সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনি হত্যা মামলার বিচার নিয়ে যা বললেন আইনমন

ফাইল ফটো

 

সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনি হত্যাকারীদের অবশ্যই বিচার করা হবে। এই হত্যার বিচার হারিয়ে যাবে না বলে আশ্বস্ত করেছেন আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী আনিসুল হল।

 

আজ বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট ভবনে সহকারী জজ/সমপর্যায়ের বিচার বিভাগীয় কর্মকর্তাদের জন্য আয়োজিত ৪৯তম বুনিয়াদি প্রশিক্ষণ কোর্স উদ্বোধন অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে এসব কথা বলেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি আইনমন্ত্রী।

আইনমন্ত্রী বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পরে আমাদেরও বিচার না পাওয়া নিয়ে হতাশা ছিল। কারণ ১৯৭৫ সালে ২৬ সেপ্টেম্বর ইনডেমনিটি অর্ডিনেন্স জারি করে। তারপর প্রধানমন্ত্রী ক্ষমতায় এসেছে এই বিচারকার্য শুরু হয়েছে। ইনডেমনিটি অর্ডিনেন্স বাতিল করেছে এবং বিচার শেষ করেছে। এরপর মানবতা বিরোধী যুদ্ধাপরাধীদেরও বিচার হয়।

 

আনিসুল হল বলেন, এখন সেই অপসংস্কৃতি আর নেই যে কোনো হত্যাকাণ্ড বিচার ছাড়া আমাদের মন থেকে হারিয়ে যাবে। সাগর-রুনি হত্যা কাণ্ডের বিচার হবে। এতে সরকারে যে যে পদক্ষেপ নেওয়া দরকার হবে, তা সব করব আমরা।

ড. ইউনূস প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ড. ইউনূসকে গ্রেপ্তারে সরকারের কোনো পরিকল্পনা নেই। তার মামলার বিজ্ঞ বিচারকগণ রায় দিবেন। সেই রায় কার্যকর করার দায়িত্ব সরকারের। সরকার তা অবশ্যই করবে। অহেতুক ড. ইউনূসকে গ্রেপ্তার করা বা জেলে নেওয়ার পরিকল্পনা সরকারের নেই।

 

আইনমন্ত্রী  বলেন, বিচার বিভাগে আমরা আমূল পরিবর্তন আনতে পেরেছি। আজকের বিচার বিভাগ আগের থেকে অনেক পরিবর্তন হয়েছে। এই বিভাগ সুউচ্চে থাকে, সবার উপরে থাকে। আগে চেম্বার শেয়ার করতে হতো, এজলাশও শেয়ার করতে হতো। এখন অনেক দূর এগিয়ে গেছে বিচার বিভাগ।

 

আনিসুল হল বলেন, বিচার বিভাগে বিচারকরা স্বাধীন ভাবে কাজ করতে পারবে, স্বাধীন চিন্তা করতে পারবে। বিচার বিভাগ পরিবর্তন হয়েছে, অবকাঠামো পরিবর্তন হয়েছে।

 

আইনমন্ত্রী বলেন, মামলার জট এখন বড় চ্যালেঞ্জ। আর এই মামলার জট আজকে বা কালকে তৈরি হয়নি।

 

আনিসুল হল বলেন, এই ৫ বছরে আরও এক হাজার বিচার নিয়োগ দেওয়ার ইচ্ছে আছে আমার। আর এই প্রশিক্ষণের মূল উদ্দেশ্য হলো মানুষকে যাতে বিচারের জন্য অপেক্ষা করতে না হয়। বাংলাদেশের জনগণের বিচার বিভাগের ওপর আস্থা আছে। স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে গেলে স্মার্ট জুডিশিয়াল করতে হবে। আমাদের লক্ষ্যে পৌঁছাতে হলে এই প্রশিক্ষণ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

 

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক বিচারপতি নাজমুন আরা সুলতানা। এই প্রশিক্ষণ চারমাস ব্যাপী। ৩ ফেব্রুয়ারি থেকে ১ জুন পর্যন্ত এই প্রশিক্ষণ চলবে।

 

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের আইন ও বিচার বিভাগের সচিব মো. গোমাল সরওয়ার প্রমুখ।

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য আগামীকাল লন্ডন যাচ্ছেন রাষ্ট্রপতি

» বিলুপ্তির পথে গ্রামীণ ঐতিহ্য প্লাস্টিক গিলে খাচ্ছে বাঁশ শিল্প, বেকার হয়ে পড়ছে কারিগররা! 

» সরকারের পরিবেশ ও জলবায়ু নীতির সাথে সামঞ্জস্য রেখে ভূমি মন্ত্রণালয় কাজ করছে – ভূমিমন্ত্রী

» বিপিএল চ্যাম্পিয়ন বরিশালের জন্য নগদের ২০ লাখ টাকার পুরস্কার

» ইসলামপুরে অসহায় ৫শত পরিবার মাঝে ধর্মমন্ত্রীর ত্রাণ সাসগ্রী বিতরণ

» মহানগরীর ঝুঁকিপূর্ণ ভবন সিলগালা করতে রাজউকে চিঠি

» চল‌তি সপ্তাহে ভারত থে‌কে পেঁয়াজ আসা শুরু হ‌বে : আহসানুল ইসলাম টিটু

» বেইলি রোড আগুন: ভবন মালিকের ম্যানেজার গ্রেফতার

» নতুন দামে সয়াবিন তেল মিলবে যেদিন থেকে

» সারাদেশে ইন্টারনেটে ধীরগতি থাকবে আজ

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ,বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি। (দপ্তর সম্পাদক)  
উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা
 সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ,
ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন,
ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু,
নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

 

 

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল :০১৫৩৫১৩০৩৫০

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...

সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনি হত্যা মামলার বিচার নিয়ে যা বললেন আইনমন

ফাইল ফটো

 

সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনি হত্যাকারীদের অবশ্যই বিচার করা হবে। এই হত্যার বিচার হারিয়ে যাবে না বলে আশ্বস্ত করেছেন আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী আনিসুল হল।

 

আজ বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট ভবনে সহকারী জজ/সমপর্যায়ের বিচার বিভাগীয় কর্মকর্তাদের জন্য আয়োজিত ৪৯তম বুনিয়াদি প্রশিক্ষণ কোর্স উদ্বোধন অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে এসব কথা বলেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি আইনমন্ত্রী।

আইনমন্ত্রী বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পরে আমাদেরও বিচার না পাওয়া নিয়ে হতাশা ছিল। কারণ ১৯৭৫ সালে ২৬ সেপ্টেম্বর ইনডেমনিটি অর্ডিনেন্স জারি করে। তারপর প্রধানমন্ত্রী ক্ষমতায় এসেছে এই বিচারকার্য শুরু হয়েছে। ইনডেমনিটি অর্ডিনেন্স বাতিল করেছে এবং বিচার শেষ করেছে। এরপর মানবতা বিরোধী যুদ্ধাপরাধীদেরও বিচার হয়।

 

আনিসুল হল বলেন, এখন সেই অপসংস্কৃতি আর নেই যে কোনো হত্যাকাণ্ড বিচার ছাড়া আমাদের মন থেকে হারিয়ে যাবে। সাগর-রুনি হত্যা কাণ্ডের বিচার হবে। এতে সরকারে যে যে পদক্ষেপ নেওয়া দরকার হবে, তা সব করব আমরা।

ড. ইউনূস প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ড. ইউনূসকে গ্রেপ্তারে সরকারের কোনো পরিকল্পনা নেই। তার মামলার বিজ্ঞ বিচারকগণ রায় দিবেন। সেই রায় কার্যকর করার দায়িত্ব সরকারের। সরকার তা অবশ্যই করবে। অহেতুক ড. ইউনূসকে গ্রেপ্তার করা বা জেলে নেওয়ার পরিকল্পনা সরকারের নেই।

 

আইনমন্ত্রী  বলেন, বিচার বিভাগে আমরা আমূল পরিবর্তন আনতে পেরেছি। আজকের বিচার বিভাগ আগের থেকে অনেক পরিবর্তন হয়েছে। এই বিভাগ সুউচ্চে থাকে, সবার উপরে থাকে। আগে চেম্বার শেয়ার করতে হতো, এজলাশও শেয়ার করতে হতো। এখন অনেক দূর এগিয়ে গেছে বিচার বিভাগ।

 

আনিসুল হল বলেন, বিচার বিভাগে বিচারকরা স্বাধীন ভাবে কাজ করতে পারবে, স্বাধীন চিন্তা করতে পারবে। বিচার বিভাগ পরিবর্তন হয়েছে, অবকাঠামো পরিবর্তন হয়েছে।

 

আইনমন্ত্রী বলেন, মামলার জট এখন বড় চ্যালেঞ্জ। আর এই মামলার জট আজকে বা কালকে তৈরি হয়নি।

 

আনিসুল হল বলেন, এই ৫ বছরে আরও এক হাজার বিচার নিয়োগ দেওয়ার ইচ্ছে আছে আমার। আর এই প্রশিক্ষণের মূল উদ্দেশ্য হলো মানুষকে যাতে বিচারের জন্য অপেক্ষা করতে না হয়। বাংলাদেশের জনগণের বিচার বিভাগের ওপর আস্থা আছে। স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে গেলে স্মার্ট জুডিশিয়াল করতে হবে। আমাদের লক্ষ্যে পৌঁছাতে হলে এই প্রশিক্ষণ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

 

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক বিচারপতি নাজমুন আরা সুলতানা। এই প্রশিক্ষণ চারমাস ব্যাপী। ৩ ফেব্রুয়ারি থেকে ১ জুন পর্যন্ত এই প্রশিক্ষণ চলবে।

 

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের আইন ও বিচার বিভাগের সচিব মো. গোমাল সরওয়ার প্রমুখ।

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ,বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি। (দপ্তর সম্পাদক)  
উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা
 সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ,
ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন,
ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু,
নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

 

 

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল :০১৫৩৫১৩০৩৫০

Design & Developed BY ThemesBazar.Com