কানাডার অন্টারিও প্রভিন্সিয়াল নির্বাচনে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত তিন প্রার্থী

আগামী ২ জুন কানাডার অন্টারিও প্রভিন্সিয়াল নির্বাচনকে সামনে রেখে পুরো প্রভিন্সের এখন ভোটের হাওয়া বইতে শুরু করেছে। অন্টারিয়ানদের জন্য এবারের নির্বাচনটিকে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে দেখা হচ্ছে নানা কারণে। কিন্তু বাংলাদেশি কমিউনিটিতে এর আলাদা একটা গুরুত্ব তৈরি হয়েছে।

 

২০১৮ সালে এনডিপির মনোনয়ন নিয়ে ডলি বেগম নির্বাচিত হয়ে বাংলাদেশি কমিউনিটির জন্য একটি গৌরবোজ্জল রেকর্ড প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। স্কারবোরো সাউথওয়েষ্ট রাইডিং এ এবারও তিনি প্রার্থী।

 

ডলি বেগমের বাইরে আরো দুজন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত প্রার্থী এবার প্রধান দুটি রাজনৈতিক দলের মনোনয়ন নিয়ে নির্বাচনী লড়াইয়ে শামিল হয়েছেন। ইটোবিকো- লেকশোর থেকে প্রার্থী হয়েছেন এনডিপি প্রার্থী ফারহিন আলিম আর ওকভিল নর্থ বারলিংটন থেকে লিবারেল পার্টির প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন কানিজ মৌলি।

 

কানাডার অন্টারিও’ এর প্রবাসী বাঙ্গালীদের মাঝে নির্বাচন নিয়ে ব্যাপক প্রস্তুতি ও প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে। ইতিমধ্যেই এনডিপি প্রার্থী ডলি বেগমের নির্বাচনী অফিস উদ্বোধনী দিনে কমিউনিটির প্রচুর সংখ্যক লোকের সমাগম ঘটেছে।

 

বিজয়ী হবার প্রত্যয় নিয়ে এনডিপি প্রার্থী ডলি বেগম গণমাধ্যমকে বলেন, গত চার বছর তিনি অন্টারিয়ানদের নানা ইস্যুতে পার্লামেন্টে সোচ্চার থেকেছেন। অভিবাসীদের সমস্যা নিয়ে সরব থেকেছেন। তার চার বছরের কাজের মূল্যায়নে ভোটাররা এবারো তাকে বিজয়ী করবেন বলে আশা প্রকাশ করেন। ডলি বেগম বলেন, আমার নির্বাচনী এলাকার ভোটাররা মূলত অভিবাসী। নিজে একজন অভিবাসী পরিবারের সদস্য হিসেবে তার সমস্যা, তাদের চাওয়া আমি সবচেয়ে ভালো বুঝতে পারি।

 

ওকভিল নর্থ বারলিংটন থেকে লিবারেল পার্টির প্রার্থী কানিজ মৌলি গণমাধ্যমকে বলেন, অন্টারিওর মধ্যবিত্ত সমাজের জন্য সবচেয়ে প্রগতিশীল এবং অগ্রসর ভাবনার কর্মসূচি নিয়ে অন্টারিও লিবারেল পার্টি এবার নির্বাচন করছে। তিনি আশা করছেন, তাদের কর্মসূচির কারণেই জনগণ তাদের এবার ভোট দেবে।

 

বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সক্রিয় রাজনীতি করা কানিজ মৌলি বলেন, রাজনীতি এবং প্রশাসনিক পর্যায়ে প্রত্যক্ষ অভিজ্ঞতা অর্জন করার পর তিনি নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছেন। নির্বাচনে তিনি বিজয়ী হবেন বলে আশা প্রকাশ করেন।

 

ইটোবিকো- লেকশোর থেকে এনডিপি প্রার্থী ফারহিন আলিম গণমাধ্যমকে বলেন, আমি একজন হাইস্কুল শিক্ষক, পেশাদারা রাজনীতিক নই। কিন্তু কোভিড মহামারীতে আমার ছাত্রছাত্রীদের যে দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে, তা দেখে আমি নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছি। নিজের বিজয়ের ব্যাপারে আশাবাদী ফারহিন আলিম বলেন, অভিবাসী মধ্যবিত্ত নাগরিকদের সমস্যা নিয়ে আমি কাজ করতে চাই।

অন্টারিওর প্রভিন্সিয়াল নির্বাচনে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত প্রার্থীতা নিয়ে কানাডার নতুন দেশ পত্রিকার প্রধান সম্পাদক ও সাংবাদিক শওগাত আলী সাগর বলেন, প্রভিন্সিয়াল নির্বাচনে প্রধান রাজনৈদিক দলগুলো থেকে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত তিনজনের মনোনয়ন পাওয়া প্রবাসে বাংলাদেশি কমিউনটির জন্য অত্যন্দ উৎসাহব্যঞ্জক এবং সম্মানের বিষয়।

 

তিনি মূলধারার রাজনীতিতে আরও বেশি বেশি অংশগ্রহণের উপর গুরুত্ব আরোপ করে বলেন, শুধু প্রার্থী নয়, ভবিষ্যতে আমরা আরো বেশি বিজয়ী প্রবাসীদেরকে কানাডার মূলধারার রাজনীতিতে দেখতে চাই, যাতে বাংলাদেশ ও কানাডার মধ্যে একটি সুদৃঢ় সেতুবন্ধন তৈরি হয়।

 

উল্লেখ্য, কানাডার মূলধারার রাজনীতিতে প্রবাসী বাংলাদেশীদের অংশগ্রহণ বাংলাদশি কমিউনিটিকে সমৃদ্ধ করার পাশাপাশি আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে বাংলাদেশের মর্যাদাকেও বৃদ্ধি করবে। মাতৃভূমি বাংলাদেশের স্বার্থেই যোগ্য প্রবাসী বাঙালিদের অবস্থান সুসংহত ও সুদৃঢ করার কোনো বিকল্প নেই।

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» করুনারত্নে-ওশাদার ব্যাটে দারুণ শুরু শ্রীলঙ্কার

» টাঙ্গাইলের মধুপুরে আইন শৃঙ্খলা কমিটির আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

» সিঙ্গাপুর গেলেন জিএম কাদের

» সম্রাটকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ

» নৈরাজ্য সৃষ্টি করলে ব্যবস্থা নেবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

» ‘বাজারে যেখানেই হাত দিচ্ছি, সেখানেই অনিয়ম পাচ্ছি’

» ইউটিউব দেখে ‘বোমা’ তৈরির চেষ্টা, বিস্ফোরণে আহত তিন শিশু

» ‘তথ্য-প্রযুক্তির অপব্যবহার রোধে চাই সম্মিলিত উদ্যোগ’

» টাঙ্গাইলে পৃথক অভিযানে তিন মাদক কারবারি আটক

» স্তন বড় করতে সার্জারি, বলিউডের এমন ৮ নায়িকাকে চিনে নিন

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি।(দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...

কানাডার অন্টারিও প্রভিন্সিয়াল নির্বাচনে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত তিন প্রার্থী

আগামী ২ জুন কানাডার অন্টারিও প্রভিন্সিয়াল নির্বাচনকে সামনে রেখে পুরো প্রভিন্সের এখন ভোটের হাওয়া বইতে শুরু করেছে। অন্টারিয়ানদের জন্য এবারের নির্বাচনটিকে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে দেখা হচ্ছে নানা কারণে। কিন্তু বাংলাদেশি কমিউনিটিতে এর আলাদা একটা গুরুত্ব তৈরি হয়েছে।

 

২০১৮ সালে এনডিপির মনোনয়ন নিয়ে ডলি বেগম নির্বাচিত হয়ে বাংলাদেশি কমিউনিটির জন্য একটি গৌরবোজ্জল রেকর্ড প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। স্কারবোরো সাউথওয়েষ্ট রাইডিং এ এবারও তিনি প্রার্থী।

 

ডলি বেগমের বাইরে আরো দুজন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত প্রার্থী এবার প্রধান দুটি রাজনৈতিক দলের মনোনয়ন নিয়ে নির্বাচনী লড়াইয়ে শামিল হয়েছেন। ইটোবিকো- লেকশোর থেকে প্রার্থী হয়েছেন এনডিপি প্রার্থী ফারহিন আলিম আর ওকভিল নর্থ বারলিংটন থেকে লিবারেল পার্টির প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন কানিজ মৌলি।

 

কানাডার অন্টারিও’ এর প্রবাসী বাঙ্গালীদের মাঝে নির্বাচন নিয়ে ব্যাপক প্রস্তুতি ও প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে। ইতিমধ্যেই এনডিপি প্রার্থী ডলি বেগমের নির্বাচনী অফিস উদ্বোধনী দিনে কমিউনিটির প্রচুর সংখ্যক লোকের সমাগম ঘটেছে।

 

বিজয়ী হবার প্রত্যয় নিয়ে এনডিপি প্রার্থী ডলি বেগম গণমাধ্যমকে বলেন, গত চার বছর তিনি অন্টারিয়ানদের নানা ইস্যুতে পার্লামেন্টে সোচ্চার থেকেছেন। অভিবাসীদের সমস্যা নিয়ে সরব থেকেছেন। তার চার বছরের কাজের মূল্যায়নে ভোটাররা এবারো তাকে বিজয়ী করবেন বলে আশা প্রকাশ করেন। ডলি বেগম বলেন, আমার নির্বাচনী এলাকার ভোটাররা মূলত অভিবাসী। নিজে একজন অভিবাসী পরিবারের সদস্য হিসেবে তার সমস্যা, তাদের চাওয়া আমি সবচেয়ে ভালো বুঝতে পারি।

 

ওকভিল নর্থ বারলিংটন থেকে লিবারেল পার্টির প্রার্থী কানিজ মৌলি গণমাধ্যমকে বলেন, অন্টারিওর মধ্যবিত্ত সমাজের জন্য সবচেয়ে প্রগতিশীল এবং অগ্রসর ভাবনার কর্মসূচি নিয়ে অন্টারিও লিবারেল পার্টি এবার নির্বাচন করছে। তিনি আশা করছেন, তাদের কর্মসূচির কারণেই জনগণ তাদের এবার ভোট দেবে।

 

বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সক্রিয় রাজনীতি করা কানিজ মৌলি বলেন, রাজনীতি এবং প্রশাসনিক পর্যায়ে প্রত্যক্ষ অভিজ্ঞতা অর্জন করার পর তিনি নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছেন। নির্বাচনে তিনি বিজয়ী হবেন বলে আশা প্রকাশ করেন।

 

ইটোবিকো- লেকশোর থেকে এনডিপি প্রার্থী ফারহিন আলিম গণমাধ্যমকে বলেন, আমি একজন হাইস্কুল শিক্ষক, পেশাদারা রাজনীতিক নই। কিন্তু কোভিড মহামারীতে আমার ছাত্রছাত্রীদের যে দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে, তা দেখে আমি নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছি। নিজের বিজয়ের ব্যাপারে আশাবাদী ফারহিন আলিম বলেন, অভিবাসী মধ্যবিত্ত নাগরিকদের সমস্যা নিয়ে আমি কাজ করতে চাই।

অন্টারিওর প্রভিন্সিয়াল নির্বাচনে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত প্রার্থীতা নিয়ে কানাডার নতুন দেশ পত্রিকার প্রধান সম্পাদক ও সাংবাদিক শওগাত আলী সাগর বলেন, প্রভিন্সিয়াল নির্বাচনে প্রধান রাজনৈদিক দলগুলো থেকে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত তিনজনের মনোনয়ন পাওয়া প্রবাসে বাংলাদেশি কমিউনটির জন্য অত্যন্দ উৎসাহব্যঞ্জক এবং সম্মানের বিষয়।

 

তিনি মূলধারার রাজনীতিতে আরও বেশি বেশি অংশগ্রহণের উপর গুরুত্ব আরোপ করে বলেন, শুধু প্রার্থী নয়, ভবিষ্যতে আমরা আরো বেশি বিজয়ী প্রবাসীদেরকে কানাডার মূলধারার রাজনীতিতে দেখতে চাই, যাতে বাংলাদেশ ও কানাডার মধ্যে একটি সুদৃঢ় সেতুবন্ধন তৈরি হয়।

 

উল্লেখ্য, কানাডার মূলধারার রাজনীতিতে প্রবাসী বাংলাদেশীদের অংশগ্রহণ বাংলাদশি কমিউনিটিকে সমৃদ্ধ করার পাশাপাশি আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে বাংলাদেশের মর্যাদাকেও বৃদ্ধি করবে। মাতৃভূমি বাংলাদেশের স্বার্থেই যোগ্য প্রবাসী বাঙালিদের অবস্থান সুসংহত ও সুদৃঢ করার কোনো বিকল্প নেই।

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি।(দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Design & Developed BY ThemesBazar.Com