শিশুকে কত বছর মায়ের দুধ পান করানো উচিত?

একজন মা যার একটা পাঁচ বছর বয়সী মেয়ে এবং দুই বছর বয়সী ছেলে রয়েছে তারা একই সঙ্গে মায়ের দুধ পান করছে।

এমা শার্ডলো হাডসন বলেন, এটা তার সন্তানদের শরীরের জন্য ভালো। কারণ তার সন্তান খুব কম অসুস্থ হয়।

২৭ বছর বয়সী এই মা বলেন, তিনি বিষয়টা ভালোভাবে নিচ্ছেন কারণ বুকের দুধে এন্টিবডি রয়েছে যেটি শিশুর শরীরের জন্য ভালো। যুক্তরাজ্যের চিকিৎসকরা পরামর্শ দেন যতদিন মা এবং শিশু দুজনই চাইবে ততদিন দুধ পান করানো উচিত।

যুক্তরাজ্যের ন্যাশনাল হেলথ সার্ভিস নির্দিষ্ট কোনো সময় বেঁধে দেয়নি ঠিক কোন সময়ে দুধ পান করানো বন্ধ করতে হবে। শিশুর জন্য প্রথম ছয় মাস মায়ের বুকের দুধ পান করানোর জন্য বিশেষভাবে বলা হয়। এরপর ছয় বছর দুধের সঙ্গে অন্য শক্ত খাবার খাওয়ানো যেতে পারে।

শিশুর জন্য বুকের দুধ শ্রেষ্ঠ খাবার

বিশেষজ্ঞরা একমত হয়েছেন যে বুকের দুধ পান করানো মা এবং শিশু উভয়ের স্বাস্থ্যের জন্য ভালো। যে কোন ধরনের ইনফেকশন, ডাইরিয়া এবং বমিভাব বন্ধ করার ক্ষেত্রে মায়ের দুধ ভালো রক্ষাকবচের কাজ করে। পরবর্তী জীবনে স্থূলতাসহ অন্যান্য রোগ প্রতিরোধ করতে সহায়তা করে। আর মায়ের জন্য স্তন এবং ওভারির ক্যান্সারের ঝুঁকি কমায়।

কিন্তু কত দিন?

যুক্তরাজ্যে এখন পর্যন্ত এ বিষয়ে কোনো নির্দেশনামা নেই। ন্যাশনাল হেলথ সার্ভিসের ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, ‘যতদিন আপনার ভালো লাগবে ততদিন আপনি আপনার শিশুকে বুকের দুধ খাওয়াতে পারেন।’ আরো বলা হয়েছে, ‘দুই বা তার চেয়ে বেশি বছর ধরে বুকের দুধ খাওয়ার পাশাপাশি এ সময় অন্যান্য খাবার দেওয়া উচিত।’

ক্ষতিকর কিছু নেই

এর অনেক ভালো দিক থাকলেও একজন মা সিদ্ধান্ত নেন কখন বন্ধ করতে হবে। এটার সঙ্গে মায়ের পরিবেশ, পরিস্থিতি জড়িত। অনেক সময় মায়েদের কাজে ফিরতে হয়, পরিবার বা বন্ধুদের সহযোগিতার প্রয়োজন হয়। এ ছাড়া অস্বস্তি কাটানোর জন্য আত্মবিশ্বাসের দরকার পড়ে। এর মাধ্যমে মা এবং শিশুর আত্মিক সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

চিকিৎসকরা বলছেন এটি একেবারেই একটি ব্যক্তিগত বিষয়। এটি মা-শিশুর সম্পর্ককে গড়ে তোলে আর এতে কোনো ক্ষতি নেই।

Facebook Comments
Share

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» বন্যা কবলিতদের পাশে না দাঁড়িয়ে বন্যা নিয়ে রাজনীতি করছে বিএনপি : এনামুল হক শামীম

» শিবগঞ্জ সমাজ সেবা অফিসে বিদায়ী ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠান

» রূপসায় ইউনিয়ন যুবলীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত

» ভোটের আগের রাতেই ব্যালটে সিল মারার আশঙ্কায় সংবাদ সম্মেলন চেয়ারম্যান প্রার্থী জিল্লুরের

» তাহিরপুরে ১১টি শিক্ষা প্রতিষ্টানে উচু-নীচু ৮২ জোড়া ব্রেঞ্চ বিতরণ

» ” আমার নাম মানুষ “

» ফুলপুর পৌরসভায় ৯দিন যাবৎ সকল কার্যক্রম বন্ধ, দূর্ভোগে পৌরবাসী

» বাড্ডায় রেনুকে পিটিয়ে হত্যার প্রতিবাদ ও বিচার দাবিতে তিতুমীরে মানববন্ধন

» আদালতে মিন্নির দু’টিআবেদন নামঞ্জুর

» জাতির বিবেকের কাছে নুজহাত চৌধুরীর প্রশ্ন

উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -আবুল কালাম আজাদ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক

ঢাকা সাব-এডিটরস কাউন্সিল

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : শেখ মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

বার্তা সম্পাদক :এ.এইচ.এম.শাহ্জাহান

 

 

 

 

ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০,০১৯১১৪৯০৫০৫

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...
,

শিশুকে কত বছর মায়ের দুধ পান করানো উচিত?

একজন মা যার একটা পাঁচ বছর বয়সী মেয়ে এবং দুই বছর বয়সী ছেলে রয়েছে তারা একই সঙ্গে মায়ের দুধ পান করছে।

এমা শার্ডলো হাডসন বলেন, এটা তার সন্তানদের শরীরের জন্য ভালো। কারণ তার সন্তান খুব কম অসুস্থ হয়।

২৭ বছর বয়সী এই মা বলেন, তিনি বিষয়টা ভালোভাবে নিচ্ছেন কারণ বুকের দুধে এন্টিবডি রয়েছে যেটি শিশুর শরীরের জন্য ভালো। যুক্তরাজ্যের চিকিৎসকরা পরামর্শ দেন যতদিন মা এবং শিশু দুজনই চাইবে ততদিন দুধ পান করানো উচিত।

যুক্তরাজ্যের ন্যাশনাল হেলথ সার্ভিস নির্দিষ্ট কোনো সময় বেঁধে দেয়নি ঠিক কোন সময়ে দুধ পান করানো বন্ধ করতে হবে। শিশুর জন্য প্রথম ছয় মাস মায়ের বুকের দুধ পান করানোর জন্য বিশেষভাবে বলা হয়। এরপর ছয় বছর দুধের সঙ্গে অন্য শক্ত খাবার খাওয়ানো যেতে পারে।

শিশুর জন্য বুকের দুধ শ্রেষ্ঠ খাবার

বিশেষজ্ঞরা একমত হয়েছেন যে বুকের দুধ পান করানো মা এবং শিশু উভয়ের স্বাস্থ্যের জন্য ভালো। যে কোন ধরনের ইনফেকশন, ডাইরিয়া এবং বমিভাব বন্ধ করার ক্ষেত্রে মায়ের দুধ ভালো রক্ষাকবচের কাজ করে। পরবর্তী জীবনে স্থূলতাসহ অন্যান্য রোগ প্রতিরোধ করতে সহায়তা করে। আর মায়ের জন্য স্তন এবং ওভারির ক্যান্সারের ঝুঁকি কমায়।

কিন্তু কত দিন?

যুক্তরাজ্যে এখন পর্যন্ত এ বিষয়ে কোনো নির্দেশনামা নেই। ন্যাশনাল হেলথ সার্ভিসের ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, ‘যতদিন আপনার ভালো লাগবে ততদিন আপনি আপনার শিশুকে বুকের দুধ খাওয়াতে পারেন।’ আরো বলা হয়েছে, ‘দুই বা তার চেয়ে বেশি বছর ধরে বুকের দুধ খাওয়ার পাশাপাশি এ সময় অন্যান্য খাবার দেওয়া উচিত।’

ক্ষতিকর কিছু নেই

এর অনেক ভালো দিক থাকলেও একজন মা সিদ্ধান্ত নেন কখন বন্ধ করতে হবে। এটার সঙ্গে মায়ের পরিবেশ, পরিস্থিতি জড়িত। অনেক সময় মায়েদের কাজে ফিরতে হয়, পরিবার বা বন্ধুদের সহযোগিতার প্রয়োজন হয়। এ ছাড়া অস্বস্তি কাটানোর জন্য আত্মবিশ্বাসের দরকার পড়ে। এর মাধ্যমে মা এবং শিশুর আত্মিক সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

চিকিৎসকরা বলছেন এটি একেবারেই একটি ব্যক্তিগত বিষয়। এটি মা-শিশুর সম্পর্ককে গড়ে তোলে আর এতে কোনো ক্ষতি নেই।

Facebook Comments
Share

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -আবুল কালাম আজাদ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক

ঢাকা সাব-এডিটরস কাউন্সিল

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : শেখ মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

বার্তা সম্পাদক :এ.এইচ.এম.শাহ্জাহান

 

 

 

 

ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০,০১৯১১৪৯০৫০৫

Design & Developed BY ThemesBazar.Com