রেলওয়ে কারিগরি প্রকল্পে ক্লিনারের বেতন ৪ লাখ ২০ হাজার!

লোকসানে জর্জরিত সেবাখাত রেলওয়ের কারিগরি প্রকল্পে ক্লিনারের বেতন মাসে ৪ লাখ ২০ হাজার টাকা ধরা হয়েছে। আর অফিস সহায়কের বেতন প্রতি মাসে ৮৩ হাজার ৯৫০ টাকা। যেখানে ক্যাড অপারেটরের বেতন সাধারণত ৫০ থেকে ৭৫ হাজার টাকা ধরা হয় সেখানে এই প্রকল্পে ধরা হয়েছে সোয়া লাখ টাকা। আর বিদেশী পরামর্শকদের বেতন মাসে গড়ে ১৬ লাখ টাকা।

রেল মন্ত্রণালয় থেকে পরিকল্পনা কমিশনে পাঠানো প্রকল্প প্রস্তাবনায় এমনই অবিশ্বাস্য বেতনের কথাই বলা হয়েছে। আর এই প্রস্তাবকে ‘অস্বাভাবিক ও অগ্রহণযোগ্য’ বলে মন্তব্য করেছে পরিকল্পনা কমিশন। তবে রেল মন্ত্রণালয় দাবি করছে, প্রস্তাবনায় ভুল হয়েছে।

রেলের উন্নয়নে এ খাতকে ঢেলে সাজাতে বিভিন্ন সময়ে নানামুখী উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় ২৫৬ কোটি টাকার কারিগরি সহায়তা প্রকল্প বরাদ্দ করেছে রেল মন্ত্রণালয়। এ প্রকল্পের আওতায় ১১টি উপ-প্রকল্প বাস্তবায়ন করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

প্রকল্প মূল্যায়ন কমিটি বেতন ভাতা নির্ধারণে বড় ধরনের অনিয়ম পেয়েছে বলে জানা গেছে।

পরিকল্পনা কমিশনের কার্যপত্রে দেখা যায়, প্রকল্পে ক্লিনারের বেতন ধরা হয় চার লাখ ২০ টাকা, অফিস সহায়কের বেতন প্রতিমাসে ৮৪ হাজার টাকা, বিদেশি পরামশর্কের বেতন গড়ে ১৬ থেকে ২৫ লাখ টাকা ধরা হয়েছে।

এই বেতন নির্ধারণের প্রস্তাবে অবাক হয়েছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান। তিনি জানান, দুর্নীতি বন্ধে প্রকল্প অনুমোদনের আগে গভীরভাবে পর্যালোচনা করা হয়। প্রকল্পের নামে যারা অনিয়ম করবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থার নেয়ার হুঁশিয়ারি দেন তিনি।

এদিকে, রেল মন্ত্রণালয় এ বেতন নির্ধারণের বিষয়টিকে ‘নিছক ভুল’ বলে দাবি করছে। তবে এটি কি ভুল ছিল নাকি অন্য কোনো উদ্দেশ্য ছিল তা নিয়ে যথেষ্ট সংশয় রয়েছে। যাতায়াত ব্যবস্থার অন্যতম এ মাধ্যম রেল খাতের উন্নয়নে এসব অনিয়মকেই সবচেয়ে বড় বাধা বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা।

বিশ্লেষকরা বলছেন, দুর্নীতি ও অনিয়ম রোধে দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির আওতায় আনতে হবে।

পূর্বপশ্চিমবিডি

Facebook Comments
Share

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» ৫০ টাকার নতুন নোট আসছে

» বেনাপোলে ভুয়া ফটো সাংবাদিক আটক

» লাখ টাকার জালনোটসহ দক্ষিণখানে আটক ৩

» আওয়ামী লীগের সম্মেলনকে ঘিরে গুঞ্জন, সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের না অন্য কেউ

» আওয়ামী লীগে গ্রিন সিগন্যালের অপেক্ষা, বিএনপির আলোচনায় কয়েকজন

» যে কারণে লাল কাপড়েই মোড়ানো হয় বিরিয়ানির হাঁড়ি

» ৫ লাখ টাকা চাঁদা না দেওয়ায় বিকাশ এজেন্টের উপর যুবলীগের হামলা

» পরিত্যক্ত প্ল্যাস্টিকে লাল-সবুজের বাংলাদেশ

» ‘আমার হাত কতটুকু লম্বা তোরা কেন প্রধানমন্ত্রীও জানেন না’

» নতুন পথে

উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন, উপশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ।

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, সাবেক ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

বার্তা সম্পাদক :এ.এইচ.এম.শাহ্জাহান

বিশেষ প্রতিনিধি:মাকসুদা লিসা

 

 

 

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...
,

রেলওয়ে কারিগরি প্রকল্পে ক্লিনারের বেতন ৪ লাখ ২০ হাজার!

লোকসানে জর্জরিত সেবাখাত রেলওয়ের কারিগরি প্রকল্পে ক্লিনারের বেতন মাসে ৪ লাখ ২০ হাজার টাকা ধরা হয়েছে। আর অফিস সহায়কের বেতন প্রতি মাসে ৮৩ হাজার ৯৫০ টাকা। যেখানে ক্যাড অপারেটরের বেতন সাধারণত ৫০ থেকে ৭৫ হাজার টাকা ধরা হয় সেখানে এই প্রকল্পে ধরা হয়েছে সোয়া লাখ টাকা। আর বিদেশী পরামর্শকদের বেতন মাসে গড়ে ১৬ লাখ টাকা।

রেল মন্ত্রণালয় থেকে পরিকল্পনা কমিশনে পাঠানো প্রকল্প প্রস্তাবনায় এমনই অবিশ্বাস্য বেতনের কথাই বলা হয়েছে। আর এই প্রস্তাবকে ‘অস্বাভাবিক ও অগ্রহণযোগ্য’ বলে মন্তব্য করেছে পরিকল্পনা কমিশন। তবে রেল মন্ত্রণালয় দাবি করছে, প্রস্তাবনায় ভুল হয়েছে।

রেলের উন্নয়নে এ খাতকে ঢেলে সাজাতে বিভিন্ন সময়ে নানামুখী উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় ২৫৬ কোটি টাকার কারিগরি সহায়তা প্রকল্প বরাদ্দ করেছে রেল মন্ত্রণালয়। এ প্রকল্পের আওতায় ১১টি উপ-প্রকল্প বাস্তবায়ন করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

প্রকল্প মূল্যায়ন কমিটি বেতন ভাতা নির্ধারণে বড় ধরনের অনিয়ম পেয়েছে বলে জানা গেছে।

পরিকল্পনা কমিশনের কার্যপত্রে দেখা যায়, প্রকল্পে ক্লিনারের বেতন ধরা হয় চার লাখ ২০ টাকা, অফিস সহায়কের বেতন প্রতিমাসে ৮৪ হাজার টাকা, বিদেশি পরামশর্কের বেতন গড়ে ১৬ থেকে ২৫ লাখ টাকা ধরা হয়েছে।

এই বেতন নির্ধারণের প্রস্তাবে অবাক হয়েছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান। তিনি জানান, দুর্নীতি বন্ধে প্রকল্প অনুমোদনের আগে গভীরভাবে পর্যালোচনা করা হয়। প্রকল্পের নামে যারা অনিয়ম করবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থার নেয়ার হুঁশিয়ারি দেন তিনি।

এদিকে, রেল মন্ত্রণালয় এ বেতন নির্ধারণের বিষয়টিকে ‘নিছক ভুল’ বলে দাবি করছে। তবে এটি কি ভুল ছিল নাকি অন্য কোনো উদ্দেশ্য ছিল তা নিয়ে যথেষ্ট সংশয় রয়েছে। যাতায়াত ব্যবস্থার অন্যতম এ মাধ্যম রেল খাতের উন্নয়নে এসব অনিয়মকেই সবচেয়ে বড় বাধা বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা।

বিশ্লেষকরা বলছেন, দুর্নীতি ও অনিয়ম রোধে দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির আওতায় আনতে হবে।

পূর্বপশ্চিমবিডি

Facebook Comments
Share

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন, উপশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ।

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, সাবেক ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

বার্তা সম্পাদক :এ.এইচ.এম.শাহ্জাহান

বিশেষ প্রতিনিধি:মাকসুদা লিসা

 

 

 

১১২৫ পূর্ব মনিপুর , মিরপুর -২ ঢাকা -১২১৬

ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Design & Developed BY ThemesBazar.Com