তিন বছরেই সফল ইউনিকর্ন স্টার্টআপ নগদ: পলক

[ঢাকা, ২১ মে ২০২৪, মঙ্গলবার] যাত্রা শুরুর মাত্র তিন বছরের মধ্যেই দেশের সফলতম স্টার্টআপ ইউনিকর্ন প্রতিষ্ঠান হিসেবে মোবাইল আর্থিক সেবা নগদ নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করেছে বলে মন্তব্য করেছেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। একইসঙ্গে ডাক বিভাগের নীতিগত সমর্থন নিয়ে গত চার বছরে তারা সরকারকে সাড়ে ১৪ কোটি টাকা আয়ের ভাগ দিয়েছে বলেও জানান তিনি।

বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস)-এর নবনির্বাচিত পরিচালক বোর্ডের অভিষেক অনুষ্ঠানে গতকাল সোমবার এসব কথা বলেন মাননীয় প্রতিমন্ত্রী।

মাননীয় প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, ‘নগদ আমাদের ডাক বিভাগের একটি অংশীদার। ডাক বিভাগের ইনফাস্ট্রাকচার, ওয়ার্ক ফোর্স, পলিসি সাপোর্ট নিয়ে তারা নিজেরা যেমন মাত্র তিন বছরের মধ্যে একটা সফল স্টার্টআপ ইউনিকর্ন হয়েছে, অন্যদিকে সরকারকে সাড়ে ১৪ কোটি টাকা রেভিনিউ শেয়ার করেছে।’

এর আগে অপর এক অনুষ্ঠানে মাননীয় প্রতিমন্ত্রী বলেন, সরকার পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপ নিয়ে উৎসাহিত করার কারণে ডাক বিভাগের সঙ্গে নগদের অংশীদারত্বের ভিত্তিতে গ্রাহকদের যেমন সুলভ মূল্যে সেবা দেওয়া গেছে, ক্যাশলেস সমাজ ও ক্যাশলেস অর্থনীতি গড়ার দিকে এগিয়ে যাওয়া গেছে; অপরদিকে ডাক বিভাগেরও আয় হচ্ছে। সর্বশেষ বছরেও নগদ অংশীদারত্বের চুক্তি অনুসারে ডাক বিভাগকে সাড়ে পাঁচ কোটি টাকার ওপরে আয় শেয়ার করে বলেও জানান মাননীয় প্রতিমন্ত্রী।

নগদের উত্থানে ডাক বিভাগ ও ব্যক্তি জুনাইদ আহমেদ পলকের ভ‚মিকার উল্লেখ করে অনুষ্ঠানে নগদের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা তানভীর এ মিশুক বলেন, ‘ডাক বিভাগ শুরু থেকে আমাদের সমর্থন দিয়ে আসছে। আর পলক ভাই আমাদের জন্মলগ্ন থেকে আমাদের পাশে আছেন। সবসময় কোনো সমস্যায় আমরা ওনার সাহায্য চাইলে, উনি সেটা দ্রæত সমাধান করেন।’
নগদ ডিজিটাল ব্যাংক চালু হলে বেসিসের সকল সদস্যদের জন্য বিশেষ ঋণ সুবিধার কথা উল্লেখ করে নগদের প্রধান নির্বাহী তানভীর এ মিশুক বলেন, ‘বেসিস আমাদের তথ্যপ্রযুক্তি জগতের নীতি নির্ধারণে ভ‚মিকা রাখে। আমি তাদের শুভেচ্ছা জানানোর পাশাপাশি অনুরোধ করব সময়ের প্রয়োজন অনুযায়ী তারা যেন পলিসি আপডেটে ভ‚মিকা রাখেন। আমিও কথা দিচ্ছি, বেসিসের সব উদ্যোক্তার জন্য জামানতবিহীন ঋণের ব্যবস্থা করবে নগদ ডিজিটাল ব্যাংক।’

ডাক বিভাগের সঙ্গে নগদের চুক্তি অনুসারে, আয়ের ৫১ শতাংশ পায় ডাক বিভাগ। সে অনুসারে ২০২০ সালে নগদ ডাক বিভাগকে দিয়েছিল এক কোটি ১২ লাখ টাকা। নগদের সেবার যতো প্রসার হচ্ছে, সেবার কলেবর এবং গ্রাহক যত বাড়ছে ততোই আয় যোগ হচ্ছে ডাক বিভাগের ঘরেও। ২০২১ সালে নগদের কাছ থেকে ডাক বিভাগ পেয়েছে তিন কোটি ৩২ লাখ টাকা। ২০২২ সালে ৪ কোটি ৫০ লাখ এবং সর্বশেষ ২০২৩ সালের আয় থেকে ডাক বিভাগ পেয়েছে ৫ কোটি ৫১ লাখ টাকা।

২০১৯ সালে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে যাত্রা শুরু হয় নগদের। আর মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকেই ২০২৩ সালে দেশের দ্রæততম স্টার্টআপ কোম্পানি হিসেবে স্বীকৃতি পায় নগদ।

সোমবার বেসিসের অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগবিষয়ক উপদেষ্টা সালমান ফজলুর রহমান, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী আহসানুল ইসলাম টিটু, ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার্স অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (এফবিসিসিআই) সভাপতি মো. মাহবুবুল আলম এবং বেসিসের সভাপতি রাসেল টি আহমেদ।

তিন বছরেই সফল ইউনিকর্ন স্টার্টআপ নগদ: পলক
[ঢাকা, ২১ মে ২০২৪, মঙ্গলবার] যাত্রা শুরুর মাত্র তিন বছরের মধ্যেই দেশের সফলতম স্টার্টআপ ইউনিকর্ন প্রতিষ্ঠান হিসেবে মোবাইল আর্থিক সেবা নগদ নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করেছে বলে মন্তব্য করেছেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। একইসঙ্গে ডাক বিভাগের নীতিগত সমর্থন নিয়ে গত চার বছরে তারা সরকারকে সাড়ে ১৪ কোটি টাকা আয়ের ভাগ দিয়েছে বলেও জানান তিনি।

বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস)-এর নবনির্বাচিত পরিচালক বোর্ডের অভিষেক অনুষ্ঠানে গতকাল সোমবার এসব কথা বলেন মাননীয় প্রতিমন্ত্রী।

মাননীয় প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, ‘নগদ আমাদের ডাক বিভাগের একটি অংশীদার। ডাক বিভাগের ইনফাস্ট্রাকচার, ওয়ার্ক ফোর্স, পলিসি সাপোর্ট নিয়ে তারা নিজেরা যেমন মাত্র তিন বছরের মধ্যে একটা সফল স্টার্টআপ ইউনিকর্ন হয়েছে, অন্যদিকে সরকারকে সাড়ে ১৪ কোটি টাকা রেভিনিউ শেয়ার করেছে।’

এর আগে অপর এক অনুষ্ঠানে মাননীয় প্রতিমন্ত্রী বলেন, সরকার পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপ নিয়ে উৎসাহিত করার কারণে ডাক বিভাগের সঙ্গে নগদের অংশীদারত্বের ভিত্তিতে গ্রাহকদের যেমন সুলভ মূল্যে সেবা দেওয়া গেছে, ক্যাশলেস সমাজ ও ক্যাশলেস অর্থনীতি গড়ার দিকে এগিয়ে যাওয়া গেছে; অপরদিকে ডাক বিভাগেরও আয় হচ্ছে। সর্বশেষ বছরেও নগদ অংশীদারত্বের চুক্তি অনুসারে ডাক বিভাগকে সাড়ে পাঁচ কোটি টাকার ওপরে আয় শেয়ার করে বলেও জানান মাননীয় প্রতিমন্ত্রী।

নগদের উত্থানে ডাক বিভাগ ও ব্যক্তি জুনাইদ আহমেদ পলকের ভ‚মিকার উল্লেখ করে অনুষ্ঠানে নগদের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা তানভীর এ মিশুক বলেন, ‘ডাক বিভাগ শুরু থেকে আমাদের সমর্থন দিয়ে আসছে। আর পলক ভাই আমাদের জন্মলগ্ন থেকে আমাদের পাশে আছেন। সবসময় কোনো সমস্যায় আমরা ওনার সাহায্য চাইলে, উনি সেটা দ্রæত সমাধান করেন।’

নগদ ডিজিটাল ব্যাংক চালু হলে বেসিসের সকল সদস্যদের জন্য বিশেষ ঋণ সুবিধার কথা উল্লেখ করে নগদের প্রধান নির্বাহী তানভীর এ মিশুক বলেন, ‘বেসিস আমাদের তথ্যপ্রযুক্তি জগতের নীতি নির্ধারণে ভ‚মিকা রাখে। আমি তাদের শুভেচ্ছা জানানোর পাশাপাশি অনুরোধ করব সময়ের প্রয়োজন অনুযায়ী তারা যেন পলিসি আপডেটে ভ‚মিকা রাখেন। আমিও কথা দিচ্ছি, বেসিসের সব উদ্যোক্তার জন্য জামানতবিহীন ঋণের ব্যবস্থা করবে নগদ ডিজিটাল ব্যাংক।’

ডাক বিভাগের সঙ্গে নগদের চুক্তি অনুসারে, আয়ের ৫১ শতাংশ পায় ডাক বিভাগ। সে অনুসারে ২০২০ সালে নগদ ডাক বিভাগকে দিয়েছিল এক কোটি ১২ লাখ টাকা। নগদের সেবার যতো প্রসার হচ্ছে, সেবার কলেবর এবং গ্রাহক যত বাড়ছে ততোই আয় যোগ হচ্ছে ডাক বিভাগের ঘরেও। ২০২১ সালে নগদের কাছ থেকে ডাক বিভাগ পেয়েছে তিন কোটি ৩২ লাখ টাকা। ২০২২ সালে ৪ কোটি ৫০ লাখ এবং সর্বশেষ ২০২৩ সালের আয় থেকে ডাক বিভাগ পেয়েছে ৫ কোটি ৫১ লাখ টাকা।

২০১৯ সালে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে যাত্রা শুরু হয় নগদের। আর মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকেই ২০২৩ সালে দেশের দ্রæততম স্টার্টআপ কোম্পানি হিসেবে স্বীকৃতি পায় নগদ।

সোমবার বেসিসের অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগবিষয়ক উপদেষ্টা সালমান ফজলুর রহমান, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী আহসানুল ইসলাম টিটু, ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার্স অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (এফবিসিসিআই) সভাপতি মো. মাহবুবুল আলম এবং বেসিসের সভাপতি রাসেল টি আহমেদ।

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» লালমনিরহাটে ট্রেনের টিকেট কালোবাজারি চক্রের দুই সদস্য গ্রেফতার

» বিএনপি মহাসচিব দায়িত্বজ্ঞানহীন বক্তব্য রেখেছেন : কাদের

» গরুর কালা ভুনা রাঁধবেন যেভাবে

» কখন হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি বেশি?

» ঈদে মানুষের মনে সুখ নেই: রিজভী

» ঈদের দিন বঙ্গভবনে শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন রাষ্ট্রপতি

» আসুন ত্যাগের মহিমায় দেশ ও মানুষের কল্যাণে কাজ করি: প্রধানমন্ত্রী

» ফের ভাইরাল আলিয়া ভাটের ডিপফেক ভিডিও

» বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিতেই অবসরের ঘোষণা ডেভিডের

» ঈদেও মুক্তি নেই গাজার বাসিন্দাদের

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ,বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি। (দপ্তর সম্পাদক)  
উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা
 সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ,
ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন,
ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু,
নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

 

 

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল :০১৫৩৫১৩০৩৫০

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...

তিন বছরেই সফল ইউনিকর্ন স্টার্টআপ নগদ: পলক

[ঢাকা, ২১ মে ২০২৪, মঙ্গলবার] যাত্রা শুরুর মাত্র তিন বছরের মধ্যেই দেশের সফলতম স্টার্টআপ ইউনিকর্ন প্রতিষ্ঠান হিসেবে মোবাইল আর্থিক সেবা নগদ নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করেছে বলে মন্তব্য করেছেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। একইসঙ্গে ডাক বিভাগের নীতিগত সমর্থন নিয়ে গত চার বছরে তারা সরকারকে সাড়ে ১৪ কোটি টাকা আয়ের ভাগ দিয়েছে বলেও জানান তিনি।

বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস)-এর নবনির্বাচিত পরিচালক বোর্ডের অভিষেক অনুষ্ঠানে গতকাল সোমবার এসব কথা বলেন মাননীয় প্রতিমন্ত্রী।

মাননীয় প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, ‘নগদ আমাদের ডাক বিভাগের একটি অংশীদার। ডাক বিভাগের ইনফাস্ট্রাকচার, ওয়ার্ক ফোর্স, পলিসি সাপোর্ট নিয়ে তারা নিজেরা যেমন মাত্র তিন বছরের মধ্যে একটা সফল স্টার্টআপ ইউনিকর্ন হয়েছে, অন্যদিকে সরকারকে সাড়ে ১৪ কোটি টাকা রেভিনিউ শেয়ার করেছে।’

এর আগে অপর এক অনুষ্ঠানে মাননীয় প্রতিমন্ত্রী বলেন, সরকার পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপ নিয়ে উৎসাহিত করার কারণে ডাক বিভাগের সঙ্গে নগদের অংশীদারত্বের ভিত্তিতে গ্রাহকদের যেমন সুলভ মূল্যে সেবা দেওয়া গেছে, ক্যাশলেস সমাজ ও ক্যাশলেস অর্থনীতি গড়ার দিকে এগিয়ে যাওয়া গেছে; অপরদিকে ডাক বিভাগেরও আয় হচ্ছে। সর্বশেষ বছরেও নগদ অংশীদারত্বের চুক্তি অনুসারে ডাক বিভাগকে সাড়ে পাঁচ কোটি টাকার ওপরে আয় শেয়ার করে বলেও জানান মাননীয় প্রতিমন্ত্রী।

নগদের উত্থানে ডাক বিভাগ ও ব্যক্তি জুনাইদ আহমেদ পলকের ভ‚মিকার উল্লেখ করে অনুষ্ঠানে নগদের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা তানভীর এ মিশুক বলেন, ‘ডাক বিভাগ শুরু থেকে আমাদের সমর্থন দিয়ে আসছে। আর পলক ভাই আমাদের জন্মলগ্ন থেকে আমাদের পাশে আছেন। সবসময় কোনো সমস্যায় আমরা ওনার সাহায্য চাইলে, উনি সেটা দ্রæত সমাধান করেন।’
নগদ ডিজিটাল ব্যাংক চালু হলে বেসিসের সকল সদস্যদের জন্য বিশেষ ঋণ সুবিধার কথা উল্লেখ করে নগদের প্রধান নির্বাহী তানভীর এ মিশুক বলেন, ‘বেসিস আমাদের তথ্যপ্রযুক্তি জগতের নীতি নির্ধারণে ভ‚মিকা রাখে। আমি তাদের শুভেচ্ছা জানানোর পাশাপাশি অনুরোধ করব সময়ের প্রয়োজন অনুযায়ী তারা যেন পলিসি আপডেটে ভ‚মিকা রাখেন। আমিও কথা দিচ্ছি, বেসিসের সব উদ্যোক্তার জন্য জামানতবিহীন ঋণের ব্যবস্থা করবে নগদ ডিজিটাল ব্যাংক।’

ডাক বিভাগের সঙ্গে নগদের চুক্তি অনুসারে, আয়ের ৫১ শতাংশ পায় ডাক বিভাগ। সে অনুসারে ২০২০ সালে নগদ ডাক বিভাগকে দিয়েছিল এক কোটি ১২ লাখ টাকা। নগদের সেবার যতো প্রসার হচ্ছে, সেবার কলেবর এবং গ্রাহক যত বাড়ছে ততোই আয় যোগ হচ্ছে ডাক বিভাগের ঘরেও। ২০২১ সালে নগদের কাছ থেকে ডাক বিভাগ পেয়েছে তিন কোটি ৩২ লাখ টাকা। ২০২২ সালে ৪ কোটি ৫০ লাখ এবং সর্বশেষ ২০২৩ সালের আয় থেকে ডাক বিভাগ পেয়েছে ৫ কোটি ৫১ লাখ টাকা।

২০১৯ সালে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে যাত্রা শুরু হয় নগদের। আর মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকেই ২০২৩ সালে দেশের দ্রæততম স্টার্টআপ কোম্পানি হিসেবে স্বীকৃতি পায় নগদ।

সোমবার বেসিসের অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগবিষয়ক উপদেষ্টা সালমান ফজলুর রহমান, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী আহসানুল ইসলাম টিটু, ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার্স অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (এফবিসিসিআই) সভাপতি মো. মাহবুবুল আলম এবং বেসিসের সভাপতি রাসেল টি আহমেদ।

তিন বছরেই সফল ইউনিকর্ন স্টার্টআপ নগদ: পলক
[ঢাকা, ২১ মে ২০২৪, মঙ্গলবার] যাত্রা শুরুর মাত্র তিন বছরের মধ্যেই দেশের সফলতম স্টার্টআপ ইউনিকর্ন প্রতিষ্ঠান হিসেবে মোবাইল আর্থিক সেবা নগদ নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করেছে বলে মন্তব্য করেছেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। একইসঙ্গে ডাক বিভাগের নীতিগত সমর্থন নিয়ে গত চার বছরে তারা সরকারকে সাড়ে ১৪ কোটি টাকা আয়ের ভাগ দিয়েছে বলেও জানান তিনি।

বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস)-এর নবনির্বাচিত পরিচালক বোর্ডের অভিষেক অনুষ্ঠানে গতকাল সোমবার এসব কথা বলেন মাননীয় প্রতিমন্ত্রী।

মাননীয় প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, ‘নগদ আমাদের ডাক বিভাগের একটি অংশীদার। ডাক বিভাগের ইনফাস্ট্রাকচার, ওয়ার্ক ফোর্স, পলিসি সাপোর্ট নিয়ে তারা নিজেরা যেমন মাত্র তিন বছরের মধ্যে একটা সফল স্টার্টআপ ইউনিকর্ন হয়েছে, অন্যদিকে সরকারকে সাড়ে ১৪ কোটি টাকা রেভিনিউ শেয়ার করেছে।’

এর আগে অপর এক অনুষ্ঠানে মাননীয় প্রতিমন্ত্রী বলেন, সরকার পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপ নিয়ে উৎসাহিত করার কারণে ডাক বিভাগের সঙ্গে নগদের অংশীদারত্বের ভিত্তিতে গ্রাহকদের যেমন সুলভ মূল্যে সেবা দেওয়া গেছে, ক্যাশলেস সমাজ ও ক্যাশলেস অর্থনীতি গড়ার দিকে এগিয়ে যাওয়া গেছে; অপরদিকে ডাক বিভাগেরও আয় হচ্ছে। সর্বশেষ বছরেও নগদ অংশীদারত্বের চুক্তি অনুসারে ডাক বিভাগকে সাড়ে পাঁচ কোটি টাকার ওপরে আয় শেয়ার করে বলেও জানান মাননীয় প্রতিমন্ত্রী।

নগদের উত্থানে ডাক বিভাগ ও ব্যক্তি জুনাইদ আহমেদ পলকের ভ‚মিকার উল্লেখ করে অনুষ্ঠানে নগদের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা তানভীর এ মিশুক বলেন, ‘ডাক বিভাগ শুরু থেকে আমাদের সমর্থন দিয়ে আসছে। আর পলক ভাই আমাদের জন্মলগ্ন থেকে আমাদের পাশে আছেন। সবসময় কোনো সমস্যায় আমরা ওনার সাহায্য চাইলে, উনি সেটা দ্রæত সমাধান করেন।’

নগদ ডিজিটাল ব্যাংক চালু হলে বেসিসের সকল সদস্যদের জন্য বিশেষ ঋণ সুবিধার কথা উল্লেখ করে নগদের প্রধান নির্বাহী তানভীর এ মিশুক বলেন, ‘বেসিস আমাদের তথ্যপ্রযুক্তি জগতের নীতি নির্ধারণে ভ‚মিকা রাখে। আমি তাদের শুভেচ্ছা জানানোর পাশাপাশি অনুরোধ করব সময়ের প্রয়োজন অনুযায়ী তারা যেন পলিসি আপডেটে ভ‚মিকা রাখেন। আমিও কথা দিচ্ছি, বেসিসের সব উদ্যোক্তার জন্য জামানতবিহীন ঋণের ব্যবস্থা করবে নগদ ডিজিটাল ব্যাংক।’

ডাক বিভাগের সঙ্গে নগদের চুক্তি অনুসারে, আয়ের ৫১ শতাংশ পায় ডাক বিভাগ। সে অনুসারে ২০২০ সালে নগদ ডাক বিভাগকে দিয়েছিল এক কোটি ১২ লাখ টাকা। নগদের সেবার যতো প্রসার হচ্ছে, সেবার কলেবর এবং গ্রাহক যত বাড়ছে ততোই আয় যোগ হচ্ছে ডাক বিভাগের ঘরেও। ২০২১ সালে নগদের কাছ থেকে ডাক বিভাগ পেয়েছে তিন কোটি ৩২ লাখ টাকা। ২০২২ সালে ৪ কোটি ৫০ লাখ এবং সর্বশেষ ২০২৩ সালের আয় থেকে ডাক বিভাগ পেয়েছে ৫ কোটি ৫১ লাখ টাকা।

২০১৯ সালে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে যাত্রা শুরু হয় নগদের। আর মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকেই ২০২৩ সালে দেশের দ্রæততম স্টার্টআপ কোম্পানি হিসেবে স্বীকৃতি পায় নগদ।

সোমবার বেসিসের অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগবিষয়ক উপদেষ্টা সালমান ফজলুর রহমান, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী আহসানুল ইসলাম টিটু, ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার্স অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (এফবিসিসিআই) সভাপতি মো. মাহবুবুল আলম এবং বেসিসের সভাপতি রাসেল টি আহমেদ।

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ,বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি। (দপ্তর সম্পাদক)  
উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা
 সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ,
ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন,
ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু,
নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

 

 

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল :০১৫৩৫১৩০৩৫০

Design & Developed BY ThemesBazar.Com