সন্ত্রাস বন্ধে জীবন দিতে হলে দেবো: কামাল হোসেন

গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন বলেছেন, দলমত নির্বিশেষে ঐক্যবদ্ধভাবে আজকে বলতে হবে যে, এই ধরণের সন্ত্রাস বন্ধ করতে হবে। এটা বন্ধ করতে হবে। এটা থেকে দেশকে মুক্ত করতে হবে। এর কোনো রকমের ছাড় নাই বাংলাদেশে। জীবন দিতে হলে দেবো। কিন্তু এটাকে মেনে নেওয়া যাবে না।

বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে গণফোরাম আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব বলেন।

‘আরবার হত্যার বিচারের দাবিতে এবং আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতির প্রেক্ষিতে’ এই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

সাংবাদিকদের উদ্দেশ্য করে কামাল হোসেন বলেন, একটা ছেলে তার মত প্রকাশ করেছে। তাকে এভাবে পিটিয়ে পিটিয়ে মারা ষোল আনা সংবিধান, রাষ্ট্র ও দেশবিরোধী। এই ঘটনায় আমরাও উদ্বিগ্ন, আপনারাও উদ্বিগ্ন এবং দেশের নাগরিকরাও উদ্বিগ্ন। তাই নাগরিক হিসেবে আজকে আমাদের একটা অবস্থান নিতে হবে।

তিনি বলেন, তদন্ত দাবি করা হচ্ছে, ভালো কথা। তবে তদন্ত মানে তদন্ত। নামকাওয়াস্তে একটা ঘটনা ঘটানো না। তদন্ত মানে তদন্ত। উচ্চ পর্যায়ের ব্যক্তি নিয়ে এই তদন্ত কমিটি গঠন করা হোক।

আরবার ফাহাদের হত্যার বিষয়ে ড. কামাল বলেন, যারা এই ঘটনা ঘটিয়েছে, তাদেরকে আমি ছেলে বলবো না, এরা হচ্ছে জানোয়ার।

লিখিত বক্তব্যে গণফোরামের নির্বাহী অ্যাভোকেট সভাপতি সুব্রুত চৌধুরী বলেন, ক্ষসতাসীন দলের ছাত্র সংগঠনের দৃর্বৃত্তায়িত নেতাকর্মী এমন বেপরোয়া হয়ে উঠেছে যে, তারা আজ ফ্রাঙ্ককেন স্টাইলের মতো আচরণ করছে। হলে হলে টর্চার সেল। বুয়েট, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে, ইডেন মহিলা কলেজ এবং ঢাকা কলেজের হোস্টেলগুলোতে রয়েছে টর্চার সেল। টার্গেটে থাকা শিক্ষার্থীকে টর্চার করার আগে দেয়া হয় বিরোধী কোনো সংগঠনের তকমা। এটা অত্যন্ত ন্যাক্কারজনক, রাজনৈতিক ভণ্ডামী ও কৌশলী প্রতারণা।

নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, আসুন, দলমত নির্বিশেষে ঐক্যবদ্ধভাবে দুর্নীতিগ্রগ্রস্ত, ভণ্ড, গণবিরোধী ও কর্তৃত্ববাদী শাসন থেকে দেশকে মুক্ত করি। দেশে কার্যকর গণতন্ত্র ও সুশাসন প্রতিষ্ঠার আন্দোলনে ঐক্যবদ্ধভাবে ঝাঁপিয়ে পড়ি।

সংবাদ সম্মেলনে অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী, মোকাব্বির খান এমপি, অধ্যাপক ড. আবু সাঈদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Facebook Comments
Share

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» যুক্তরাজ্যে কন্টেইনার থেকে ৩৯ লাশ উদ্ধার

» গ্রামীণ জনগণ প্রকৃত উপজেলার সুফল থেকে বঞ্চিত: জি এম কাদের

» রাজধানীতে টানা দুই ঘণ্টা বৃষ্টি

» শিক্ষকরা ছত্রভঙ্গ, আহত ১০

» পদ হারিয়ে কাওসার বললেন, রাজনীতি করলে ভুল-ত্রুটি থাকতেই পারে

» জরিপভিত্তিক সংস্থাগুলোর প্রতিবেদনের সঙ্গে একমত নই: তথ্যমন্ত্রী

» শায়েস্তাগঞ্জে কালোবাজারীর দখলে ট্রেনের টিকেট

» কাশ্মীরের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বিগ্ন আমেরিকা!

» গাছ কেটে ভাইরাল হওয়া সেই নারী আটক

» একজন নেতার জন্য ১৪ দল ভাঙতে পারে না: ওবায়দুল কাদের

উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন, উপশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ।

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : শেখ মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

বার্তা সম্পাদক :এ.এইচ.এম.শাহ্জাহান

 

 

 

 

ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...
,

সন্ত্রাস বন্ধে জীবন দিতে হলে দেবো: কামাল হোসেন

গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন বলেছেন, দলমত নির্বিশেষে ঐক্যবদ্ধভাবে আজকে বলতে হবে যে, এই ধরণের সন্ত্রাস বন্ধ করতে হবে। এটা বন্ধ করতে হবে। এটা থেকে দেশকে মুক্ত করতে হবে। এর কোনো রকমের ছাড় নাই বাংলাদেশে। জীবন দিতে হলে দেবো। কিন্তু এটাকে মেনে নেওয়া যাবে না।

বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে গণফোরাম আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব বলেন।

‘আরবার হত্যার বিচারের দাবিতে এবং আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতির প্রেক্ষিতে’ এই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

সাংবাদিকদের উদ্দেশ্য করে কামাল হোসেন বলেন, একটা ছেলে তার মত প্রকাশ করেছে। তাকে এভাবে পিটিয়ে পিটিয়ে মারা ষোল আনা সংবিধান, রাষ্ট্র ও দেশবিরোধী। এই ঘটনায় আমরাও উদ্বিগ্ন, আপনারাও উদ্বিগ্ন এবং দেশের নাগরিকরাও উদ্বিগ্ন। তাই নাগরিক হিসেবে আজকে আমাদের একটা অবস্থান নিতে হবে।

তিনি বলেন, তদন্ত দাবি করা হচ্ছে, ভালো কথা। তবে তদন্ত মানে তদন্ত। নামকাওয়াস্তে একটা ঘটনা ঘটানো না। তদন্ত মানে তদন্ত। উচ্চ পর্যায়ের ব্যক্তি নিয়ে এই তদন্ত কমিটি গঠন করা হোক।

আরবার ফাহাদের হত্যার বিষয়ে ড. কামাল বলেন, যারা এই ঘটনা ঘটিয়েছে, তাদেরকে আমি ছেলে বলবো না, এরা হচ্ছে জানোয়ার।

লিখিত বক্তব্যে গণফোরামের নির্বাহী অ্যাভোকেট সভাপতি সুব্রুত চৌধুরী বলেন, ক্ষসতাসীন দলের ছাত্র সংগঠনের দৃর্বৃত্তায়িত নেতাকর্মী এমন বেপরোয়া হয়ে উঠেছে যে, তারা আজ ফ্রাঙ্ককেন স্টাইলের মতো আচরণ করছে। হলে হলে টর্চার সেল। বুয়েট, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে, ইডেন মহিলা কলেজ এবং ঢাকা কলেজের হোস্টেলগুলোতে রয়েছে টর্চার সেল। টার্গেটে থাকা শিক্ষার্থীকে টর্চার করার আগে দেয়া হয় বিরোধী কোনো সংগঠনের তকমা। এটা অত্যন্ত ন্যাক্কারজনক, রাজনৈতিক ভণ্ডামী ও কৌশলী প্রতারণা।

নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, আসুন, দলমত নির্বিশেষে ঐক্যবদ্ধভাবে দুর্নীতিগ্রগ্রস্ত, ভণ্ড, গণবিরোধী ও কর্তৃত্ববাদী শাসন থেকে দেশকে মুক্ত করি। দেশে কার্যকর গণতন্ত্র ও সুশাসন প্রতিষ্ঠার আন্দোলনে ঐক্যবদ্ধভাবে ঝাঁপিয়ে পড়ি।

সংবাদ সম্মেলনে অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী, মোকাব্বির খান এমপি, অধ্যাপক ড. আবু সাঈদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Facebook Comments
Share

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন, উপশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ।

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : শেখ মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

বার্তা সম্পাদক :এ.এইচ.এম.শাহ্জাহান

 

 

 

 

ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Design & Developed BY ThemesBazar.Com