প্লে স্টো‌রে ভুয়া অ‌্যাপস থে‌কে সাবধান

স্মার্টফোনে অ্যাপ্লিকেশন ছাড়া কাজ করা যায় না। সবার স্মার্টফোনেই বিভিন্ন ধরনের অ্যাপ্লিকেশন রয়েছে, যেগুলো আমাদের রোজকার জীবনে একটা গুরুত্বপূর্ণ অংশ হয়ে উঠেছে। বেশিরভাগ অ্যাপই গুগল প্লে স্টোর বা অ্যাপল অ্যাপ স্টোর থেকে বিনামূল্যে ডাউনলোড করা যায়। কিন্তু এই সমস্ত অ্যাপ যে খুব সুরক্ষিত তা নিশ্চিতভাবে বলা যায় না! এমনিতে প্রায়ই ভুয়া অ্যাপ বা ম্যালিশিয়াস অ্যাপের কথা আমাদের সামনে আসে।

শুধু তাই নয় নানা অ্যাপ্লিকেশন, ইউজারের ব্যক্তিগত তথ্য এমনকি ব্যাংকিং ডিটেইলস চুরি করে এমন কথাও বিভিন্ন সময়ে শোনা যায়। গুগল এই ধরনের ভুয়া অ্যাপ্লিকেশনগুলো চিহ্নিত করতে এবং প্লে স্টোর থেকে সেগুলোকে সরাতে বেশ কয়েকটি সিকিউরিটি চেক সিস্টেম যুক্ত করেছে। কিন্তু, অনেক সময়েই বিভিন্ন ইমপ্লাস্টার অ্যাপ, গুগলের সিকিউরিটি সিস্টেমকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে নিজের কার্যসিদ্ধি করে।

সাধারণত এই অ্যাপগুলো আপনার ফোনের স্টোরেজ, ক্যামেরা, লোকেশন ইত্যাদিতে অ্যাক্সেস অর্জন করে এবং কিছু বিরক্তিকর ব্যানার বা ঘন ঘন বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করে। এখন প্রশ্ন হচ্ছে এই ধরনের অ্যাপগুলো থেকে কীভাবে সতর্ক থাকা যায় অর্থাৎ কীভাবে ভুয়া অ্যাপ চেনা যায়? এক্ষেত্রে আপনি সহজ কয়েকটি টিপস মনে রাখলে ভুয়া অ্যাপ্লিকেশন চিনতে বেশ কিছুটা সুবিধা হতে পারে।

 

প্লে স্টোরে কোনো অ্যাপ্লিকেশন সার্চ করার সময় একই নাম যুক্ত একাধিক অ্যাপ দেখতে পেতে পারেন। কিন্তু এগুলোর ডিটেইলস বা ডেসক্রিপশন থেকে আপনি পার্থক্য বুঝতে পারবেন। অনেক সময়ে এগুলোর বর্ণনায় বানান ভুল থাকে।

কোনো অ্যাপ ডাউনলোড করার আগে অবশ্যই দেখে নেবেন সেই অ্যাপ্লিকেশনের রিভিউ এবং রেটিং কেমন।

 

জনপ্রিয় অ্যাপ্লিকেশনগুলোর ডাউনলোডের গণনা অবশ্যই বেশি হবে। যদি কোনো অ্যাপ্লিকেশন ৫,০০০ বা তারও কমবার ডাউনলোড হয়, তবে সেটি নকল অ্যাপ হতে পারে।

 

অ্যাপ্লিকেশন সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়ার আরেকটি উপায় হল অ্যাপের বর্ণনায় দেওয়া স্ক্রিনশটগুলো পরীক্ষা করা। জাল অ্যাপ্লিকেশনের ক্ষেত্রে স্ক্রিনশটগুলোতে অদ্ভুত শব্দ এবং অদ্ভুত ফটো থাকতে পারে।

 

অ্যাপ প্রকাশের এবং আপডেটের তারিখগুলো দেখবেন, কারণ আসল অ্যাপ্লিকেশনে সবসময় তারিখ “আপডেটেড” থাকে।

 

সবশেষে, যে বিষয়টি খেয়াল করবেন তা হল অ্যাপ পারমিশন। কোনো অ্যাপ্লিকেশন ইন্সটল করলে সাধারণত সেটি ফোনবুক, ডায়লার এবং লোকেশন অনুমতি প্রয়োজন হবে। তবে যদি সেটি ক্যামেরা, অডিও, স্টোরেজ এবং আরও কিছু পারমিশন চাইতে থাকে, তবে অবশ্যই সেই অ্যাপ্লিকেশন সম্পর্কে খতিয়ে দেখবেন। সূএ:ঢাকাটাইমস

Facebook Comments
Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» প্রবাসীদের সৌদি ফেরাতে বিমানের ১২ বিশেষ ফ্লাইট

» ড্রাইভার মালেকের স্বাস্থ্য ও প্রেসিডেন্ট নিক্সনের ওয়াটারগেট

» কাঁঠালবাড়ি-শিমুলিয়া নৌ-রুটে তলা ফেটে লঞ্চ বিকল

» হাজার হাজার মসজিদ ধ্বংসের অভিযোগ নিয়ে যা বলল চীন

» মাহবুবে আলমের মৃত্যুতে ওবায়দুল কাদেরের শোক

» বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে বিচার বিভাগকে অবরুদ্ধ করা হয়েছিল: আইনমন্ত্রী

» রাষ্ট্রপতির সঙ্গে ভারতের হাই কমিশনারের বিদায়ী সাক্ষাৎ

» শেখ হাসিনার জন্ম না হলে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বাস্তবায়ন অসম্ভব হতো

» অনলাইন নিউজ পোর্টালের নিবন্ধন দ্রুত শেষ করতে তাগিদ

» লুডু খেলায় প্রতারণার অভিযোগে বাবার বিরুদ্ধে মেয়ের মামলা

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা – মাকসুদা লিসা।

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

 

 

 

 

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...

প্লে স্টো‌রে ভুয়া অ‌্যাপস থে‌কে সাবধান

স্মার্টফোনে অ্যাপ্লিকেশন ছাড়া কাজ করা যায় না। সবার স্মার্টফোনেই বিভিন্ন ধরনের অ্যাপ্লিকেশন রয়েছে, যেগুলো আমাদের রোজকার জীবনে একটা গুরুত্বপূর্ণ অংশ হয়ে উঠেছে। বেশিরভাগ অ্যাপই গুগল প্লে স্টোর বা অ্যাপল অ্যাপ স্টোর থেকে বিনামূল্যে ডাউনলোড করা যায়। কিন্তু এই সমস্ত অ্যাপ যে খুব সুরক্ষিত তা নিশ্চিতভাবে বলা যায় না! এমনিতে প্রায়ই ভুয়া অ্যাপ বা ম্যালিশিয়াস অ্যাপের কথা আমাদের সামনে আসে।

শুধু তাই নয় নানা অ্যাপ্লিকেশন, ইউজারের ব্যক্তিগত তথ্য এমনকি ব্যাংকিং ডিটেইলস চুরি করে এমন কথাও বিভিন্ন সময়ে শোনা যায়। গুগল এই ধরনের ভুয়া অ্যাপ্লিকেশনগুলো চিহ্নিত করতে এবং প্লে স্টোর থেকে সেগুলোকে সরাতে বেশ কয়েকটি সিকিউরিটি চেক সিস্টেম যুক্ত করেছে। কিন্তু, অনেক সময়েই বিভিন্ন ইমপ্লাস্টার অ্যাপ, গুগলের সিকিউরিটি সিস্টেমকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে নিজের কার্যসিদ্ধি করে।

সাধারণত এই অ্যাপগুলো আপনার ফোনের স্টোরেজ, ক্যামেরা, লোকেশন ইত্যাদিতে অ্যাক্সেস অর্জন করে এবং কিছু বিরক্তিকর ব্যানার বা ঘন ঘন বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করে। এখন প্রশ্ন হচ্ছে এই ধরনের অ্যাপগুলো থেকে কীভাবে সতর্ক থাকা যায় অর্থাৎ কীভাবে ভুয়া অ্যাপ চেনা যায়? এক্ষেত্রে আপনি সহজ কয়েকটি টিপস মনে রাখলে ভুয়া অ্যাপ্লিকেশন চিনতে বেশ কিছুটা সুবিধা হতে পারে।

 

প্লে স্টোরে কোনো অ্যাপ্লিকেশন সার্চ করার সময় একই নাম যুক্ত একাধিক অ্যাপ দেখতে পেতে পারেন। কিন্তু এগুলোর ডিটেইলস বা ডেসক্রিপশন থেকে আপনি পার্থক্য বুঝতে পারবেন। অনেক সময়ে এগুলোর বর্ণনায় বানান ভুল থাকে।

কোনো অ্যাপ ডাউনলোড করার আগে অবশ্যই দেখে নেবেন সেই অ্যাপ্লিকেশনের রিভিউ এবং রেটিং কেমন।

 

জনপ্রিয় অ্যাপ্লিকেশনগুলোর ডাউনলোডের গণনা অবশ্যই বেশি হবে। যদি কোনো অ্যাপ্লিকেশন ৫,০০০ বা তারও কমবার ডাউনলোড হয়, তবে সেটি নকল অ্যাপ হতে পারে।

 

অ্যাপ্লিকেশন সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়ার আরেকটি উপায় হল অ্যাপের বর্ণনায় দেওয়া স্ক্রিনশটগুলো পরীক্ষা করা। জাল অ্যাপ্লিকেশনের ক্ষেত্রে স্ক্রিনশটগুলোতে অদ্ভুত শব্দ এবং অদ্ভুত ফটো থাকতে পারে।

 

অ্যাপ প্রকাশের এবং আপডেটের তারিখগুলো দেখবেন, কারণ আসল অ্যাপ্লিকেশনে সবসময় তারিখ “আপডেটেড” থাকে।

 

সবশেষে, যে বিষয়টি খেয়াল করবেন তা হল অ্যাপ পারমিশন। কোনো অ্যাপ্লিকেশন ইন্সটল করলে সাধারণত সেটি ফোনবুক, ডায়লার এবং লোকেশন অনুমতি প্রয়োজন হবে। তবে যদি সেটি ক্যামেরা, অডিও, স্টোরেজ এবং আরও কিছু পারমিশন চাইতে থাকে, তবে অবশ্যই সেই অ্যাপ্লিকেশন সম্পর্কে খতিয়ে দেখবেন। সূএ:ঢাকাটাইমস

Facebook Comments
Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা – মাকসুদা লিসা।

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

 

 

 

 

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Design & Developed BY ThemesBazar.Com