৩৩ হাজার টাকা লুট করতে ডিশ-সংযোগের তার গলায় পেঁচিয়ে ব্যবসায়ীকে হত্যা

রাজধানীর দক্ষিণখানের মোল্লারটেকের নিজ বাসায় ডেকে ব্যবসায়ী হেলালউদ্দিনকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে তাঁর কাছ থেকে ৩৩ হাজার টাকা লুট করেন চার্লস রূপম ও তার স্ত্রী শাহিনী আক্তার। পরে লাশ তিন টুকরা করে তা বস্তায় ভরে উত্তরার বিভিন্ন স্থানে ফেলে রাখেন তারা।

হেলাল হত্যায় গ্রেপ্তার হওয়া চার্লস রূপমের স্ত্রী শাহিনা আক্তার ওরফে মনি সরকার (১৮) ও তার শাশুড়ি রাশিদা আক্তার (৪৮) শুক্রবার (১৯ জুন) পুুলিশের কাছে ও আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে এসব তথ্য দিয়েছেন বলে পুলিশ জানিয়েছে।

বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে উত্তরার প্রেমবাগান ও আবদুল্লাপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের কাছ থেকে লুট করা ৩৩ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়েছে।

গত সোমবার পুলিশ দক্ষিণখানের হাজী মুক্তিযোদ্ধা রোডের কাঁচারাস্তার পাশ থেকে পুলিশ এক ব্যক্তির নাভি থেকে নিচ পর্যন্ত এক টুকরা, নাভি থেকে গলা পর্যন্ত আরেক টুকরা উদ্ধার করে। এই দুই টুকরাই বস্তায় ভরা ছিল। পরদিন গত মঙ্গলবার বিমানবন্দর থানার ঈরশাল কলোনি বটতলা পানির পাম্পের সামনের ডাস্টবিনের ভেতর থেকে খণ্ডিত মাথা উদ্ধার করে। লাশের তিন টুকরা মেলানোর পর লাশটি ব্যবসায়ী হেলালউদ্দিনের বলে তার বড় ভাই মো. হোজায়ফা শনাক্ত করেন। ওই ঘটনায় অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের আসামি করে দক্ষিণখান থানায় হত্যা মামলা করা হয়। থানা-পুলিশের পাশপাশি ডিবির উত্তর বিভাগ মামলার তদন্ত শুরু করে।

ডিবি পুলিশ জানায়, হেলালউদ্দিন দক্ষিণখান থানার জয়নাল মার্কেটের পাশে আরেকজনের সঙ্গে যৌথভাবে একটি কক্ষে ভাড়া থাকতেন। একই এলাকার মধ্য আজমপুরে ফ্ল্যাক্সিলোড ও বিকাশের এজেন্ট হিসেবে তিনি ব্যবসা করতেন। হেলাল অবিবাহিত ছিলেন। ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান থেকে গত রোববার রাতে বাসায় ফিরে না আসায় তাঁর রুমমেট আল আমিন ঘটনাটি হেলালের এক স্বজনকে মুঠোফোনে জানান।

মামলার তদন্ত তদারক কর্মকর্তা ডিবির উপকমিশনার (উত্তর) মশিউর রহমান বলেন, হেলালউদ্দিনের পূর্বপরিচিত চার্লস রূপম। রূপমের বাসা থেকে যেসব স্থানে লাশের টুকরা ফেলে দেওয়া হয়েছে, সেসব স্থানের ক্লোজড সার্কিট ক্যামেরার (সিসি) ফুটেজ বিশ্লেষণ করে ও হেলালের মুঠোফোনের কল তালিকার সূত্র ধরে ডিবি চার্লসের স্ত্রী শাহিনা ও তার মাকে গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তারের পর তাঁরা হেলালউদ্দিনকে হত্যার কথা স্বীকার করেন।

ডিবির ওই কর্মকর্তা জানান, পুলিশের কাছে ও আদালতে দেওয়া জবানবন্দিতে শাহীনা ও তার মা জানান, হেলালের ব্যবসা ভালো চলছিল। রূপম হেলালকে খুন করে তার কাছ থেকে টাকা লুট করার ফন্দি আঁটেন। সেই পরিকল্পনা অনুযায়ী রোববার দুপুরে চার্লস রূপম একটি ফটোকপিয়ার মেশিন ৩৩ হাজার টাকায় হেলারের কাছে বিক্রি করবেন বলে তাঁকে তাঁর মোল্লারটেকের বাসায় ডেকে আনেন।

একপর্যায়ে সেখানে ঘুমের বড়িমিশ্রিত চা খাওয়ালে হেলাল অচেতন হয়ে পড়েন। এরপর চার্লস রূপম ও তার স্ত্রী ডিশ-সংযোগের তার গলায় পেঁচিয়ে হেলালকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেন। পরে লাশ বাথরুমে নিয়ে তিন টুকরা করেন। রাতে লাশের টুকরাগুলো বস্তায় ভরে তা গুম করতে পৃথক স্থানে ফেলে রাখেন। পরে রূপম তার শাশুড়ি রাশিদা আক্তারের পরামর্শে পালিয়ে যান। এখন হত্যাকাণ্ডের মূল পরিকল্পনাকারী রূপমকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চালাচ্ছে।

পূর্বপশ্চিমবিডি

Facebook Comments
Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» সোনারগাঁয়ে প্রধানমন্ত্রীর খাদ্য উপহার বিতরণ

» মণিরামপুরে ব্যক্তি উদ্যোগে কাঁচা রাস্তা সংস্কার

» করোনা মহামারীতে অসাধু ব্যবসায়ীরা শূন্য থেকে কোটিপতি ॥ ২০ টাকা জীবাণুনাশক   ১২০ ॥ নকল পণ্যের সয়লাব খোলা বাজার 

» স্বাস্থ্যখাতে দুর্নীতিবাজদের ধরতে অভিযান চলবে: দুদক চেয়ারম্যান

» বিমানের ফ্লাইট দুবাইতে ১৩ জুলাই, আবুধাবিতে ১৪ জুলাই থেকে

» পূজাকে কঙ্গনার পাল্টা জবাব

» বন্যা দুর্গত এলাকায় আশ্রয়কেন্দ্র হিসাবে স্কুল-কলেজ খুলে দেয়ার নির্দেশ

» শরীরে কালো ছোপ, বিপদের আশঙ্কা নয়তো?

» ট্রাম্পকে যে ‘কঠিন’ বার্তা দিলেন কিম জং উনের বোন

» শেখ হাসিনার চার দশকে আওয়ামী লীগের অধিকাংশ নেতাই চলে গেলেন পরপারে!

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, সাবেক ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন, উপশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ।

উপদেষ্টা – মাকসুদা লিসা।

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

 

 

 

 

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...

৩৩ হাজার টাকা লুট করতে ডিশ-সংযোগের তার গলায় পেঁচিয়ে ব্যবসায়ীকে হত্যা

রাজধানীর দক্ষিণখানের মোল্লারটেকের নিজ বাসায় ডেকে ব্যবসায়ী হেলালউদ্দিনকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে তাঁর কাছ থেকে ৩৩ হাজার টাকা লুট করেন চার্লস রূপম ও তার স্ত্রী শাহিনী আক্তার। পরে লাশ তিন টুকরা করে তা বস্তায় ভরে উত্তরার বিভিন্ন স্থানে ফেলে রাখেন তারা।

হেলাল হত্যায় গ্রেপ্তার হওয়া চার্লস রূপমের স্ত্রী শাহিনা আক্তার ওরফে মনি সরকার (১৮) ও তার শাশুড়ি রাশিদা আক্তার (৪৮) শুক্রবার (১৯ জুন) পুুলিশের কাছে ও আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে এসব তথ্য দিয়েছেন বলে পুলিশ জানিয়েছে।

বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে উত্তরার প্রেমবাগান ও আবদুল্লাপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের কাছ থেকে লুট করা ৩৩ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়েছে।

গত সোমবার পুলিশ দক্ষিণখানের হাজী মুক্তিযোদ্ধা রোডের কাঁচারাস্তার পাশ থেকে পুলিশ এক ব্যক্তির নাভি থেকে নিচ পর্যন্ত এক টুকরা, নাভি থেকে গলা পর্যন্ত আরেক টুকরা উদ্ধার করে। এই দুই টুকরাই বস্তায় ভরা ছিল। পরদিন গত মঙ্গলবার বিমানবন্দর থানার ঈরশাল কলোনি বটতলা পানির পাম্পের সামনের ডাস্টবিনের ভেতর থেকে খণ্ডিত মাথা উদ্ধার করে। লাশের তিন টুকরা মেলানোর পর লাশটি ব্যবসায়ী হেলালউদ্দিনের বলে তার বড় ভাই মো. হোজায়ফা শনাক্ত করেন। ওই ঘটনায় অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের আসামি করে দক্ষিণখান থানায় হত্যা মামলা করা হয়। থানা-পুলিশের পাশপাশি ডিবির উত্তর বিভাগ মামলার তদন্ত শুরু করে।

ডিবি পুলিশ জানায়, হেলালউদ্দিন দক্ষিণখান থানার জয়নাল মার্কেটের পাশে আরেকজনের সঙ্গে যৌথভাবে একটি কক্ষে ভাড়া থাকতেন। একই এলাকার মধ্য আজমপুরে ফ্ল্যাক্সিলোড ও বিকাশের এজেন্ট হিসেবে তিনি ব্যবসা করতেন। হেলাল অবিবাহিত ছিলেন। ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান থেকে গত রোববার রাতে বাসায় ফিরে না আসায় তাঁর রুমমেট আল আমিন ঘটনাটি হেলালের এক স্বজনকে মুঠোফোনে জানান।

মামলার তদন্ত তদারক কর্মকর্তা ডিবির উপকমিশনার (উত্তর) মশিউর রহমান বলেন, হেলালউদ্দিনের পূর্বপরিচিত চার্লস রূপম। রূপমের বাসা থেকে যেসব স্থানে লাশের টুকরা ফেলে দেওয়া হয়েছে, সেসব স্থানের ক্লোজড সার্কিট ক্যামেরার (সিসি) ফুটেজ বিশ্লেষণ করে ও হেলালের মুঠোফোনের কল তালিকার সূত্র ধরে ডিবি চার্লসের স্ত্রী শাহিনা ও তার মাকে গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তারের পর তাঁরা হেলালউদ্দিনকে হত্যার কথা স্বীকার করেন।

ডিবির ওই কর্মকর্তা জানান, পুলিশের কাছে ও আদালতে দেওয়া জবানবন্দিতে শাহীনা ও তার মা জানান, হেলালের ব্যবসা ভালো চলছিল। রূপম হেলালকে খুন করে তার কাছ থেকে টাকা লুট করার ফন্দি আঁটেন। সেই পরিকল্পনা অনুযায়ী রোববার দুপুরে চার্লস রূপম একটি ফটোকপিয়ার মেশিন ৩৩ হাজার টাকায় হেলারের কাছে বিক্রি করবেন বলে তাঁকে তাঁর মোল্লারটেকের বাসায় ডেকে আনেন।

একপর্যায়ে সেখানে ঘুমের বড়িমিশ্রিত চা খাওয়ালে হেলাল অচেতন হয়ে পড়েন। এরপর চার্লস রূপম ও তার স্ত্রী ডিশ-সংযোগের তার গলায় পেঁচিয়ে হেলালকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেন। পরে লাশ বাথরুমে নিয়ে তিন টুকরা করেন। রাতে লাশের টুকরাগুলো বস্তায় ভরে তা গুম করতে পৃথক স্থানে ফেলে রাখেন। পরে রূপম তার শাশুড়ি রাশিদা আক্তারের পরামর্শে পালিয়ে যান। এখন হত্যাকাণ্ডের মূল পরিকল্পনাকারী রূপমকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চালাচ্ছে।

পূর্বপশ্চিমবিডি

Facebook Comments
Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, সাবেক ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন, উপশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ।

উপদেষ্টা – মাকসুদা লিসা।

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

 

 

 

 

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Design & Developed BY ThemesBazar.Com