অতিরিক্ত গরমে মাইগ্রেনের ব্যথা প্রতিরোধে করণীয়

গরমের কারণে বিভিন্ন রোগের উপসর্গকে কোনও ভাবে উপেক্ষা করা যায় না। যারা মাইগ্রেন সমস্যার শিকার, তাদের সমস্যা আরও বেড়ে যায় প্রখর রোদে। আর যদি এই অবস্থায় প্রতিদিন রোদে বের হতে হয়, তাহলে এর চেয়ে কষ্টকর কিছু হয় না।

 

রোদ থেকে বাড়ি বা অফিসে ঢুকলেই শুধু হয়ে যায় অসহ্য মাথার যন্ত্রণা, চোখে ব্যথা, ঘাড়ে ব্যথা, বমি বমি ভাব। গরমে শরীর ডিহাইড্রেটেড হয়ে যায়। এই অবস্থাও মাইগ্রেনের পিছনে দায়ী। তাহলে এই পরিস্থিতিকে এড়াবেন কীভাবে?

 

বিশেষজ্ঞেরা বলছেন, মাইগ্রেনের সমস্যাকে নিয়ন্ত্রণে রাখার সবচেয়ে ভাল উপায় হল আপনি যদি এর আসল কারণ খুঁজে বের করেন। একবার কারণ জেনে গেলেই সমস্যার সমাধান হবে। মাইগ্রেনের যন্ত্রণা শুরু হওয়ার আগে এর কিছু উপসর্গ দেখা দেয়, যার মধ্যে রয়েছে স্থায়ী মাথাব্যথা, মাথার একপাশে তীব্র ব্যথা বা স্পন্দিত ব্যথা, আলো ও শব্দের প্রতি সংবেদনশীলতা এবং বমি বমি ভাব।

মাইগ্রেনের এই উপসর্গগুলি মাথা যন্ত্রণার এক থেকে দুই দিন আগে শুরু হতে পারে, যা ‘প্রোড্রোম’ পর্যায় হিসাবে পরিচিত, যেখানে খাদ্যের আকাঙ্ক্ষা, ক্লান্তি বা কম শক্তি, হতাশা, অতিসক্রিয়তা, বিরক্তি বা ঘাড় শক্ত হওয়ার মত উপসর্গগুলি থাকে। এখন যেহেতু প্রতিদিনই রোদে বের হতে হয়, সেখানে এই ধরনের উপসর্গগুলি আপনি দ্রুত লক্ষ্য করবেন। আর যখনই মাইগ্রেনের যে কোনও উপসর্গ উপলব্ধি করবেন, তা সঙ্গে সঙ্গে ডায়েরিতে লিখে ফেলুন। এতে রোগের কারণ সহজে জানা যায়। এর সঙ্গে কোন দিনগুলিতে মাইগ্রেনের যন্ত্রণা হচ্ছে এবং সে দিনগুলিতে কী খাচ্ছেন সেগুলিও লিখে রাখুন। এর পাশাপাশি বেশিক্ষণ রোদে থাকছেন কি না কিংবা কতক্ষণ রোদে থাকছেন সেই দিকে খেয়াল রাখুন।

 

যদি সাময়িক ভাবে এই তাপপ্রবাহের মধ্যে মাইগ্রেনের সমস্যাকে বশে রাখতে চান, তাহলে মেনে চলুন সহজ কিছু উপায়। আগেই উল্লেখ করা হয়েছে- ডিহাইড্রেশন মাইগ্রেনের সমস্যা বাড়িয়ে তুলতে পারে। তাই এই গরমে কোনও ভাবেই শরীরে পানিশূন্যতার সমস্যা তৈরি হতে দেওয়া যাবে না। দিনে অন্তত পক্ষে তিন লিটার পানি পান করুন। রাস্তায় বের হলে ব্যাগে ছাতা ও পানির বোতল অবশ্যই রাখুন। এর পাশাপাশি টুপি ও রোদচশমা অবশ্যই ব্যবহার করুন। চোখে রোদ লাগলে বেড়ে যেতে পারে মাইগ্রেনের সমস্যা।

 

গরমে সুস্থ থাকতে এবং মাইগ্রেনের সমস্যা এড়াতে চিকিৎসকেরা পরামর্শ দিচ্ছেন জাঙ্ক ফুড, চা, কফি, চকলেট, রেড ওয়াইন‌, ড্রাই ফ্রুটস, প্রক্রিয়াজাত চিনির তৈরি খাবার, চিজ জাতীয় খাবার এড়িয়ে চলার। এর বদলে ডায়েটে রাখুন প্রচুর পরিমাণে মৌসুমি ফল, সবুজ শাকসবজি। ডায়েট কোক বা সোডার বদলে ভরসা রাখুন ডাবের পানি ও ফলের রসের ওপর। কিন্তু খালি পেটে একদম বাড়ির বাইরে পা রাখবেন। এতে যেমন মাইগ্রেনের সমস্যা বাড়বে তেমনই গরমে আপনি অসুস্থ বোধ করতে পারেন।

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» দুর্নীতিবাজ-বিপথগামীরা যুবলীগে আসতে পারবে না: মাইনুল হোসেন খান নিখিল

» সিসি ক্যামেরার আওতায় আসবে পুরো রাজধানী: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

» ২৩ সালের আগেই হবে ক্ষমতার পরিবর্তন হবে: নুর

» জয়পুরহাটে স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামী আটক

» খোমিনি স্টাইলে বিপ্লবের দুঃস্বপ্ন দেখছে বিএনপি: ওবায়দুল কাদের

» ভোজনে পটু যে ৪ রাশির মানুষ

» কোরবানি ও আকিকা একসঙ্গে দেওয়া যাবে?

» ৩৫৩ বোতল ফেনসিডিলসহ দুই মাদক কাবারি গ্রেফতার

» চিকেন কাবাব তৈরির রেসিপি

» পিরিয়ডের সময় যেসব কাজ ভুলেও করবেন না

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি।(দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...

অতিরিক্ত গরমে মাইগ্রেনের ব্যথা প্রতিরোধে করণীয়

গরমের কারণে বিভিন্ন রোগের উপসর্গকে কোনও ভাবে উপেক্ষা করা যায় না। যারা মাইগ্রেন সমস্যার শিকার, তাদের সমস্যা আরও বেড়ে যায় প্রখর রোদে। আর যদি এই অবস্থায় প্রতিদিন রোদে বের হতে হয়, তাহলে এর চেয়ে কষ্টকর কিছু হয় না।

 

রোদ থেকে বাড়ি বা অফিসে ঢুকলেই শুধু হয়ে যায় অসহ্য মাথার যন্ত্রণা, চোখে ব্যথা, ঘাড়ে ব্যথা, বমি বমি ভাব। গরমে শরীর ডিহাইড্রেটেড হয়ে যায়। এই অবস্থাও মাইগ্রেনের পিছনে দায়ী। তাহলে এই পরিস্থিতিকে এড়াবেন কীভাবে?

 

বিশেষজ্ঞেরা বলছেন, মাইগ্রেনের সমস্যাকে নিয়ন্ত্রণে রাখার সবচেয়ে ভাল উপায় হল আপনি যদি এর আসল কারণ খুঁজে বের করেন। একবার কারণ জেনে গেলেই সমস্যার সমাধান হবে। মাইগ্রেনের যন্ত্রণা শুরু হওয়ার আগে এর কিছু উপসর্গ দেখা দেয়, যার মধ্যে রয়েছে স্থায়ী মাথাব্যথা, মাথার একপাশে তীব্র ব্যথা বা স্পন্দিত ব্যথা, আলো ও শব্দের প্রতি সংবেদনশীলতা এবং বমি বমি ভাব।

মাইগ্রেনের এই উপসর্গগুলি মাথা যন্ত্রণার এক থেকে দুই দিন আগে শুরু হতে পারে, যা ‘প্রোড্রোম’ পর্যায় হিসাবে পরিচিত, যেখানে খাদ্যের আকাঙ্ক্ষা, ক্লান্তি বা কম শক্তি, হতাশা, অতিসক্রিয়তা, বিরক্তি বা ঘাড় শক্ত হওয়ার মত উপসর্গগুলি থাকে। এখন যেহেতু প্রতিদিনই রোদে বের হতে হয়, সেখানে এই ধরনের উপসর্গগুলি আপনি দ্রুত লক্ষ্য করবেন। আর যখনই মাইগ্রেনের যে কোনও উপসর্গ উপলব্ধি করবেন, তা সঙ্গে সঙ্গে ডায়েরিতে লিখে ফেলুন। এতে রোগের কারণ সহজে জানা যায়। এর সঙ্গে কোন দিনগুলিতে মাইগ্রেনের যন্ত্রণা হচ্ছে এবং সে দিনগুলিতে কী খাচ্ছেন সেগুলিও লিখে রাখুন। এর পাশাপাশি বেশিক্ষণ রোদে থাকছেন কি না কিংবা কতক্ষণ রোদে থাকছেন সেই দিকে খেয়াল রাখুন।

 

যদি সাময়িক ভাবে এই তাপপ্রবাহের মধ্যে মাইগ্রেনের সমস্যাকে বশে রাখতে চান, তাহলে মেনে চলুন সহজ কিছু উপায়। আগেই উল্লেখ করা হয়েছে- ডিহাইড্রেশন মাইগ্রেনের সমস্যা বাড়িয়ে তুলতে পারে। তাই এই গরমে কোনও ভাবেই শরীরে পানিশূন্যতার সমস্যা তৈরি হতে দেওয়া যাবে না। দিনে অন্তত পক্ষে তিন লিটার পানি পান করুন। রাস্তায় বের হলে ব্যাগে ছাতা ও পানির বোতল অবশ্যই রাখুন। এর পাশাপাশি টুপি ও রোদচশমা অবশ্যই ব্যবহার করুন। চোখে রোদ লাগলে বেড়ে যেতে পারে মাইগ্রেনের সমস্যা।

 

গরমে সুস্থ থাকতে এবং মাইগ্রেনের সমস্যা এড়াতে চিকিৎসকেরা পরামর্শ দিচ্ছেন জাঙ্ক ফুড, চা, কফি, চকলেট, রেড ওয়াইন‌, ড্রাই ফ্রুটস, প্রক্রিয়াজাত চিনির তৈরি খাবার, চিজ জাতীয় খাবার এড়িয়ে চলার। এর বদলে ডায়েটে রাখুন প্রচুর পরিমাণে মৌসুমি ফল, সবুজ শাকসবজি। ডায়েট কোক বা সোডার বদলে ভরসা রাখুন ডাবের পানি ও ফলের রসের ওপর। কিন্তু খালি পেটে একদম বাড়ির বাইরে পা রাখবেন। এতে যেমন মাইগ্রেনের সমস্যা বাড়বে তেমনই গরমে আপনি অসুস্থ বোধ করতে পারেন।

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি।(দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : [email protected]

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Design & Developed BY ThemesBazar.Com