যেসব নারী জন্মনিয়ন্ত্রণ বড়ি খেতে পারবে না

আমাদের দেশে জন্মনিয়ন্ত্রণের বড়িটা খুবই কার্যকর এবং জনপ্রিয় একটি মাধ্যম। কিছু কিছু ক্ষেত্রে মানুষের একটা ধারণা থাকে যে, জন্মনিয়ন্ত্রণের বড়ি খেলে হয়তো সে যখন বাচ্চা নিতে চাইবে তখন নিতে পারবে না। অথবা তার গর্ভধারণ ক্ষমতা কমে যাবে।

 

ঢাকা মেডিকেল কলেজ অ্যান্ড হাসপাতালের গাইনী অ্যান্ড অবস বিভাগের অধ্যাপক ডা. ফাতেমা রহমান।

অনেক মেয়েদের ধারণা, ওজন বেড়ে যেতে পারে এবং অনেক সময় রক্তপাত হতে পারে। এসব ধারণার ফলে আমাদের দেশের নারীরা জন্মনিয়ন্ত্রণ বড়ি থেকে বিরত থাকে। কিন্তু জন্মনিয়ন্ত্রণ বড়ি অত্যন্ত নিরাপদ এবং ছোটখাটো কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ছাড়া বড় ধরণের কোন পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া নেই। এর সব থেকে বড় সুবিধা হল সব বয়সী নারীরা ব্যবহার করতে পারবে। তবে বেশি বয়সীদের ক্ষেত্রে কিছু বাধ্যবাধকতা আছে। সেটা ডাক্তারের পরামর্শে ব্যবহার করতে হবে।

 

সাধারণত কোন নারী জন্মনিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি গ্রহণ করতে চায় যেটা স্বল্পমেয়াদি তখন আমরা তাকে জন্মনিয়ন্ত্রণ বড়ি দিয়ে থাকি। এখন পরীক্ষা আগে আমাদের ইতিহাস জানতে হবে। কিছু কিছু ক্ষেত্রে আমরা জন্মনিয়ন্ত্রণ বড়ি নেয়ার পরামর্শ দেব না। যেমন: দেখতে হবে ওই মুহূর্তে ওই নারী গর্ভবতী কি না; অথবা বাচ্চাকে বুকের দুধ খাওয়াচ্ছে কি না।

 

এছাড়া তার নিজের অথবা পরিবারে কিছু রোগ থাকে যার ফলে আমরা তাকে জন্মনিয়ন্ত্রণ বড়ি দেয় না। যেমন তার যদি লিভার জন্ডিস বা লিভারে কোনো সমস্যা, উচ্চ-রক্তচাপ, যদি মাইগ্রেনের ব্যাথা থাকে এবং তার হার্টে যদি কোন সমস্যা থাকে। এসব সমস্যা থাকলে জন্মনিয়ন্ত্রণ বড়ি নেয়া উচিত নয়। সূত্র: ডক্টর টিভি

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» কোটা সমাধান আদালতের মাধ্যমেই : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

» অপ্রতিরোধ্য গতিতে এগোচ্ছে দেশ, ধারা অব্যাহত রাখতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

» আপিল বিভাগের রায়ের পর কোটা নিয়ে কমিশন গঠনের সুযোগ নেই : তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী

» রাস্তাঘাট বন্ধ না করে আদালতে এসে কথা বলুন : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

» শিক্ষার্থীরাই হবে আগামী বাংলাদেশের কর্ণধার-ধর্মমন্ত্রী

» স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মানে জনপ্রতিনিধি ও কর্মকর্তাদের সম্মিলিত ভাবে কাজ করতে হবে- ধর্মমন্ত্রী

» প্রথম ৬ মাসে ব্র্যাক ব্যাংকের ৫,৫০০ কোটি টাকার নিট ডিপোজিট প্রবৃদ্ধি অর্জন

» ঢাকার মূল সড়কে চলতে পারবে না যেসব যান, জানাল ট্রাফিক বিভাগ

» ৬ বছর বয়সী মাদরাসাছাত্র তামিমকে হত্যার ঘটনায় দুইজন গ্রেপ্তার

» ৫০ থেকে একশ শয্যায় উন্নীত হবে সব হাসপাতাল: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ,বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি। (দপ্তর সম্পাদক)  
উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা
 সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ,
ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন,
ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু,
নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

 

 

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল :০১৫৩৫১৩০৩৫০

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...

যেসব নারী জন্মনিয়ন্ত্রণ বড়ি খেতে পারবে না

আমাদের দেশে জন্মনিয়ন্ত্রণের বড়িটা খুবই কার্যকর এবং জনপ্রিয় একটি মাধ্যম। কিছু কিছু ক্ষেত্রে মানুষের একটা ধারণা থাকে যে, জন্মনিয়ন্ত্রণের বড়ি খেলে হয়তো সে যখন বাচ্চা নিতে চাইবে তখন নিতে পারবে না। অথবা তার গর্ভধারণ ক্ষমতা কমে যাবে।

 

ঢাকা মেডিকেল কলেজ অ্যান্ড হাসপাতালের গাইনী অ্যান্ড অবস বিভাগের অধ্যাপক ডা. ফাতেমা রহমান।

অনেক মেয়েদের ধারণা, ওজন বেড়ে যেতে পারে এবং অনেক সময় রক্তপাত হতে পারে। এসব ধারণার ফলে আমাদের দেশের নারীরা জন্মনিয়ন্ত্রণ বড়ি থেকে বিরত থাকে। কিন্তু জন্মনিয়ন্ত্রণ বড়ি অত্যন্ত নিরাপদ এবং ছোটখাটো কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ছাড়া বড় ধরণের কোন পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া নেই। এর সব থেকে বড় সুবিধা হল সব বয়সী নারীরা ব্যবহার করতে পারবে। তবে বেশি বয়সীদের ক্ষেত্রে কিছু বাধ্যবাধকতা আছে। সেটা ডাক্তারের পরামর্শে ব্যবহার করতে হবে।

 

সাধারণত কোন নারী জন্মনিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি গ্রহণ করতে চায় যেটা স্বল্পমেয়াদি তখন আমরা তাকে জন্মনিয়ন্ত্রণ বড়ি দিয়ে থাকি। এখন পরীক্ষা আগে আমাদের ইতিহাস জানতে হবে। কিছু কিছু ক্ষেত্রে আমরা জন্মনিয়ন্ত্রণ বড়ি নেয়ার পরামর্শ দেব না। যেমন: দেখতে হবে ওই মুহূর্তে ওই নারী গর্ভবতী কি না; অথবা বাচ্চাকে বুকের দুধ খাওয়াচ্ছে কি না।

 

এছাড়া তার নিজের অথবা পরিবারে কিছু রোগ থাকে যার ফলে আমরা তাকে জন্মনিয়ন্ত্রণ বড়ি দেয় না। যেমন তার যদি লিভার জন্ডিস বা লিভারে কোনো সমস্যা, উচ্চ-রক্তচাপ, যদি মাইগ্রেনের ব্যাথা থাকে এবং তার হার্টে যদি কোন সমস্যা থাকে। এসব সমস্যা থাকলে জন্মনিয়ন্ত্রণ বড়ি নেয়া উচিত নয়। সূত্র: ডক্টর টিভি

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ,বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি। (দপ্তর সম্পাদক)  
উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা
 সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ,
ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন,
ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু,
নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

 

 

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল :০১৫৩৫১৩০৩৫০

Design & Developed BY ThemesBazar.Com