কখন রুট ক্যানেল প্রয়োজন

 ডা. আদেলী এদিব খান : দাঁত মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে কিন্তু সংরক্ষণ করা যেতে পারে, তাই ডেন্টিস্ট রুট ক্যানেলের পরামর্শ দিয়ে থাকেন। রুট ক্যানেল চিকিৎসা কেন করা হয় এবং এই
রুট ক্যানেলের সময় ঠিক কী ঘটে তা জানতে চান তাহলে পদক্ষেপগুলি শিখুন যাতে চিকিৎসার সময় প্রস্তুত হতে পারেন।

 

রুট ক্যানেল চিকিৎসা কি? 
রুট ক্যানেল হলো একটি ডেন্টাল পদ্ধতি যাতে দাঁতের পাল্প বা সজ্জা অপসারণ করাকে বোঝায়। এই সজ্জা স্নায়ু, সংযোগকারী টিস্যু এবং রক্তনালী দ্বারা গঠিত যা দাঁতের বৃদ্ধিতে সহায়তা করে। এখন যদি ডেন্টিস্টের কাছে যান তবেই নিশ্চিত হতে পারেন যে রুট ক্যানেল দরকার। যাই হোক, কিছু  কারণ আছে যা খেয়াল রাখা উচিত।

 

সাধারণ রুট ক্যানেল লক্ষণগুলো
১. রুট ক্যানেলের প্রয়োজন হতে পারে এমন লক্ষণগুলোর মধ্যে একটি হল ক্রমাগত ব্যথা। এটি এমন ব্যথা যা সর্বদা বিরক্ত করে বা মাঝে মাঝে চলে যায় কিন্তু তবুও হঠাৎ ফিরে আসে।
২. যদি গরম কফি পান বা ঠাণ্ডা আইসক্রিম খেয়ে থাকেন তখন আপনার দাতঁ ব্যথা হয়, এর জন্য রুট ক্যানেল ট্রিটমেন্ট প্রয়োজন হতে পারে।
৩. যখন একটি দাঁত সংক্রমিত হয়, দাঁতের গোড়ায় পুঁজ জমা হতে থাকে এবং মাড়ি ফোলা বা নরম থাকে তখন এই চিকিৎসার প্রয়োজন হতে পারে।
৪. মাড়িতে  ফোঁড়া হতে পারে।  সংক্রামিত দাঁত থেকে পুঁজ নিষ্কাশন হতে পারে, যার ফলে একটি অপ্রীতিকর স্বাদ বা গন্ধ হতে পারে। কখনও কখনও ক্ষত স্থান থেকে পুঁজ নিষ্কাশন হয় না।  ফলস্বরূপ, চোয়াল দৃশ্যমানভাবে ফুলে যেতে পারে।
৫. যখন একটি দাঁতের সজ্জা সংক্রমিত হয়, তখন এটিকে কালো দেখাতে পারে। দাঁতে দুর্বল রক্ত ​​সরবরাহের কারণে এটি ঘটে থাকে।
৬. দাঁতে খাওয়া বা স্পর্শ করার সময় যদি আপনার ব্যথা হয় তবে এর অর্থ হতে পারে সজ্জার চারপাশের স্নায়ুগুলি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।
৭. যদি দুর্ঘটনায় দাঁত ফেটে যায়, খেলাধুলা করার সময় বা এমনকি শক্ত কিছুতে কামড় দিয়ে দাঁতের ক্রাউন ফাটল ধরে তখন ব্যাকটেরিয়া দাঁতের সজ্জায় পৌঁছাতে পারে।
৮. একটি সংক্রামিত দাঁত শিথিল বোধ করতে পারে।  কারণ সংক্রামিত সজ্জা থেকে পুঁজ দাঁতের হাড়কে নরম করতে পারে।
দাতঁ নড়াচড়া শুরু করলে এই রুট ক্যানেল চিকিৎসা প্রয়োজন হতে পারে।

 

একটি রুট ক্যানেল কতক্ষণ সময় নেয়?
দাঁতে সংক্রমণের পরিমাণের উপর নির্ভর করে, রুট ক্যানেল চিকিৎসার জন্য এক বা দুটি অ্যাপয়েন্টমেন্টের প্রয়োজন হতে পারে।  গড়ে, একটি রুট ক্যানেল সম্পূর্ণ হতে প্রায় ৩০ থেকে ৬০ মিনিট সময় লাগতে পারে।  যদি একাধিক শিকড় সহ একটি বড় দাঁতের চিকিৎসা করেন তবে এটি দেড় ঘণ্টা পর্যন্ত সময় নিতে পারে।
রুট ক্যানেল শুরু করার আগে, ডেন্টিস্ট ক্ষতিগ্রস্ত দাঁতের ডেন্টাল এক্স-রে করতে দিবেন।  এটি ক্ষতির পরিমাণ নির্ধারণে সহায়তা করে এবং নিশ্চিত করে রুট ক্যানেল অবশ্যই লাগবে কিনা।

 

রুট ক্যানেল পদ্ধতির সুবিধা কী?
১/ সংক্রমণকে অন্য দাঁতে ছড়ানো থেকে বিরত রাখবে।
২/চোয়ালের হাড়ের ক্ষতি হওয়ার ঝুঁকি হ্রাস করে।
৩/দাঁত তোলার প্রয়োজনীয়তা দূর করে।

লেখক: প্রতিষ্ঠাতা, ডেন্টাল পিক্সেল।।  সূএ:বাংলাদেশ  প্রতিদিন

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» হিরো আলমকে দাঁড় করিয়ে নির্বাচনকে হাস্যকর করার চেষ্টা হচ্ছে

» মানসম্মত চিকিৎসায় আর ছাড় নয় : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

» বায়ান্নর দুটি ছড়া

» রাজধানীতে ট্রেন থেকে পড়ে পরিচ্ছন্নতাকর্মীর মৃত্যু

» ভবন নির্মাণে কী কী ছাড়পত্র লাগে?

» জাপা চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করতে পারবেন জিএম কাদের

» অটোরিকশা চালককে হত্যা করে অটোরিকশা ছিনতাই

» কসবায় গাঁজাসহ যুবক আটক

» আমরা অভিবাসন ব্যয় কমিয়ে আনতে চাচ্ছি: মালয়েশিয়ার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

» সাংবাদিক-কলামিস্ট পীর হাবিবের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি।(দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...

কখন রুট ক্যানেল প্রয়োজন

 ডা. আদেলী এদিব খান : দাঁত মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে কিন্তু সংরক্ষণ করা যেতে পারে, তাই ডেন্টিস্ট রুট ক্যানেলের পরামর্শ দিয়ে থাকেন। রুট ক্যানেল চিকিৎসা কেন করা হয় এবং এই
রুট ক্যানেলের সময় ঠিক কী ঘটে তা জানতে চান তাহলে পদক্ষেপগুলি শিখুন যাতে চিকিৎসার সময় প্রস্তুত হতে পারেন।

 

রুট ক্যানেল চিকিৎসা কি? 
রুট ক্যানেল হলো একটি ডেন্টাল পদ্ধতি যাতে দাঁতের পাল্প বা সজ্জা অপসারণ করাকে বোঝায়। এই সজ্জা স্নায়ু, সংযোগকারী টিস্যু এবং রক্তনালী দ্বারা গঠিত যা দাঁতের বৃদ্ধিতে সহায়তা করে। এখন যদি ডেন্টিস্টের কাছে যান তবেই নিশ্চিত হতে পারেন যে রুট ক্যানেল দরকার। যাই হোক, কিছু  কারণ আছে যা খেয়াল রাখা উচিত।

 

সাধারণ রুট ক্যানেল লক্ষণগুলো
১. রুট ক্যানেলের প্রয়োজন হতে পারে এমন লক্ষণগুলোর মধ্যে একটি হল ক্রমাগত ব্যথা। এটি এমন ব্যথা যা সর্বদা বিরক্ত করে বা মাঝে মাঝে চলে যায় কিন্তু তবুও হঠাৎ ফিরে আসে।
২. যদি গরম কফি পান বা ঠাণ্ডা আইসক্রিম খেয়ে থাকেন তখন আপনার দাতঁ ব্যথা হয়, এর জন্য রুট ক্যানেল ট্রিটমেন্ট প্রয়োজন হতে পারে।
৩. যখন একটি দাঁত সংক্রমিত হয়, দাঁতের গোড়ায় পুঁজ জমা হতে থাকে এবং মাড়ি ফোলা বা নরম থাকে তখন এই চিকিৎসার প্রয়োজন হতে পারে।
৪. মাড়িতে  ফোঁড়া হতে পারে।  সংক্রামিত দাঁত থেকে পুঁজ নিষ্কাশন হতে পারে, যার ফলে একটি অপ্রীতিকর স্বাদ বা গন্ধ হতে পারে। কখনও কখনও ক্ষত স্থান থেকে পুঁজ নিষ্কাশন হয় না।  ফলস্বরূপ, চোয়াল দৃশ্যমানভাবে ফুলে যেতে পারে।
৫. যখন একটি দাঁতের সজ্জা সংক্রমিত হয়, তখন এটিকে কালো দেখাতে পারে। দাঁতে দুর্বল রক্ত ​​সরবরাহের কারণে এটি ঘটে থাকে।
৬. দাঁতে খাওয়া বা স্পর্শ করার সময় যদি আপনার ব্যথা হয় তবে এর অর্থ হতে পারে সজ্জার চারপাশের স্নায়ুগুলি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।
৭. যদি দুর্ঘটনায় দাঁত ফেটে যায়, খেলাধুলা করার সময় বা এমনকি শক্ত কিছুতে কামড় দিয়ে দাঁতের ক্রাউন ফাটল ধরে তখন ব্যাকটেরিয়া দাঁতের সজ্জায় পৌঁছাতে পারে।
৮. একটি সংক্রামিত দাঁত শিথিল বোধ করতে পারে।  কারণ সংক্রামিত সজ্জা থেকে পুঁজ দাঁতের হাড়কে নরম করতে পারে।
দাতঁ নড়াচড়া শুরু করলে এই রুট ক্যানেল চিকিৎসা প্রয়োজন হতে পারে।

 

একটি রুট ক্যানেল কতক্ষণ সময় নেয়?
দাঁতে সংক্রমণের পরিমাণের উপর নির্ভর করে, রুট ক্যানেল চিকিৎসার জন্য এক বা দুটি অ্যাপয়েন্টমেন্টের প্রয়োজন হতে পারে।  গড়ে, একটি রুট ক্যানেল সম্পূর্ণ হতে প্রায় ৩০ থেকে ৬০ মিনিট সময় লাগতে পারে।  যদি একাধিক শিকড় সহ একটি বড় দাঁতের চিকিৎসা করেন তবে এটি দেড় ঘণ্টা পর্যন্ত সময় নিতে পারে।
রুট ক্যানেল শুরু করার আগে, ডেন্টিস্ট ক্ষতিগ্রস্ত দাঁতের ডেন্টাল এক্স-রে করতে দিবেন।  এটি ক্ষতির পরিমাণ নির্ধারণে সহায়তা করে এবং নিশ্চিত করে রুট ক্যানেল অবশ্যই লাগবে কিনা।

 

রুট ক্যানেল পদ্ধতির সুবিধা কী?
১/ সংক্রমণকে অন্য দাঁতে ছড়ানো থেকে বিরত রাখবে।
২/চোয়ালের হাড়ের ক্ষতি হওয়ার ঝুঁকি হ্রাস করে।
৩/দাঁত তোলার প্রয়োজনীয়তা দূর করে।

লেখক: প্রতিষ্ঠাতা, ডেন্টাল পিক্সেল।।  সূএ:বাংলাদেশ  প্রতিদিন

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি।(দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Design & Developed BY ThemesBazar.Com