এক ওজুতে একাধিক ওয়াক্তের নামাজ পড়া যাবে কি?

নামাজের জন্য ওজু করা আবশ্যক। অনেকেরই জানা নেই যে, এক ওজুতে একাধিক ওয়াক্ত নামাজ পড়া যাবে কি-না। আবার ওজু থাকা সত্ত্বেও নামাজের জন্য পুনরায় ওজু করার প্রয়োজনীয়তা আছে কিনা। ওজু থাকার পর নতুন করে ওজুর বিশেষ কোনো ফজিলত আছে কিনা এমন প্রশ্নও রয়েছে অনেকের। এসব বিষয়ে রয়েছে হাদিসের নির্দেশনা।

রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এক ওজুতে একাধিক ওয়াক্ত নামাজ পড়েছেন। আবার ওজু থাকা অবস্থায় আবার ওজু করেছেন। ওজু থাকার পর আবার ওজু করলে রয়েছে বিশেষ ফজিলত। হাদিসের বর্ণনাগুলো তুলে ধরা হলো-

– হজরত সুলাইমান ইবনে বুরাইদা রাদিয়াল্লাহু আনহু বলেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম প্রতি ওয়াক্তেই নামাজের নতুনভাবে ওজু করতেন। (আবার) তিনি মক্কা বিজয়ের দিন একই ওজু দিয়ে সব ওয়াক্তের নামাজ আদায় করেছেন এবং মোজার ওপর মাসেহ করেছেন।

হজরত ওমর রাদিয়াল্লাহু আনহু বললেন, ‘আপনি (প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) এমন একটি কাজ করলেন যা আগে কখনও করেননি। তিনি (রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বলেন, ‘আমি ইচ্ছা করেই এটা করলাম।’ (মুসলিম, তিরমিজি, ইবনে মাজাহ)

– অন্য বর্ণনায় এসেছে, ‘তিনি (প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) একবার একবার ওজু করেছেন।’ আবার তিনি প্রত্যেক ওয়াক্তের জন্য নতুনভাবে ওজু করতেন।

এ হাদিসের আলোকেই ইসলামিক স্কলারগণ, ওজু নষ্ট না হলে এক ওজুতে একাধিক ওয়াক্ত নামাজ আদায় করা যাবে বলে সমর্থন করেন। তবে কেউ কেউ ফজিলত লাভের আশায় প্রত্যেক নামাজের জন্য নতুনভাবে ওজু করাকে মোস্তাহাব মনে করেন।

ওজু থাকা অবস্থায় ওজু করার ফজিলত
ওজু থাকা অবস্থায় পুনরায় ওজু করলে তাতে রয়েছে অনেক সাওয়াব। এ সম্পর্কে সুস্পষ্ট বর্ণনা রয়েছে। হাদিসে এসেছে-

হজরত ইবনে ওমর রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন, ‘যে ব্যক্তি ওজু থাকা অবস্থায় (নতুনভাবে) ওজু করে, আল্লাহ তাআলা তার জন্য ১০টি সাওয়াব লেখেন।’ তবে হাদিস বিশারদগণ এ বর্ণনা দুর্বল বলেছেন।

যেহেতু এক ওজুতে একাধিক নামাজ কিংবা প্রতি ওয়াক্ত নামাজের জন্য আলাদা আলাদা ওজু করার ব্যাপারে হাদিসের বর্ণনা রয়েছে, তাই ওজু নষ্ট না হলে এক ওজুতেই একাধিক ওয়াক্ত নামাজ আদায় করা যাবে। আবার ওজু থাকার পরও আলাদা আলাদাভাবে ওজু করেও নামাজ আদায় করা যাবে। উভয় মতই হাদিস দ্বারা প্রমাণিত।

তবে রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম যেহেতু প্রত্যেক ওয়াক্ত নামাজের জন্য নতুনভাবে ওজু করতেন। সুতরাং সমস্যা না থাকলে প্রত্যেক ওয়াক্তের জন্য নতুনভাবে ওজু করাই উত্তম।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে নামাজের জন্য ওজুর ব্যাপারে হাদিসের ওপর যথাযথ আমল করার তাওফিক দান করুন। ওজুর জন্য ঘোষিত ফজিলত ও মর্যাদা লাভের তাওফিক দান করুন। আমিন।জাগোনিউজ

Facebook Comments
Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» কোভিডড-১৯ বাগেরহাটে কোরবানির পশু নিয়ে দুশ্চিন্তায় খামারীরা

» গণমাধ্যমকর্মীদের বকেয়া পরিশোধের দাবি

» শায়েস্তাগঞ্জে জেলের জালে বিরল প্রজাতির মাছ

» রাজনীতিতে দুর্বৃত্তায়নের বিরুদ্ধে নেতাকর্মীদের সোচ্চার হওয়ার আহ্বান

» রাজধানীর পুরান ঢাকার আলু বাজার একটি বাল্ব কারখানায় আগুন

» পুলিশ হাসপাতালকে সেরা হিসেবে গড়ে তুলতে চাই : আইজিপি

» সাহেদের সহযোগী রিজেন্ট গ্রুপের এমডি গ্রেফতার

» আসন্ন ঈদুল আজহা উপলক্ষে ঢাকা উত্তরে বসবে ৬টি পশুর হাট

» প্রকল্পে ব্যয়ে সাশ্রয়ী হওয়ার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

» যশোর-৬ (কেশবপুর) আসনের উপনির্বাচনে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী শাহীন চাকলাদার বিজয়ী

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, সাবেক ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন, উপশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ।

উপদেষ্টা – মাকসুদা লিসা।

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

 

 

 

 

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...

এক ওজুতে একাধিক ওয়াক্তের নামাজ পড়া যাবে কি?

নামাজের জন্য ওজু করা আবশ্যক। অনেকেরই জানা নেই যে, এক ওজুতে একাধিক ওয়াক্ত নামাজ পড়া যাবে কি-না। আবার ওজু থাকা সত্ত্বেও নামাজের জন্য পুনরায় ওজু করার প্রয়োজনীয়তা আছে কিনা। ওজু থাকার পর নতুন করে ওজুর বিশেষ কোনো ফজিলত আছে কিনা এমন প্রশ্নও রয়েছে অনেকের। এসব বিষয়ে রয়েছে হাদিসের নির্দেশনা।

রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এক ওজুতে একাধিক ওয়াক্ত নামাজ পড়েছেন। আবার ওজু থাকা অবস্থায় আবার ওজু করেছেন। ওজু থাকার পর আবার ওজু করলে রয়েছে বিশেষ ফজিলত। হাদিসের বর্ণনাগুলো তুলে ধরা হলো-

– হজরত সুলাইমান ইবনে বুরাইদা রাদিয়াল্লাহু আনহু বলেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম প্রতি ওয়াক্তেই নামাজের নতুনভাবে ওজু করতেন। (আবার) তিনি মক্কা বিজয়ের দিন একই ওজু দিয়ে সব ওয়াক্তের নামাজ আদায় করেছেন এবং মোজার ওপর মাসেহ করেছেন।

হজরত ওমর রাদিয়াল্লাহু আনহু বললেন, ‘আপনি (প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) এমন একটি কাজ করলেন যা আগে কখনও করেননি। তিনি (রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বলেন, ‘আমি ইচ্ছা করেই এটা করলাম।’ (মুসলিম, তিরমিজি, ইবনে মাজাহ)

– অন্য বর্ণনায় এসেছে, ‘তিনি (প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) একবার একবার ওজু করেছেন।’ আবার তিনি প্রত্যেক ওয়াক্তের জন্য নতুনভাবে ওজু করতেন।

এ হাদিসের আলোকেই ইসলামিক স্কলারগণ, ওজু নষ্ট না হলে এক ওজুতে একাধিক ওয়াক্ত নামাজ আদায় করা যাবে বলে সমর্থন করেন। তবে কেউ কেউ ফজিলত লাভের আশায় প্রত্যেক নামাজের জন্য নতুনভাবে ওজু করাকে মোস্তাহাব মনে করেন।

ওজু থাকা অবস্থায় ওজু করার ফজিলত
ওজু থাকা অবস্থায় পুনরায় ওজু করলে তাতে রয়েছে অনেক সাওয়াব। এ সম্পর্কে সুস্পষ্ট বর্ণনা রয়েছে। হাদিসে এসেছে-

হজরত ইবনে ওমর রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন, ‘যে ব্যক্তি ওজু থাকা অবস্থায় (নতুনভাবে) ওজু করে, আল্লাহ তাআলা তার জন্য ১০টি সাওয়াব লেখেন।’ তবে হাদিস বিশারদগণ এ বর্ণনা দুর্বল বলেছেন।

যেহেতু এক ওজুতে একাধিক নামাজ কিংবা প্রতি ওয়াক্ত নামাজের জন্য আলাদা আলাদা ওজু করার ব্যাপারে হাদিসের বর্ণনা রয়েছে, তাই ওজু নষ্ট না হলে এক ওজুতেই একাধিক ওয়াক্ত নামাজ আদায় করা যাবে। আবার ওজু থাকার পরও আলাদা আলাদাভাবে ওজু করেও নামাজ আদায় করা যাবে। উভয় মতই হাদিস দ্বারা প্রমাণিত।

তবে রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম যেহেতু প্রত্যেক ওয়াক্ত নামাজের জন্য নতুনভাবে ওজু করতেন। সুতরাং সমস্যা না থাকলে প্রত্যেক ওয়াক্তের জন্য নতুনভাবে ওজু করাই উত্তম।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে নামাজের জন্য ওজুর ব্যাপারে হাদিসের ওপর যথাযথ আমল করার তাওফিক দান করুন। ওজুর জন্য ঘোষিত ফজিলত ও মর্যাদা লাভের তাওফিক দান করুন। আমিন।জাগোনিউজ

Facebook Comments
Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, সাবেক ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন, উপশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ।

উপদেষ্টা – মাকসুদা লিসা।

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

 

 

 

 

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Design & Developed BY ThemesBazar.Com