বাংলাতে ইংলিশদের ক্ষেপাতেন তামিমরা

২০১৬ সালে বাংলাদেশ সফরে এসেছিল ইংল্যান্ড। সেবার ওয়ানডে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচ শেষে হ্যান্ডশেক ঝগড়া বেঁধে গিয়েছিল দুই ক্রিকেটার তামিম ইকবাল ও বেন স্টোকসের মাঝে। সেই প্রসঙ্গে ইংরিশদের স্লেজিংয়ের বিষয়টি তামিম তুলে ধরেছেন, কীভাবে ইংলিশদের ক্ষেপিয়ে দিতেন তিনি।

বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের মধ্যে স্লেজিংয়ের প্রবণতা কম। প্রতিপক্ষদের মানসিক দুর্বল করতে একটু আধটু যা স্লেজিং করা হয় তার বেশিরভাগই তামিমের মাধ্যমে। সেই স্লেজিং প্রসঙ্গে ‘নট আউট নোমান’ অনুষ্ঠানে তামিম জানান, কীভাবে ইংলিশদের মেজাজ বিগড়ে দিতেন তারা।

‘ইংল্যান্ডের কাছে প্রথম ওয়ানডেতে আমরা হারি। আমাদের তরুণ ক্রিকেটারদের তারা বেশ স্লেজিং করছিল। দ্বিতীয় ম্যাচের আগে আমি ঠিক করে নিয়েছিলাম, যাই হোক আজ আমি স্লেজিং করব।’- বলেন তামিম।

তামিম জানতে পারেন, ইংলিশরা ক্ষেপে যান তখনই- যখন প্রতিপক্ষ নিজেদের ভাষায় কথা বলে দল বেঁধে হাসাহাসি করেন। সেই উপায়ই মাঠে অবলম্বন করেছিলেন।

তামিম বলেন, ‘৫-৬ জন সতীর্থকে বলে রেখেছিলাম- আমি যাই বলি না কেন তোরা শুধু হাসবি। যে ব্যাটসম্যান ক্রিজে আসে, আমি একটা কথা বলি আর পাঁচজন মিলে হাসে। এতে ওদের মাথা খারাপ হয়ে যায়।’

তামিম জানান, ঐ ম্যাচে স্টোকসের সাথে বিতণ্ডার সূত্রপাত জনি বেয়ারস্টোর মাধ্যমে। তিনি বলেন, ‘ম্যাচ শেষে হ্যান্ডশেক করার সময় বেয়ারস্টো আমার হাত চিপ দিয়ে ধরে মুচড়ে দেওয়ার চেষ্টা করে। আমি প্রতিবাদ জানিয়ে বললাম- এটা কী করছ? তখন স্টোকস আসলে কথা কাটাকাটি জয়। ভ্যক্তিগতভাবে স্টোকসের সাথে কিছু হয়নি।’

Facebook Comments
Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» ইসলামপুরে বন্যায় পানিবন্দি ২ লাখ মানুষ: সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন

» খুবই চতুর, ধুরন্ধর ও অর্থলিপ্সু সাহেদ : র‌্যাব ডিজি

» ‘নিত্য দিনের জীবনযাপন’

» ‘গণপরিবহন নয়, পণ্য পরিবহন বন্ধ থাকবে’

» নেতিবাচক প্রতিবেদন আসা অনলাইন পোর্টাল প্রয়োজনে বন্ধ : তথ্যমন্ত্রী

» ৭ দিনের মধ্যে ওয়েব সিরিজের আপত্তিকর দৃশ্য সরানোর নির্দেশ

» ইন্দোনেশিয়ায় বন্যা-ভূমিধসে ১৬ মৃত্যু, নিখোঁজ ২৩

» সীমান্তে ৫১ ভরি স্বর্ণসহ নারী আটক

» নতুন আঙ্গিকে বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মসূচি শুরু হচ্ছে ঢাকা দক্ষিণে

» প্রেমিকার জন্য কবিতা লিখে ট্রলের শিকার দেব

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, সাবেক ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন, উপশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ।

উপদেষ্টা – মাকসুদা লিসা।

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

 

 

 

 

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...

বাংলাতে ইংলিশদের ক্ষেপাতেন তামিমরা

২০১৬ সালে বাংলাদেশ সফরে এসেছিল ইংল্যান্ড। সেবার ওয়ানডে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচ শেষে হ্যান্ডশেক ঝগড়া বেঁধে গিয়েছিল দুই ক্রিকেটার তামিম ইকবাল ও বেন স্টোকসের মাঝে। সেই প্রসঙ্গে ইংরিশদের স্লেজিংয়ের বিষয়টি তামিম তুলে ধরেছেন, কীভাবে ইংলিশদের ক্ষেপিয়ে দিতেন তিনি।

বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের মধ্যে স্লেজিংয়ের প্রবণতা কম। প্রতিপক্ষদের মানসিক দুর্বল করতে একটু আধটু যা স্লেজিং করা হয় তার বেশিরভাগই তামিমের মাধ্যমে। সেই স্লেজিং প্রসঙ্গে ‘নট আউট নোমান’ অনুষ্ঠানে তামিম জানান, কীভাবে ইংলিশদের মেজাজ বিগড়ে দিতেন তারা।

‘ইংল্যান্ডের কাছে প্রথম ওয়ানডেতে আমরা হারি। আমাদের তরুণ ক্রিকেটারদের তারা বেশ স্লেজিং করছিল। দ্বিতীয় ম্যাচের আগে আমি ঠিক করে নিয়েছিলাম, যাই হোক আজ আমি স্লেজিং করব।’- বলেন তামিম।

তামিম জানতে পারেন, ইংলিশরা ক্ষেপে যান তখনই- যখন প্রতিপক্ষ নিজেদের ভাষায় কথা বলে দল বেঁধে হাসাহাসি করেন। সেই উপায়ই মাঠে অবলম্বন করেছিলেন।

তামিম বলেন, ‘৫-৬ জন সতীর্থকে বলে রেখেছিলাম- আমি যাই বলি না কেন তোরা শুধু হাসবি। যে ব্যাটসম্যান ক্রিজে আসে, আমি একটা কথা বলি আর পাঁচজন মিলে হাসে। এতে ওদের মাথা খারাপ হয়ে যায়।’

তামিম জানান, ঐ ম্যাচে স্টোকসের সাথে বিতণ্ডার সূত্রপাত জনি বেয়ারস্টোর মাধ্যমে। তিনি বলেন, ‘ম্যাচ শেষে হ্যান্ডশেক করার সময় বেয়ারস্টো আমার হাত চিপ দিয়ে ধরে মুচড়ে দেওয়ার চেষ্টা করে। আমি প্রতিবাদ জানিয়ে বললাম- এটা কী করছ? তখন স্টোকস আসলে কথা কাটাকাটি জয়। ভ্যক্তিগতভাবে স্টোকসের সাথে কিছু হয়নি।’

Facebook Comments
Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, সাবেক ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন, উপশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ।

উপদেষ্টা – মাকসুদা লিসা।

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

 

 

 

 

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Design & Developed BY ThemesBazar.Com