অনলাইনে শুক্রাণু কিনে ‘ই-বেবি’ জন্ম দিলেন নারী

দ্বিতীয় সন্তান নিতে আগ্রহী হন এক ব্রিটিশ নারী। কিন্তু ৩৩ বছর বয়সী স্টেফনি টেলর নতুন করে কোনো সম্পর্কে জড়াতে চাননি। সেক্ষেত্রে তার বিকল্প উপায় ছিল কোনো গর্ভধারণ কেন্দ্রের দ্বারস্থ হওয়া।

 

সম্পর্কে জড়াতে না চাইলেও স্টেফনি আবার চেয়েছেন তার সন্তান তারই মতো যেন দেখতে হয়। তাই তিনি এমন কাউকে খুঁজছিলেন, যার শারীরিক গঠন তার সঙ্গে মেলে। একই সঙ্গে স্বভাবের দিক থেকেও পরিবারমুখী মানুষ চাচ্ছিলেন তিনি। সে কারণেই বিকল্প পথ খোঁজেন স্টেফনি।

বিষয়টি এক বন্ধুর সঙ্গে শেয়ার করার পর, তার ওই বন্ধুই স্টেফনিকে অনলাইনে শুক্রাণু কেনার একটি অ্যাপের সন্ধান দেন। ওই অ্যাপে শুক্রাণু দিতে ইচ্ছুক ব্যক্তির পরিবার থেকে শুরু করে স্বাস্থ্য-সংক্রান্ত সব তথ্যই দেওয়া থাকে। সেখান থেকেই নিজের সন্তানের জন্য শুক্রাণুদাতা খুঁজে নেন তিনি।

 

সিদ্ধান্ত নেওয়ার ঠিক দশ মাস পর ফুটফুটে এক কন্যা সন্তানের জন্ম দিয়েছেন এই নারী। কন্যার নাম রেখেছেন ইডেন। স্টেফনির ঘটনা জেনে অনেকেই ইডেনের অন্য নামও রেখেছে, ‘ই-বেবি’। স্টেফনি ও তার আগের জীবনসঙ্গীর প্রায় পাঁচ বছর বয়সী একটি ছেলে সন্তানও রয়েছে।

 

কেন কোনো কেন্দ্রে না গিয়ে বাড়িতেই এমন পদ্ধতিতে গর্ভধারণ করেছেন, এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, তিনি প্রথমে বিকল্প ভেবেছিলেন, যোগাযোগও করেন কয়েকটি কেন্দ্রে। কিন্তু সন্তান ধারণের পুরো প্রক্রিয়া অনেক ব্যয়বহুল, সে কারণে তিনি এমন সিদ্ধান্ত নেন।

 

তিনি আরও জানান, অনলাইনের মাধ্যমে শুক্রাণু কিনেছেন। ইউটিউব দেখে সেই শুক্রাণু গর্ভে প্রবেশ করানোর পদ্ধতি শিখেছেন। শেষে ই-বে থেকে কিনে নেন প্রজনন প্রক্রিয়ার দরকারি জিনিসপত্র। তিনি এটাও মনে করেন যে, অনলাইনে যখন সব কিছুই হচ্ছে, তখন সন্তান ধারণেই বা সমস্যা কোথায়!

এটি তার জীবনের একটি বুদ্ধিদীপ্ত সিদ্ধান্ত ছিল বলে জানান এই গর্বিত মা।

সূত্র: দ্যা মিরর

Facebook Comments Box
Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» ময়মনসিংহে প্রতিমা বিসর্জনের মধ্যদিয়ে শেষ হলো শারদীয় দুর্গোৎসব

» কড়া নিরাপত্তায় প্রতিমা বিসর্জন

» রাজধানীর হানিফ ফ্লাইওভারের ওপরে উল্টে গেল বাস

» ২০০ কোটি টাকা অর্থ আত্মসাত: জেরার মুখে নোরা, জ্যাকুলিন

» আওয়ামী লীগকে আন্দোলনের ভয় দেখিয়ে লাভ নাই: এনামুল হক শামীম

» সম্প্রীতি বিনষ্টকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে সরকার: রেলমন্ত্রী

» কৃষি উন্নয়নের মাধ্যমে সোনার বাংলা গড়ার লক্ষ্যে সরকার কাজ করে যাচ্ছে: রাষ্ট্রপতি

» নওগাঁয় প্রতিমা বিসর্জনে শেষ হল দুর্গোৎসব

» যাত্রাবাড়ীতে অভিযান চালিয়ে ৫৯৭ বোতল ফেনসিডিলসহ ১জন আটক

» সচল থ্রিজি-ফোরজি ইন্টারনেট

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি।(দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

 

 

 

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...

অনলাইনে শুক্রাণু কিনে ‘ই-বেবি’ জন্ম দিলেন নারী

দ্বিতীয় সন্তান নিতে আগ্রহী হন এক ব্রিটিশ নারী। কিন্তু ৩৩ বছর বয়সী স্টেফনি টেলর নতুন করে কোনো সম্পর্কে জড়াতে চাননি। সেক্ষেত্রে তার বিকল্প উপায় ছিল কোনো গর্ভধারণ কেন্দ্রের দ্বারস্থ হওয়া।

 

সম্পর্কে জড়াতে না চাইলেও স্টেফনি আবার চেয়েছেন তার সন্তান তারই মতো যেন দেখতে হয়। তাই তিনি এমন কাউকে খুঁজছিলেন, যার শারীরিক গঠন তার সঙ্গে মেলে। একই সঙ্গে স্বভাবের দিক থেকেও পরিবারমুখী মানুষ চাচ্ছিলেন তিনি। সে কারণেই বিকল্প পথ খোঁজেন স্টেফনি।

বিষয়টি এক বন্ধুর সঙ্গে শেয়ার করার পর, তার ওই বন্ধুই স্টেফনিকে অনলাইনে শুক্রাণু কেনার একটি অ্যাপের সন্ধান দেন। ওই অ্যাপে শুক্রাণু দিতে ইচ্ছুক ব্যক্তির পরিবার থেকে শুরু করে স্বাস্থ্য-সংক্রান্ত সব তথ্যই দেওয়া থাকে। সেখান থেকেই নিজের সন্তানের জন্য শুক্রাণুদাতা খুঁজে নেন তিনি।

 

সিদ্ধান্ত নেওয়ার ঠিক দশ মাস পর ফুটফুটে এক কন্যা সন্তানের জন্ম দিয়েছেন এই নারী। কন্যার নাম রেখেছেন ইডেন। স্টেফনির ঘটনা জেনে অনেকেই ইডেনের অন্য নামও রেখেছে, ‘ই-বেবি’। স্টেফনি ও তার আগের জীবনসঙ্গীর প্রায় পাঁচ বছর বয়সী একটি ছেলে সন্তানও রয়েছে।

 

কেন কোনো কেন্দ্রে না গিয়ে বাড়িতেই এমন পদ্ধতিতে গর্ভধারণ করেছেন, এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, তিনি প্রথমে বিকল্প ভেবেছিলেন, যোগাযোগও করেন কয়েকটি কেন্দ্রে। কিন্তু সন্তান ধারণের পুরো প্রক্রিয়া অনেক ব্যয়বহুল, সে কারণে তিনি এমন সিদ্ধান্ত নেন।

 

তিনি আরও জানান, অনলাইনের মাধ্যমে শুক্রাণু কিনেছেন। ইউটিউব দেখে সেই শুক্রাণু গর্ভে প্রবেশ করানোর পদ্ধতি শিখেছেন। শেষে ই-বে থেকে কিনে নেন প্রজনন প্রক্রিয়ার দরকারি জিনিসপত্র। তিনি এটাও মনে করেন যে, অনলাইনে যখন সব কিছুই হচ্ছে, তখন সন্তান ধারণেই বা সমস্যা কোথায়!

এটি তার জীবনের একটি বুদ্ধিদীপ্ত সিদ্ধান্ত ছিল বলে জানান এই গর্বিত মা।

সূত্র: দ্যা মিরর

Facebook Comments Box
Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি।(দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

 

 

 

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Design & Developed BY ThemesBazar.Com