ক্রিস্টাল মেথ পাচারের নেপথ্যে কারা

নেশার জগতে সংক্রমণের মতো ছড়িয়ে পড়ছে ভয়ংকর মাদক ক্রিস্টাল মেথ। ইয়াবার বিকল্প হিসেবে মাদকসেবীদের কাছে দিন দিন জনপ্রিয় হচ্ছে মাদকের নতুন এ সংস্করণ। চাহিদা ঊর্ধ্বমুখী হওয়ায় মিয়ানমার ও বাংলাদেশভিত্তিক মাদক মাফিয়ারা দেশের বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে দিচ্ছে ক্রিস্টাল মেথ।

 

মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর চট্টগ্রাম বিভাগের অতিরিক্ত পরিচালক মজিবুর রহমান পাটোয়ারী বলেন, ‘ইয়াবা কারবারিদের একটি অংশ বর্তমানে ক্রিস্টাল মেথ পাচার করছে। মাদক চক্রের হোতারা আড়ালে থেকে ক্যারিয়ারদের মাধ্যমে এক স্থান থেকে অন্য স্থানে ক্রিস্টাল মেথ পাচার করছে। এরই মধ্যে তদন্তে কিছু ব্যক্তির নাম উঠে এসেছে। যাদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

 

মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর চট্টগ্রাম অঞ্চলের একাধিক গোপন প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে- দেশে গাণিতিক হারে বাড়ছে ক্রিস্টাল মেথের চাহিদা। চাহিদা বৃদ্ধির কারণে কক্সবাজার এবং চট্টগ্রাম বিভিন্ন জায়গায় মজুদ হচ্ছে এ মাদক। ইয়াবার পুরনো রুট দিয়ে দেশে প্রবেশ করছে ক্রিস্টাল মেথ। ইয়াবার মতো সর্বনাশা রূপ ধারণ করার আগেই আগ্রাসন বন্ধে কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়া জরুরি।

 

অনুসন্ধানে জানা যায়, ক্রিস্টাল মেথের আন্ডারওয়ার্ল্ড নিয়ন্ত্রণ করে মিয়ানমারভিত্তিক কয়েকটি সন্ত্রাসী গ্রুপ। যার মধ্যে রয়েছে মিয়ানমারভিত্তিক বিচ্ছিন্নতাবাদী ও সন্ত্রাসী সংগঠন এবং সরকারের নিয়ন্ত্রণাধীন গ্রুপ। তাদের সহযোগী হিসেবে রয়েছে বাংলাদেশের মাদক মাফিয়ারা। মাদকের স্বর্গরাজ্য খ্যাত মিয়ানমারের শান স্টেট থেকে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী, মিয়ানমারের আইন প্রয়োগকারী সংস্থা এবং আন্তর্জাতিক মাফিয়াদের সহায়তায় নিয়ে আসা হয় বাংলাদেশি সীমান্ত এলাকায়। এরপর ২৮ রুটে প্রবেশ করানো হয় বাংলাদেশে। ক্রিস্টাল মেথ বাংলাদেশে প্রবেশের পর কক্সবাজার ও টেকনাফের কয়েকটি সিন্ডিকেটের মাধ্যমে পাচার করা হয় দেশের বিভিন্ন স্থানে। এ ছাড়া দেশের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলে  বঙ্গোপসাগরের জেলেদের মাধ্যমে মাছ ধরার ট্রলারের সাহায্যে ছড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে চালান। দেশের বিভিন্ন জায়গায় ক্রিস্টাল মেথ পাচারে জড়িত অর্ধ শতাধিক চক্র।

 

মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের চট্টগ্রাম বিভাগীয় গোয়েন্দা কার্যালয়ের সদ্য সাবেক উপ-পরিচালক হুমায়ন কবির খন্দকার বলেন, ‘ক্রিস্টাল মেথের কার্যকারিতা ইয়াবার চেয়ে বেশি। তাই দেশে এ মাদকের চাহিদা দিন দিন বাড়ছে। ইয়াবা কারবারিরা এখন ক্রিস্টাল মেথ পাচারের দিকে ঝুঁকছে। দেশের বিভিন্ন জায়গায় ক্রিস্টাল মেথের চাহিদা তৈরি করতে ডাম্পিং দামে (প্রকৃত দায়ের চেয়ে কম) বিক্রি করা হয় ক্রিস্টাল মেথ। মিয়ানমার থেকে বড় চালান এলেও কক্সবাজার থেকে দেশের বিভিন্ন স্থানে পাচার করতে চালানগুলো ছোট করে ফেলা হয়। কখনো কখনো পিস আকারে পাচার হয় ক্রিস্টাল মেথ।’ সূএ:বাংলাদেশ প্রতিদিন

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» জীবন পথে

» ঈদুল‌ আজহা উপলক্ষে বিভিন্ন স্থানে বসা কোরবানির হাটগুলোতে মানতে হবে ১৬টি নির্দেশনা

» মোটরসাইকেলসহ রাস্তা ঢালাই দিল পৌরসভা!

» স্মার্ট পশুর হাটেকে স্বাগত জানাচ্ছেন খামারিরা

» ভূমিসেবা কার্যক্রম বিনিয়োগবান্ধব করা হচ্ছে – ভূমিমন্ত্রী

» ১,৪০০ বন্যার্ত পরিবারকে বসুন্ধরা ফুড এন্ড বেভারেজ এবং বসুন্ধরা মাল্টি ফুড লিঃ এর ত্রাণ বিতরণ

» দক্ষিণ সুনামগঞ্জে আলহাজ্ব বশির আহমেদ ফাউন্ডেশনের ত্রাণ বিতরণ

» পাকিস্তানের সব সংস্করণের ‘এ’ ক্যাটাগরিতে বাবর-রিজওয়ান-আফ্রিদি

» মুক্তির আগেই শাহরুখের সিনেমার আয় ১২০ কোটি রুপি!

» ঢাকা-মাওয়া এক্সপ্রেসওয়েতে সড়ক দুর্ঘটনায় নারী নিহত

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি।(দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...

ক্রিস্টাল মেথ পাচারের নেপথ্যে কারা

নেশার জগতে সংক্রমণের মতো ছড়িয়ে পড়ছে ভয়ংকর মাদক ক্রিস্টাল মেথ। ইয়াবার বিকল্প হিসেবে মাদকসেবীদের কাছে দিন দিন জনপ্রিয় হচ্ছে মাদকের নতুন এ সংস্করণ। চাহিদা ঊর্ধ্বমুখী হওয়ায় মিয়ানমার ও বাংলাদেশভিত্তিক মাদক মাফিয়ারা দেশের বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে দিচ্ছে ক্রিস্টাল মেথ।

 

মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর চট্টগ্রাম বিভাগের অতিরিক্ত পরিচালক মজিবুর রহমান পাটোয়ারী বলেন, ‘ইয়াবা কারবারিদের একটি অংশ বর্তমানে ক্রিস্টাল মেথ পাচার করছে। মাদক চক্রের হোতারা আড়ালে থেকে ক্যারিয়ারদের মাধ্যমে এক স্থান থেকে অন্য স্থানে ক্রিস্টাল মেথ পাচার করছে। এরই মধ্যে তদন্তে কিছু ব্যক্তির নাম উঠে এসেছে। যাদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

 

মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর চট্টগ্রাম অঞ্চলের একাধিক গোপন প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে- দেশে গাণিতিক হারে বাড়ছে ক্রিস্টাল মেথের চাহিদা। চাহিদা বৃদ্ধির কারণে কক্সবাজার এবং চট্টগ্রাম বিভিন্ন জায়গায় মজুদ হচ্ছে এ মাদক। ইয়াবার পুরনো রুট দিয়ে দেশে প্রবেশ করছে ক্রিস্টাল মেথ। ইয়াবার মতো সর্বনাশা রূপ ধারণ করার আগেই আগ্রাসন বন্ধে কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়া জরুরি।

 

অনুসন্ধানে জানা যায়, ক্রিস্টাল মেথের আন্ডারওয়ার্ল্ড নিয়ন্ত্রণ করে মিয়ানমারভিত্তিক কয়েকটি সন্ত্রাসী গ্রুপ। যার মধ্যে রয়েছে মিয়ানমারভিত্তিক বিচ্ছিন্নতাবাদী ও সন্ত্রাসী সংগঠন এবং সরকারের নিয়ন্ত্রণাধীন গ্রুপ। তাদের সহযোগী হিসেবে রয়েছে বাংলাদেশের মাদক মাফিয়ারা। মাদকের স্বর্গরাজ্য খ্যাত মিয়ানমারের শান স্টেট থেকে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী, মিয়ানমারের আইন প্রয়োগকারী সংস্থা এবং আন্তর্জাতিক মাফিয়াদের সহায়তায় নিয়ে আসা হয় বাংলাদেশি সীমান্ত এলাকায়। এরপর ২৮ রুটে প্রবেশ করানো হয় বাংলাদেশে। ক্রিস্টাল মেথ বাংলাদেশে প্রবেশের পর কক্সবাজার ও টেকনাফের কয়েকটি সিন্ডিকেটের মাধ্যমে পাচার করা হয় দেশের বিভিন্ন স্থানে। এ ছাড়া দেশের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলে  বঙ্গোপসাগরের জেলেদের মাধ্যমে মাছ ধরার ট্রলারের সাহায্যে ছড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে চালান। দেশের বিভিন্ন জায়গায় ক্রিস্টাল মেথ পাচারে জড়িত অর্ধ শতাধিক চক্র।

 

মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের চট্টগ্রাম বিভাগীয় গোয়েন্দা কার্যালয়ের সদ্য সাবেক উপ-পরিচালক হুমায়ন কবির খন্দকার বলেন, ‘ক্রিস্টাল মেথের কার্যকারিতা ইয়াবার চেয়ে বেশি। তাই দেশে এ মাদকের চাহিদা দিন দিন বাড়ছে। ইয়াবা কারবারিরা এখন ক্রিস্টাল মেথ পাচারের দিকে ঝুঁকছে। দেশের বিভিন্ন জায়গায় ক্রিস্টাল মেথের চাহিদা তৈরি করতে ডাম্পিং দামে (প্রকৃত দায়ের চেয়ে কম) বিক্রি করা হয় ক্রিস্টাল মেথ। মিয়ানমার থেকে বড় চালান এলেও কক্সবাজার থেকে দেশের বিভিন্ন স্থানে পাচার করতে চালানগুলো ছোট করে ফেলা হয়। কখনো কখনো পিস আকারে পাচার হয় ক্রিস্টাল মেথ।’ সূএ:বাংলাদেশ প্রতিদিন

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি।(দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Design & Developed BY ThemesBazar.Com