ইতিহাসের ওপর আলোকপাত করেন কাজী ইসলাম। আগত সকল বন্ধুদের সুদূর বাংলাদেশ থেকে আনা উপহার প্রদানের মধ্যে দিয়ে স্বাগত জানানো হয়। উপহার প্রদানে অংশগ্রহণ করেন গ্রুপের মডারেটর প্যানেলের সদস্য শাহরিয়ার, তালহা, মিলি, আরিফ, তান্নু, আজিবুর, সোহেল, রেমু, আজাদ, জেরীন, ওয়াসিম প্রমুখ।

 

বর্ণাঢ্য সাংস্কৃতিক আয়োজনে ডুয়েট সঙ্গীত পরিবেশন করেন ফারহানা রুমি ও তালহা। হুমায়রা হকের একক নৃত্য ছিল অনুষ্ঠানের অন্যতম আকর্ষণ। রিয়ানা আহমেদ এবং তাহিয়া তালহা এই দুই ক্ষুদে শিল্পীর নৃত্য পরিবেশনা ছিল অনবদ্য। এছাড়াও তালহা, নিশি এবং গিয়াসের একক পরিবেশনায় নব্বইয়ের দশকের জনপ্রিয় গানের মধ্যে দিয়ে তৈরী হয় এক নস্টালজিক আমেজ।

 

নামাজের বিরতির পর একক সংগীত পরিবেশনা করেন শামীম। জেরীন আফরীন আবৃত্তি করেন জীবনানন্দ দাশের, ‘পঁচিশ বছর পরে’ কবিতাটি। গিয়াসের কমেডির পরপরই জাকজমক পূর্ণ ফ্যাশন শো উপস্থাপন করেন হুমায়রা, ইমা, মিলি, ফারাহ, চুমকি, পিঙ্কি, রুমি এবং স্বাতী। এরপর হুমায়রার একক নৃত্যের পরে মেয়েদের দলীয় নৃত্যে অংশগ্রহণ করেন সূচনা, মিলি ফারাহ এবং ইমা।

 

উপহার প্রদান, দলীয় ছবি তোলা এবং কেক কাটার মধ্য দিয়ে শেষ হয় সাংস্কৃতিক সন্ধ্যার প্রথম আয়োজন। ৩৫ মিনিটের রাতের খাবার বিরতির পর শুরু হয় ৯৬৯৮ অস্ট্রেলিয়ার আয়োজিত রজতজয়ন্তী উৎসবের মূল আকর্ষণ ব্যান্ড শো।

 

ব্যান্ডশোতে অংশ নেন গ্রুপের বন্ধু আবু আলম ও তার দল। সাথে ছিলেন গ্রুপের বন্ধু ও জনপ্রিয় গিটারিস্ট তানভীর হাওলাদার। অনুষ্ঠানের শেষ মুহূর্তে পারফর্মার ও সহযোগীদের হাতে গ্রুপের পক্ষ থেকে ক্রেস্ট তুলে দেন আরিফ ইসলাম, আবু আলম ও আজিবুর। গ্রূপের জন্মলগ্ন থেকে আজ অবধি গুরুত্বপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ, গ্রুপের পক্ষ থেকে সারপ্রাইজ গিফট প্রদানের মাধ্যমে এর প্রতিষ্ঠাতা আরিফ ইসলামকে সম্মানিত করা হয়। অর্গানাইজিং কমিটির সাথে পরিচয়, সকল সদস্য ও স্পন্সরদের ধন্যবাদ জ্ঞাপন, র‍‍্যাফল ড্র এবং বন্ধুদের সবাই মিলে গান, নাচ ও আনন্দ উৎযাপনের মধ্যে দিয়ে সমাপ্তি হয় ৯৬৯৮ অস্ট্রেলিয়ার সিলভার জুবলীর বর্ণাঢ্য আয়োজনের।

 

৯৬৯৮ অস্ট্রেলিয়া মূলত, বাংলাদেশের ৯৬-৯৮ শিক্ষাবর্ষে এসএসসি এবং এইচএসসি সম্পন্ন করা এবং বর্তমানে অস্ট্রেলিয়াতে বসবাস করা শিক্ষার্থীদের নিয়ে একটি ব্যাচ ভিত্তিক ফেসবুক গ্রুপ। ২০১৬ সালে অস্ট্রেলিয়ায় বসবাসরত নিজের ব্যাচের বন্ধুদের সাথে যোগাযোগ রক্ষা এবং বন্ধুত্বের বন্ধন দৃঢ় করবার লক্ষ্যে মোহাম্মদ আরিফুল ইসলামের উদ্যোগে এই গ্রুপটি প্রতিষ্ঠিত হয় এবং বর্তমানে এই গ্রূপের সদস্য সংখ্যা ৪৭০ জনের বেশি।

সূএ:বাংলাদেশ প্রতিদিন

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা পদ থেকে সজীব ওয়াজেদ জয়ের পদত্যাগ

» ট্রাক্টরের ধাক্কায় বৃদ্ধ নিহত

» বিএনপি না এলেও নির্বাচন অংশগ্রহণমূলক হচ্ছে: সালমান এফ রহমান

» তিন কেজি গাঁজা ও নগদ ৮৮ হাজার টাকাসহ বাবা-ছেলে গ্রেফতার

» মানুষের কল্যাণে ডিএসসিএসসি’র প্রশিক্ষণার্থীদের অর্জিত জ্ঞানকে কাজে লাগানোর আহ্বান রাষ্ট্রপতির

» নির্বাচন যারা বাধাগ্রস্ত করছে তাদের ওপর নিষেধাজ্ঞা আসা উচিত : ওবায়দুল কাদের

» দলীয় এমপিরা স্বতন্ত্র প্রার্থী হলেও করতে হবে না পদত্যাগ: ইসি

» সহিংসতায় নিহত শুক্কুর হত্যা মামলার আসামি গ্রেফতার

» সসে ডুবিয়ে জীবন্ত অক্টোপাস খাওয়া জনপ্রিয় যেখানে

» বিশাল গাড়িবহর নিয়ে মাগুরার পথে সাকিব আল হাসান

বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি।(দপ্তর সম্পাদক)  উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ,
উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা
 সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ,
ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন,
ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু,
নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

 

 

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল :০১৫৩৫১৩০৩৫০

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...

সিডনিতে ৯৬৯৮ অস্ট্রেলিয়া’র আয়োজনে রজত জয়ন্তীর বর্ণাঢ্য পুনর্মিলনী

সংগৃহীত ছবি

 

১৯৯৮ সালে বাংলাদেশের সকল শিক্ষাবোর্ডের অধীনে এইচএসসি সম্পন্ন করা শতাধিক শিক্ষার্থীরা তাদের পরিবার-পরিজন নিয়ে ৯৬৯৮ অস্ট্রেলিয়া‘র উদ্যোগে গত  ১৮ নভেম্বর (শনিবার) সিডনির লিভারপুলের স্কাই ভিউ রিসেপশন সেন্টারে পঁচিশ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে এক বর্ণাঢ্য পুনর্মিলনীর আয়োজন করে।

 

মারজান এলিজা ও কাজী ইসলামের উপস্থাপনা ও শাহরিয়ারের তত্ত্বাবধানে ল্যান্ড ওনার স্টেটমেন্ট ও বাংলাদেশ ও অস্ট্রেলিয়ার জাতীয় সংগীতের মধ্যে দিয়ে বিকাল সাড়ে ৬ টায় অনুষ্ঠান শুরু হয়। গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা আরিফ ইসলামের স্বাগত বক্তব্যের পর এর ইতিহাসের ওপর আলোকপাত করেন কাজী ইসলাম। আগত সকল বন্ধুদের সুদূর বাংলাদেশ থেকে আনা উপহার প্রদানের মধ্যে দিয়ে স্বাগত জানানো হয়। উপহার প্রদানে অংশগ্রহণ করেন গ্রুপের মডারেটর প্যানেলের সদস্য শাহরিয়ার, তালহা, মিলি, আরিফ, তান্নু, আজিবুর, সোহেল, রেমু, আজাদ, জেরীন, ওয়াসিম প্রমুখ।

 

বর্ণাঢ্য সাংস্কৃতিক আয়োজনে ডুয়েট সঙ্গীত পরিবেশন করেন ফারহানা রুমি ও তালহা। হুমায়রা হকের একক নৃত্য ছিল অনুষ্ঠানের অন্যতম আকর্ষণ। রিয়ানা আহমেদ এবং তাহিয়া তালহা এই দুই ক্ষুদে শিল্পীর নৃত্য পরিবেশনা ছিল অনবদ্য। এছাড়াও তালহা, নিশি এবং গিয়াসের একক পরিবেশনায় নব্বইয়ের দশকের জনপ্রিয় গানের মধ্যে দিয়ে তৈরী হয় এক নস্টালজিক আমেজ।

 

নামাজের বিরতির পর একক সংগীত পরিবেশনা করেন শামীম। জেরীন আফরীন আবৃত্তি করেন জীবনানন্দ দাশের, ‘পঁচিশ বছর পরে’ কবিতাটি। গিয়াসের কমেডির পরপরই জাকজমক পূর্ণ ফ্যাশন শো উপস্থাপন করেন হুমায়রা, ইমা, মিলি, ফারাহ, চুমকি, পিঙ্কি, রুমি এবং স্বাতী। এরপর হুমায়রার একক নৃত্যের পরে মেয়েদের দলীয় নৃত্যে অংশগ্রহণ করেন সূচনা, মিলি ফারাহ এবং ইমা।

 

উপহার প্রদান, দলীয় ছবি তোলা এবং কেক কাটার মধ্য দিয়ে শেষ হয় সাংস্কৃতিক সন্ধ্যার প্রথম আয়োজন। ৩৫ মিনিটের রাতের খাবার বিরতির পর শুরু হয় ৯৬৯৮ অস্ট্রেলিয়ার আয়োজিত রজতজয়ন্তী উৎসবের মূল আকর্ষণ ব্যান্ড শো।

 

ব্যান্ডশোতে অংশ নেন গ্রুপের বন্ধু আবু আলম ও তার দল। সাথে ছিলেন গ্রুপের বন্ধু ও জনপ্রিয় গিটারিস্ট তানভীর হাওলাদার। অনুষ্ঠানের শেষ মুহূর্তে পারফর্মার ও সহযোগীদের হাতে গ্রুপের পক্ষ থেকে ক্রেস্ট তুলে দেন আরিফ ইসলাম, আবু আলম ও আজিবুর। গ্রূপের জন্মলগ্ন থেকে আজ অবধি গুরুত্বপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ, গ্রুপের পক্ষ থেকে সারপ্রাইজ গিফট প্রদানের মাধ্যমে এর প্রতিষ্ঠাতা আরিফ ইসলামকে সম্মানিত করা হয়। অর্গানাইজিং কমিটির সাথে পরিচয়, সকল সদস্য ও স্পন্সরদের ধন্যবাদ জ্ঞাপন, র‍‍্যাফল ড্র এবং বন্ধুদের সবাই মিলে গান, নাচ ও আনন্দ উৎযাপনের মধ্যে দিয়ে সমাপ্তি হয় ৯৬৯৮ অস্ট্রেলিয়ার সিলভার জুবলীর বর্ণাঢ্য আয়োজনের।

 

৯৬৯৮ অস্ট্রেলিয়া মূলত, বাংলাদেশের ৯৬-৯৮ শিক্ষাবর্ষে এসএসসি এবং এইচএসসি সম্পন্ন করা এবং বর্তমানে অস্ট্রেলিয়াতে বসবাস করা শিক্ষার্থীদের নিয়ে একটি ব্যাচ ভিত্তিক ফেসবুক গ্রুপ। ২০১৬ সালে অস্ট্রেলিয়ায় বসবাসরত নিজের ব্যাচের বন্ধুদের সাথে যোগাযোগ রক্ষা এবং বন্ধুত্বের বন্ধন দৃঢ় করবার লক্ষ্যে মোহাম্মদ আরিফুল ইসলামের উদ্যোগে এই গ্রুপটি প্রতিষ্ঠিত হয় এবং বর্তমানে এই গ্রূপের সদস্য সংখ্যা ৪৭০ জনের বেশি।

সূএ:বাংলাদেশ প্রতিদিন

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি।(দপ্তর সম্পাদক)  উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ,
উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা
 সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ,
ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন,
ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু,
নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

 

 

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল :০১৫৩৫১৩০৩৫০

Design & Developed BY ThemesBazar.Com