এক বছরে ৩১৮ দিনই লাইভ খেলা সম্প্রচারে ছিল টি স্পোর্টস

দেশের ক্রীড়াপ্রেমী মানুষের বড় আস্থা এখন দেশের প্রথম ও একমাত্র স্পোর্টস চ্যানেল টি স্পোর্টস। ২০২০ সালের নভেম্বরে আনুষ্ঠানিভাবে স্বপ্নযাত্রা শুরুর পর ২২ এপ্রিল ২০২২ পর্যন্ত প্রায় সাড়ে ৩ হাজার ঘণ্টা লাইভ ইভেন্ট সম্প্রচার করেছে বসুন্ধরা গ্রুপের মালিকানাধীন ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপের কনিষ্ঠ সদস্য টি স্পোর্টস।

 

২০২০ সালে বঙ্গবন্ধু ইন্টারন্যাশনাল ফ্রেন্ডলি সিরিজে নেপালকে আতিথ্য দেয় বাংলাদেশ। করোনা ভীতি কাটিয়ে সেই প্রথম কোন আন্তর্জাতিক আসর মাঠে গড়ায় বাংলাদেশ, আর টি স্পোর্টসের পর্দায় তা সরাসরি দেখে দেশি-বিদেশি ক্রীড়াপ্রেমীরা। সেই শুরু, এরপর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। ক্রিকেট, ফুটবল থেকে শুরু করে প্রায় সব ক্রীড়া ইভেন্টই সরাসরি সম্প্রচার করছে টি স্পোর্টস।

বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সহযাত্রী হয়ে এ দেশের ফুটবল উন্নয়নে ভূমিকা রাখছে টি স্পোর্টস। আগামী ৫ বছর বাংলাদেশ ফুটবলের হোস্ট ব্রডকাস্টার টি স্পোর্টস। ফেডারেশন কাপ, স্বাধীনতা কাপ, বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের মতো ঘরোয়া আসরের পাশাপাশি বাংলাদেশ দলের সব আন্তর্জাতিক আসরই সরাসরি দেখা যাচ্ছে দেশের প্রথম ও একমাত্র স্পোর্টস চ্যানেলে।

 

ফিফা ওয়ার্ল্ডকাপ কোয়ালিফায়ার, এশিয়া কাপ কোয়ালিফায়ার, ফিফা ইন্টারন্যাশনাল ফ্রেন্ডলি, সাফ, এএফসির সব ইভেন্টেরই বাংলাদেশের সম্প্রচার স্বত্ব টি স্পোর্টসের কাছে। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ, স্প্যানিশ লিগের মতো ইন্টারন্যাশনাল সার্কিটের সবচেয়ে দামি আসরের সম্প্রচার স্বত্ব কিনে রীতিমতো হৈ চৈ ফেলে দেয়, দেশের সবচেয়ে বড় শিল্প পরিবার বসুন্ধরা গ্রুপের মালিকানাধীন চ্যানেল। ২০২২ ফিফা বিশ্বকাপের ইউরোপ ও এশিয়া অঞ্চলের বাছাই পর্বের ম্যাচগুলো দেখা গেছে টি স্পোর্টসে।

 

২০২৩ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড-বিসিবির হোস্ট ব্রডকাস্টার টি স্পোর্টস। ২০২১ সালে বাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজের স্বত্ব এককভাবে কিনে নেয় টি স্পোর্টস। পরবর্তীতে ২০২৩ পর্যন্ত জিটিভির সঙ্গে যৌথভাবে বাংলাদেশের সব হোম সিরিজ সম্প্রচারের সিদ্ধান্ত নেয় টি স্পোর্টস।

 

বাদ যায়নি বাংলাদেশের কোন অ্যাওয়ে সিরিজ। টাইগারদের শ্রীলঙ্কা, নিউজিল্যান্ড, জিম্বাবুয়ে সফরের সবগুলো ম্যাচই দেখা গেছে এখানে। দুবাই ও ওমানে অনুষ্ঠিত আইসিসি ওয়ার্ল্ড টি-টোয়েন্টি সরাসরি সম্প্রচার করেছে টি স্পোর্টস। আইসিসির পরবর্তী ইভেন্টগুলোও দেখা যাবে এখানে।

 

বাংলাদেশের পাশাপাশি ইন্ডিয়া, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা হোম বোর্ডের বাংলাদেশ অঞ্চলের ব্রডকাস্ট রাইটস টি স্পোর্টসের কাছে। ইংল্যান্ডের ইন্ডিয়া ট্যুর, ইন্ডিয়ার শ্রীলঙ্কা ট্যুর, সাউথ আফ্রিকার শ্রীলঙ্কা ট্যুর, নিউজিল্যান্ডের পাকিস্তান ট্যুর, ওয়েস্ট ইন্ডিজের শ্রীলঙ্কা ও পাকিস্তান ট্যুর, ইন্ডিয়ার সাউথ আফ্রিকা ট্যুরের টেস্ট ওয়ানডে ও টি টোয়েন্টি ম্যাচগুলো সরাসরি সম্প্রচার করেছে দর্শকদের দারুণ আস্থার টি স্পোর্টস।

 

বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপ ২০২০, বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ-বিপিএলের হোস্ট চ্যানেল টি স্পোর্টস। দেশের ঘরোয়া ক্রিকেটের ঐতিহ্যের আসর ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগের গত ২ মৌসুমের সুপার লিগের ম্যাচগুলো সম্পূর্ণ নিজস্ব কারিগরি ব্যবস্থাপনায় সম্প্রচার করেছে টি স্পোর্টস। বাদ যায়নি ইন্টারন্যাশনাল কোন ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট টুর্নামেন্ট। পাকিস্তান সুপার লিগ-পিএসএল, আবুধাবি টি টেন, লঙ্কা প্রিমিয়ার লিগ, ইংল্যান্ডের দ্য হান্ড্রেডের পাশাপাশি ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ-আইপিএল সরাসরি দেখা যাচ্ছে এখানে।

 

শুধুমাত্র ফুটবল-ক্রিকেটেই সীমাবদ্ধ নেই টি স্পোর্টস। কাবাডি, ব্যাডমিন্টন, টেনিসের মতো ইভেন্টের ঘরোয়া ও আন্তর্জাতিক আসরগুলো সরাসরি সম্প্রচার করছে টি স্পোর্টস। বঙ্গবন্ধু ইন্টারন্যাশনাল কাবাডির টানা ২ আসর সম্পূর্ণ নিজস্ব কারিগরি ব্যবস্থাপনায় প্রডাকশন ও সম্প্রচার হয়েছে। তৃণমূলের ক্রীড়া উন্নয়নে ভূমিকা রাখার চেষ্টা অব্যাহত শুরু থেকেই। যে কারণে অ্যামেচার চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি, ব্যাংকার্স চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি, ফিজিক্যালি চ্যালেঞ্জড ক্রিকেটের মতো আসরগুলো সরাসরি সম্প্রচার করেছে টি স্পোর্টস।

 

১৩ নভেম্বর ২০২০ আনুষ্ঠানি সম্প্রচার শুরু থেকে ২২ এপ্রিল ২০২২ পর্যন্ত ৫১৯ দিনে ৩ হাজার ৪’শ ১৫ ঘন্টা লাইভ কন্টেন্ট সরাসরি সম্প্রচার করেছে টি স্পোর্টস। মে ২০২১ থেকে এপ্রিল ২০২২ পর্যন্ত ৩৬৫ দিনের মধ্যে ৩১৮ দিনই কোন না কোন ঘরোয়া কিংবা আন্তর্জাতিক খেলা সরাসরি সম্প্রচার করেছে টি স্পোর্টস। আন্তর্জাতিক যেকোন স্পোর্টস চ্যানেলের সঙ্গে তুলনা করলে যেটি কোন অংশে কম না।

 

তবে, এখানেই থামতে চায় না টি স্পোর্টস। সম্পূর্ণ নিজস্ব কারগরি ব্যবস্থাপনায় ইন্টারন্যাশনাল যেকোন স্পোর্টস ইভেন্ট প্রডাকশনের সক্ষমতা টি স্পোর্টসের আছে। সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে কারিগরি দিক দিয়ে আরও সমৃদ্ধ হচ্ছে বসুন্ধরা গ্রুপের মালিকানাধীন চ্যানেলটি। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বাংলাদেশের জন্য গর্বের প্রতীক হতে চায় টি স্পোর্টস।

 

ডিজিটাল প্লাটফর্মে দারুণ সমৃদ্ধ টি স্পোর্টস। ইউটিউব চ্যানেলে টি স্পোর্টসের সাবস্ক্রাইবার ২.২৪ মিলিয়নের বেশি। আর ফেসবুক পেজে ফলোয়ার ২ মিলিয়নের বেশি। ডিজিটাল রাইটস থাকা সব ইভেন্টই সরাসরি দেখা যাচ্ছে টি স্পোর্টসের ডিজিটাল প্লাটফর্মে। খুব শিঘ্রিই নিজস্ব অ্যাপ চালু করবে টি স্পোর্টস। পূর্ণাঙ্গ ওয়েবসাইটের কাজ চলছে। ঘরোয়া ও আন্তর্জাতিক সব ক্রীড়া ইভেন্টের তরতাজা সব খবর সবার আগে পাওয়া যাবে টি স্পোর্টসের সাইটে।

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» জয়পুরহাটে আগামী ৪-৭ জুন জাতীয় ভিটামিন ‌‌‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন

» দুঃশাসনের বিরুদ্ধে সোচ্চার হওয়ার আহ্বান মির্জা ফখরুলের

» অপেক্ষা করুন, আসছে তরুণ প্রজন্মের ড্রিম প্রোজেক্ট: বিএনপিকে ওবায়দুল কাদের

» অন্যায়ের বিরুদ্ধে নজরুলের ভূমিকা বিশ্বকে আজীবন পথ দেখাবে

» চক্রের খপ্পড়ে পিন কোড যোগ-বিয়োগে গ্রাহকের অর্ধকোটি টাকা হাওয়া

» যে খাবার ও উপার্জন সর্বোত্তম

» সর্ষে ইলিশ খিচুড়ি তৈরির রেসিপি

» নাচতে নাচতে মারা যায় শত শত মানুষ

» প্লাস্টিকের বালতির দাম ৪০ হাজার টাকা!

» রামুতে পিকআপ ভ্যানের তেলের ট্যাংকিতে মিললো ৩৯ হাজার ইয়াবা

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি।(দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...

এক বছরে ৩১৮ দিনই লাইভ খেলা সম্প্রচারে ছিল টি স্পোর্টস

দেশের ক্রীড়াপ্রেমী মানুষের বড় আস্থা এখন দেশের প্রথম ও একমাত্র স্পোর্টস চ্যানেল টি স্পোর্টস। ২০২০ সালের নভেম্বরে আনুষ্ঠানিভাবে স্বপ্নযাত্রা শুরুর পর ২২ এপ্রিল ২০২২ পর্যন্ত প্রায় সাড়ে ৩ হাজার ঘণ্টা লাইভ ইভেন্ট সম্প্রচার করেছে বসুন্ধরা গ্রুপের মালিকানাধীন ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপের কনিষ্ঠ সদস্য টি স্পোর্টস।

 

২০২০ সালে বঙ্গবন্ধু ইন্টারন্যাশনাল ফ্রেন্ডলি সিরিজে নেপালকে আতিথ্য দেয় বাংলাদেশ। করোনা ভীতি কাটিয়ে সেই প্রথম কোন আন্তর্জাতিক আসর মাঠে গড়ায় বাংলাদেশ, আর টি স্পোর্টসের পর্দায় তা সরাসরি দেখে দেশি-বিদেশি ক্রীড়াপ্রেমীরা। সেই শুরু, এরপর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। ক্রিকেট, ফুটবল থেকে শুরু করে প্রায় সব ক্রীড়া ইভেন্টই সরাসরি সম্প্রচার করছে টি স্পোর্টস।

বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সহযাত্রী হয়ে এ দেশের ফুটবল উন্নয়নে ভূমিকা রাখছে টি স্পোর্টস। আগামী ৫ বছর বাংলাদেশ ফুটবলের হোস্ট ব্রডকাস্টার টি স্পোর্টস। ফেডারেশন কাপ, স্বাধীনতা কাপ, বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের মতো ঘরোয়া আসরের পাশাপাশি বাংলাদেশ দলের সব আন্তর্জাতিক আসরই সরাসরি দেখা যাচ্ছে দেশের প্রথম ও একমাত্র স্পোর্টস চ্যানেলে।

 

ফিফা ওয়ার্ল্ডকাপ কোয়ালিফায়ার, এশিয়া কাপ কোয়ালিফায়ার, ফিফা ইন্টারন্যাশনাল ফ্রেন্ডলি, সাফ, এএফসির সব ইভেন্টেরই বাংলাদেশের সম্প্রচার স্বত্ব টি স্পোর্টসের কাছে। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ, স্প্যানিশ লিগের মতো ইন্টারন্যাশনাল সার্কিটের সবচেয়ে দামি আসরের সম্প্রচার স্বত্ব কিনে রীতিমতো হৈ চৈ ফেলে দেয়, দেশের সবচেয়ে বড় শিল্প পরিবার বসুন্ধরা গ্রুপের মালিকানাধীন চ্যানেল। ২০২২ ফিফা বিশ্বকাপের ইউরোপ ও এশিয়া অঞ্চলের বাছাই পর্বের ম্যাচগুলো দেখা গেছে টি স্পোর্টসে।

 

২০২৩ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড-বিসিবির হোস্ট ব্রডকাস্টার টি স্পোর্টস। ২০২১ সালে বাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজের স্বত্ব এককভাবে কিনে নেয় টি স্পোর্টস। পরবর্তীতে ২০২৩ পর্যন্ত জিটিভির সঙ্গে যৌথভাবে বাংলাদেশের সব হোম সিরিজ সম্প্রচারের সিদ্ধান্ত নেয় টি স্পোর্টস।

 

বাদ যায়নি বাংলাদেশের কোন অ্যাওয়ে সিরিজ। টাইগারদের শ্রীলঙ্কা, নিউজিল্যান্ড, জিম্বাবুয়ে সফরের সবগুলো ম্যাচই দেখা গেছে এখানে। দুবাই ও ওমানে অনুষ্ঠিত আইসিসি ওয়ার্ল্ড টি-টোয়েন্টি সরাসরি সম্প্রচার করেছে টি স্পোর্টস। আইসিসির পরবর্তী ইভেন্টগুলোও দেখা যাবে এখানে।

 

বাংলাদেশের পাশাপাশি ইন্ডিয়া, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা হোম বোর্ডের বাংলাদেশ অঞ্চলের ব্রডকাস্ট রাইটস টি স্পোর্টসের কাছে। ইংল্যান্ডের ইন্ডিয়া ট্যুর, ইন্ডিয়ার শ্রীলঙ্কা ট্যুর, সাউথ আফ্রিকার শ্রীলঙ্কা ট্যুর, নিউজিল্যান্ডের পাকিস্তান ট্যুর, ওয়েস্ট ইন্ডিজের শ্রীলঙ্কা ও পাকিস্তান ট্যুর, ইন্ডিয়ার সাউথ আফ্রিকা ট্যুরের টেস্ট ওয়ানডে ও টি টোয়েন্টি ম্যাচগুলো সরাসরি সম্প্রচার করেছে দর্শকদের দারুণ আস্থার টি স্পোর্টস।

 

বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপ ২০২০, বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ-বিপিএলের হোস্ট চ্যানেল টি স্পোর্টস। দেশের ঘরোয়া ক্রিকেটের ঐতিহ্যের আসর ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগের গত ২ মৌসুমের সুপার লিগের ম্যাচগুলো সম্পূর্ণ নিজস্ব কারিগরি ব্যবস্থাপনায় সম্প্রচার করেছে টি স্পোর্টস। বাদ যায়নি ইন্টারন্যাশনাল কোন ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট টুর্নামেন্ট। পাকিস্তান সুপার লিগ-পিএসএল, আবুধাবি টি টেন, লঙ্কা প্রিমিয়ার লিগ, ইংল্যান্ডের দ্য হান্ড্রেডের পাশাপাশি ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ-আইপিএল সরাসরি দেখা যাচ্ছে এখানে।

 

শুধুমাত্র ফুটবল-ক্রিকেটেই সীমাবদ্ধ নেই টি স্পোর্টস। কাবাডি, ব্যাডমিন্টন, টেনিসের মতো ইভেন্টের ঘরোয়া ও আন্তর্জাতিক আসরগুলো সরাসরি সম্প্রচার করছে টি স্পোর্টস। বঙ্গবন্ধু ইন্টারন্যাশনাল কাবাডির টানা ২ আসর সম্পূর্ণ নিজস্ব কারিগরি ব্যবস্থাপনায় প্রডাকশন ও সম্প্রচার হয়েছে। তৃণমূলের ক্রীড়া উন্নয়নে ভূমিকা রাখার চেষ্টা অব্যাহত শুরু থেকেই। যে কারণে অ্যামেচার চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি, ব্যাংকার্স চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি, ফিজিক্যালি চ্যালেঞ্জড ক্রিকেটের মতো আসরগুলো সরাসরি সম্প্রচার করেছে টি স্পোর্টস।

 

১৩ নভেম্বর ২০২০ আনুষ্ঠানি সম্প্রচার শুরু থেকে ২২ এপ্রিল ২০২২ পর্যন্ত ৫১৯ দিনে ৩ হাজার ৪’শ ১৫ ঘন্টা লাইভ কন্টেন্ট সরাসরি সম্প্রচার করেছে টি স্পোর্টস। মে ২০২১ থেকে এপ্রিল ২০২২ পর্যন্ত ৩৬৫ দিনের মধ্যে ৩১৮ দিনই কোন না কোন ঘরোয়া কিংবা আন্তর্জাতিক খেলা সরাসরি সম্প্রচার করেছে টি স্পোর্টস। আন্তর্জাতিক যেকোন স্পোর্টস চ্যানেলের সঙ্গে তুলনা করলে যেটি কোন অংশে কম না।

 

তবে, এখানেই থামতে চায় না টি স্পোর্টস। সম্পূর্ণ নিজস্ব কারগরি ব্যবস্থাপনায় ইন্টারন্যাশনাল যেকোন স্পোর্টস ইভেন্ট প্রডাকশনের সক্ষমতা টি স্পোর্টসের আছে। সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে কারিগরি দিক দিয়ে আরও সমৃদ্ধ হচ্ছে বসুন্ধরা গ্রুপের মালিকানাধীন চ্যানেলটি। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বাংলাদেশের জন্য গর্বের প্রতীক হতে চায় টি স্পোর্টস।

 

ডিজিটাল প্লাটফর্মে দারুণ সমৃদ্ধ টি স্পোর্টস। ইউটিউব চ্যানেলে টি স্পোর্টসের সাবস্ক্রাইবার ২.২৪ মিলিয়নের বেশি। আর ফেসবুক পেজে ফলোয়ার ২ মিলিয়নের বেশি। ডিজিটাল রাইটস থাকা সব ইভেন্টই সরাসরি দেখা যাচ্ছে টি স্পোর্টসের ডিজিটাল প্লাটফর্মে। খুব শিঘ্রিই নিজস্ব অ্যাপ চালু করবে টি স্পোর্টস। পূর্ণাঙ্গ ওয়েবসাইটের কাজ চলছে। ঘরোয়া ও আন্তর্জাতিক সব ক্রীড়া ইভেন্টের তরতাজা সব খবর সবার আগে পাওয়া যাবে টি স্পোর্টসের সাইটে।

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি।(দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Design & Developed BY ThemesBazar.Com