নীলিমা আসবে নীল শাড়িতে…

নীলিমার সাথে পরিচয় আমার লেখালেখির শুরুতে। তখন আমি সবে লিখালিখি শুরু করি। এক হিসেবে নীলিমা আমার ফেসবুকে বন্ধু হিসেবে পরিচিত ছিল।নীলিমা প্রথমে আমার পাঠিকা ছিলো। তারপর ধীরে ধীরে মেয়েটি আমার বন্ধুত্বে পরিণত হয়। নীলিমা একটু দুষ্টু টাইপের ছিলো। সব সময়ই মজা করতো।নীলিমার  সাথে প্রতিদিনই টুকটাক মেসেজ হতো। ওর মিষ্টি টোল পড়া হাসি আর দুষ্টুমি গুলোই আমার ভিতরটাকে আঁকড়ে ধরেছে। আমার স্বপ্নে মহারানীর রূপ নিয়ে আসছে। রাতের ঘুম কেড়ে নিয়েছে।আমাকে ভালোবাসতে শিখিয়েছে।.
 
 
এই সপ্তাহের শুক্রবার ওর সাথে দেখা করার কথা। ভাবতেই ঠোঁটের কোনার হাসির রেখা ফুটে উঠে। বড্ড বেশিই ভালোবাসি দুষ্টু নীলিমাকে। বিদাতা কি যে এক মায়া দিয়ে ওকে সৃষ্টি করেছে। তা কেবল তিনিই ভালো যানে৷.
 
এই বছর কেবল ইন্টার সেকেন্ড ইয়ারে পড়ে।নীলিমাকে কখনো আমি নিজ চোখে দেখিনি। ও দেখতে কেমন? ওর হাসি কেমন? ও হাসলে ওর গালে টোল পড়ে কিনা? কিছুই জানা ছিলনা। তবে সবসময় নীল রঙের শাড়ি বেশি পড়তো পরে আমি জানতে পেরেছি ওর খুব পছন্দ ছিলো নীল শাড়ি। ওকে বলেছিলাম যেদিন আমরা দেখা করবো ও যেনো নীল শাড়ি পড়ে আমার সামনে আসে। আর আমি বলেছিলাম আমি নীল পাঞ্জাবি পড়ে আসবো। মনে মনে ভাবলাম বেশ ভালোই মানাবে দুজনকে তাই না?
 
 
অপেক্ষা করতে করতে শুক্রবার চলে এলো। সকাল বেলা চায়ের কাপ নিয়ে সোফায় উপর বসে আছি। অনেকক্ষণ ধরে নীলিমাকে ফোন দিয়ে যাচ্ছি। ওর ফোন বন্ধ ছিল। টিভিটা অন করতেই চোখের সামনে একটা ব্রেকিং নিউজ ভেসে আসে। গতকাল রাতে কিছু বখাটে ছেলে মিলে নীলিমা নামের একটি মেয়েকে ধর্ষণ করে হত্যা করেছে। নিউজটা দেখেই চোখ কপালে উঠে যায়। মনকে বুঝ দিলাম এ হয়তো অন্য কোন নীলিমা আমার ভালোবাসার নীলিমা হতে পারে না‌
 
 
ল্যাপটপ অন করে ফেসবুকে ডুকে নীলিমার আইডিতে যেয়ে দেখি কাল রাতে নীলিমা তার একটি পিক আপলোড দিয়েছে। তখনই বুঝতে পারলাম আমার নীলিমা ছাড়া আর অন্য কেউ না। ব্রেকিং নিউজে দেখা সেই নীলিমা।এভাবেই ভালোবাসার মানুষ চলে যায় ধর্ষকের ধর্ষণের শ্বিকার হয়ে।আমার ভালোবাসার নীলিমাকে আর নীল রঙের শাড়িতে দেখা হলো না।
 
 লেখক:- মোঃ ফিরোজ খান
ঢাকা বাংলাদেশ
Facebook Comments
Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» বাচ্চাদের পোশাক ডিজাইনার আলিয়া.

» নামাজিদের ফ্রিতে চা পান করান এ বৃদ্ধ,

» এমপিওভুক্ত হচ্ছেন যে ৭৩ শিক্ষক (তালিকা).

» আক্রমণ করলে পাল্টা জবাব দিতে প্রস্তুত আওয়ামী লীগ : ওবায়দুল কাদের

» শেখ মনি মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় জাতি গঠনে নিমজ্জিত ছিলেন: মেয়র তাপস,

» ভাস্কর্য বিরোধিতাকারীদের যুবলীগ চেয়ারম‌্যান শেখ ফজলে শামস্ পরশের হুঁশিয়ারি

» ভিন্ন ধর্মে বিয়ে বন্ধে বর-কনেকে তুলে নিয়ে গেল পুলিশ,

» চমকে দিলেন নবাগত নায়িকা সুবাহ.

» টস জিতে খুলনাকে ব্যাটিংয়ে পাঠিয়েছে বরিশাল.

» কটিয়াদীতে মৎস্য খামারের নৈশ প্রহরীকে কুপিয়ে হত্যা,

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি।(দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

 

 

 

 

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...

নীলিমা আসবে নীল শাড়িতে…

নীলিমার সাথে পরিচয় আমার লেখালেখির শুরুতে। তখন আমি সবে লিখালিখি শুরু করি। এক হিসেবে নীলিমা আমার ফেসবুকে বন্ধু হিসেবে পরিচিত ছিল।নীলিমা প্রথমে আমার পাঠিকা ছিলো। তারপর ধীরে ধীরে মেয়েটি আমার বন্ধুত্বে পরিণত হয়। নীলিমা একটু দুষ্টু টাইপের ছিলো। সব সময়ই মজা করতো।নীলিমার  সাথে প্রতিদিনই টুকটাক মেসেজ হতো। ওর মিষ্টি টোল পড়া হাসি আর দুষ্টুমি গুলোই আমার ভিতরটাকে আঁকড়ে ধরেছে। আমার স্বপ্নে মহারানীর রূপ নিয়ে আসছে। রাতের ঘুম কেড়ে নিয়েছে।আমাকে ভালোবাসতে শিখিয়েছে।.
 
 
এই সপ্তাহের শুক্রবার ওর সাথে দেখা করার কথা। ভাবতেই ঠোঁটের কোনার হাসির রেখা ফুটে উঠে। বড্ড বেশিই ভালোবাসি দুষ্টু নীলিমাকে। বিদাতা কি যে এক মায়া দিয়ে ওকে সৃষ্টি করেছে। তা কেবল তিনিই ভালো যানে৷.
 
এই বছর কেবল ইন্টার সেকেন্ড ইয়ারে পড়ে।নীলিমাকে কখনো আমি নিজ চোখে দেখিনি। ও দেখতে কেমন? ওর হাসি কেমন? ও হাসলে ওর গালে টোল পড়ে কিনা? কিছুই জানা ছিলনা। তবে সবসময় নীল রঙের শাড়ি বেশি পড়তো পরে আমি জানতে পেরেছি ওর খুব পছন্দ ছিলো নীল শাড়ি। ওকে বলেছিলাম যেদিন আমরা দেখা করবো ও যেনো নীল শাড়ি পড়ে আমার সামনে আসে। আর আমি বলেছিলাম আমি নীল পাঞ্জাবি পড়ে আসবো। মনে মনে ভাবলাম বেশ ভালোই মানাবে দুজনকে তাই না?
 
 
অপেক্ষা করতে করতে শুক্রবার চলে এলো। সকাল বেলা চায়ের কাপ নিয়ে সোফায় উপর বসে আছি। অনেকক্ষণ ধরে নীলিমাকে ফোন দিয়ে যাচ্ছি। ওর ফোন বন্ধ ছিল। টিভিটা অন করতেই চোখের সামনে একটা ব্রেকিং নিউজ ভেসে আসে। গতকাল রাতে কিছু বখাটে ছেলে মিলে নীলিমা নামের একটি মেয়েকে ধর্ষণ করে হত্যা করেছে। নিউজটা দেখেই চোখ কপালে উঠে যায়। মনকে বুঝ দিলাম এ হয়তো অন্য কোন নীলিমা আমার ভালোবাসার নীলিমা হতে পারে না‌
 
 
ল্যাপটপ অন করে ফেসবুকে ডুকে নীলিমার আইডিতে যেয়ে দেখি কাল রাতে নীলিমা তার একটি পিক আপলোড দিয়েছে। তখনই বুঝতে পারলাম আমার নীলিমা ছাড়া আর অন্য কেউ না। ব্রেকিং নিউজে দেখা সেই নীলিমা।এভাবেই ভালোবাসার মানুষ চলে যায় ধর্ষকের ধর্ষণের শ্বিকার হয়ে।আমার ভালোবাসার নীলিমাকে আর নীল রঙের শাড়িতে দেখা হলো না।
 
 লেখক:- মোঃ ফিরোজ খান
ঢাকা বাংলাদেশ
Facebook Comments
Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি।(দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

 

 

 

 

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Design & Developed BY ThemesBazar.Com