পায়রা বিদ্যুৎকেন্দ্র উদ্বোধন করতে কলাপাড়ায় আসছেন প্রধানমন্ত্রী

আগামীকাল  উদ্বোধন হতে যাচ্ছে দেশের বৃহৎ পায়রা তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্র। এদিন পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় আসবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি উপস্থিত থেকে উদ্বোধন করবেন ১ হাজার ৩২০ মেগাওয়াট পায়রা তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্র। এ উপলক্ষে ইতোমধ্যেই শেষ হয়েছে দুটি ইউনিটের বিদ্যুৎ উৎপাদনের সব নির্মাণকাজ।

 

প্রধানমন্ত্রীর আগমনকে কেন্দ্র করে বিদ্যুৎকেন্দ্রটি সাজানো হচ্ছে নতুন সাজে। প্যান্ডেল সাজানোর কাজ প্রায় শেষের দিকে। এ কেন্দ্র থেকে বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হলে দেশের বিদ্যুতের ঘাটতি কমবে, এমনটাই মনে করেন সংশ্লিষ্টরা।

বাংলাদেশ চায়না পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড (বিসিপিসিএল) সূত্রে জানা গেছে, ২০১৪ সালে বাংলাদেশ নর্থওয়েস্ট পাওয়ার কোম্পানি ও চায়না ন্যাশনাল মেশিনারি ইমপোর্ট অ্যান্ড এক্সপোর্ট করপোরশনের (সিএমসি) মধ্যে ১ হাজার ৩২০ মেগাওয়াট পায়রা তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের চুক্তি স্বাক্ষর হয়।

 

এর আগে ২০১৬ সালের ১৪ অক্টোবর পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার ধানখালীতে কয়লাভিত্তিক এ বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের ভিত্তিপ্রস্তর উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

 

নির্মাণকাজ শুরুর পর থেকে নানা অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার পরও ২০২০ সালের ১৫ মে প্রথম ইউনিটের ৬৬০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ বাণিজ্যিকভাবে উৎপাদন করে জাতীয় গ্রিডে দিতে সক্ষম হয় বিসিপিসিএল। একই বছরের ৮ ডিসেম্বর আলট্রা সুপার প্রযুক্তি ব্যবহার করে দ্বিতীয় ইউনিটের ৬৬০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করে এ বিদ্যুৎকেন্দ্রটি। কিন্তু গোপালগঞ্জ সাবস্টেশনের ধারণক্ষমতা কম থাকায় এবং গোপালগঞ্জ থেকে ঢাকার আমিনবাজার পর্যন্ত সঞ্চালন লাইনের কাজ শেষ না হওয়ায় দ্বিতীয় ইউনিটের ৬৬০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ এখন পর্যন্ত সরবরাহ করতে পারছে না বিদ্যুৎকেন্দ্রটি। তবে এ বছরের ডিসেম্বর মাস থেকে পুরো ১ হাজার ৩২০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রিডে দিতে সক্ষম হবে এ পাওয়ার প্ল্যান্টটি।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ১ হাজার একর জমির ওপর নির্মিত পরিবেশবান্ধব এ বিদ্যুৎকেন্দ্রটি নির্মাণে ব্যয় হয়েছে ২ দশমিক ৪ বিলিয়ন ইউএস ডলার। প্রতিদিন এ কেন্দ্র থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদনে প্রয়োজন হবে ১৩ হাজার মেট্রিক টন কয়লা।

 

ধানখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি টিনু মৃধা বলেন, দক্ষিণাঞ্চলের উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রীর ভূমিকা কোনো দিন ভোলার নয়। তার আগমনের খবরে আমাদের এলাকার মানুষ আনন্দিত।

 

পায়রা তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্রের প্রকল্প পরিচালক শাহ গোলাম মাওলা বলেন, প্রধানমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে আমরা বিুদ্যৎকেন্দ্রের অভ্যন্তরে নতুন করে সাজাচ্ছি। ইতিমধ্যে প্যান্ডেল তৈরির কাজ শেষ হয়েছে। পায়রা ১৩২০ মেগাওয়াট কয়লাভিত্তিক তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্র দক্ষিণাঞ্চলে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহে সবচেয়ে বড় ভূমিকা পালন করবে।

 

সার্বিক আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি বিষয়ে পটুয়াখালী পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শহিদুল্লাহ (পিপিএম) গণমাধ্যমকে জানান, প্রধানমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে সর্বোচ্চ গুরুত্বসহকারে নিরাপত্তা পরিকল্পনা প্রণয়ন করা হয়েছে। সব পরিকল্পনা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে কাজ চলছে। ইতোমধ্যে সাদাপোশাকের নিরাপত্তা বাহিনীসহ চার স্তরবিশিষ্ট নিরাপত্তা বাহিনী মাঠে কাজ করছে।

 

পটুয়াখালী জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামাল হোসেন (ডিসি) গণমাধ্যমকে জানান, শুধু পায়রা ১৩২০ মেগাওয়াট তাপ বিদ্যুৎই নয়, ওই দিন দেশের শতভাগ বিদ্যুতায়ন উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী। তার আগমনকে ঘিরে ইতোমধ্যে আমরা সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছি।   সূএ: ঢাকা পোস্ট ডটকম

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» ব্যাংকান্স্যুরেন্স ব্যবসা শুরুর অনুমতি পেল প্রাইম ব্যাংক পিএলসি

» বিএটি বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে শেহজাদ মুনীমের স্থলাভিষিক্ত হচ্ছেন মনীষা আব্রাহাম

» পাঁচবিবিতে পুকুরের পানি সেচ দিতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে এক ব্যক্তির মৃত্যু

» এমপি-মন্ত্রীর স্বজনদের প্রার্থী না হওয়ার নির্দেশনা রাজনৈতিক : ইসি আলমগীর

» রেললাইনে মোবাইলফোনে কথার সময় ট্রেনের ধাক্কায় রেল কর্মচারীর মৃত্যু

» ১৭ বছর বয়সে অভিনয়ে হাতেখড়ি, এখন তিনি কয়েকশো কোটি টাকার মালিক

» তীব্র গরমে উচ্চ আদালতে আইনজীবীদের গাউন পরতে হবে না

» নিবন্ধন ও আবেদনের বাইরে থাকা পোর্টালগুলো বন্ধ করা হবে : তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী

» জ্ঞান-বিজ্ঞানে এগিয়ে যেতে শিক্ষার্থীদের প্রতি আহ্বান আইজিপির

» ইরানে ইসরায়েলের হামলা নিয়ে মুখে কুলুপ বাইডেন প্রশাসনের

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ,বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি। (দপ্তর সম্পাদক)  
উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা
 সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ,
ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন,
ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু,
নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

 

 

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল :০১৫৩৫১৩০৩৫০

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...

পায়রা বিদ্যুৎকেন্দ্র উদ্বোধন করতে কলাপাড়ায় আসছেন প্রধানমন্ত্রী

আগামীকাল  উদ্বোধন হতে যাচ্ছে দেশের বৃহৎ পায়রা তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্র। এদিন পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় আসবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি উপস্থিত থেকে উদ্বোধন করবেন ১ হাজার ৩২০ মেগাওয়াট পায়রা তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্র। এ উপলক্ষে ইতোমধ্যেই শেষ হয়েছে দুটি ইউনিটের বিদ্যুৎ উৎপাদনের সব নির্মাণকাজ।

 

প্রধানমন্ত্রীর আগমনকে কেন্দ্র করে বিদ্যুৎকেন্দ্রটি সাজানো হচ্ছে নতুন সাজে। প্যান্ডেল সাজানোর কাজ প্রায় শেষের দিকে। এ কেন্দ্র থেকে বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হলে দেশের বিদ্যুতের ঘাটতি কমবে, এমনটাই মনে করেন সংশ্লিষ্টরা।

বাংলাদেশ চায়না পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড (বিসিপিসিএল) সূত্রে জানা গেছে, ২০১৪ সালে বাংলাদেশ নর্থওয়েস্ট পাওয়ার কোম্পানি ও চায়না ন্যাশনাল মেশিনারি ইমপোর্ট অ্যান্ড এক্সপোর্ট করপোরশনের (সিএমসি) মধ্যে ১ হাজার ৩২০ মেগাওয়াট পায়রা তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের চুক্তি স্বাক্ষর হয়।

 

এর আগে ২০১৬ সালের ১৪ অক্টোবর পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার ধানখালীতে কয়লাভিত্তিক এ বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের ভিত্তিপ্রস্তর উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

 

নির্মাণকাজ শুরুর পর থেকে নানা অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার পরও ২০২০ সালের ১৫ মে প্রথম ইউনিটের ৬৬০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ বাণিজ্যিকভাবে উৎপাদন করে জাতীয় গ্রিডে দিতে সক্ষম হয় বিসিপিসিএল। একই বছরের ৮ ডিসেম্বর আলট্রা সুপার প্রযুক্তি ব্যবহার করে দ্বিতীয় ইউনিটের ৬৬০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করে এ বিদ্যুৎকেন্দ্রটি। কিন্তু গোপালগঞ্জ সাবস্টেশনের ধারণক্ষমতা কম থাকায় এবং গোপালগঞ্জ থেকে ঢাকার আমিনবাজার পর্যন্ত সঞ্চালন লাইনের কাজ শেষ না হওয়ায় দ্বিতীয় ইউনিটের ৬৬০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ এখন পর্যন্ত সরবরাহ করতে পারছে না বিদ্যুৎকেন্দ্রটি। তবে এ বছরের ডিসেম্বর মাস থেকে পুরো ১ হাজার ৩২০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রিডে দিতে সক্ষম হবে এ পাওয়ার প্ল্যান্টটি।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ১ হাজার একর জমির ওপর নির্মিত পরিবেশবান্ধব এ বিদ্যুৎকেন্দ্রটি নির্মাণে ব্যয় হয়েছে ২ দশমিক ৪ বিলিয়ন ইউএস ডলার। প্রতিদিন এ কেন্দ্র থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদনে প্রয়োজন হবে ১৩ হাজার মেট্রিক টন কয়লা।

 

ধানখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি টিনু মৃধা বলেন, দক্ষিণাঞ্চলের উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রীর ভূমিকা কোনো দিন ভোলার নয়। তার আগমনের খবরে আমাদের এলাকার মানুষ আনন্দিত।

 

পায়রা তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্রের প্রকল্প পরিচালক শাহ গোলাম মাওলা বলেন, প্রধানমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে আমরা বিুদ্যৎকেন্দ্রের অভ্যন্তরে নতুন করে সাজাচ্ছি। ইতিমধ্যে প্যান্ডেল তৈরির কাজ শেষ হয়েছে। পায়রা ১৩২০ মেগাওয়াট কয়লাভিত্তিক তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্র দক্ষিণাঞ্চলে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহে সবচেয়ে বড় ভূমিকা পালন করবে।

 

সার্বিক আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি বিষয়ে পটুয়াখালী পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শহিদুল্লাহ (পিপিএম) গণমাধ্যমকে জানান, প্রধানমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে সর্বোচ্চ গুরুত্বসহকারে নিরাপত্তা পরিকল্পনা প্রণয়ন করা হয়েছে। সব পরিকল্পনা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে কাজ চলছে। ইতোমধ্যে সাদাপোশাকের নিরাপত্তা বাহিনীসহ চার স্তরবিশিষ্ট নিরাপত্তা বাহিনী মাঠে কাজ করছে।

 

পটুয়াখালী জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামাল হোসেন (ডিসি) গণমাধ্যমকে জানান, শুধু পায়রা ১৩২০ মেগাওয়াট তাপ বিদ্যুৎই নয়, ওই দিন দেশের শতভাগ বিদ্যুতায়ন উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী। তার আগমনকে ঘিরে ইতোমধ্যে আমরা সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছি।   সূএ: ঢাকা পোস্ট ডটকম

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ,বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি। (দপ্তর সম্পাদক)  
উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা
 সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ,
ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন,
ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু,
নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

 

 

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল :০১৫৩৫১৩০৩৫০

Design & Developed BY ThemesBazar.Com