আপন ঘরে সুখ পাখি

সুখ পাখি সুখ খোঁজে আপন মনে, চারিদিকে ছুটে বেড়ায় সুখের সন্ধানে। যেখানেই খুঁজে পায় সুখের নীড়, বুকে তার জেগে ওঠে আশার তীর। সুখ চাই, বুঝলেন, খাঁটি সুখ। জানেন কোথায় পাওয়া যায় এই সুখ পাখির খোঁজ? চাই, চাই করে তো এদিক-ওদিক ঘুরে বেড়াচ্ছেন, কিন্তু সুখ। সে তো ফুড়ুত্। আসলে সুখ-দুঃখ যমজ বোন। দু’টোকে নিয়েই আমাদের ঘরবসতি। চারপাশের অস্থিরতা, ভণ্ডামি, কপটাচারে মন খারাপ করবেই। তবুও ভালো থাকা না থাকা নিজের ইচ্ছাধীন। মনোবল, সাধনা, জ্ঞান কর্মোদ্দীপনার মূল টনিক। সুখ-দুঃখ একান্তই আপেক্ষিক।

আমরা জানলেও ভুলে থাকি, ঢাকা-চট্টগ্রামসহ বড় বড় নগরে কয়েক মিলিয়ন মানুষের ঠিকানা নাই। তারা ভ্রাম্যমাণ হলেও যাযাবর নন। এদের ভাগ্যবান অংশটি কয়েক বর্গফুটের বস্তিতে ছোটবড় সংসার পাতে। দুর্ভাগাদের ঠিকানা ফুটপাত, টার্মিনাল, রেলস্টেশন, বড়বড় পাইপের গুহা, রিক্সাভ্যান বা রিকশার হুড।

এদের কষ্টের সাথে নিজের কষ্টের তুলনা খুঁজলে নিশ্চয়ই নিজের ভাগ্যকে বাহবা দেবেন।

করোনার টানা আতঙ্কে অনেকের আয় কমে গেছে। আবার টাকা দিয়েও সব সেবা ঠিকমত পায় না। বিদ্যুৎ, পানি থাকে না। চিকিৎসা নাই, ওষুধে ভেজাল, খাদ্যে ভেজাল, চারপাশে ঠকবাজ, মূল্যবৃদ্ধি, সন্তানের লেখাপড়ার দায় আরো কত্তো অভিযোগ। দুর্নীতি,অনিয়মের বিরুদ্ধে ফেসবুকে গদা ঘুরাই, ট্রল করি, না’পছন্দের দল ও ব্যক্তিকে। আবার কারো বা ঘুমে সমস্যা, খাবারে অরুচি! স্বাভাবিক, বলা কওয়া, প্রতিবাদ তো হবেই।

মজার বিষয়, যত সমস্যা দুর্ভোগ সব মধ্যবিত্ত শ্রেণির মাঝেই গোত্তা খাচ্ছে। যাদের বেশি টাকা তারা এসব নিয়ে কিছু বলে না। আবার সবচেয়ে বঞ্চিত বিপুল জনগোষ্ঠীও চুপ। ওরা আছে জীবিকার দৌড়ে, প্রতিবাদের সময় নেই। কষ্টের কথা শোনানোর দম নেই। চলছে টানা বেঁচে থাকার যুদ্ধ। এরা কিন্তু যা পায়, ভেজাল,পচাগলা পেটপুরে তৃপ্তিভরে খায়। ঘুমটাও চমৎকার। পাইপের গর্ত, রিকশার হুড বা বস্তির ৫/৭ বর্গফুটের খুপড়িতে ৫/৬ জন একসাথে ঘুমায়। ঠিকমত পা মেলতে পারেনা,পাশ ফিরতে পারেনা, তবুও! কীভাবে এত আরামের খাওয়া, ঘুম! ভেবেছি কখনো? নিশ্চয়ই না। তাহলে কীভাবে বুঝবো, ভাসমান-বহমান জীবনগুলোর হাসিকান্না, সংসার! আসলে ক্ষুধা আর ঘুম বিলাস ছাড়া মাথায় অন্যপোকা তারা নেয়না। ভাবনা-চিন্তা, অভাব-অনটন চর্চা বা অপ্রাপ্তির বাড়তি বিলাস চর্চা তাদের হয় না! জীবনযুদ্ধ সবকিছু এমনকি বাড়তি সময়ও কেড়ে নিয়েছে। তাই কঠোর শ্রমশেষে টানা ৮ ঘণ্টা নাক ডেকে ঘুমায়। মাত্র ‘১৫ টাকার ফুটপাত তেহারি বা মোরগ বিরানিতে উদর পূর্তি করে তৃপ্তির ঢেকুর তুলে বিড়িতে টান দেয় মনের সুখে।

এটাই সুখ, সুস্থতা, বিনোদনও! অবিশ্বাস্য নয় কি। হ্যাঁ, এটা প্রকৃতি বা সৃষ্টিকর্তার এক ধরনের লীলাও। কেউ কিছু বা সব পেয়েও অতৃপ্তির উত্তাল সাগরে ভাসছে। কেউবা ঘরে খাবার, বিছানা থাকা সত্ত্বেও অরুচিতে ভোগে- বিছানায় ঘুমের ঠিকানা খুঁজে পায় না। কিন্তু ১৫ টাকার পচা বিরানি গেলা সর্বহারার গুদামে রুচি ও সুখ নিদ্রার বিপুল মজুদ!

নিজের অভিজ্ঞতাটাই শেয়ার করছি। আজ যা আছে, তা নিয়ে যদি তৃপ্ত থাকি, জীবন খুব সহজসরল হয়ে যায়। ওর এত বেশি- আমার নেই কেন? আমারও চাই অনেক-অনেক। নিজের দৈনিক ভাবনায় এমন ঘুণপোকা যদি একবার প্রশ্রয় পায়, তারাই আপনার সুখ কুঁড়ে কুঁড়ে খাবে। বাড়তি শত্রুর দরকার নেই। আজ যা আছে, তা নিয়ে ছোট সুখ খুঁজে নিন। কালের ভাবনা কালকের জন্য থাক না!

বড় স্বপ্ন অবশ্যই দেখুন, বাস্তবায়নের জন্য নিজকে যোগ্য ও দক্ষ করে গড়ুন। লেগে থাকুন, হারলেও ছাড় নেই। বার বার লড়ুন। কেন হার, ভুল খুঁজে বের করুন। আবার নামুন-জিতবেন নিশ্চিত। নিজকে নিয়ে ভাবুন, দুর্বলতা কোথায় চিহ্নিত হবেই। হ্যাঁ দেশ-মানুষ ভাবনায় থাকবে, কিন্তু আগে নিজেকে উঠে দাঁড়াতে হবে, তারপর। আবারো বলছি, অসুখী মনে হলে মধ্যরাতের আশ্রয়হীনদের কাছে যান। এরাই আপনাকে সর্ব সুখের এলাজ দেবে, সুখ পাখি আপনার খাঁচায় বন্দী হবেই। বুঝবেন, কতো বেশি নিরাপদে আছেন আপনি।

নিজের ছোট ছোট প্রতিটি ভালোলাগা উপভোগ করুন। আনন্দ খুঁজে নিন, চারপাশের জীবন ও প্রকৃতির ভাণ্ডার থেকে। বাংলাদেশ জার্নাল

Facebook Comments
Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» বেনাপোল বন্দর দিয়ে ভারতে গেল ৮০৫ টন ইলিশ

» বাংলাদেশ কখনো জঙ্গিবাদকে প্রশ্রয় দেয়নি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

» বাঁচতে চায় ব্লাড ক্যান্সারে আক্রান্ত অর্নব

» যে কারণে প্রধান সাক্ষী থেকে ফাঁসির আসামি মিন্নি

» মাদারীপুর জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল ক্যাম্পেইন উপলক্ষে প্রেসব্রিফিং

» চন্ডিপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে জতীয় কন্যা শিশু দিবস উদযাপন উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

» আগামী সপ্তাহেই এইচএসসি পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা : শিক্ষামন্ত্রী

» সপ্তাহে ২০ টি ফ্লাইট যাবে সৌদি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

» ‘খালেদা জিয়া চাইলে যুক্তরাজ্যে চিকিৎসা সম্ভব’

» ৬০ টাকায় মাশরুম চাষ শুরু করে এখন কোটিপতি

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা – মাকসুদা লিসা।

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

 

 

 

 

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...

আপন ঘরে সুখ পাখি

সুখ পাখি সুখ খোঁজে আপন মনে, চারিদিকে ছুটে বেড়ায় সুখের সন্ধানে। যেখানেই খুঁজে পায় সুখের নীড়, বুকে তার জেগে ওঠে আশার তীর। সুখ চাই, বুঝলেন, খাঁটি সুখ। জানেন কোথায় পাওয়া যায় এই সুখ পাখির খোঁজ? চাই, চাই করে তো এদিক-ওদিক ঘুরে বেড়াচ্ছেন, কিন্তু সুখ। সে তো ফুড়ুত্। আসলে সুখ-দুঃখ যমজ বোন। দু’টোকে নিয়েই আমাদের ঘরবসতি। চারপাশের অস্থিরতা, ভণ্ডামি, কপটাচারে মন খারাপ করবেই। তবুও ভালো থাকা না থাকা নিজের ইচ্ছাধীন। মনোবল, সাধনা, জ্ঞান কর্মোদ্দীপনার মূল টনিক। সুখ-দুঃখ একান্তই আপেক্ষিক।

আমরা জানলেও ভুলে থাকি, ঢাকা-চট্টগ্রামসহ বড় বড় নগরে কয়েক মিলিয়ন মানুষের ঠিকানা নাই। তারা ভ্রাম্যমাণ হলেও যাযাবর নন। এদের ভাগ্যবান অংশটি কয়েক বর্গফুটের বস্তিতে ছোটবড় সংসার পাতে। দুর্ভাগাদের ঠিকানা ফুটপাত, টার্মিনাল, রেলস্টেশন, বড়বড় পাইপের গুহা, রিক্সাভ্যান বা রিকশার হুড।

এদের কষ্টের সাথে নিজের কষ্টের তুলনা খুঁজলে নিশ্চয়ই নিজের ভাগ্যকে বাহবা দেবেন।

করোনার টানা আতঙ্কে অনেকের আয় কমে গেছে। আবার টাকা দিয়েও সব সেবা ঠিকমত পায় না। বিদ্যুৎ, পানি থাকে না। চিকিৎসা নাই, ওষুধে ভেজাল, খাদ্যে ভেজাল, চারপাশে ঠকবাজ, মূল্যবৃদ্ধি, সন্তানের লেখাপড়ার দায় আরো কত্তো অভিযোগ। দুর্নীতি,অনিয়মের বিরুদ্ধে ফেসবুকে গদা ঘুরাই, ট্রল করি, না’পছন্দের দল ও ব্যক্তিকে। আবার কারো বা ঘুমে সমস্যা, খাবারে অরুচি! স্বাভাবিক, বলা কওয়া, প্রতিবাদ তো হবেই।

মজার বিষয়, যত সমস্যা দুর্ভোগ সব মধ্যবিত্ত শ্রেণির মাঝেই গোত্তা খাচ্ছে। যাদের বেশি টাকা তারা এসব নিয়ে কিছু বলে না। আবার সবচেয়ে বঞ্চিত বিপুল জনগোষ্ঠীও চুপ। ওরা আছে জীবিকার দৌড়ে, প্রতিবাদের সময় নেই। কষ্টের কথা শোনানোর দম নেই। চলছে টানা বেঁচে থাকার যুদ্ধ। এরা কিন্তু যা পায়, ভেজাল,পচাগলা পেটপুরে তৃপ্তিভরে খায়। ঘুমটাও চমৎকার। পাইপের গর্ত, রিকশার হুড বা বস্তির ৫/৭ বর্গফুটের খুপড়িতে ৫/৬ জন একসাথে ঘুমায়। ঠিকমত পা মেলতে পারেনা,পাশ ফিরতে পারেনা, তবুও! কীভাবে এত আরামের খাওয়া, ঘুম! ভেবেছি কখনো? নিশ্চয়ই না। তাহলে কীভাবে বুঝবো, ভাসমান-বহমান জীবনগুলোর হাসিকান্না, সংসার! আসলে ক্ষুধা আর ঘুম বিলাস ছাড়া মাথায় অন্যপোকা তারা নেয়না। ভাবনা-চিন্তা, অভাব-অনটন চর্চা বা অপ্রাপ্তির বাড়তি বিলাস চর্চা তাদের হয় না! জীবনযুদ্ধ সবকিছু এমনকি বাড়তি সময়ও কেড়ে নিয়েছে। তাই কঠোর শ্রমশেষে টানা ৮ ঘণ্টা নাক ডেকে ঘুমায়। মাত্র ‘১৫ টাকার ফুটপাত তেহারি বা মোরগ বিরানিতে উদর পূর্তি করে তৃপ্তির ঢেকুর তুলে বিড়িতে টান দেয় মনের সুখে।

এটাই সুখ, সুস্থতা, বিনোদনও! অবিশ্বাস্য নয় কি। হ্যাঁ, এটা প্রকৃতি বা সৃষ্টিকর্তার এক ধরনের লীলাও। কেউ কিছু বা সব পেয়েও অতৃপ্তির উত্তাল সাগরে ভাসছে। কেউবা ঘরে খাবার, বিছানা থাকা সত্ত্বেও অরুচিতে ভোগে- বিছানায় ঘুমের ঠিকানা খুঁজে পায় না। কিন্তু ১৫ টাকার পচা বিরানি গেলা সর্বহারার গুদামে রুচি ও সুখ নিদ্রার বিপুল মজুদ!

নিজের অভিজ্ঞতাটাই শেয়ার করছি। আজ যা আছে, তা নিয়ে যদি তৃপ্ত থাকি, জীবন খুব সহজসরল হয়ে যায়। ওর এত বেশি- আমার নেই কেন? আমারও চাই অনেক-অনেক। নিজের দৈনিক ভাবনায় এমন ঘুণপোকা যদি একবার প্রশ্রয় পায়, তারাই আপনার সুখ কুঁড়ে কুঁড়ে খাবে। বাড়তি শত্রুর দরকার নেই। আজ যা আছে, তা নিয়ে ছোট সুখ খুঁজে নিন। কালের ভাবনা কালকের জন্য থাক না!

বড় স্বপ্ন অবশ্যই দেখুন, বাস্তবায়নের জন্য নিজকে যোগ্য ও দক্ষ করে গড়ুন। লেগে থাকুন, হারলেও ছাড় নেই। বার বার লড়ুন। কেন হার, ভুল খুঁজে বের করুন। আবার নামুন-জিতবেন নিশ্চিত। নিজকে নিয়ে ভাবুন, দুর্বলতা কোথায় চিহ্নিত হবেই। হ্যাঁ দেশ-মানুষ ভাবনায় থাকবে, কিন্তু আগে নিজেকে উঠে দাঁড়াতে হবে, তারপর। আবারো বলছি, অসুখী মনে হলে মধ্যরাতের আশ্রয়হীনদের কাছে যান। এরাই আপনাকে সর্ব সুখের এলাজ দেবে, সুখ পাখি আপনার খাঁচায় বন্দী হবেই। বুঝবেন, কতো বেশি নিরাপদে আছেন আপনি।

নিজের ছোট ছোট প্রতিটি ভালোলাগা উপভোগ করুন। আনন্দ খুঁজে নিন, চারপাশের জীবন ও প্রকৃতির ভাণ্ডার থেকে। বাংলাদেশ জার্নাল

Facebook Comments
Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা – মাকসুদা লিসা।

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

 

 

 

 

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Design & Developed BY ThemesBazar.Com