কবর জিয়ারতের ফজিলত

কবর পূজার জন্য অথবা কবরবাসীদের দোয়া নেয়ার উদ্দেশ্যে কবর জিয়ারত করা হারাম (অবৈধ)। রাসূলুল্লাহ্ (স.) রাতের শেষভাগে প্রায়ই জান্নাতুল বাকী নামক কবরস্থানে যেতেন এবং বলতেন, ‘হে মুমিনদের আবাস!

 

তোমাদের প্রতি সালাম। তোমাদের সাথে যা অঙ্গীকার করা হয়েছিল, তোমরা তা পেয়েছ। আল্লাহর ইচ্ছায় নিশ্চয়ই আমরা তোমাদের কাছে আসব। হে আল্লাহ! বাকীর অধিবাসীগণকে ক্ষমা কর।’ প্রত্যেক সপ্তাহে পিতা-মাতার কবর জিয়ারত করবে।

১। হাদিস: হজরত বোরাইদাহ (রা.) হতে বর্ণিত। রাসূলুল্লাহ (স.) বলেছেন, আমি তোমাদেরকে কবর জিয়ারত করতে নিষেধ করেছিলাম, কিন্তু তা জিয়ারত করো।

২। হাদিস: হজরত বোরাইদাহ (রা.) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ (স.) কবরস্থানে এসে সাহাবাগণকে এই বলতে শিক্ষা দিতেন : ‘হে মুমিন ও মুসলমান অধিবাসীগণ! তোমাদের প্রতি (শান্তি) সালাম। আল্লাহর ইচ্ছানুযায়ী তোমাদের কাছে আমরা উপস্থিত হবো। আমাদের জন্য এবং তোমাদের জন্য। আল্লাহর কাছে সান্ত্বনা চাই।’ (মুসলিম)

৩। হাদিস: হজরত আয়েশা (রা.) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ (স.)-কে জিজ্ঞেস করলাম, কবর জিয়ারত করে কি পাঠ করব? তিনি বললেন : ‘বল, এই সকল আবাসের মুমিন এবং মুসলমান অধিবাসীগণের প্রতি সালাম।

আমাদের পূর্বে যারা গত হয়ে গেছে এবং পরে যারা আসবে, তাদের প্রতি আল্লাহ দয়া করুন এবং আল্লাহর ইচ্ছা হলে নিশ্চয়ই আমরা তোমাদের কাছে উপস্থিত হবো।’ (মুসলিম)

 

৪। হাদিস: হজরত আয়েশা (রা.) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ (স.)-এর রাত্রিবাসের পালা আমার সাথে পড়ত, তিনি রাত্রের শেষভাগে বাকীতে (কবরস্থানে) আসতেন এবং বলতেন, ‘হে মুমিন লোকদের আবাস!

 

তোমাদের প্রতি সালাম। তোমাদের সাথে যা ওয়াদা করা হয়েছিল, তা তোমরা পেয়েছ। আগামীকাল পর্যন্ত তোমাদের সময় এবং আল্লাহর ইচ্ছায় নিশ্চয়ই আমরা তোমাদের কাছে উপস্থিত হবো। হে আল্লাহ্! বাকীর অধিবাসীগণকে ক্ষমা কর।’ (মুসলিম)

 

৫। হাদিস: হজরত ইবনে মাসউদ (রা.) হতে বর্ণিত। রাসূলুল্লাহ (স.) বলেছেন, আমি তোমাদেরকে কবর জিয়ারত করতে নিষেধ করেছিলাম, তা জিয়ারত করো, কেননা এটা দুনিয়ার প্রতি বৈরাগ্য শিক্ষা দেয় এবং পরকালকে স্মরণ করিয়ে দেয়। (ইবনে মাযাহ্)

 

৬। হাদিস: হজরত ইবনে আব্বাস (রা.) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ (স.) মদিনাতে কবরের পার্শ্ব দিয়ে যাওয়ারকালে সেদিকে মুখ ফিরিয়ে বললেন, ‘হে কবরের অধিবাসীগণ!

 

তোমাদের প্রতি সালাম। আল্লাহ তোমাদেরকে ক্ষমা করুন। তোমরা আমাদের পূর্বে চলে গেছ এবং আমরা তোমাদের অনুসরণ করছি।’ (তিরমিজি)

 

৭। হাদিস: হজরত আবু হোরায়রা (রা.) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ (স.) তাঁর আম্মার কবর জিয়ারত করতে গিয়ে কাঁদতে লাগলেন এবং উপস্থিত সকলেও কাঁদতে লাগল। তিনি বললেন, তাঁর জন্য ক্ষমা করার অনুমতি চাইলে প্রভু অনুমতি দিলেন না।

 

কিন্তু কবর জিয়ারত করতে চাইলে অনুমতি দিলেন। সুতরাং কবর জিয়ারত করো। এটা মৃত্যুকে স্মরণ করিয়ে দেয়।

 

৮। হাদিস: হজরত আবু হোরায়রা (রা.) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, যে সকল স্ত্রীলোক অত্যধিক কবর জিয়ারত করে, হজরত নবী করীম (স.) তাদেরকে অভিসম্পাত করেছেন। (মুসলিম, তিরমিজি, ইবনে মাযাহ)

Facebook Comments
Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» আ.লীগের রাজনৈতিক তাণ্ডব টেকনাফ-তেঁতুলিয়া পর্যন্ত ছড়িয়েছে : নুর

» দলকানা বিএনপির মুখে শুধুই সমালোচনা: হাছান মাহমুদ

» ডিএমপির পদোন্নতিপ্রাপ্ত ২৪ পুলিশ পরিদর্শককে বদলি

» রাজধানীতে বাসের ধাক্কায় বাইসাইকেল চালকের মৃত্যু

» নরসিংদীর পলাশে রিপোর্টার্স ক্লাবের কমিটি গঠন সভাপতি রনি-সম্পাদক আল-আমিন মিয়া

» বাগেরহাটে মোরেলগঞ্জে কমিউনিটি পুলিশিং ডে পালিত

» রাজগঞ্জ কোমলপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের রোগ মুক্তি কামনায় দোয়া অনুষ্ঠিত

» নওগাঁর বাঁশের মাঁচায় থোকা থোকা আঙ্গুরের সমারোহ

» অভিমান ভেঙে অভিনয়ে ফিরলেন হাসান মাসুদ

» করোনায় আরও ১৮ মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১৩২০

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

 

 

 

 

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...

কবর জিয়ারতের ফজিলত

কবর পূজার জন্য অথবা কবরবাসীদের দোয়া নেয়ার উদ্দেশ্যে কবর জিয়ারত করা হারাম (অবৈধ)। রাসূলুল্লাহ্ (স.) রাতের শেষভাগে প্রায়ই জান্নাতুল বাকী নামক কবরস্থানে যেতেন এবং বলতেন, ‘হে মুমিনদের আবাস!

 

তোমাদের প্রতি সালাম। তোমাদের সাথে যা অঙ্গীকার করা হয়েছিল, তোমরা তা পেয়েছ। আল্লাহর ইচ্ছায় নিশ্চয়ই আমরা তোমাদের কাছে আসব। হে আল্লাহ! বাকীর অধিবাসীগণকে ক্ষমা কর।’ প্রত্যেক সপ্তাহে পিতা-মাতার কবর জিয়ারত করবে।

১। হাদিস: হজরত বোরাইদাহ (রা.) হতে বর্ণিত। রাসূলুল্লাহ (স.) বলেছেন, আমি তোমাদেরকে কবর জিয়ারত করতে নিষেধ করেছিলাম, কিন্তু তা জিয়ারত করো।

২। হাদিস: হজরত বোরাইদাহ (রা.) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ (স.) কবরস্থানে এসে সাহাবাগণকে এই বলতে শিক্ষা দিতেন : ‘হে মুমিন ও মুসলমান অধিবাসীগণ! তোমাদের প্রতি (শান্তি) সালাম। আল্লাহর ইচ্ছানুযায়ী তোমাদের কাছে আমরা উপস্থিত হবো। আমাদের জন্য এবং তোমাদের জন্য। আল্লাহর কাছে সান্ত্বনা চাই।’ (মুসলিম)

৩। হাদিস: হজরত আয়েশা (রা.) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ (স.)-কে জিজ্ঞেস করলাম, কবর জিয়ারত করে কি পাঠ করব? তিনি বললেন : ‘বল, এই সকল আবাসের মুমিন এবং মুসলমান অধিবাসীগণের প্রতি সালাম।

আমাদের পূর্বে যারা গত হয়ে গেছে এবং পরে যারা আসবে, তাদের প্রতি আল্লাহ দয়া করুন এবং আল্লাহর ইচ্ছা হলে নিশ্চয়ই আমরা তোমাদের কাছে উপস্থিত হবো।’ (মুসলিম)

 

৪। হাদিস: হজরত আয়েশা (রা.) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ (স.)-এর রাত্রিবাসের পালা আমার সাথে পড়ত, তিনি রাত্রের শেষভাগে বাকীতে (কবরস্থানে) আসতেন এবং বলতেন, ‘হে মুমিন লোকদের আবাস!

 

তোমাদের প্রতি সালাম। তোমাদের সাথে যা ওয়াদা করা হয়েছিল, তা তোমরা পেয়েছ। আগামীকাল পর্যন্ত তোমাদের সময় এবং আল্লাহর ইচ্ছায় নিশ্চয়ই আমরা তোমাদের কাছে উপস্থিত হবো। হে আল্লাহ্! বাকীর অধিবাসীগণকে ক্ষমা কর।’ (মুসলিম)

 

৫। হাদিস: হজরত ইবনে মাসউদ (রা.) হতে বর্ণিত। রাসূলুল্লাহ (স.) বলেছেন, আমি তোমাদেরকে কবর জিয়ারত করতে নিষেধ করেছিলাম, তা জিয়ারত করো, কেননা এটা দুনিয়ার প্রতি বৈরাগ্য শিক্ষা দেয় এবং পরকালকে স্মরণ করিয়ে দেয়। (ইবনে মাযাহ্)

 

৬। হাদিস: হজরত ইবনে আব্বাস (রা.) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ (স.) মদিনাতে কবরের পার্শ্ব দিয়ে যাওয়ারকালে সেদিকে মুখ ফিরিয়ে বললেন, ‘হে কবরের অধিবাসীগণ!

 

তোমাদের প্রতি সালাম। আল্লাহ তোমাদেরকে ক্ষমা করুন। তোমরা আমাদের পূর্বে চলে গেছ এবং আমরা তোমাদের অনুসরণ করছি।’ (তিরমিজি)

 

৭। হাদিস: হজরত আবু হোরায়রা (রা.) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ (স.) তাঁর আম্মার কবর জিয়ারত করতে গিয়ে কাঁদতে লাগলেন এবং উপস্থিত সকলেও কাঁদতে লাগল। তিনি বললেন, তাঁর জন্য ক্ষমা করার অনুমতি চাইলে প্রভু অনুমতি দিলেন না।

 

কিন্তু কবর জিয়ারত করতে চাইলে অনুমতি দিলেন। সুতরাং কবর জিয়ারত করো। এটা মৃত্যুকে স্মরণ করিয়ে দেয়।

 

৮। হাদিস: হজরত আবু হোরায়রা (রা.) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, যে সকল স্ত্রীলোক অত্যধিক কবর জিয়ারত করে, হজরত নবী করীম (স.) তাদেরকে অভিসম্পাত করেছেন। (মুসলিম, তিরমিজি, ইবনে মাযাহ)

Facebook Comments
Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

 

 

 

 

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Design & Developed BY ThemesBazar.Com