সন্তানের সাথে পিরিয়ড নিয়ে কিভাবে কথা বলবেন?

সন্তানের সাথে পিরিয়ড বা ঋতুস্রাব নিয়ে খোলামেলা কথা বলা এখনো নিষিদ্ধ হিসেবে বিবেচিত হয়। অনেক পিতা মাতাই তাদের সন্তানের সাথে খোলামেলা এবং নির্দ্বিধায় এই বিষয়টি নিয়ে কথা বলতে চান না। এমনকি সন্তানরা টিভি কিংবা সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে এই ব্যাপারটি সম্পর্কে ধারণা করে থাকলেও বাবা মা এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টায় থাকেন। এটি একটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিষয় তাই এটি এড়িয়ে যাওয়া মোটেও সমাধান নয়। বরং পিরিয়ড সম্পর্কে খোলামেলা কথা বলাই শ্রেয়। কিন্তু অনেক বাবা মা-ই লজ্জা কিংবা অস্বস্তির জন্য হয়তো নিজের সন্তানের সাথে খোলামেলা কথা বলতে পারছেন না। তাই আজকে আমরা আপনাদের কিছু সহজ উপায় জানাবো যার সাহায্যে আপনি লজ্জা কিংবা অস্বস্তি ছাড়াই আপনার সন্তানের সাথে পিরিয়ড নিয়ে কথা বলতে পারবেন। তো চলুন জেনে নেই সন্তানের সাথে পিরিয়ড নিয়ে কিভাবে কথা বলবেন।

সন্তানের সাথে পিরিয়ড নিয়ে কথা বলার উপায়
কথা বলার আদর্শ সময় নির্ধারন

পিরিয়ড নিয়ে কথা বলার জন্য আদর্শ বা উপযুক্ত সময় নির্ধারন করে নিতে হবে। আপনার সন্তান যদি পাঁচ বছরের হয় তাহলে অবশ্যই সেই সময়টি তার সাথে পিরিয়ড নিয়ে কথা বলার জন্য আদর্শ সময় নয়। সাধারণত একটি মেয়ের ৮-১২ বছরের মধ্যে ঋতুস্রাব শুরু হতে পারে। আপনার মেয়ের বয়স যদি ৮-১২ বছরের মধ্যে হয় তাহলে এটি তার সাথে পিরিয়ড নিয়ে কথা বলার সবচেয়ে আদর্শ সময়। আর আপনার ছেলে কিশোর বয়সে পদার্পন করলে তার সাথেও কথা বলতে পারেন। তবে কথা বলার পূর্বে লক্ষ্য রাখবেন আপনার সন্তান ম্যাচিউরড হয়েছে কিনা কিংবা এই ব্যাপারগুলো বুঝার বা এক্সেপ্ট করার জন্য প্রস্তুত কিনা।

কিভাবে বুঝাবেন
আপনার সন্তানের সাথে পিরিয়ড নিয়ে কথা বলার সময় মূল কাহিনী সহজ ভাষায় বুঝিয়ে বলুন এবং কোন ধরনের ভুল ধারণা দেয়া যাবেনা। আপনার মেয়েকে বুঝিয়ে বলতে পারেন যখন তার পিরিয়ড বা ঋতুস্রাব হবে তখন সে যেন লজ্জা কিংবা ভয় না পায় বরং এটি একটি স্বাভাবিক এবং আনন্দের বিষয়। আবার ছেলে সন্তানকে বুঝিয়ে বলুন কোন মেয়ের পিরিয়ড হলে তাকে উদ্ভট প্রশ্ন করে বিব্রতকর অবস্থায় যেন না ফেলে। এটি খুব স্বাভাবিক একটি বিষয়।

নিজেকে প্রস্তুত করুন
আপনার সন্তানের সকল ধরনের প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার জন্য নিজেকে প্রস্তুত করে নিন। এমন পরিস্থিতিতে অনেক ধরনের প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হবে আপনাকে। সব ধরনের প্রশ্নের সঠিক এবং সুষ্ঠু উত্তর দেওয়ার জন্য নিজেকে প্রস্তুত করে তুলুন। এক্ষেত্রে আপনি সোশ্যাল মিডিয়ার সাহায্য নিতে পারেন। আজকাল ইউটিউবে সন্তানের সাথে খোলামেলা কথা বলার জন্য অনেক ধরনের ভিডিও আছে। এছাড়াও বই পড়ে কিংবা স্কুলের টিচার বা অন্য কারো সাথে কথা বলে আপনি নিজেকে প্রস্তুত করে নিতে পারেন।

সঠিক তথ্য দান
আপনার সন্তানের সাথে পিরিয়ড নিয়ে কথা বলার সময় অবশ্যই তাকে সঠিক তথ্য দিবেন। কত বয়স থেকে কত বয়স পর্যন্ত পিরিয়ডের স্থায়িত্বকাল একটি মেয়ের জন্য এর প্রয়োজনীয়তা সাবধানতা ইত্যাদি সবধরনের সঠিক তথ্য দিতে হবে।

পিরিয়ড একটি স্বাভাবিক ও প্রাকৃতিক প্রক্রিয়া এতে লজ্জা পাওয়ার কিছুই নেই। তাছাড়া এতে গোপনীয়তারও কিছু নেই। তাই লজ্জা বা অস্বস্থি ভুলে আপনার সন্তানের সাথে পিরিয়ড বা ঋতুস্রাব নিয়ে খোলামেলা কথা বলুন।

সংগৃহীত: সাজগোজ

Facebook Comments
Share

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» ” নীরব “

» পাপিয়াকাণ্ডে নেতৃত্ব হারাচ্ছেন কি নাজমা-অপু?

» পাপিয়ার ঘটনাই শেষ নয়, আরও ১৫৩ অপকর্মকারীর তালিকা শেখ হাসিনার হাতে!

» কামরাঙ্গীর চর আলিনগর এলাকায় প্লাস্টিকের কারখানায় আগুন নিয়ন্ত্রনে

» অন্য এক প্রিয়ম

» এমপি-মেয়র দ্বন্দ্ব ময়লা আবর্জনায় ভাসছে মাইজদী শহর

» ‘ভোট দিছি না হের লাইগা ভাতা পাই না’

» দাম বাড়লো স্মারক স্বর্ণ মুদ্রার

» পিলখানা ট্র্যাজেডি দিবস আজ

» পাল্টে যাচ্ছে বারিধারার পার্ক রোডের নাম

উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন, উপশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ।

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, সাবেক ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

বিশেষ প্রতিনিধি:মাকসুদা লিসা

 

 

 

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...
,

সন্তানের সাথে পিরিয়ড নিয়ে কিভাবে কথা বলবেন?

সন্তানের সাথে পিরিয়ড বা ঋতুস্রাব নিয়ে খোলামেলা কথা বলা এখনো নিষিদ্ধ হিসেবে বিবেচিত হয়। অনেক পিতা মাতাই তাদের সন্তানের সাথে খোলামেলা এবং নির্দ্বিধায় এই বিষয়টি নিয়ে কথা বলতে চান না। এমনকি সন্তানরা টিভি কিংবা সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে এই ব্যাপারটি সম্পর্কে ধারণা করে থাকলেও বাবা মা এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টায় থাকেন। এটি একটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিষয় তাই এটি এড়িয়ে যাওয়া মোটেও সমাধান নয়। বরং পিরিয়ড সম্পর্কে খোলামেলা কথা বলাই শ্রেয়। কিন্তু অনেক বাবা মা-ই লজ্জা কিংবা অস্বস্তির জন্য হয়তো নিজের সন্তানের সাথে খোলামেলা কথা বলতে পারছেন না। তাই আজকে আমরা আপনাদের কিছু সহজ উপায় জানাবো যার সাহায্যে আপনি লজ্জা কিংবা অস্বস্তি ছাড়াই আপনার সন্তানের সাথে পিরিয়ড নিয়ে কথা বলতে পারবেন। তো চলুন জেনে নেই সন্তানের সাথে পিরিয়ড নিয়ে কিভাবে কথা বলবেন।

সন্তানের সাথে পিরিয়ড নিয়ে কথা বলার উপায়
কথা বলার আদর্শ সময় নির্ধারন

পিরিয়ড নিয়ে কথা বলার জন্য আদর্শ বা উপযুক্ত সময় নির্ধারন করে নিতে হবে। আপনার সন্তান যদি পাঁচ বছরের হয় তাহলে অবশ্যই সেই সময়টি তার সাথে পিরিয়ড নিয়ে কথা বলার জন্য আদর্শ সময় নয়। সাধারণত একটি মেয়ের ৮-১২ বছরের মধ্যে ঋতুস্রাব শুরু হতে পারে। আপনার মেয়ের বয়স যদি ৮-১২ বছরের মধ্যে হয় তাহলে এটি তার সাথে পিরিয়ড নিয়ে কথা বলার সবচেয়ে আদর্শ সময়। আর আপনার ছেলে কিশোর বয়সে পদার্পন করলে তার সাথেও কথা বলতে পারেন। তবে কথা বলার পূর্বে লক্ষ্য রাখবেন আপনার সন্তান ম্যাচিউরড হয়েছে কিনা কিংবা এই ব্যাপারগুলো বুঝার বা এক্সেপ্ট করার জন্য প্রস্তুত কিনা।

কিভাবে বুঝাবেন
আপনার সন্তানের সাথে পিরিয়ড নিয়ে কথা বলার সময় মূল কাহিনী সহজ ভাষায় বুঝিয়ে বলুন এবং কোন ধরনের ভুল ধারণা দেয়া যাবেনা। আপনার মেয়েকে বুঝিয়ে বলতে পারেন যখন তার পিরিয়ড বা ঋতুস্রাব হবে তখন সে যেন লজ্জা কিংবা ভয় না পায় বরং এটি একটি স্বাভাবিক এবং আনন্দের বিষয়। আবার ছেলে সন্তানকে বুঝিয়ে বলুন কোন মেয়ের পিরিয়ড হলে তাকে উদ্ভট প্রশ্ন করে বিব্রতকর অবস্থায় যেন না ফেলে। এটি খুব স্বাভাবিক একটি বিষয়।

নিজেকে প্রস্তুত করুন
আপনার সন্তানের সকল ধরনের প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার জন্য নিজেকে প্রস্তুত করে নিন। এমন পরিস্থিতিতে অনেক ধরনের প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হবে আপনাকে। সব ধরনের প্রশ্নের সঠিক এবং সুষ্ঠু উত্তর দেওয়ার জন্য নিজেকে প্রস্তুত করে তুলুন। এক্ষেত্রে আপনি সোশ্যাল মিডিয়ার সাহায্য নিতে পারেন। আজকাল ইউটিউবে সন্তানের সাথে খোলামেলা কথা বলার জন্য অনেক ধরনের ভিডিও আছে। এছাড়াও বই পড়ে কিংবা স্কুলের টিচার বা অন্য কারো সাথে কথা বলে আপনি নিজেকে প্রস্তুত করে নিতে পারেন।

সঠিক তথ্য দান
আপনার সন্তানের সাথে পিরিয়ড নিয়ে কথা বলার সময় অবশ্যই তাকে সঠিক তথ্য দিবেন। কত বয়স থেকে কত বয়স পর্যন্ত পিরিয়ডের স্থায়িত্বকাল একটি মেয়ের জন্য এর প্রয়োজনীয়তা সাবধানতা ইত্যাদি সবধরনের সঠিক তথ্য দিতে হবে।

পিরিয়ড একটি স্বাভাবিক ও প্রাকৃতিক প্রক্রিয়া এতে লজ্জা পাওয়ার কিছুই নেই। তাছাড়া এতে গোপনীয়তারও কিছু নেই। তাই লজ্জা বা অস্বস্থি ভুলে আপনার সন্তানের সাথে পিরিয়ড বা ঋতুস্রাব নিয়ে খোলামেলা কথা বলুন।

সংগৃহীত: সাজগোজ

Facebook Comments
Share

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন, উপশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ।

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, সাবেক ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

বিশেষ প্রতিনিধি:মাকসুদা লিসা

 

 

 

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন:ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Design & Developed BY ThemesBazar.Com