হৃদরোগের কারণ এনার্জি ড্রিঙ্ক!

গরমে অস্থির হয়ে পড়েন অনেকেই। শরীরের শক্তিক্ষয় কমাতে আর সতেজ থাকতে কত কিছুই না খেয়ে থাকেন। বিশেষ করে পানি জাতীয় খাবার বেশি খেলে অনেকটাই সুস্থ থাকা যায়। আর তরল পানীয়র মধ্যে গরমে এনার্জি ড্রিঙ্ক অনেকেরই পছন্দ।

কেউ কেউ এতে মিশিয়ে নিচ্ছেন বরফ, আবার কেউ বা দিনে দুই-তিন বার বরফ ছাড়াই খাচ্ছেন এনার্জি ড্রিঙ্ক। ক্লান্তি কমে কিছুটা শক্তিও আসে এতে। গরমে সাধারণ পানি খেতে ইচ্ছা না করলে তরুণরা এই পানীয় বেশি খান। কিন্তু চিকিৎসকরা বলছেন এই অভ্যাস খুব ভাল কিছু নয়। আর শুধু ছোটদের নয়, সব বয়সের জন্যই এই পানীয় ক্ষতিকর।

কেন বিপদ

পুষ্টিবিদদের মতে, একটি ৩৩০ গ্রাম এনার্জি ড্রিঙ্কের বোতলে প্রায় ১০ শতাংশ থাকে সুগার ও ক্যাফিন। যার কারণে ওবেসিটি, টাইপ ২ ডায়াবেটিস ও মানসিক অস্থিরতার সমস্যা তৈরি হতে পারে। এসব ছাড়াও রয়েছে আরো কিছু ভয়ের কারণ।

আমেরিকান হার্ট অ্যাসোশিয়েশন-এর নতুন জরিপে দেখা গেছে, ১৮ থেকে ৪০ বছর বয়সি ৩৪ জন সুস্থ মানুষের উপর তিন দিন গবেষণা চালিয়ে দেখা গিয়েছে, প্রতি দিন এক লিটার বা তার বেশি এই ধরনের পানীয় যারা খান, তাদের রক্তচাপ সুস্থ মানুষের থেকে বেড়ে যায়। একই সঙ্গে হৃদস্পন্দনের গতিও স্বাভাবিক থাকে না।

প্যাসিফিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসির একজন অধ্যাপক একটি প্রতিবেদনে জানিয়েছেন, শুধু ক্যাফিন নয়, এই ধরনের পানীয়তে টাওরিন (এক ধরনের অ্যামিনো অ্যাসিড), গ্লুকুরোনোল্যাকটোন জাতীয় অনেক উপাদান থাকে। এই পানীয়গুলো যত কম খাওয়া যায় ততই ভাল।

মেডিসিন বিশেষজ্ঞরা বলেন, এনার্জি ড্রিঙ্ক থেকে শরীরে অতিরিক্ত চিনি প্রবেশ করে। এই ধরনের পানীয়তে অনেক ক্ষেত্রেই কৃত্রিম চিনি বা অ্যাসপার্টেম থাকে, যা ডায়াবেটিসে আক্রান্ত করার জন্য যথেষ্ট। তার সঙ্গে প্রিজারভেটিভ যুক্ত থাকায় নানা চর্মরোগের জীবাণু, লিভারের উপরেও সরাসরি খারাপ প্রভাব ফেলে এই সব উপাদান। তাই পানি, ডাবের পানি, লবণ-মধুর পানি, লেবু-মধু পানি এ সব খেয়েই সতেজ থাকুন।

চিকিৎসকরা আরো বলেন, এনার্জি ড্রিঙ্ক হিসেবে অনেকে ঠাণ্ডা পানীয় খান, সেটাও খুব ক্ষতিকর। এতেও অতিরিক্ত চিনি থাকে। তাছাড়াও এগুলো শরীরে পানির চাহিদা তৈরি করে শরীরকে শুষ্ক করে দেয়। তাই এনার্জি ড্রিঙ্ক, ঠাণ্ডা পানীয় সবই বন্ধ করতে হবে।

আমাদের দেশে বিক্রি হলেও বেশ কিছু এনার্জি ড্রিঙ্ক ইতিমধ্যে নিষিদ্ধ করেছে নরওয়ে ও ডেনমার্কের মতো দেশ। যুক্তরাজ্যেও শিশুদের কাছে এই ধরনের পানীয় বিক্রি রীতিমতো নিষিদ্ধ।বাংলাদেশ জার্নাল

Facebook Comments
Share

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» বিপিএল লস প্রজেক্ট, আগামী বছর থাকবো কিনা চিন্তা করছি : নাফিসা

» এক গানেই ২ কোটি টাকা পারিশ্রমিক নিলেন জ্যাকলিন

» ঘুষের নাম বড় বাবু, স্কুল প্রতি ১০ হাজার টাকা

» পঙ্গু হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্সের মৃত্যু

» খালেদা জিয়া গ্রেনেড হামলার দায় এড়াতে পারেন না: প্রধানমন্ত্রী

» ২১শে আগস্ট গ্রেনেড হামলার বিচার দাবিতে নীলফামারীতে বিক্ষোভ সমাবেশ

» নিসু ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে মনিরামপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি লিটন ও সম্পাদক মোতাহারকে নাগরিক সংবর্ধনা

» জয়পুরহাটে ট্রাকের ধাক্কায় স্কুলছাত্রের মৃত্যু

» শেখ হাসিনাকে হত্যা করে আওয়ামী লীগকে নেতৃত্বহীন করতে চেয়েছিলো তারা: চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান মনি

» শ্রীপুরে সন্তানের অত্যাচারে বাড়ি ছাড়লেন মা, নির্যাতন থেকে বাঁচার জন্য পুলিশ সুপারের কাছে লিখিত অভিযোগ

উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -আবুল কালাম আজাদ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক

ঢাকা সাব-এডিটরস কাউন্সিল

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : শেখ মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

বার্তা সম্পাদক :এ.এইচ.এম.শাহ্জাহান

 

 

 

 

ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০,০১৯১১৪৯০৫০৫

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...
,

হৃদরোগের কারণ এনার্জি ড্রিঙ্ক!

গরমে অস্থির হয়ে পড়েন অনেকেই। শরীরের শক্তিক্ষয় কমাতে আর সতেজ থাকতে কত কিছুই না খেয়ে থাকেন। বিশেষ করে পানি জাতীয় খাবার বেশি খেলে অনেকটাই সুস্থ থাকা যায়। আর তরল পানীয়র মধ্যে গরমে এনার্জি ড্রিঙ্ক অনেকেরই পছন্দ।

কেউ কেউ এতে মিশিয়ে নিচ্ছেন বরফ, আবার কেউ বা দিনে দুই-তিন বার বরফ ছাড়াই খাচ্ছেন এনার্জি ড্রিঙ্ক। ক্লান্তি কমে কিছুটা শক্তিও আসে এতে। গরমে সাধারণ পানি খেতে ইচ্ছা না করলে তরুণরা এই পানীয় বেশি খান। কিন্তু চিকিৎসকরা বলছেন এই অভ্যাস খুব ভাল কিছু নয়। আর শুধু ছোটদের নয়, সব বয়সের জন্যই এই পানীয় ক্ষতিকর।

কেন বিপদ

পুষ্টিবিদদের মতে, একটি ৩৩০ গ্রাম এনার্জি ড্রিঙ্কের বোতলে প্রায় ১০ শতাংশ থাকে সুগার ও ক্যাফিন। যার কারণে ওবেসিটি, টাইপ ২ ডায়াবেটিস ও মানসিক অস্থিরতার সমস্যা তৈরি হতে পারে। এসব ছাড়াও রয়েছে আরো কিছু ভয়ের কারণ।

আমেরিকান হার্ট অ্যাসোশিয়েশন-এর নতুন জরিপে দেখা গেছে, ১৮ থেকে ৪০ বছর বয়সি ৩৪ জন সুস্থ মানুষের উপর তিন দিন গবেষণা চালিয়ে দেখা গিয়েছে, প্রতি দিন এক লিটার বা তার বেশি এই ধরনের পানীয় যারা খান, তাদের রক্তচাপ সুস্থ মানুষের থেকে বেড়ে যায়। একই সঙ্গে হৃদস্পন্দনের গতিও স্বাভাবিক থাকে না।

প্যাসিফিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসির একজন অধ্যাপক একটি প্রতিবেদনে জানিয়েছেন, শুধু ক্যাফিন নয়, এই ধরনের পানীয়তে টাওরিন (এক ধরনের অ্যামিনো অ্যাসিড), গ্লুকুরোনোল্যাকটোন জাতীয় অনেক উপাদান থাকে। এই পানীয়গুলো যত কম খাওয়া যায় ততই ভাল।

মেডিসিন বিশেষজ্ঞরা বলেন, এনার্জি ড্রিঙ্ক থেকে শরীরে অতিরিক্ত চিনি প্রবেশ করে। এই ধরনের পানীয়তে অনেক ক্ষেত্রেই কৃত্রিম চিনি বা অ্যাসপার্টেম থাকে, যা ডায়াবেটিসে আক্রান্ত করার জন্য যথেষ্ট। তার সঙ্গে প্রিজারভেটিভ যুক্ত থাকায় নানা চর্মরোগের জীবাণু, লিভারের উপরেও সরাসরি খারাপ প্রভাব ফেলে এই সব উপাদান। তাই পানি, ডাবের পানি, লবণ-মধুর পানি, লেবু-মধু পানি এ সব খেয়েই সতেজ থাকুন।

চিকিৎসকরা আরো বলেন, এনার্জি ড্রিঙ্ক হিসেবে অনেকে ঠাণ্ডা পানীয় খান, সেটাও খুব ক্ষতিকর। এতেও অতিরিক্ত চিনি থাকে। তাছাড়াও এগুলো শরীরে পানির চাহিদা তৈরি করে শরীরকে শুষ্ক করে দেয়। তাই এনার্জি ড্রিঙ্ক, ঠাণ্ডা পানীয় সবই বন্ধ করতে হবে।

আমাদের দেশে বিক্রি হলেও বেশ কিছু এনার্জি ড্রিঙ্ক ইতিমধ্যে নিষিদ্ধ করেছে নরওয়ে ও ডেনমার্কের মতো দেশ। যুক্তরাজ্যেও শিশুদের কাছে এই ধরনের পানীয় বিক্রি রীতিমতো নিষিদ্ধ।বাংলাদেশ জার্নাল

Facebook Comments
Share

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -আবুল কালাম আজাদ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক

ঢাকা সাব-এডিটরস কাউন্সিল

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : শেখ মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

বার্তা সম্পাদক :এ.এইচ.এম.শাহ্জাহান

 

 

 

 

ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০,০১৯১১৪৯০৫০৫

Design & Developed BY ThemesBazar.Com