মধুচন্দ্রিমায় মালদ্বীপে মিম

গত ৪ জানুয়ারি বেশ ঘটা করেই বিয়ের পিঁড়িতে বসেন অভিনেত্রী বিদ্যা সিনহা মিম। বিয়ের প্রায় দেড় মাস পর মধুচন্দ্রিমার উদ্দেশ্যে পাড়ি দিলেন মালদ্বীপের হুরুলহি দ্বীপে। মূল শহর থেকে সি–প্লেনে আধা ঘণ্টার পথ এই দ্বীপ। দ্বীপের চারধার দিয়ে সমুদ্রের নীলজল, মাঝখানে একটি অবকাশকেন্দ্র।

 

সেই অবকাশকেন্দ্রেই স্বামী সনি পোদ্দারকে সঙ্গে নিয়ে মধুচন্দ্রিমার সময় কাটাচ্ছেন মিম। বুধবার সন্ধ্যায় নানা ভঙ্গিমায় তিনি তার কিছু স্থির চিত্র প্রকাশ করেছেন তার ফেসবুকে। মিম জানান, শুটিং বা ঘুরতে পৃথিবীর অনেক জায়গায় গেছেন, কিন্তু এত সুন্দর ও শান্ত ছবির মতো জায়গায় আর দেখা হয়নি তার।

তিনি বলেন, ‘হানিমুনের জন্য আমি মনে করি এটি বেস্ট জায়গা। চারদিকে সমুদ্র। সমুদ্রের মাঝে অনেক দূরে দূরে একেকটা বিচ্ছিন্ন দ্বীপ। কী স্বচ্ছ পানি! পুরো নীল আকাশ যেন সেই পানিতে ডুবে থাকে। সময় কাটানোর জন্য এত সুন্দর জায়গা আর দেখা হয়নি আমার। সময়টা খুবই উপভোগ করছি আমরা।

 

মিম বলেন, ‘ঢাকায় কাজ না থাকলে ঘুম থেকে উঠতে দেরি হয়। কিন্তু এখানে ভোরেই ভেঙে যায় ঘুম। সমুদ্রের ঢেউয়ের শব্দ আর পাখির ডাকে সকাল সকালই ঘুম ভেঙে যায়। প্রায় দুই-তিন ঘণ্টা সমুদ্রে সাঁতার কাটি। এরপর নাশতা করে আবার বেরিয়ে পড়ি। সুন্দর সুন্দর জায়গায় দুজন দুজনের ছবি তুলি। দ্বীপটিকে ঘিরে একটা মায়াবী ব্যাপার আছে।’

নিরিবিলি এই দ্বীপটিতে দারুণ সময় কাটছে মিমদের। বলেন, ‘অন্য কোথাও ঘুরতে গেলে সব সময়ই শপিং করা হয়, সিনেমা দেখতে যাই। কিন্তু এখানে সেই সুযোগ নেই। দ্বীপে খাওয়াদাওয়া আর ঘোরাঘুরি ছাড়া কোনো কাজ নেই। লোকসংখ্যাও কম। এই কয়দিনে আমরা ছাড়া কোনো বাঙালিকে দেখিনি।

 

মঙ্গলবার সকালে মধুচন্দ্রিমার উদ্দেশে ঢাকা ছাড়েন মিম ও সনি পোদ্দার। আগামী ১৯ ফেব্রুয়ারি দেশে ফিরবেন তারা।,

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» ।। আজ তুমি আমি ভিন্ন গ্রহের বাসিন্দা এক।।।

» পঙ্কজ উদাস আর নেই

» স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এগিয়ে চলছে বাংলাদেশ-ধর্মমন্ত্রী

» দেশের ‘সবচেয়ে দ্রুতগতির মোবাইল নেটওয়ার্ক’-এর স্বীকৃতি পেয়েছে বাংলালিংক

» মঙ্গলবার গ্যাস থাকবে না রাজধানীর যেসব এলাকায়

» মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামি গ্রেফতার

» বাইডেনকে হারাতে পারবেন না ট্রাম্প, বললেন নিকি হ্যালি

» বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যুবককে হত্যার অভিযোগ

» গণধর্ষণ মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি ২১ বছর পর গ্রেফতার

» কারাগারে নারী ও শিশু নির্যাতন মামলায় দণ্ডপ্রাপ্ত কয়েদির মৃত্যু

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ,বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি। (দপ্তর সম্পাদক)  
উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা
 সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ,
ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন,
ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু,
নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

 

 

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল :০১৫৩৫১৩০৩৫০

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...

মধুচন্দ্রিমায় মালদ্বীপে মিম

গত ৪ জানুয়ারি বেশ ঘটা করেই বিয়ের পিঁড়িতে বসেন অভিনেত্রী বিদ্যা সিনহা মিম। বিয়ের প্রায় দেড় মাস পর মধুচন্দ্রিমার উদ্দেশ্যে পাড়ি দিলেন মালদ্বীপের হুরুলহি দ্বীপে। মূল শহর থেকে সি–প্লেনে আধা ঘণ্টার পথ এই দ্বীপ। দ্বীপের চারধার দিয়ে সমুদ্রের নীলজল, মাঝখানে একটি অবকাশকেন্দ্র।

 

সেই অবকাশকেন্দ্রেই স্বামী সনি পোদ্দারকে সঙ্গে নিয়ে মধুচন্দ্রিমার সময় কাটাচ্ছেন মিম। বুধবার সন্ধ্যায় নানা ভঙ্গিমায় তিনি তার কিছু স্থির চিত্র প্রকাশ করেছেন তার ফেসবুকে। মিম জানান, শুটিং বা ঘুরতে পৃথিবীর অনেক জায়গায় গেছেন, কিন্তু এত সুন্দর ও শান্ত ছবির মতো জায়গায় আর দেখা হয়নি তার।

তিনি বলেন, ‘হানিমুনের জন্য আমি মনে করি এটি বেস্ট জায়গা। চারদিকে সমুদ্র। সমুদ্রের মাঝে অনেক দূরে দূরে একেকটা বিচ্ছিন্ন দ্বীপ। কী স্বচ্ছ পানি! পুরো নীল আকাশ যেন সেই পানিতে ডুবে থাকে। সময় কাটানোর জন্য এত সুন্দর জায়গা আর দেখা হয়নি আমার। সময়টা খুবই উপভোগ করছি আমরা।

 

মিম বলেন, ‘ঢাকায় কাজ না থাকলে ঘুম থেকে উঠতে দেরি হয়। কিন্তু এখানে ভোরেই ভেঙে যায় ঘুম। সমুদ্রের ঢেউয়ের শব্দ আর পাখির ডাকে সকাল সকালই ঘুম ভেঙে যায়। প্রায় দুই-তিন ঘণ্টা সমুদ্রে সাঁতার কাটি। এরপর নাশতা করে আবার বেরিয়ে পড়ি। সুন্দর সুন্দর জায়গায় দুজন দুজনের ছবি তুলি। দ্বীপটিকে ঘিরে একটা মায়াবী ব্যাপার আছে।’

নিরিবিলি এই দ্বীপটিতে দারুণ সময় কাটছে মিমদের। বলেন, ‘অন্য কোথাও ঘুরতে গেলে সব সময়ই শপিং করা হয়, সিনেমা দেখতে যাই। কিন্তু এখানে সেই সুযোগ নেই। দ্বীপে খাওয়াদাওয়া আর ঘোরাঘুরি ছাড়া কোনো কাজ নেই। লোকসংখ্যাও কম। এই কয়দিনে আমরা ছাড়া কোনো বাঙালিকে দেখিনি।

 

মঙ্গলবার সকালে মধুচন্দ্রিমার উদ্দেশে ঢাকা ছাড়েন মিম ও সনি পোদ্দার। আগামী ১৯ ফেব্রুয়ারি দেশে ফিরবেন তারা।,

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ,বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি। (দপ্তর সম্পাদক)  
উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা
 সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ,
ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন,
ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু,
নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

 

 

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল :০১৫৩৫১৩০৩৫০

Design & Developed BY ThemesBazar.Com