ইলিশ ছাড়া অন্যান্য মাছের দাম কম

দক্ষিনাঞ্চলের নদীগুলোতে পর্যাপ্ত ইলিশ ধরা পড়লেও রাজধানীর বাজারে বাড়তি দাম দিয়ে কিনতে হচ্ছে ক্রেতাদের।

ক্রেতারা বলছেন, বাজারে ইলিশ মাছে পর্যাপ্ত সরবারাহ রয়েছে কিন্তু দাম কমছে না। এর আগের বছরগুলোতে এই একই সময়ে ইলিশ মাছ কম দামে কিনেছি। তাছাড়া গত সপ্তাহেও ইলিশের দাম কিছুটা কম ছিলো। কিন্তু আজ বড় সাইজের ইলিশ মাছ ২০০ থেকে ৩০০ টাকা অতিরিক্ত দিয়ে কিনতে হচ্ছে।

শুক্রবার রাজধানীর মোহাম্মদপুর কৃষি মার্কেট ঘুরে ক্রেতাদের সাথে কথা বলে এই তথ্য পাওয়া গেছে।

এই বাজারে দুই কেজি ওজনের ইলিশ গত সপ্তাহে বিক্রি হয়েছে দুই

হাজার ৫০০ টাকা কেজি দরে। কিন্তু আজ তা বিক্রি হচ্ছে দুই হাজার ৭০০ থেকে দুই হাজার ৮০০ টাকায়। এছাড়া এক কেজি ওজনের ইলিশ গত সপ্তাহে এক হাজার থেকে এক হাজার ২০০ টাকা দরে বিক্রি হয়েছিলো। কিন্তু তা আজ বিক্রি হচ্ছে ১৪০০ টাকায়। ৮০০ গ্রাম ওজনের ইলিশ বিক্রি হচ্ছে ৯০০ টাকা কেজি দরে, ৭০০ গ্রাম ওজনের ইলিশ ৬৫০ থেকে ৭০০ টাকা কেজি। ৬০০ গ্রামের প্রতি পিচ ইলিশ বিক্রি করতে দেখা গেছে ৩০০ থেকে ৩৫০ টাকায়।

বাজারে অন্যান্য মাছের দাম কিছুটা কমেছে। প্রতিকেজি রুপচাঁদা ৮০০ থেকে ৯০০ টাকা, আকার ভেদে রুই মাছ বিক্রি হচ্ছে ২২০ থেকে ৩০০ টাকা, মৃগেল ১৮০ থেকে ২৫০ টাকা, বাইলা মাছ ৪০০ টাকা কেজি, চিংড়ি প্রকারভেদে ৪০০ থেকে ৭০০ টাকা, প্রতিকেজি তেলাপিয়া ১২০ থেকে ১৬০ টাকা, পাঙাশ ১০০ থেকে ১২০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে।

মোহাম্মদ আনিসুর রহমান নামের এক ক্রেতা রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘গত সপ্তাহেও আমি ইলিশ কিনেছি। গত কয়েকদিন ধরে পত্র পত্রিকায় পড়েছি ইলিশের সরবারাহ অনেক ভালো। তাই ভাবলাম এই সপ্তাহেও দাম কমই হবে। কিন্তু বাজারে এসে দেখি ভিন্ন চিত্র। বড় সাইজের ইলিশের দাম অনেক বেড়েছে৷ তবে ছোট সাইজের ইলিশের দাম কিছুটা নাগালে আছে৷ ইলিশের ভরা মৌসুমে দাম আরও কম হওয়া উচিত।’

মোহাম্মদপুর কৃষি মার্কেটের মাছ বিক্রেতা হাবিব মিয়া বলেন, ‘বড় ইলিশের চাহিদা খুব বেশি। কিন্তু সেই তুলনায় বড় ইলিশের সরবরাহ হচ্ছে না। এই জন্যই দাম কিছুটা বেড়েছে। বড় ইলিশের সরবরাহ বাড়লে দাম কমে যাবে।’রাইজিংবিডি

Facebook Comments
Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» বিলিয়নিয়ার তালিকা থেকে বাদ পড়লেন কাইলি জেনার

» বর্ষা মৌসুমেও রঙিন বাড়ি

» শিল্পপতি আব্দুল মোনেম মারা গেছেন

» হাইকোর্টের ১১ বেঞ্চে ভার্চুয়ালি শুনানি হবে যেসব বিষয়

» তাপমাত্রা মেপে স্যানিটাইজারে জীবাণুমুক্ত হয়ে নিউমার্কেটে প্রবেশ

» ৮০ শতাংশ নয়, ভাড়া বাড়বে যৌক্তিক পর্যায়ে : ওবায়দুল কাদের

» করোনায় প্রাণ গেলো আরও ৪০ জনের, আক্রান্ত ২৫৪৫

» এক চার্জে চলবে টানা ২০ দিন

» দীর্ঘ সময় দলে না থাকতে পারায় ইমরুলের আফসোস

» দীর্ঘ সময় দলে না থাকতে পারায় ইমরুলের আফসোস

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, সাবেক ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন, উপশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ।

উপদেষ্টা – মাকসুদা লিসা।

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

 

 

 

 

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...

ইলিশ ছাড়া অন্যান্য মাছের দাম কম

দক্ষিনাঞ্চলের নদীগুলোতে পর্যাপ্ত ইলিশ ধরা পড়লেও রাজধানীর বাজারে বাড়তি দাম দিয়ে কিনতে হচ্ছে ক্রেতাদের।

ক্রেতারা বলছেন, বাজারে ইলিশ মাছে পর্যাপ্ত সরবারাহ রয়েছে কিন্তু দাম কমছে না। এর আগের বছরগুলোতে এই একই সময়ে ইলিশ মাছ কম দামে কিনেছি। তাছাড়া গত সপ্তাহেও ইলিশের দাম কিছুটা কম ছিলো। কিন্তু আজ বড় সাইজের ইলিশ মাছ ২০০ থেকে ৩০০ টাকা অতিরিক্ত দিয়ে কিনতে হচ্ছে।

শুক্রবার রাজধানীর মোহাম্মদপুর কৃষি মার্কেট ঘুরে ক্রেতাদের সাথে কথা বলে এই তথ্য পাওয়া গেছে।

এই বাজারে দুই কেজি ওজনের ইলিশ গত সপ্তাহে বিক্রি হয়েছে দুই

হাজার ৫০০ টাকা কেজি দরে। কিন্তু আজ তা বিক্রি হচ্ছে দুই হাজার ৭০০ থেকে দুই হাজার ৮০০ টাকায়। এছাড়া এক কেজি ওজনের ইলিশ গত সপ্তাহে এক হাজার থেকে এক হাজার ২০০ টাকা দরে বিক্রি হয়েছিলো। কিন্তু তা আজ বিক্রি হচ্ছে ১৪০০ টাকায়। ৮০০ গ্রাম ওজনের ইলিশ বিক্রি হচ্ছে ৯০০ টাকা কেজি দরে, ৭০০ গ্রাম ওজনের ইলিশ ৬৫০ থেকে ৭০০ টাকা কেজি। ৬০০ গ্রামের প্রতি পিচ ইলিশ বিক্রি করতে দেখা গেছে ৩০০ থেকে ৩৫০ টাকায়।

বাজারে অন্যান্য মাছের দাম কিছুটা কমেছে। প্রতিকেজি রুপচাঁদা ৮০০ থেকে ৯০০ টাকা, আকার ভেদে রুই মাছ বিক্রি হচ্ছে ২২০ থেকে ৩০০ টাকা, মৃগেল ১৮০ থেকে ২৫০ টাকা, বাইলা মাছ ৪০০ টাকা কেজি, চিংড়ি প্রকারভেদে ৪০০ থেকে ৭০০ টাকা, প্রতিকেজি তেলাপিয়া ১২০ থেকে ১৬০ টাকা, পাঙাশ ১০০ থেকে ১২০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে।

মোহাম্মদ আনিসুর রহমান নামের এক ক্রেতা রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘গত সপ্তাহেও আমি ইলিশ কিনেছি। গত কয়েকদিন ধরে পত্র পত্রিকায় পড়েছি ইলিশের সরবারাহ অনেক ভালো। তাই ভাবলাম এই সপ্তাহেও দাম কমই হবে। কিন্তু বাজারে এসে দেখি ভিন্ন চিত্র। বড় সাইজের ইলিশের দাম অনেক বেড়েছে৷ তবে ছোট সাইজের ইলিশের দাম কিছুটা নাগালে আছে৷ ইলিশের ভরা মৌসুমে দাম আরও কম হওয়া উচিত।’

মোহাম্মদপুর কৃষি মার্কেটের মাছ বিক্রেতা হাবিব মিয়া বলেন, ‘বড় ইলিশের চাহিদা খুব বেশি। কিন্তু সেই তুলনায় বড় ইলিশের সরবরাহ হচ্ছে না। এই জন্যই দাম কিছুটা বেড়েছে। বড় ইলিশের সরবরাহ বাড়লে দাম কমে যাবে।’রাইজিংবিডি

Facebook Comments
Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, সাবেক ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন, উপশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ।

উপদেষ্টা – মাকসুদা লিসা।

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

 

 

 

 

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Design & Developed BY ThemesBazar.Com