আমলনামায় পাপ-পুণ্য লেখা হয় যেভাবে

ভালো ও মন্দ কাজে মহান আল্লাহর নির্দেশ হলো- সৎ কাজ করা আর অন্যায় কাজ পরিহার করা। যারা ভালো কাজ করবে তাদের জন্য রয়েছে সাওয়াব বা পুণ্য। আর যারা অন্যায় কাজ করবে তাদের জন্য রয়েছে গোনাহ।

 

তবে অন্যায় কাজের ইচ্ছা পোষণ করা পর কোনো মানুষ যদি তা না করে, তাতেও আল্লাহ তাআলা ওই বান্দাকে সাওয়াব দান করেন। মানুষের আমলনামায় পাপ ও পুণ্য লেখা সম্পর্কে হাদিসের একাধিক বর্ণনায় এসেছে-

 

হজরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন, রাসুুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘আল্লাহ (ফেরেশতাদের) বলেন- ‘আমার বান্দা যখন কোনো পাপ করার ইচ্ছা করে, তখন তোমরা তা ততক্ষণ পর্যন্ত লেখবে না, যতক্ষণ না সে তা করে। যদি সে তা (পাপ) করে, তবে সমান পাপ লেখ। আর যদি সে তা আমার কারণে ত্যাগ করে, তবে তার জন্য পুণ্য লেখ। আর যদি সে পুণ্যের কাজ করার ইচ্ছা করে কিন্তু তা না করে, তবে তার জন্য পুণ্য লেখ। তারপর যদি সে পুণ্যের কাজ করে তবে তার জন্য তা দশগুণ থেকে সাতশো গুণ পর্যন্ত লেখ। (বুখারি ও মুসলিম)

– হজরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘আল্লাহ বলেন- আমার বান্দা যখন ভালো কাজ করার ইচ্ছা করে, তখনই আমি তার জন্য একটি নেকি লিখি যতক্ষণ সে তা না করে। আর যখন সে (ভালো কাজ) করে আমি তার জন্য দশ গুণ লিখি। আর যখন সে পাপ করার ইচ্ছা করে আমি তার জন্য তা ক্ষমা করি, যতক্ষণ না সে তা করে। তারপর যখন সে তা (পাপ) করে তখন আমি তার সমান লিখি। রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন, ফেরেশতারা বলে- ‘হে আমার রব! আপনার এ বান্দা পাপ করার ইচ্ছা করে। যদিও আল্লাহ তাআলা বেশি জানেন। আল্লাহ বলেন, তাকে পর্যবেক্ষণ কর; যদি সে পাপ করে, তবে জন্য সমান পাপ লেখ। যদি সে তা ত্যাগ করে, তবে তার জন্য তা নেকি হিসেবে লেখ। কারণ আমার জন্যই সে তা ত্যাগ করেছে।’ (মুসলিম)

 

সুতরাং মুমিন মুসলমানের উচিত, ভালো কাজ করা। ভালো কাজ করার সামথ্য না থাকলেও তা করার সংকল্প করা। অন্যায় থেকে ফিরে থাকা। অন্যায় করার সংকল্প করার পর তা থেকে ফিরে থাকা। আর তাতেই মিলবে সাওয়াব।

 

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে ভালো কাজ করার এবং অন্যায় কাজ পরিহার করার তাওফিক দান করুন। হাদিসে উল্লেখিত ফজিলত ও সুবিধা লাভের তাওফিক দান করুন। আমিন।জাগোনিউজ২৪.কম,

Facebook Comments
Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» প্রবাসীদের সৌদি ফেরাতে বিমানের ১২ বিশেষ ফ্লাইট

» ড্রাইভার মালেকের স্বাস্থ্য ও প্রেসিডেন্ট নিক্সনের ওয়াটারগেট

» কাঁঠালবাড়ি-শিমুলিয়া নৌ-রুটে তলা ফেটে লঞ্চ বিকল

» হাজার হাজার মসজিদ ধ্বংসের অভিযোগ নিয়ে যা বলল চীন

» মাহবুবে আলমের মৃত্যুতে ওবায়দুল কাদেরের শোক

» বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে বিচার বিভাগকে অবরুদ্ধ করা হয়েছিল: আইনমন্ত্রী

» রাষ্ট্রপতির সঙ্গে ভারতের হাই কমিশনারের বিদায়ী সাক্ষাৎ

» শেখ হাসিনার জন্ম না হলে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বাস্তবায়ন অসম্ভব হতো

» অনলাইন নিউজ পোর্টালের নিবন্ধন দ্রুত শেষ করতে তাগিদ

» লুডু খেলায় প্রতারণার অভিযোগে বাবার বিরুদ্ধে মেয়ের মামলা

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা – মাকসুদা লিসা।

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

 

 

 

 

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...

আমলনামায় পাপ-পুণ্য লেখা হয় যেভাবে

ভালো ও মন্দ কাজে মহান আল্লাহর নির্দেশ হলো- সৎ কাজ করা আর অন্যায় কাজ পরিহার করা। যারা ভালো কাজ করবে তাদের জন্য রয়েছে সাওয়াব বা পুণ্য। আর যারা অন্যায় কাজ করবে তাদের জন্য রয়েছে গোনাহ।

 

তবে অন্যায় কাজের ইচ্ছা পোষণ করা পর কোনো মানুষ যদি তা না করে, তাতেও আল্লাহ তাআলা ওই বান্দাকে সাওয়াব দান করেন। মানুষের আমলনামায় পাপ ও পুণ্য লেখা সম্পর্কে হাদিসের একাধিক বর্ণনায় এসেছে-

 

হজরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন, রাসুুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘আল্লাহ (ফেরেশতাদের) বলেন- ‘আমার বান্দা যখন কোনো পাপ করার ইচ্ছা করে, তখন তোমরা তা ততক্ষণ পর্যন্ত লেখবে না, যতক্ষণ না সে তা করে। যদি সে তা (পাপ) করে, তবে সমান পাপ লেখ। আর যদি সে তা আমার কারণে ত্যাগ করে, তবে তার জন্য পুণ্য লেখ। আর যদি সে পুণ্যের কাজ করার ইচ্ছা করে কিন্তু তা না করে, তবে তার জন্য পুণ্য লেখ। তারপর যদি সে পুণ্যের কাজ করে তবে তার জন্য তা দশগুণ থেকে সাতশো গুণ পর্যন্ত লেখ। (বুখারি ও মুসলিম)

– হজরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘আল্লাহ বলেন- আমার বান্দা যখন ভালো কাজ করার ইচ্ছা করে, তখনই আমি তার জন্য একটি নেকি লিখি যতক্ষণ সে তা না করে। আর যখন সে (ভালো কাজ) করে আমি তার জন্য দশ গুণ লিখি। আর যখন সে পাপ করার ইচ্ছা করে আমি তার জন্য তা ক্ষমা করি, যতক্ষণ না সে তা করে। তারপর যখন সে তা (পাপ) করে তখন আমি তার সমান লিখি। রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন, ফেরেশতারা বলে- ‘হে আমার রব! আপনার এ বান্দা পাপ করার ইচ্ছা করে। যদিও আল্লাহ তাআলা বেশি জানেন। আল্লাহ বলেন, তাকে পর্যবেক্ষণ কর; যদি সে পাপ করে, তবে জন্য সমান পাপ লেখ। যদি সে তা ত্যাগ করে, তবে তার জন্য তা নেকি হিসেবে লেখ। কারণ আমার জন্যই সে তা ত্যাগ করেছে।’ (মুসলিম)

 

সুতরাং মুমিন মুসলমানের উচিত, ভালো কাজ করা। ভালো কাজ করার সামথ্য না থাকলেও তা করার সংকল্প করা। অন্যায় থেকে ফিরে থাকা। অন্যায় করার সংকল্প করার পর তা থেকে ফিরে থাকা। আর তাতেই মিলবে সাওয়াব।

 

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে ভালো কাজ করার এবং অন্যায় কাজ পরিহার করার তাওফিক দান করুন। হাদিসে উল্লেখিত ফজিলত ও সুবিধা লাভের তাওফিক দান করুন। আমিন।জাগোনিউজ২৪.কম,

Facebook Comments
Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা – মাকসুদা লিসা।

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

 

 

 

 

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Design & Developed BY ThemesBazar.Com