করোনাভাইরাস এড়াতে যেসব জিনিস স্পর্শ করবেন না

যেসব দেশে ইতিমধ্যেই লকডাউন উঠিয়ে নেয়া হয়েছে, সেসব দেশের মানুষেরা আবারও জীবন ও জীবিকার প্রয়োজনে বাইরে বের হতে শুরু করেছেন। তবে করোনাভাইরাস কিন্তু পৃথিবী থেকে বিদায় নেয়নি, বরং তার সঙ্গে মানিয়ে নেয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে। তাই করোনা পূর্ব পৃথিবী আর করোনা পর্ববর্তী পৃথিবী কখনোই একইরকম হবে না। এমন অনেককিছুই করা যাবে না, যেগুলো আগে করা যেতো।

করোনাভাইরাসের সর্বনাশ রুখতে সামাজিক দূরত্বের বিকল্প নেই। এর পাশাপাশি বিভিন্ন জিনিস স্পর্শ করা থেকেও বিরত থাকতে হবে। কারণ অনেকে স্পর্শ করে- এমন যেকোনো জিনিস থেকে আপনি সহজেই আক্রান্ত হতে পারেন। জেনে নিন, বাইরে বের হলেও যেসব জিনিস স্পর্শ করবেন না-

লিফটের বাটন
যদি আপনার বাড়ি বা কর্মক্ষেত্র কোনো উঁচু ভবনে হয় তবে আপনাকে প্রায়ই এই দ্বিধাদ্বন্দ্বে পড়তে হবে। যেহেতু খালি হাতে লিফটের বোতাম স্পর্শ করলে তা জীবাণু সংক্রমণের সম্ভাবনা বাড়ায় (প্রচুর মানুষ এটি ব্যবহার করে)। তাই একান্তই যদি লিফটে চড়তে হয় তবে বাটন প্রেস করার সময় হাতের আঙুলের বদলে কনুই ব্যবহার করুন বা সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসাবে গ্লাভস পরুন।

জিম সরঞ্জাম
জিমে গিয়ে ঘাম ঝরাচ্ছেন, এটি আপনার স্বাস্থ্য সচেতনতার লক্ষণ। কিন্তু সেই জিমে একই সরঞ্জাম কতজন ব্যবহার করছেন, তার খোঁজ রাখছেন কী! এগুলো ব্যাকটিরিয়া এবং ভাইরাসের আস্তানা বললেও ভুল হবে না। সুতরাং, আপনি যদি জিমে যেতে চান তবে অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল ওয়াইপ সঙ্গে রাখুন এবং ব্যবহারের আগে এগুলো পরিষ্কার করে নিন।

এসকেলেটরের হ্যান্ড্রেইল
হ্যান্ড্রেইলগুলো সবার ব্যবহারের জন্য বলেই এতে জীবাণু থাকা সবচেয়ে সহজ। যেহেতু বেশিরভাগ পাবলিক প্লেসে এসকেলেটার থাকে, তাই হ্যান্ড্রেইলগুলো অবশ্যই আপনার হাত রাখার জন্য সবচেয়ে অস্বাস্থ্যকর জায়গা। একটি গবেষণায় হ্যান্ড্রেইলে শ্লেষ্মা, মল, রক্ত এবং প্রস্রাবের চিহ্ন পাওয়া গেছে। এই সময়ে হ্যান্ড্রেইলগুলো স্পর্শ করে বিপর্যয় ডেকে আনবেন না। যদি এসকেলটর ব্যবহার করতেই হয় তবে যেকোনোভাবে হ্যান্ডরেইল ধরা থেকে বিরত থাকুন। একান্তই যদি ধরে থাকেন তবে এরপর যত দ্রুত সম্ভব হাত ধুয়ে ফেলুন বা সঠিকভাবে স্যানিটাইজ করুন।

এটিএম কিপ্যাড
ব্যাংক থেকে প্রয়োজনীয় টাকা তোলার সবচেয়ে সহজ পদ্ধতি এই এটিএম। কিন্তু এটি অনেকেই স্পর্শ করেন বলে জীবাণুর সংক্রমণ হওয়ার ভয়ও অনেক বেশি। এটিএম ব্যবহার বন্ধ করা সম্ভব নয়, তাই সংক্রমণ সংক্রমণ এড়াতে কিছু সাবধানতা অবলম্বন করতে পারেন। কনুই ব্যবহার করে বাটনগুলি টিপতে বা হাতের গ্লাভস পরে এবং এটিএম প্যাড স্পর্শ করতে পারেন।

বাস/ট্রেনের হ্যান্ডেল বা খুঁটি
বাস, ট্রেন এবং জনসাধারণের যাতায়াতের অন্যান্য যানবহনগুলোতে কঠোর পরিচ্ছন্নতার পদ্ধতি থাকলেও আপনি কখনোই খুব বেশি নিশ্চিত হতে পারবেন না। গণপরিবহনে যাতায়াত করতে হলে ওভারহেড হ্যান্ডলগুলো স্পর্শ করবেন না বা খুঁটি ধরে দাঁড়াবেন না।এটি করা সহজ অভ্যাস নাও হতে পারে তবে এটি প্রয়োজনীয়। আপনি যদি ধাক্কা এবং ঝাঁকুনির সময়ে সতর্কতার জন্য খুঁটি বা হ্যান্ডল ধরেন তবে ডিসপোজেবল গ্লাভস পরে যানবহনে উঠুন এবং নামার পরে তা খুলে ফেলুন।

সহকর্মীর ল্যাপটপ/ডেস্কটপ
অফিসে কাজ করতে গেলেও আর আগের সহকর্মীদের সঙ্গে আড্ডা জমবে না। কারণ হলো সেই সামাজিক দূরত্ব। মজার কোনো ভিডিও সামনে এলো আর তা সহকর্মীকে দেখতে দিলেন- এভাবে সহজেই সে আপনার ল্যাপটপ বা ডেস্কটপ স্পর্শ করতে পারবে। কিন্তু সহজ হিসাব হলো, অফিসে এমনকিছুই স্পর্শ করা যাবে না যা নিজস্ব নয়। সবাইকে এটি মেনে চলতে হবে। মাউস, কীবোর্ড এবং কীপ্যাড একাধিকজন স্পর্শ করলে সংক্রমণ আরও সহজ হয়ে যাবে।

মেকআপ টেস্টার
মেকআপ টেস্টার হলো ক্ষতিকারক ব্যাকটেরিয়া এবং ভাইরাসের প্রজননক্ষেত্র। যেহেতু এগুলো বিভিন্নজন চোখ এবং ঠোঁটে ব্যবহার করে, তাই ভাইরাসের সংক্রমণও খুব সহজ। সুতরাং, পরেরবার মেকআপ সামগ্রী কেনার সময় ত্বকে বা ঠোঁটে টেস্টার ব্যবহার না করে বরং বিক্রয়কর্মীকে জিজ্ঞেস করে নিন।জাগোনিউজ

Facebook Comments
Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» কোভিডড-১৯ বাগেরহাটে কোরবানির পশু নিয়ে দুশ্চিন্তায় খামারীরা

» গণমাধ্যমকর্মীদের বকেয়া পরিশোধের দাবি

» শায়েস্তাগঞ্জে জেলের জালে বিরল প্রজাতির মাছ

» রাজনীতিতে দুর্বৃত্তায়নের বিরুদ্ধে নেতাকর্মীদের সোচ্চার হওয়ার আহ্বান

» রাজধানীর পুরান ঢাকার আলু বাজার একটি বাল্ব কারখানায় আগুন

» পুলিশ হাসপাতালকে সেরা হিসেবে গড়ে তুলতে চাই : আইজিপি

» সাহেদের সহযোগী রিজেন্ট গ্রুপের এমডি গ্রেফতার

» আসন্ন ঈদুল আজহা উপলক্ষে ঢাকা উত্তরে বসবে ৬টি পশুর হাট

» প্রকল্পে ব্যয়ে সাশ্রয়ী হওয়ার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

» যশোর-৬ (কেশবপুর) আসনের উপনির্বাচনে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী শাহীন চাকলাদার বিজয়ী

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, সাবেক ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন, উপশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ।

উপদেষ্টা – মাকসুদা লিসা।

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

 

 

 

 

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...

করোনাভাইরাস এড়াতে যেসব জিনিস স্পর্শ করবেন না

যেসব দেশে ইতিমধ্যেই লকডাউন উঠিয়ে নেয়া হয়েছে, সেসব দেশের মানুষেরা আবারও জীবন ও জীবিকার প্রয়োজনে বাইরে বের হতে শুরু করেছেন। তবে করোনাভাইরাস কিন্তু পৃথিবী থেকে বিদায় নেয়নি, বরং তার সঙ্গে মানিয়ে নেয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে। তাই করোনা পূর্ব পৃথিবী আর করোনা পর্ববর্তী পৃথিবী কখনোই একইরকম হবে না। এমন অনেককিছুই করা যাবে না, যেগুলো আগে করা যেতো।

করোনাভাইরাসের সর্বনাশ রুখতে সামাজিক দূরত্বের বিকল্প নেই। এর পাশাপাশি বিভিন্ন জিনিস স্পর্শ করা থেকেও বিরত থাকতে হবে। কারণ অনেকে স্পর্শ করে- এমন যেকোনো জিনিস থেকে আপনি সহজেই আক্রান্ত হতে পারেন। জেনে নিন, বাইরে বের হলেও যেসব জিনিস স্পর্শ করবেন না-

লিফটের বাটন
যদি আপনার বাড়ি বা কর্মক্ষেত্র কোনো উঁচু ভবনে হয় তবে আপনাকে প্রায়ই এই দ্বিধাদ্বন্দ্বে পড়তে হবে। যেহেতু খালি হাতে লিফটের বোতাম স্পর্শ করলে তা জীবাণু সংক্রমণের সম্ভাবনা বাড়ায় (প্রচুর মানুষ এটি ব্যবহার করে)। তাই একান্তই যদি লিফটে চড়তে হয় তবে বাটন প্রেস করার সময় হাতের আঙুলের বদলে কনুই ব্যবহার করুন বা সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসাবে গ্লাভস পরুন।

জিম সরঞ্জাম
জিমে গিয়ে ঘাম ঝরাচ্ছেন, এটি আপনার স্বাস্থ্য সচেতনতার লক্ষণ। কিন্তু সেই জিমে একই সরঞ্জাম কতজন ব্যবহার করছেন, তার খোঁজ রাখছেন কী! এগুলো ব্যাকটিরিয়া এবং ভাইরাসের আস্তানা বললেও ভুল হবে না। সুতরাং, আপনি যদি জিমে যেতে চান তবে অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল ওয়াইপ সঙ্গে রাখুন এবং ব্যবহারের আগে এগুলো পরিষ্কার করে নিন।

এসকেলেটরের হ্যান্ড্রেইল
হ্যান্ড্রেইলগুলো সবার ব্যবহারের জন্য বলেই এতে জীবাণু থাকা সবচেয়ে সহজ। যেহেতু বেশিরভাগ পাবলিক প্লেসে এসকেলেটার থাকে, তাই হ্যান্ড্রেইলগুলো অবশ্যই আপনার হাত রাখার জন্য সবচেয়ে অস্বাস্থ্যকর জায়গা। একটি গবেষণায় হ্যান্ড্রেইলে শ্লেষ্মা, মল, রক্ত এবং প্রস্রাবের চিহ্ন পাওয়া গেছে। এই সময়ে হ্যান্ড্রেইলগুলো স্পর্শ করে বিপর্যয় ডেকে আনবেন না। যদি এসকেলটর ব্যবহার করতেই হয় তবে যেকোনোভাবে হ্যান্ডরেইল ধরা থেকে বিরত থাকুন। একান্তই যদি ধরে থাকেন তবে এরপর যত দ্রুত সম্ভব হাত ধুয়ে ফেলুন বা সঠিকভাবে স্যানিটাইজ করুন।

এটিএম কিপ্যাড
ব্যাংক থেকে প্রয়োজনীয় টাকা তোলার সবচেয়ে সহজ পদ্ধতি এই এটিএম। কিন্তু এটি অনেকেই স্পর্শ করেন বলে জীবাণুর সংক্রমণ হওয়ার ভয়ও অনেক বেশি। এটিএম ব্যবহার বন্ধ করা সম্ভব নয়, তাই সংক্রমণ সংক্রমণ এড়াতে কিছু সাবধানতা অবলম্বন করতে পারেন। কনুই ব্যবহার করে বাটনগুলি টিপতে বা হাতের গ্লাভস পরে এবং এটিএম প্যাড স্পর্শ করতে পারেন।

বাস/ট্রেনের হ্যান্ডেল বা খুঁটি
বাস, ট্রেন এবং জনসাধারণের যাতায়াতের অন্যান্য যানবহনগুলোতে কঠোর পরিচ্ছন্নতার পদ্ধতি থাকলেও আপনি কখনোই খুব বেশি নিশ্চিত হতে পারবেন না। গণপরিবহনে যাতায়াত করতে হলে ওভারহেড হ্যান্ডলগুলো স্পর্শ করবেন না বা খুঁটি ধরে দাঁড়াবেন না।এটি করা সহজ অভ্যাস নাও হতে পারে তবে এটি প্রয়োজনীয়। আপনি যদি ধাক্কা এবং ঝাঁকুনির সময়ে সতর্কতার জন্য খুঁটি বা হ্যান্ডল ধরেন তবে ডিসপোজেবল গ্লাভস পরে যানবহনে উঠুন এবং নামার পরে তা খুলে ফেলুন।

সহকর্মীর ল্যাপটপ/ডেস্কটপ
অফিসে কাজ করতে গেলেও আর আগের সহকর্মীদের সঙ্গে আড্ডা জমবে না। কারণ হলো সেই সামাজিক দূরত্ব। মজার কোনো ভিডিও সামনে এলো আর তা সহকর্মীকে দেখতে দিলেন- এভাবে সহজেই সে আপনার ল্যাপটপ বা ডেস্কটপ স্পর্শ করতে পারবে। কিন্তু সহজ হিসাব হলো, অফিসে এমনকিছুই স্পর্শ করা যাবে না যা নিজস্ব নয়। সবাইকে এটি মেনে চলতে হবে। মাউস, কীবোর্ড এবং কীপ্যাড একাধিকজন স্পর্শ করলে সংক্রমণ আরও সহজ হয়ে যাবে।

মেকআপ টেস্টার
মেকআপ টেস্টার হলো ক্ষতিকারক ব্যাকটেরিয়া এবং ভাইরাসের প্রজননক্ষেত্র। যেহেতু এগুলো বিভিন্নজন চোখ এবং ঠোঁটে ব্যবহার করে, তাই ভাইরাসের সংক্রমণও খুব সহজ। সুতরাং, পরেরবার মেকআপ সামগ্রী কেনার সময় ত্বকে বা ঠোঁটে টেস্টার ব্যবহার না করে বরং বিক্রয়কর্মীকে জিজ্ঞেস করে নিন।জাগোনিউজ

Facebook Comments
Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, সাবেক ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন, উপশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ।

উপদেষ্টা – মাকসুদা লিসা।

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

 

 

 

 

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Design & Developed BY ThemesBazar.Com