হায়দারাবাদ বিমানবন্দরে নিগৃহীত নায়িকা মেঘলা

বাংলাদেশে মডেলিংয়ের পরিচিত মুখ, উদীয়মান নায়িকা মেঘলা মুক্তা অভিনীত তেলেগু সিনেমা ‘সাকালা কালা ভাল্লাভুডু’ দেড়শ’টি প্রেক্ষাগৃহে একযোগে চলছে। সেখানকার দর্শক তাঁর অভিনয়ে অভিভূত হয়ে আনন্দে-বেদনায় একাকার। মেঘলায় বুদ হয়ে দর্শক যখন শিস দিতে দিতে বেরুচ্ছে সিনেমাহল থেকে তখন ভারতের হায়দরাবাদ বিমানবন্দরে হেনস্তার শিকার হচ্ছেন এই বাংলাদেশি নায়িকা! এয়ার ইন্ডিয়ার গ্রাউন্ড স্টাফের কাছে ভয়ংকর নিগ্রহের শিকার হয়ে দর্শক-সমালোচকের থেকে পাওয়া ভালোবাসা ম্লান হয়ে যাচ্ছে লহমায়।

দেশে ফিরে মেঘলা জানিয়েছেন, এটা আমার জীবনের ভয়ংকরতম এক অভিজ্ঞতা। পৃথিবীর আর কোনও যাত্রীই যেন আমার মতো নিগ্রহের শিকার না হন।

সেদিন কী ঘটেছিল জানতে চাইলে তিনি বলেন, দেখুন ভুল বলেন আর অন্যায় বলেন, কিছু একটা তো হয়েছেই। তবে সেই ভুলের জন্য যে এত বড় মূল্য আমাকে দিতে হবে সেটি কল্পনাও করিনি। ঘটনা সামান্য। আমার সাথে মালামাল ছিল ২৯ কেজি। নিয়ম অনুযায়ী এক কেজি মালামালের মূল্য আমাকে অতিরিক্ত পরিশোধ করতে হবে। তো, আমি ডলারে মূল্য পরিশোধ করতে চাইতেই ক্ষেপে ওঠে গ্রাউন্ড স্টাফ সুপারভাইজার কানিজ ফাতেমা। তিনি আমার সঙ্গে অশোভন আচরণ করতে থাকেন। তিনি ক্ষ্যাপাটেভাবে আমাকে অপমানজনক সুরে বলতে থাকেন যে, আমার বাসে চলাচল করা উচিত। ক্রেডিট কার্ড ছাড়া বিমানে উঠতে কে বলেছে?

মেঘলা আরও জানালেন, সেসময় এই বাজে ব্যবহারের জন্য কমপ্লেইন করার কথা বললে গ্রাউন্ড সুপারভাইজার হেসে উঠে আমাকে ভর্ৎসনা করে বলে যে, যা ইচ্ছা করতে পারি। অভিযোগ করে কোনও লাভ হবে না।

মেঘলা মুক্তা সেদিন এয়ার ইন্ডিয়ার AI780 নম্বর ফ্লাইটের যাত্রী ছিলেন। সেদিন বিমানবন্দরেই এয়ার ইন্ডিয়ার অভিযোগ ডেস্কে বিষয়টি জানান। দেশে ফিরে এর প্রতিকারের জন্য বিমানটির সদর দফতরে একটি লিখিত অভিযোগও করেন তথ্য-প্রমাণসহ।

এদিকে বিমানবন্দরে অনাকাঙ্ক্ষিত এই ঘটনার আগে দক্ষিণের দিনগুলো দারুণ রোমাঞ্চকর ছিলো মেঘলা মুক্তার। বললেন, এটা অপ্রকাশযোগ্য অনুভূতি। আমরা সাত দিনে অসংখ্য সিনেমা হলে ঘুরেছি পুরো টিম। সিনেমার প্রতি মানুষের যে টান দেখলাম, শিল্পীদের প্রতি দর্শকদের যে রেসপেক্ট, আতিথেয়তা- সেটি আসলে বলে বোঝানো যাবে না। মানে, কল্পনাই করা যায় না- একই অঞ্চলের অসংখ্য মানুষের ভালোবাসা নিয়ে ফেরার পথে একজন মহিলার (গ্রাউন্ড স্টাফ) কাছে এভাবে অপমানিত হবো।

তেলুগু ভাষায় নির্মিত মেঘলা অভিনীত ‘সাকালাকালা ভাল্লাবুড়ু’ ছবিটি পরিচালনা করেছেন শিবা গণেশ। মেঘলা এই ছবির গুরুত্বপূর্ণ নারী চরিত্রে অভিনয় করেছেন। তার চরিত্রের নাম চৈত্রা।

এ ছবিতে তার বিপরীতে নায়ক হিসেবে আছেন তানিষ্ক রেড্ডি। অন্যদিকে মেঘলার বাবার চরিত্রে আছেন তামিল ও তেলুগু ছবির জনপ্রিয় অভিনেতা সুমন তালওয়ার। যিনি রজনীকান্তের ‘শিবাজি’ ও অক্ষয় কুমারের ‘গাব্বার ইজ ব্যাক’-এ খল অভিনেতা ছিলেন।

নতুন সিনেমায় চুক্তির ব্যাপারে কথা বলার জন্য মার্চের প্রথম সপ্তাহে মেঘলা আবারও ভারতে যাচ্ছেন বলে জানিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, মেঘলা মুক্তা নিয়মিত মডেলিং ছাড়াও শাকিব খানের সঙ্গে যৌথ প্রযোজনার ছবি ‘নবাব’-এ অভিনয় করেছেন।

 

Facebook Comments
Share

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» রাসায়নিকের গুদাম না সরানো দুঃখজনক: প্রধানমন্ত্রী

» লিভার সিরোসিস কখন হয়?

» বয়স ‘কমাবে’ করলা!

» মালয়েশিয়ান তরুণীকে ছুরিকাঘাত, বাংলাদেশির ২০ বছরের জেল

» গাড়িতে গাড়িতে ‘গ্যাস বোমা’

» অভিনয়ে ফিরছেন তমালিকা

» অগ্নিকাণ্ডের ঝুঁকিতে ৪২২ হাসপাতাল

» পাঁচ হাজার ভয়ঙ্কর মৃত্যুকূপ জীবনের ঝুঁকি নিয়েই পুরান ঢাকায় মানুষের ঘরবসতি ব্যবসা-বাণিজ্য

» নারায়ণগঞ্জে আগুন, হুড়োহুড়িতে আহত ১০

» টেকনাফে শরণার্থী শিবিরে এক রোহিঙ্গা গুলিবিদ্ধ

উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ,

উপদেষ্টা -আবুল কালাম আজাদ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক

ঢাকা সাব-এডিটরস কাউন্সিল

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : শেখ মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদক মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

বার্তা সম্পাদক :এ.এইচ.এম.শাহ্জাহান

 

 

ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০,০১৯১১৪৯০৫০৫

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...
,

হায়দারাবাদ বিমানবন্দরে নিগৃহীত নায়িকা মেঘলা

বাংলাদেশে মডেলিংয়ের পরিচিত মুখ, উদীয়মান নায়িকা মেঘলা মুক্তা অভিনীত তেলেগু সিনেমা ‘সাকালা কালা ভাল্লাভুডু’ দেড়শ’টি প্রেক্ষাগৃহে একযোগে চলছে। সেখানকার দর্শক তাঁর অভিনয়ে অভিভূত হয়ে আনন্দে-বেদনায় একাকার। মেঘলায় বুদ হয়ে দর্শক যখন শিস দিতে দিতে বেরুচ্ছে সিনেমাহল থেকে তখন ভারতের হায়দরাবাদ বিমানবন্দরে হেনস্তার শিকার হচ্ছেন এই বাংলাদেশি নায়িকা! এয়ার ইন্ডিয়ার গ্রাউন্ড স্টাফের কাছে ভয়ংকর নিগ্রহের শিকার হয়ে দর্শক-সমালোচকের থেকে পাওয়া ভালোবাসা ম্লান হয়ে যাচ্ছে লহমায়।

দেশে ফিরে মেঘলা জানিয়েছেন, এটা আমার জীবনের ভয়ংকরতম এক অভিজ্ঞতা। পৃথিবীর আর কোনও যাত্রীই যেন আমার মতো নিগ্রহের শিকার না হন।

সেদিন কী ঘটেছিল জানতে চাইলে তিনি বলেন, দেখুন ভুল বলেন আর অন্যায় বলেন, কিছু একটা তো হয়েছেই। তবে সেই ভুলের জন্য যে এত বড় মূল্য আমাকে দিতে হবে সেটি কল্পনাও করিনি। ঘটনা সামান্য। আমার সাথে মালামাল ছিল ২৯ কেজি। নিয়ম অনুযায়ী এক কেজি মালামালের মূল্য আমাকে অতিরিক্ত পরিশোধ করতে হবে। তো, আমি ডলারে মূল্য পরিশোধ করতে চাইতেই ক্ষেপে ওঠে গ্রাউন্ড স্টাফ সুপারভাইজার কানিজ ফাতেমা। তিনি আমার সঙ্গে অশোভন আচরণ করতে থাকেন। তিনি ক্ষ্যাপাটেভাবে আমাকে অপমানজনক সুরে বলতে থাকেন যে, আমার বাসে চলাচল করা উচিত। ক্রেডিট কার্ড ছাড়া বিমানে উঠতে কে বলেছে?

মেঘলা আরও জানালেন, সেসময় এই বাজে ব্যবহারের জন্য কমপ্লেইন করার কথা বললে গ্রাউন্ড সুপারভাইজার হেসে উঠে আমাকে ভর্ৎসনা করে বলে যে, যা ইচ্ছা করতে পারি। অভিযোগ করে কোনও লাভ হবে না।

মেঘলা মুক্তা সেদিন এয়ার ইন্ডিয়ার AI780 নম্বর ফ্লাইটের যাত্রী ছিলেন। সেদিন বিমানবন্দরেই এয়ার ইন্ডিয়ার অভিযোগ ডেস্কে বিষয়টি জানান। দেশে ফিরে এর প্রতিকারের জন্য বিমানটির সদর দফতরে একটি লিখিত অভিযোগও করেন তথ্য-প্রমাণসহ।

এদিকে বিমানবন্দরে অনাকাঙ্ক্ষিত এই ঘটনার আগে দক্ষিণের দিনগুলো দারুণ রোমাঞ্চকর ছিলো মেঘলা মুক্তার। বললেন, এটা অপ্রকাশযোগ্য অনুভূতি। আমরা সাত দিনে অসংখ্য সিনেমা হলে ঘুরেছি পুরো টিম। সিনেমার প্রতি মানুষের যে টান দেখলাম, শিল্পীদের প্রতি দর্শকদের যে রেসপেক্ট, আতিথেয়তা- সেটি আসলে বলে বোঝানো যাবে না। মানে, কল্পনাই করা যায় না- একই অঞ্চলের অসংখ্য মানুষের ভালোবাসা নিয়ে ফেরার পথে একজন মহিলার (গ্রাউন্ড স্টাফ) কাছে এভাবে অপমানিত হবো।

তেলুগু ভাষায় নির্মিত মেঘলা অভিনীত ‘সাকালাকালা ভাল্লাবুড়ু’ ছবিটি পরিচালনা করেছেন শিবা গণেশ। মেঘলা এই ছবির গুরুত্বপূর্ণ নারী চরিত্রে অভিনয় করেছেন। তার চরিত্রের নাম চৈত্রা।

এ ছবিতে তার বিপরীতে নায়ক হিসেবে আছেন তানিষ্ক রেড্ডি। অন্যদিকে মেঘলার বাবার চরিত্রে আছেন তামিল ও তেলুগু ছবির জনপ্রিয় অভিনেতা সুমন তালওয়ার। যিনি রজনীকান্তের ‘শিবাজি’ ও অক্ষয় কুমারের ‘গাব্বার ইজ ব্যাক’-এ খল অভিনেতা ছিলেন।

নতুন সিনেমায় চুক্তির ব্যাপারে কথা বলার জন্য মার্চের প্রথম সপ্তাহে মেঘলা আবারও ভারতে যাচ্ছেন বলে জানিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, মেঘলা মুক্তা নিয়মিত মডেলিং ছাড়াও শাকিব খানের সঙ্গে যৌথ প্রযোজনার ছবি ‘নবাব’-এ অভিনয় করেছেন।

 

Facebook Comments
Share

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ,

উপদেষ্টা -আবুল কালাম আজাদ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক

ঢাকা সাব-এডিটরস কাউন্সিল

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : শেখ মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদক মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

বার্তা সম্পাদক :এ.এইচ.এম.শাহ্জাহান

 

 

ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০,০১৯১১৪৯০৫০৫

Design & Developed BY ThemesBazar.Com