উটের ‘সুন্দরী প্রতিযোগিতা’!

আরবদের কাছে উটের কদর অনেক। সবচেয়ে সুন্দর প্রাণী হিসেবে তারা উটকে বিবেচনা করেন। তাদের মতে, ‘বেদুইনদের জন্য ঈশ্বরের উপহার’ বলে অভিহিত করে উটকে।

 

তারা উটকে এতোটাই ভালোবাসেন যে, প্রতিবছর আয়োজন করা হয় উটের সুন্দরী প্রতিযোগিতা। যেখানে অংশগ্রহণ করে হাজার হাজার উট। এদের মধ্য থেকেই বেছে নেওয়া হয় সবচেয়ে সুন্দর উটকে।

অবাক করা বিষয় হলেও সত্যিই, সংযুক্ত আরব আমিরাতের আবুধাবিতে প্রতিবছর আল-ধাফরা উৎসব অনুষ্ঠিত হয়। সারা উপসাগরীয় অঞ্চল থেকে আসা ৩০ হাজারেরও বেশি উট এই প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়।

,m

ক্যামেল বিউটি পেজেন্ট নামক এই উৎসবের মূল আকর্ষণ হলো উটের সৌন্দর্য বিবেচনা করা। তবে কীভাবে উটের সৌন্দর্য বিচার করা হয়?

 

উটের মালিক ও আল-ধাফরা আয়োজক কমিটির সদস্য আলি আল মানসুরির মতে, ‘বিচারকরা বড় মাথা, চওড়া ঘাড়, শক্ত কান, চওড়া গালে উট খুঁজে বের করেন।’

তিনি আরো বলেন, ‘এক্ষেত্রে উটের শরীর লম্বা হতে হবে, কুঁজ ও পিঠ বড় হতে হবে। একইসঙ্গে উটের রং ও ভঙ্গিও গুরুত্বপূর্ণ।’

mn

প্রতিযোগিতা দুটি পর্যায়ে পরিচালিত হয়। একটি হালকা রঙের আসায়েল জাতের জন্য ও অন্যটি কালো চামড়ার মাজাহিমের জন্য।

উটের মালিক খামিস মোহাম্মদ আল শরী বলেন, ‘কর্তৃপক্ষ দ্বারা নিযুক্ত একটি বিশেষ কমিটি আছে, যারা প্রতিযোগিতার বিচার করেন। তারা সব উটকে এক কলমে বসিয়ে সিদ্ধান্ত নেয়।’

 

তাদের মানদণ্ড পূরণকারী সেরা ১০টি উটকে বিজয়ী বলে গণ্য করা হবে। সৌন্দর্য প্রতিযোগিতায় উট জয়ী হলেও পুরস্কার ভোগ করেন মালিকরা।

yt

পুরষ্কার হিসেবে ৭ লাখ টাকা বা ১৮-৩০ হাজার দিরহামসহ বিলাসবহুল গাড়ি পান তারা। যদিও এটা শুধু টাকার বিষয় নয়। প্রতিযোগিতায় বিজয়ী হওয়া উট-মালিক পরিবারগুলোর মধ্যে এটি একটি গর্বের বিষয়।

আল ধাফরা উৎসবে উপসাগরের বাইরে থেকেও অংশগ্রহণকারীদের আকর্ষণ করছে। সংযুক্ত আরব আমিরাতে প্রায় ৩ লাখ ৯০ হাজারেরও বেশি উট আছে।

 

এই বলিষ্ঠ প্রাণীগুলো মরুভূমির কঠোর জলবায়ুকে প্রতিহত করতে পারে। এ কারণে উটকে আরবের মূল্যবান সম্পদ হিসেবে ভাবা হয়। তারা বেদুইনদের জন্য দুধ দেয় ও পরিবহনে সাহায্য করে।

v

বেদুইন সংস্কৃতি উদযাপন ও প্রচারের জন্য আল-ধাফরা উৎসব এবার ৭ম বারের মতো পালিত হতে যাচ্ছে। চলতি বছরের ২২ ডিসেম্বর শুরু হবে এই উৎসব। দুই সপ্তাহ চলবে।

এই উৎসবের অংশ হিসেবে উটের দৌড়, শালুকি দৌড়, বাজপাখি প্রতিযোগিতাও অনুষ্ঠিত হয়। এ ছাড়াও ঐতিহ্যবাহী আমিরাতি বাজারও উৎসবের অন্যতম এক আকর্ষণ ।  সূত্র: স্কাই নিউজ , গাল্ফ নিউজ

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» হাওরে কৃষকদের বোরো ধানের উপযুক্ত মূল্য নির্ধারণ করা হবে: কৃষিমন্ত্রী

» বাসচাপায় সিএনজি যাত্রী নিহত

» ‌‌‘বিনা কারণে কারাগার এখন বিএনপি নেতাকর্মীদের স্থায়ী ঠিকানা’

» রাজধানীর শিশু হাসপাতালের আগুন নিয়ন্ত্রণে

» বিএনপির নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে কোনো মামলা রাজনৈতিক নয়: প্রধানমন্ত্রী

» রাজধানীর শিশু হাসপাতালের ভবনে আগুন

» শনিবার ২ ঘণ্টা গ্যাস থাকবে না যেসব এলাকায়

» মাদক বিক্রি ও সেবন করার অপরাধে ১০ জন গ্রেফতার

» ‘জীবনে অনেক ভুল করেছি’—হঠাৎ কী হলো পরিণীতির?

» ‘মুস্তাফিজকে কেন পুরো আইপিএল খেলতে দিচ্ছে না বাংলাদেশ’

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ,বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি। (দপ্তর সম্পাদক)  
উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা
 সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ,
ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন,
ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু,
নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

 

 

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল :০১৫৩৫১৩০৩৫০

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...

উটের ‘সুন্দরী প্রতিযোগিতা’!

আরবদের কাছে উটের কদর অনেক। সবচেয়ে সুন্দর প্রাণী হিসেবে তারা উটকে বিবেচনা করেন। তাদের মতে, ‘বেদুইনদের জন্য ঈশ্বরের উপহার’ বলে অভিহিত করে উটকে।

 

তারা উটকে এতোটাই ভালোবাসেন যে, প্রতিবছর আয়োজন করা হয় উটের সুন্দরী প্রতিযোগিতা। যেখানে অংশগ্রহণ করে হাজার হাজার উট। এদের মধ্য থেকেই বেছে নেওয়া হয় সবচেয়ে সুন্দর উটকে।

অবাক করা বিষয় হলেও সত্যিই, সংযুক্ত আরব আমিরাতের আবুধাবিতে প্রতিবছর আল-ধাফরা উৎসব অনুষ্ঠিত হয়। সারা উপসাগরীয় অঞ্চল থেকে আসা ৩০ হাজারেরও বেশি উট এই প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়।

,m

ক্যামেল বিউটি পেজেন্ট নামক এই উৎসবের মূল আকর্ষণ হলো উটের সৌন্দর্য বিবেচনা করা। তবে কীভাবে উটের সৌন্দর্য বিচার করা হয়?

 

উটের মালিক ও আল-ধাফরা আয়োজক কমিটির সদস্য আলি আল মানসুরির মতে, ‘বিচারকরা বড় মাথা, চওড়া ঘাড়, শক্ত কান, চওড়া গালে উট খুঁজে বের করেন।’

তিনি আরো বলেন, ‘এক্ষেত্রে উটের শরীর লম্বা হতে হবে, কুঁজ ও পিঠ বড় হতে হবে। একইসঙ্গে উটের রং ও ভঙ্গিও গুরুত্বপূর্ণ।’

mn

প্রতিযোগিতা দুটি পর্যায়ে পরিচালিত হয়। একটি হালকা রঙের আসায়েল জাতের জন্য ও অন্যটি কালো চামড়ার মাজাহিমের জন্য।

উটের মালিক খামিস মোহাম্মদ আল শরী বলেন, ‘কর্তৃপক্ষ দ্বারা নিযুক্ত একটি বিশেষ কমিটি আছে, যারা প্রতিযোগিতার বিচার করেন। তারা সব উটকে এক কলমে বসিয়ে সিদ্ধান্ত নেয়।’

 

তাদের মানদণ্ড পূরণকারী সেরা ১০টি উটকে বিজয়ী বলে গণ্য করা হবে। সৌন্দর্য প্রতিযোগিতায় উট জয়ী হলেও পুরস্কার ভোগ করেন মালিকরা।

yt

পুরষ্কার হিসেবে ৭ লাখ টাকা বা ১৮-৩০ হাজার দিরহামসহ বিলাসবহুল গাড়ি পান তারা। যদিও এটা শুধু টাকার বিষয় নয়। প্রতিযোগিতায় বিজয়ী হওয়া উট-মালিক পরিবারগুলোর মধ্যে এটি একটি গর্বের বিষয়।

আল ধাফরা উৎসবে উপসাগরের বাইরে থেকেও অংশগ্রহণকারীদের আকর্ষণ করছে। সংযুক্ত আরব আমিরাতে প্রায় ৩ লাখ ৯০ হাজারেরও বেশি উট আছে।

 

এই বলিষ্ঠ প্রাণীগুলো মরুভূমির কঠোর জলবায়ুকে প্রতিহত করতে পারে। এ কারণে উটকে আরবের মূল্যবান সম্পদ হিসেবে ভাবা হয়। তারা বেদুইনদের জন্য দুধ দেয় ও পরিবহনে সাহায্য করে।

v

বেদুইন সংস্কৃতি উদযাপন ও প্রচারের জন্য আল-ধাফরা উৎসব এবার ৭ম বারের মতো পালিত হতে যাচ্ছে। চলতি বছরের ২২ ডিসেম্বর শুরু হবে এই উৎসব। দুই সপ্তাহ চলবে।

এই উৎসবের অংশ হিসেবে উটের দৌড়, শালুকি দৌড়, বাজপাখি প্রতিযোগিতাও অনুষ্ঠিত হয়। এ ছাড়াও ঐতিহ্যবাহী আমিরাতি বাজারও উৎসবের অন্যতম এক আকর্ষণ ।  সূত্র: স্কাই নিউজ , গাল্ফ নিউজ

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ,বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি। (দপ্তর সম্পাদক)  
উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা
 সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ,
ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন,
ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু,
নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

 

 

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল :০১৫৩৫১৩০৩৫০

Design & Developed BY ThemesBazar.Com