বেশিরভাগ এটিএম বুথে নেই হ্যান্ড স্যানিটাইজারের ব্যবস্থা

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সারাদেশেই সাধারণ ছুটি ঘোষণা করেছে সরকার। প্রাথমিকভাবে ১০দিনের ছুটি ঘোষণা করা হলেও পরিস্থিতি বিবেচনায় বাড়তে পারে ছুটির পরিমাণ। এ সময়ে সীমিত আকারে লেনদেন চালু থাকলেও বন্ধ থাকবে বেশিরভাগ ব্যাংকের বিভিন্ন শাখা। তাই নগদ টাকার জন্য সাধারণ মানুষকে নির্ভর করতে হবে এটিএম বুথের ওপর। তাছাড়া ঝুঁকি এড়াতেও অনেকের পছন্দ এটিএম বুথ।

এ পরিস্থিতিতে যেকোনও অবস্থায় ব্যাংকিং সেবা চালুর রাখার নির্দেশনা দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এটিএম বুথে পর্যাপ্ত টাকার রাখার পাশাপাশি জীবানুনাশক হ্যান্ড স্যানিটাইজার রাখার কথা বলা হয়েছে প্রতিটি বুথে। কিন্তু নির্দেশনা যথাযথভাবে পরিপালন হচ্ছে না।

হাতে গোনা কয়েকটি বাদে বেশিরভাগ ব্যাংকের এটিএম বুথে হ্যান্ড স্যানিটাইজারের ব্যবস্থা রাখা হয়নি। জীবাণুনাশক করার উপকরণও নেই অনেক বুথে। ফলে গ্রাহকের পাশাপাশি বুথগুলোর নিরাপত্তাকর্মীরাও ঝুঁকিতে রয়েছেন। রাজধানীর বেশ কয়েকটি ব্যাংকের এটিএম বুথে সরেজমিনে গিয়ে এই চিত্র পাওয়া গেছে। বর্তমানে প্রায় সব ব্যাংকেরই এটিএম বুথ সেবা রয়েছে।

গত ১৯ মার্চ বাংলাদেশ ব্যাংকের পেমেন্ট সিস্টেম বিভাগ থেকে একটি সার্কুলার জারি করা হয়। ওই সার্কুলারে বলা হয়, ব্যাংক, এটিএম, পস ও এজেন্ট পয়েন্টসমূহ নিয়মিতভাবে জীবাণুমুক্ত ও তদস্থলে হ্যান্ড স্যানিটাইজার রাখার ব্যবস্থা রাখতে হবে। ব্যাংকিং ও পরিশোধ সেবা প্রদানকারী ও গ্রহণকারী সংশ্লিষ্ট সকলের জন্য বাংলাদেশ সরকারের ঘোষিত স্বাস্থ্যবিধি পরিপালন নিশ্চিত করতে হবে।

জানা গেছে, করোনোর সংক্রমোন প্রতিরোধে ব্যাংকিং কার্যক্রমও সীমিত করা হয়েছে। ব্যাংকিং লেনদেনের সময়সীমা ৬ ঘণ্টা থেকে কমিয়ে ২ ঘণ্টায় নামিয়ে আনা হয়েছে। ফলে এখন নগদ টাকার একমাত্র ভরসা এটিএম বুথ। কিন্তু এটিএম বুথগুলো জীবাণুনাশক করার উদ্যোগ গ্রহন করেনি বেশিরভাগ ব্যাংক। গ্রাহকের সুবিধার্থে রাখা হয়নি হ্যান্ড স্যানিটাইজারও।

বাসাবো সিনেমা হলে নিচে বেসরকারি ওয়ান ব্যাংকের এটিএম বুথ। ওই বুথের নিরাপত্তা প্রহরী দেলোয়ার বলেন, হ্যান্ড স্যানিটাইজার বা বুথ পরিস্কার করার কিছুই দেওয়া নেই। কেবল একজোড়া হাতমোজা দেওয়া হয়েছে। এটা না দিলেও কি করতাম। তাই নিজের টাকায় মাস্ক কিনেছি।

এ বুথের বিপরীত পাশে মার্কেন্টাইল ব্যাংকের এটিএম বুথ। বুথে দায়িত্বরত নিরাপত্তা প্রহরী আইনুল বলেন, বুথ জীবাণুনাশক করার জন্য কিছুই সরবরাহ করা হয়নি। মানুষ বুথে এসে হ্যান্ড স্যানিটাইজার চায়, কিন্তু আমি দিতে পারি না। ওই বুথে শনিবার সন্ধ্যায় টাকা তুলেন উত্তরা ব্যাংকের কর্মকর্তা আলামিন হোসেন। জানতে চাইলে তিনি কালের কণ্ঠকে বলেন, বেশিরভাগ এটিএম বুথে একই অবস্থা। হ্যান্ড স্যানিটাইজারের কোন ব্যবস্থাই নেই। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতিতে এটা রাখা জরুরি ছিল। নিরাপত্তার স্বার্থে আমি গ্লাভস পড়েই বুথ থেকে টাকা তুললাম।

সম্প্রতি মাদারটেক খোলা হয়েছে সাউথইস্ট ব্যাংকের একটি উপশাখা। ওই উপশাখা ঘেঁষেই রয়েছে ব্যাংকটির একটি এটিএম বুথ। ওই বুথের নিরাপত্তা প্রহরী আজিম বলেন, ব্যাংক থেকে ফ্লোর ওয়াশ করার উপকরণ দেয়া হয়েছে। তবে হ্যান্ড স্যানিটাইজার দেওয়া হয়নি।

এছাড়া এনসিসি, ডাচ্ বাংলা, ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ, ব্রাক, মিউচুয়াল ট্রাস্ট, এনআরবি গ্লোবালসহ আরও কিছু ব্যাংকের এটিএম বুথে গিয়েও একই চিত্র দেখা গেছে।

জানতে চাইলে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মো. সিরাজুল ইসলাম বলেন, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে ব্যাংকের শাখার পাশাপাশি এটিএম বুথও জীবাণুমুক্ত রাখা এবং হ্যান্ড স্যানিটাইজারের ব্যবস্থা রাখার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। তাই এটা পরিপালন করা তাদের দায়িত্বের মধ্যে পড়ে। যদি আমাদের নির্দেশনার ব্যর্তয় ঘটে, তাহলে অবশ্যই বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।পূর্বপশ্চিমবিডি

Facebook Comments
Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» ঘরে বসেই কাজ চালাচ্ছেন দীপিকা

» ১০৩ বছর বয়সে করোনাকে হারিয়ে বিয়ারে চুমুক বৃদ্ধার

» গণপরিবহনে শৃঙ্খলায় থাকবে পুলিশের ক্রাইম-ট্রাফিক টিম

» ডিসেম্বরের আগেই বাজারে আসছে চীনা-ভ্যাকসিন

» করোনায় মৃত বিএনপি নেতার লাশ দাফন করলো ছাত্রলীগ

» সাংবাদিক মিজানুরের পরিবারের পাশে আইজিপি

» লালমনিরহাটে বাড়ির ভিতর অদৃশ্য আগুন, পুড়ে যাচ্ছে সব, আতংকে গৃহস্থ

» রাজাপুরে র‌্যাবের হাতে মা-মেয়ে গ্রেফতার

» রাজাপুরে পুলিশের এসআইর হাত কেটে জখম করে দিলো মাদক ব্যবসায়ীরা, উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় প্রেরণ, ৪ আসামী মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

» লিবিয়ায় ২৬ বাংলাদেশিকে হত্যা মাদারীপুরের ১৬ জনের মধ্যে ১১ জন নিখোঁজ, মৃত-১, আটক-১ দালাল

 

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, সাবেক ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন, উপশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ।

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

বিশেষ প্রতিনিধি:মাকসুদা লিসা

 

 

 

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...

বেশিরভাগ এটিএম বুথে নেই হ্যান্ড স্যানিটাইজারের ব্যবস্থা

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সারাদেশেই সাধারণ ছুটি ঘোষণা করেছে সরকার। প্রাথমিকভাবে ১০দিনের ছুটি ঘোষণা করা হলেও পরিস্থিতি বিবেচনায় বাড়তে পারে ছুটির পরিমাণ। এ সময়ে সীমিত আকারে লেনদেন চালু থাকলেও বন্ধ থাকবে বেশিরভাগ ব্যাংকের বিভিন্ন শাখা। তাই নগদ টাকার জন্য সাধারণ মানুষকে নির্ভর করতে হবে এটিএম বুথের ওপর। তাছাড়া ঝুঁকি এড়াতেও অনেকের পছন্দ এটিএম বুথ।

এ পরিস্থিতিতে যেকোনও অবস্থায় ব্যাংকিং সেবা চালুর রাখার নির্দেশনা দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এটিএম বুথে পর্যাপ্ত টাকার রাখার পাশাপাশি জীবানুনাশক হ্যান্ড স্যানিটাইজার রাখার কথা বলা হয়েছে প্রতিটি বুথে। কিন্তু নির্দেশনা যথাযথভাবে পরিপালন হচ্ছে না।

হাতে গোনা কয়েকটি বাদে বেশিরভাগ ব্যাংকের এটিএম বুথে হ্যান্ড স্যানিটাইজারের ব্যবস্থা রাখা হয়নি। জীবাণুনাশক করার উপকরণও নেই অনেক বুথে। ফলে গ্রাহকের পাশাপাশি বুথগুলোর নিরাপত্তাকর্মীরাও ঝুঁকিতে রয়েছেন। রাজধানীর বেশ কয়েকটি ব্যাংকের এটিএম বুথে সরেজমিনে গিয়ে এই চিত্র পাওয়া গেছে। বর্তমানে প্রায় সব ব্যাংকেরই এটিএম বুথ সেবা রয়েছে।

গত ১৯ মার্চ বাংলাদেশ ব্যাংকের পেমেন্ট সিস্টেম বিভাগ থেকে একটি সার্কুলার জারি করা হয়। ওই সার্কুলারে বলা হয়, ব্যাংক, এটিএম, পস ও এজেন্ট পয়েন্টসমূহ নিয়মিতভাবে জীবাণুমুক্ত ও তদস্থলে হ্যান্ড স্যানিটাইজার রাখার ব্যবস্থা রাখতে হবে। ব্যাংকিং ও পরিশোধ সেবা প্রদানকারী ও গ্রহণকারী সংশ্লিষ্ট সকলের জন্য বাংলাদেশ সরকারের ঘোষিত স্বাস্থ্যবিধি পরিপালন নিশ্চিত করতে হবে।

জানা গেছে, করোনোর সংক্রমোন প্রতিরোধে ব্যাংকিং কার্যক্রমও সীমিত করা হয়েছে। ব্যাংকিং লেনদেনের সময়সীমা ৬ ঘণ্টা থেকে কমিয়ে ২ ঘণ্টায় নামিয়ে আনা হয়েছে। ফলে এখন নগদ টাকার একমাত্র ভরসা এটিএম বুথ। কিন্তু এটিএম বুথগুলো জীবাণুনাশক করার উদ্যোগ গ্রহন করেনি বেশিরভাগ ব্যাংক। গ্রাহকের সুবিধার্থে রাখা হয়নি হ্যান্ড স্যানিটাইজারও।

বাসাবো সিনেমা হলে নিচে বেসরকারি ওয়ান ব্যাংকের এটিএম বুথ। ওই বুথের নিরাপত্তা প্রহরী দেলোয়ার বলেন, হ্যান্ড স্যানিটাইজার বা বুথ পরিস্কার করার কিছুই দেওয়া নেই। কেবল একজোড়া হাতমোজা দেওয়া হয়েছে। এটা না দিলেও কি করতাম। তাই নিজের টাকায় মাস্ক কিনেছি।

এ বুথের বিপরীত পাশে মার্কেন্টাইল ব্যাংকের এটিএম বুথ। বুথে দায়িত্বরত নিরাপত্তা প্রহরী আইনুল বলেন, বুথ জীবাণুনাশক করার জন্য কিছুই সরবরাহ করা হয়নি। মানুষ বুথে এসে হ্যান্ড স্যানিটাইজার চায়, কিন্তু আমি দিতে পারি না। ওই বুথে শনিবার সন্ধ্যায় টাকা তুলেন উত্তরা ব্যাংকের কর্মকর্তা আলামিন হোসেন। জানতে চাইলে তিনি কালের কণ্ঠকে বলেন, বেশিরভাগ এটিএম বুথে একই অবস্থা। হ্যান্ড স্যানিটাইজারের কোন ব্যবস্থাই নেই। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতিতে এটা রাখা জরুরি ছিল। নিরাপত্তার স্বার্থে আমি গ্লাভস পড়েই বুথ থেকে টাকা তুললাম।

সম্প্রতি মাদারটেক খোলা হয়েছে সাউথইস্ট ব্যাংকের একটি উপশাখা। ওই উপশাখা ঘেঁষেই রয়েছে ব্যাংকটির একটি এটিএম বুথ। ওই বুথের নিরাপত্তা প্রহরী আজিম বলেন, ব্যাংক থেকে ফ্লোর ওয়াশ করার উপকরণ দেয়া হয়েছে। তবে হ্যান্ড স্যানিটাইজার দেওয়া হয়নি।

এছাড়া এনসিসি, ডাচ্ বাংলা, ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ, ব্রাক, মিউচুয়াল ট্রাস্ট, এনআরবি গ্লোবালসহ আরও কিছু ব্যাংকের এটিএম বুথে গিয়েও একই চিত্র দেখা গেছে।

জানতে চাইলে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মো. সিরাজুল ইসলাম বলেন, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে ব্যাংকের শাখার পাশাপাশি এটিএম বুথও জীবাণুমুক্ত রাখা এবং হ্যান্ড স্যানিটাইজারের ব্যবস্থা রাখার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। তাই এটা পরিপালন করা তাদের দায়িত্বের মধ্যে পড়ে। যদি আমাদের নির্দেশনার ব্যর্তয় ঘটে, তাহলে অবশ্যই বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।পূর্বপশ্চিমবিডি

Facebook Comments
Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



 

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, সাবেক ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন, উপশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ।

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

বিশেষ প্রতিনিধি:মাকসুদা লিসা

 

 

 

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Design & Developed BY ThemesBazar.Com