জাহাঙ্গীরনগরে শিক্ষার্থীদের প্রতিবন্ধকতা জয় করতে শেখায় পিডিএফ

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) শারীরিক বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিক্ষার্থীদের নিয়ে নিরলস কাজ করে যাচ্ছে ফিজিক্যালি-চ্যালেঞ্জড ডেভোলেপমেন্ট ফাউন্ডেশন (পিডিএফ-জেইউ)। ব্যতিক্রমধর্মী এ সংগঠনটি বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিক্ষার্থীদের মাথার ছাতা হিসেবে কাজ করে চলেছে গত ১ যুগেরও বেশি সময়।

 

‘অ্যাবিলিটি ইজ ইন আওয়ার হার্ট’ এই স্লোগানকে ধারণ করে ২০০৮ সালের ৬ জুলাই জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে যাত্রা শুরু করে পিডিএফ। শারীরিক প্রতিবন্ধকতা যাতে শিক্ষার্থীদের পড়াশোনায় বাধা হয়ে না দাঁড়ায় সে লক্ষ্য নিয়েই যাত্রা শুরু করেছিল পিডিএফ। বর্তমানে জাবি ছাড়াও ঢাবি, জবি, রাবিতে সংগঠনটি সক্রিয়ভাবে কাজ করে চলেছে।

আমাদের সমাজে সাধারণত ভাবা হয়ে থাকে প্রতিবন্ধী মানে প্রতিভাবন্ধী, প্রতিবন্ধী যে কোনো প্রতিভাবন্ধী নয় এটাই প্রমাণ করতে এবং প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়ানোর লক্ষ্যেই প্রতিষ্ঠা হয় পিডিএফ।

 

সংগঠনটি সাধারণত প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের ভর্তি পরীক্ষা থেকে শুরু করে লেখাপড়া শেষ করে চাকরি জীবনে পদার্পণ সর্বক্ষেত্রে সহযোগিতা করে থাকে।

পিডিএফ শিক্ষার্থীদেরকে অর্থনৈতিক সংকট দূরীকরণের লক্ষ্যে মাসিক তিন হাজার টাকা হারে বৃত্তি দিয়ে থাকে। এরই ধারাবাহিকতায় বর্তমানে সংগঠনটি প্রায় ৪০ জন প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের বৃত্তি দিয়ে আসছে

 

পিডিএফ এর কার্যক্রমে ভলান্টিয়ার হিসেবে বর্তমানে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় ১৮০ জন শিক্ষার্থী কাজ করছেন।

 

সংগঠনটির সভাপতি হেদায়েত উল্লাহ বলেন, বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিবন্ধী এবং অপ্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের মধ্যে সেতুবন্ধন গড়ে তোলার কাজটি করছে পিডিএফ। বিশ্ববিদ্যালয়ে দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী ভর্তি হলে তাদের পড়া রেকর্ড করে দেওয়াসহ বিভিন্নভাবে সহায়তা করেন সংগঠনটি। শারীরিক প্রতিবন্ধী হলে যাতায়াতে সহায়তা করেন। পিডিএফের পক্ষ থেকে প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের জন্য গ্র্যাজুয়েশন প্রোগ্রামের মাধ্যমে চাকরির বাজারের জন্য প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের প্রস্তুত করা হয়। প্রশিক্ষিত এই প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান চাকরি দিয়ে সহায়তা করে। এ ছাড়া প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন বৃত্তিও দেওয়া হয়।

 

হেদায়েত আরো বলেন, অনেকে মনে করেন হয়তো পিডিএফ এ শুধু প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীরা কাজ করেন। কিন্তু না, এখানে অপ্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের সংখ্যাই অধিক। বলা যায় সংগঠনের সদস্যদের ৬০ শতাংশই অপ্রতিবন্ধী। তারা প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের সমস্যাগুলো বের করে সমাধান করার উদ্যোগ নেন।

হেদায়েত আরো বলেন, আমাদের উপদেষ্টামণ্ডলি ও সাবেকদের দেওয়া আর্থিক সাহায্যই এর মূল চালিকাশক্তি। এছাড়া, আমাদের শুভাকাঙ্ক্ষীরা আমাদের বিভিন্ন সময় সাহায্য করে থাকে। তাছাড়া বিভিন্ন দুর্যোগ মোকাবেলায় বিভিন্ন বেসরকারি প্রতিষ্ঠান আমাদেরকে সাহায্য করে থাকে। তাছাড়া যে কেউ চাইলে শিক্ষা উপকরণসহ আর্থিকভাবে সহায়তা প্রদান করলেও তা গ্রহণ করা হয়।

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» এক টুকরো মেঘ,

» ঘূর্ণিঝড় রেমালে ১৯ উপজেলার ভোট স্থগিত : ইসি সচিব

» স্থলভাগে এসে দুর্বল রেমাল, উঠিয়ে নেওয়া হল ১০ নম্বর বিপৎসংকেত

» ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে দাঁড়াতে জনপ্রতিনিধিদের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

» বন্দুকসহ একজন গ্রেফতার

» নারীকে জোরপূর্বক গণধর্ষণ মামলায় পলাতক প্রধান আসামি গ্রেফতার

» নির্মাণাধীন ভবনের দেয়াল ধসে যুবক নিহত

» দুর্যোগে সহযোগিতার নামে ফটোসেশন করে বিএনপি: কাদের

» মেট্রোরেল চলাচল স্বাভাবিক

» বিশেষ অভিযান চালিয়ে মাদকবিরোধী অভিযানে বিক্রি ও সেবনের অপরাধে ৩২জন গ্রেপ্তার

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ,বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি। (দপ্তর সম্পাদক)  
উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা
 সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ,
ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন,
ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু,
নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

 

 

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল :০১৫৩৫১৩০৩৫০

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...

জাহাঙ্গীরনগরে শিক্ষার্থীদের প্রতিবন্ধকতা জয় করতে শেখায় পিডিএফ

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) শারীরিক বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিক্ষার্থীদের নিয়ে নিরলস কাজ করে যাচ্ছে ফিজিক্যালি-চ্যালেঞ্জড ডেভোলেপমেন্ট ফাউন্ডেশন (পিডিএফ-জেইউ)। ব্যতিক্রমধর্মী এ সংগঠনটি বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিক্ষার্থীদের মাথার ছাতা হিসেবে কাজ করে চলেছে গত ১ যুগেরও বেশি সময়।

 

‘অ্যাবিলিটি ইজ ইন আওয়ার হার্ট’ এই স্লোগানকে ধারণ করে ২০০৮ সালের ৬ জুলাই জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে যাত্রা শুরু করে পিডিএফ। শারীরিক প্রতিবন্ধকতা যাতে শিক্ষার্থীদের পড়াশোনায় বাধা হয়ে না দাঁড়ায় সে লক্ষ্য নিয়েই যাত্রা শুরু করেছিল পিডিএফ। বর্তমানে জাবি ছাড়াও ঢাবি, জবি, রাবিতে সংগঠনটি সক্রিয়ভাবে কাজ করে চলেছে।

আমাদের সমাজে সাধারণত ভাবা হয়ে থাকে প্রতিবন্ধী মানে প্রতিভাবন্ধী, প্রতিবন্ধী যে কোনো প্রতিভাবন্ধী নয় এটাই প্রমাণ করতে এবং প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়ানোর লক্ষ্যেই প্রতিষ্ঠা হয় পিডিএফ।

 

সংগঠনটি সাধারণত প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের ভর্তি পরীক্ষা থেকে শুরু করে লেখাপড়া শেষ করে চাকরি জীবনে পদার্পণ সর্বক্ষেত্রে সহযোগিতা করে থাকে।

পিডিএফ শিক্ষার্থীদেরকে অর্থনৈতিক সংকট দূরীকরণের লক্ষ্যে মাসিক তিন হাজার টাকা হারে বৃত্তি দিয়ে থাকে। এরই ধারাবাহিকতায় বর্তমানে সংগঠনটি প্রায় ৪০ জন প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের বৃত্তি দিয়ে আসছে

 

পিডিএফ এর কার্যক্রমে ভলান্টিয়ার হিসেবে বর্তমানে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় ১৮০ জন শিক্ষার্থী কাজ করছেন।

 

সংগঠনটির সভাপতি হেদায়েত উল্লাহ বলেন, বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিবন্ধী এবং অপ্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের মধ্যে সেতুবন্ধন গড়ে তোলার কাজটি করছে পিডিএফ। বিশ্ববিদ্যালয়ে দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী ভর্তি হলে তাদের পড়া রেকর্ড করে দেওয়াসহ বিভিন্নভাবে সহায়তা করেন সংগঠনটি। শারীরিক প্রতিবন্ধী হলে যাতায়াতে সহায়তা করেন। পিডিএফের পক্ষ থেকে প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের জন্য গ্র্যাজুয়েশন প্রোগ্রামের মাধ্যমে চাকরির বাজারের জন্য প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের প্রস্তুত করা হয়। প্রশিক্ষিত এই প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান চাকরি দিয়ে সহায়তা করে। এ ছাড়া প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন বৃত্তিও দেওয়া হয়।

 

হেদায়েত আরো বলেন, অনেকে মনে করেন হয়তো পিডিএফ এ শুধু প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীরা কাজ করেন। কিন্তু না, এখানে অপ্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের সংখ্যাই অধিক। বলা যায় সংগঠনের সদস্যদের ৬০ শতাংশই অপ্রতিবন্ধী। তারা প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের সমস্যাগুলো বের করে সমাধান করার উদ্যোগ নেন।

হেদায়েত আরো বলেন, আমাদের উপদেষ্টামণ্ডলি ও সাবেকদের দেওয়া আর্থিক সাহায্যই এর মূল চালিকাশক্তি। এছাড়া, আমাদের শুভাকাঙ্ক্ষীরা আমাদের বিভিন্ন সময় সাহায্য করে থাকে। তাছাড়া বিভিন্ন দুর্যোগ মোকাবেলায় বিভিন্ন বেসরকারি প্রতিষ্ঠান আমাদেরকে সাহায্য করে থাকে। তাছাড়া যে কেউ চাইলে শিক্ষা উপকরণসহ আর্থিকভাবে সহায়তা প্রদান করলেও তা গ্রহণ করা হয়।

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ,বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি। (দপ্তর সম্পাদক)  
উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা
 সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ,
ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন,
ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু,
নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

 

 

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল :০১৫৩৫১৩০৩৫০

Design & Developed BY ThemesBazar.Com