আসছে দিনগুলোতে সাইবার সন্ত্রাস আরও বাড়বে, সফোসের সতর্কবার্তা

বিশ্বজুড়ে সামনের দিনগুলোতে সাইবার সন্ত্রাস ও হামলা আরও বাড়বে বলে এক প্রতিবেদনে দাবি করেছে সাইবার সিকিউরিটির গ্লোবাল লিডার সফোস। প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, গত কয়েক বছরে সাইবার হামলার হুমকি বেড়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলোর নেটওয়ার্ক নিরাপত্তার সঙ্গে হামলাকারীরাও তাদের প্রযুক্তি উন্নত করছে। ফলে নতুন মাত্রায় সতর্ক হতে হবে।

 

সাইবার সিকিউরিটি প্রতিষ্ঠানটি ‘সফোস ২০২২ থ্রেট রিপোর্ট’ প্রকাশ করে এ বিষয়ে সতর্ক করেছে। ২০২২ সালে প্রতিষ্ঠানগুলোর বিভিন্ন আঙ্গিক থেকে নিরাপত্তা হুমকি এবং হুমকির মুখোমুখি হওয়ার প্রবণতাগুলো উঠে এসেছে প্রতিবেদনে।

 

প্রতিবেদনটি প্রস্তুত করেছেন সফোস ল্যাবের নিরাপত্তা গবেষকরা। প্রতিবেদনে সফোস ল্যাব হুমকির প্রতিক্রিয়া, হুমকি খুঁজে বের করা এবং দ্রুত প্রতিক্রিয়া জানানোর বিষয়গুলো তুলে ধরেছে। সফোস কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা বা এআই টিম তাদের গবেষকদের পাওয়া গত বছরের বিভিন্ন উদাহরণ থেকে সাইবার হুমকির ট্রেন্ড কি-ওয়ার্ড উন্মোচন করেছে।

 

সফোস গবেষকদের মতে, একক র‍্যানসমওয়্যার গ্রুপ গত বছর আরও বেশি র‍্যানসমওয়্যার-অ্যাজ-এ-সার্ভিস (আরএএএস) অফারগুলোকে পথ দেখিয়েছে। সেই সঙ্গে র‍্যানসমওয়্যারের ডেভেলপাররা জোর দিয়েছেন ক্ষতিকারক কোড বিনাশ ও তৃতীয় পক্ষের কাঠামো উন্নয়নে।

 

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, সামনের বছরগুলোতে র‍্যানসমওয়্যার ল্যান্ডস্কেপ আরও প্রাসঙ্গিক ও অভিন্ন হয়ে উঠবে। ফলে হামলা আরও বাড়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। মুক্তিপণ আদায়ের জন্য হামলাকারীরা ভুক্তভোগীদের ওপর আরও চাপ অব্যাহত রাখবে এবং যার তীব্রতা ও মাত্রা বাড়বে কয়েকগুণ। এতে আরও তেল ঢালবে ক্রিপ্টোকারেন্সি, কারণ ক্রিপ্টো মাইনিংয়ের জন্য সাইবার ক্রাইম হিসেবে র‍্যাসমনওয়্যারের ব্যববহার আরও বাড়বে সামনের দিনগুলোতে। সফোস মনে করে, বিশ্বে ক্রিপ্টোকারেন্সির সঠিক নিয়ন্ত্রক সংস্থা না হওয়া পর্যন্ত এই ট্রেন্ড অব্যাহত থাকবে।

 

সফোস রিপোর্টে বলা হয়, সাইবার নিরাপত্তায় কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার বা এআইয়ের প্রয়োগ অব্যাহত থাকবে এবং ত্বরান্বিত হবে। শক্তিশালী মেশিন লার্নিং মডেল হুমকি শনাক্ত করতে এবং সতর্ক করে দিতে তার গুরুত্ব প্রমাণ করবে। একই সময়ে প্রতিপক্ষরা এআইয়ের ব্যবহার বাড়িয়ে দেবে, এটাও নিশ্চিত করেই বলা যায়। এর মাধ্যমে তারা আগামী বছরগুলোতে বিভিন্ন ধরনের বিভ্রান্তিমূলক প্রচারণা এবং ওয়েব কনটেন্টে স্পুফ, সোশ্যাল মিডিয়া প্রোফাইল থেকে ওয়াটারিং-হোল অ্যাটাক, ফিশিং ইমেল এবং আরও অনেক কিছুত আরও এগিয়ে যাবে। এ সময়ে ডিপ-ফেইক ভিডিও তৈরি এবং কণ্ঠ সংশ্লেষণ প্রযুক্তি অনেকটা সহজলভ্য হয়ে উঠবে।

সফোসের প্রধান গবেষণা বিজ্ঞানী চেস্টার উইসনিউস্কি বলেন, ‘প্রতিষ্ঠানগুলোর পক্ষে এই সময়ে এসে সাধারণভাবে নিরাপত্তা সরঞ্জামগুলো এবং ম্যালিকিউলাস কোডগুলো শনাক্ত করাই যথেষ্ট নয়। ডিফেন্ডারদের অবশ্যই সতর্কতার সঙ্গে তদন্ত করা উচিত, অতীতেও এমন ঘটনা তুচ্ছ হিসেবে দেখা হয়েছে, কারণ নেটওয়ার্কে এমন অনুপ্রবেশ পুরো নেটওয়ার্কের নিয়ন্ত্রণ নেয়ার জন্য যথেষ্ট।’

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» ব্যাংকান্স্যুরেন্স ব্যবসা শুরুর অনুমতি পেল প্রাইম ব্যাংক পিএলসি

» বিএটি বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে শেহজাদ মুনীমের স্থলাভিষিক্ত হচ্ছেন মনীষা আব্রাহাম

» পাঁচবিবিতে পুকুরের পানি সেচ দিতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে এক ব্যক্তির মৃত্যু

» এমপি-মন্ত্রীর স্বজনদের প্রার্থী না হওয়ার নির্দেশনা রাজনৈতিক : ইসি আলমগীর

» রেললাইনে মোবাইলফোনে কথার সময় ট্রেনের ধাক্কায় রেল কর্মচারীর মৃত্যু

» ১৭ বছর বয়সে অভিনয়ে হাতেখড়ি, এখন তিনি কয়েকশো কোটি টাকার মালিক

» তীব্র গরমে উচ্চ আদালতে আইনজীবীদের গাউন পরতে হবে না

» নিবন্ধন ও আবেদনের বাইরে থাকা পোর্টালগুলো বন্ধ করা হবে : তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী

» জ্ঞান-বিজ্ঞানে এগিয়ে যেতে শিক্ষার্থীদের প্রতি আহ্বান আইজিপির

» ইরানে ইসরায়েলের হামলা নিয়ে মুখে কুলুপ বাইডেন প্রশাসনের

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ,বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি। (দপ্তর সম্পাদক)  
উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা
 সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ,
ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন,
ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু,
নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

 

 

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল :০১৫৩৫১৩০৩৫০

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...

আসছে দিনগুলোতে সাইবার সন্ত্রাস আরও বাড়বে, সফোসের সতর্কবার্তা

বিশ্বজুড়ে সামনের দিনগুলোতে সাইবার সন্ত্রাস ও হামলা আরও বাড়বে বলে এক প্রতিবেদনে দাবি করেছে সাইবার সিকিউরিটির গ্লোবাল লিডার সফোস। প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, গত কয়েক বছরে সাইবার হামলার হুমকি বেড়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলোর নেটওয়ার্ক নিরাপত্তার সঙ্গে হামলাকারীরাও তাদের প্রযুক্তি উন্নত করছে। ফলে নতুন মাত্রায় সতর্ক হতে হবে।

 

সাইবার সিকিউরিটি প্রতিষ্ঠানটি ‘সফোস ২০২২ থ্রেট রিপোর্ট’ প্রকাশ করে এ বিষয়ে সতর্ক করেছে। ২০২২ সালে প্রতিষ্ঠানগুলোর বিভিন্ন আঙ্গিক থেকে নিরাপত্তা হুমকি এবং হুমকির মুখোমুখি হওয়ার প্রবণতাগুলো উঠে এসেছে প্রতিবেদনে।

 

প্রতিবেদনটি প্রস্তুত করেছেন সফোস ল্যাবের নিরাপত্তা গবেষকরা। প্রতিবেদনে সফোস ল্যাব হুমকির প্রতিক্রিয়া, হুমকি খুঁজে বের করা এবং দ্রুত প্রতিক্রিয়া জানানোর বিষয়গুলো তুলে ধরেছে। সফোস কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা বা এআই টিম তাদের গবেষকদের পাওয়া গত বছরের বিভিন্ন উদাহরণ থেকে সাইবার হুমকির ট্রেন্ড কি-ওয়ার্ড উন্মোচন করেছে।

 

সফোস গবেষকদের মতে, একক র‍্যানসমওয়্যার গ্রুপ গত বছর আরও বেশি র‍্যানসমওয়্যার-অ্যাজ-এ-সার্ভিস (আরএএএস) অফারগুলোকে পথ দেখিয়েছে। সেই সঙ্গে র‍্যানসমওয়্যারের ডেভেলপাররা জোর দিয়েছেন ক্ষতিকারক কোড বিনাশ ও তৃতীয় পক্ষের কাঠামো উন্নয়নে।

 

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, সামনের বছরগুলোতে র‍্যানসমওয়্যার ল্যান্ডস্কেপ আরও প্রাসঙ্গিক ও অভিন্ন হয়ে উঠবে। ফলে হামলা আরও বাড়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। মুক্তিপণ আদায়ের জন্য হামলাকারীরা ভুক্তভোগীদের ওপর আরও চাপ অব্যাহত রাখবে এবং যার তীব্রতা ও মাত্রা বাড়বে কয়েকগুণ। এতে আরও তেল ঢালবে ক্রিপ্টোকারেন্সি, কারণ ক্রিপ্টো মাইনিংয়ের জন্য সাইবার ক্রাইম হিসেবে র‍্যাসমনওয়্যারের ব্যববহার আরও বাড়বে সামনের দিনগুলোতে। সফোস মনে করে, বিশ্বে ক্রিপ্টোকারেন্সির সঠিক নিয়ন্ত্রক সংস্থা না হওয়া পর্যন্ত এই ট্রেন্ড অব্যাহত থাকবে।

 

সফোস রিপোর্টে বলা হয়, সাইবার নিরাপত্তায় কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার বা এআইয়ের প্রয়োগ অব্যাহত থাকবে এবং ত্বরান্বিত হবে। শক্তিশালী মেশিন লার্নিং মডেল হুমকি শনাক্ত করতে এবং সতর্ক করে দিতে তার গুরুত্ব প্রমাণ করবে। একই সময়ে প্রতিপক্ষরা এআইয়ের ব্যবহার বাড়িয়ে দেবে, এটাও নিশ্চিত করেই বলা যায়। এর মাধ্যমে তারা আগামী বছরগুলোতে বিভিন্ন ধরনের বিভ্রান্তিমূলক প্রচারণা এবং ওয়েব কনটেন্টে স্পুফ, সোশ্যাল মিডিয়া প্রোফাইল থেকে ওয়াটারিং-হোল অ্যাটাক, ফিশিং ইমেল এবং আরও অনেক কিছুত আরও এগিয়ে যাবে। এ সময়ে ডিপ-ফেইক ভিডিও তৈরি এবং কণ্ঠ সংশ্লেষণ প্রযুক্তি অনেকটা সহজলভ্য হয়ে উঠবে।

সফোসের প্রধান গবেষণা বিজ্ঞানী চেস্টার উইসনিউস্কি বলেন, ‘প্রতিষ্ঠানগুলোর পক্ষে এই সময়ে এসে সাধারণভাবে নিরাপত্তা সরঞ্জামগুলো এবং ম্যালিকিউলাস কোডগুলো শনাক্ত করাই যথেষ্ট নয়। ডিফেন্ডারদের অবশ্যই সতর্কতার সঙ্গে তদন্ত করা উচিত, অতীতেও এমন ঘটনা তুচ্ছ হিসেবে দেখা হয়েছে, কারণ নেটওয়ার্কে এমন অনুপ্রবেশ পুরো নেটওয়ার্কের নিয়ন্ত্রণ নেয়ার জন্য যথেষ্ট।’

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ,বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি। (দপ্তর সম্পাদক)  
উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা
 সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ,
ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন,
ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু,
নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

 

 

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল :০১৫৩৫১৩০৩৫০

Design & Developed BY ThemesBazar.Com