বাতাসে ছাতিম সুবাস

অ আ আবীর আকাশ :ইমতিয়াজ বললো কী ফুলের গন্ধ বেরুচ্ছে আব্বু ? তাদের মা বললো তাদের জ্যেঠামশায়ের ভিটার পিছনে ছাতিম গাছ আছে, সেই ফুলের গন্ধ। … ছাতিম ফুলের উগ্র সুবাসে হেমন্তের আঁচলাগা শিশিরাদ্র রাতের বায়ু ভরে যায়। মধ্যরাতে বেণুবন শীর্ষে কৃষ্ণপক্ষের চাঁদের ম্লান জ্যোৎস্না উঠে শিশিরসিক্ত গাছপালায় ডালে পাতায় পাতায় চিকচিক করে’।
দ্বিজেন শর্মা লিখেছেন, “কোন হেমন্ত সন্ধ্যায় ইমতিয়াজের মতো তোমরাও হয়তো এমন মধু গন্ধের ভাগ পেয়ে থাকবে। … ছাতিমের ডালের গাঁটে থাকে ৫-৭টি পাতা, তাই এর আরেক নাম সপ্তপর্ণী। পাতাগুলি বেশ লম্বা। ফলগুলি সরু আর লম্বা, পাকলে পাশুটে রঙের, নইলে সবুজ থোকায় থোকায় ঝুলে থাকে। ছাতিমের বীজগুলি ভারি মজার, ছোট একটা কাঠির মতো, দুমাথায় এক থোকা করে বাদামি রোম, যাতে বাতাস উড়িয়ে নিয়ে যেতে পারে। বীজগুলি দূরদূরান্তে ছড়িয়ে পড়ে। তাতে বংশবিস্তারে খুব সুবিধা। একদিন একটা পৌঁছতে পারে জানালা গলিয়ে তোমাদের ঘরেও। ছাতিমের সঙ্গে শিক্ষাদীক্ষার একটা যোগ আছে। গাছটা চিরসবুজ। ছায়া দেয় ভালো। আগের দিনে পাঠশালা বসত ছাতিমের তলায়’’।
জাহাঙ্গীরনগরে এক বড়-আপু একদিন বলছিলেন যে তার বাসার সামনে একটা ছাতিম গাছ আছে। সন্ধ্যাবেলায় বিদেশে কি পাওয়া যাবে এমন ছাতিমের সুবাস! তখনো ছাতিমের গাছ বা সুবাস কারো সাথেই পরিচয় নেই। বছর-দেড়েক পর দেখলাম সিলেটে সার্কিট হাউজ পেরিয়ে বড় এক গাছভর্তি ফুল, মৌমাছি আর প্রজাপতির উড়াউড়ি। নাম জানা নেই। কত নাম অজানা রয়ে যায়! লক্ষ্মীপুর মাদাম ব্রীজের উত্তর পাশে একটা যোয়ান ছাতিমগাছ, তার ফুলেই পুরো গাছ মুড়িয়ে রাখে। দেখতে যেনো বিশাল একটা পুষ্পমঞ্জুরী।
কয়েকদিন আগে মাঠময় ছড়িয়ে পড়া উগ্র-সুবাসিত সন্ধ্যায় একজন জিজ্ঞেস করলেন, ‘কী ফুলের গন্ধ’? হুট করে সেই বড় ইমতিয়াজের কথা মনে পড়লো। মনে-প্রাণে বলতে চাইলাম ছাতিম, বললাম ‘শিরীষ’:|। হিমুর কোন এক বইতে ও,সি সাহেবকে খাগড়াছড়ি বদলী করা হয়। সেই ও,সি সাহেব সন্ধ্যাবেলায় হাতির ভয়ে শিরীষ গাছে ওঠে বসে থাকে। এজন্যই হয়তো ‘শিরীষ’ নামটা মাথায় ছিল। অবশ্য শিরীষ গাছ এখনো চিনি না। ফুল ফুটলে তাও দু-এক জনকে চেনা যায় কিন্তু ফুল না থাকলে কিছু ফলের গাছ বাদে প্রায় সবাই অচেনা।
পুনশ্চঃ ১। গন্ধে টের পাচ্ছি আমাদের লক্ষ্মীপুরে ছাতিমেরা বেশ ভালো সংখ্যাতেই আছে। এমন-কি ঘরে বসেও পাওয়া যায় ‘মধু-গন্ধের ভাগ’। যদিও জানালা আজীবন বন্ধই রাখলাম তবু অপেক্ষায় আছি ব্যালকনি অব্দি পৌঁছতে পারে কি-না সুপ্ত ছাতিমের দল।আমার বাড়ীর দুপাশে দুটো ছাতিম রেখে শুধু ঘ্রাণে ব্যকুল হবো বলে।
২। ছাতিমের বৈজ্ঞানিক নাম Alstonia scholaris
৩। বিজ্ঞজনের মতে দুই জাতের ছাতিম আছে আমাদের দেশে। জাত নিয়ে যাদের ‘যাতাযাতি’ আছে তাঁরা নিজ দায়িত্বে খুঁজে নেবেন।
Facebook Comments
Share

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» কলকাতা থেকে দেশে ফিরলেন প্রধানমন্ত্রী

» শাহজালালে দেড় হাজার পিস ইয়াবাসহ আটক ১

» নতুন প্রজন্ম নির্মোহ হোক

» ওয়েব সিরিজে আইরিন

» লবণের মূল্যবৃদ্ধি ৭০০ ফেসবুক আইডি নজরদারিতে

» পিয়াজ বীজের বাজারেও আগুন কেজি ২০০০ টাকা

» সংকটে কারিগরি শিক্ষা

» হাতির ঝিলের বেহালদশা! বিনোদন পিয়াসুদের আনাগোনা কম

» নৌ পথ হোক নিরাপদ

» দিবারাত্রি টেস্ট: প্রথম দিন শেষে এগিয়ে ভারত

উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন, উপশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ।

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

বার্তা সম্পাদক :এ.এইচ.এম.শাহ্জাহান

বিশেষ প্রতিনিধি:মাকসুদা লিসা

 

 

 

 

ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...
,

বাতাসে ছাতিম সুবাস

অ আ আবীর আকাশ :ইমতিয়াজ বললো কী ফুলের গন্ধ বেরুচ্ছে আব্বু ? তাদের মা বললো তাদের জ্যেঠামশায়ের ভিটার পিছনে ছাতিম গাছ আছে, সেই ফুলের গন্ধ। … ছাতিম ফুলের উগ্র সুবাসে হেমন্তের আঁচলাগা শিশিরাদ্র রাতের বায়ু ভরে যায়। মধ্যরাতে বেণুবন শীর্ষে কৃষ্ণপক্ষের চাঁদের ম্লান জ্যোৎস্না উঠে শিশিরসিক্ত গাছপালায় ডালে পাতায় পাতায় চিকচিক করে’।
দ্বিজেন শর্মা লিখেছেন, “কোন হেমন্ত সন্ধ্যায় ইমতিয়াজের মতো তোমরাও হয়তো এমন মধু গন্ধের ভাগ পেয়ে থাকবে। … ছাতিমের ডালের গাঁটে থাকে ৫-৭টি পাতা, তাই এর আরেক নাম সপ্তপর্ণী। পাতাগুলি বেশ লম্বা। ফলগুলি সরু আর লম্বা, পাকলে পাশুটে রঙের, নইলে সবুজ থোকায় থোকায় ঝুলে থাকে। ছাতিমের বীজগুলি ভারি মজার, ছোট একটা কাঠির মতো, দুমাথায় এক থোকা করে বাদামি রোম, যাতে বাতাস উড়িয়ে নিয়ে যেতে পারে। বীজগুলি দূরদূরান্তে ছড়িয়ে পড়ে। তাতে বংশবিস্তারে খুব সুবিধা। একদিন একটা পৌঁছতে পারে জানালা গলিয়ে তোমাদের ঘরেও। ছাতিমের সঙ্গে শিক্ষাদীক্ষার একটা যোগ আছে। গাছটা চিরসবুজ। ছায়া দেয় ভালো। আগের দিনে পাঠশালা বসত ছাতিমের তলায়’’।
জাহাঙ্গীরনগরে এক বড়-আপু একদিন বলছিলেন যে তার বাসার সামনে একটা ছাতিম গাছ আছে। সন্ধ্যাবেলায় বিদেশে কি পাওয়া যাবে এমন ছাতিমের সুবাস! তখনো ছাতিমের গাছ বা সুবাস কারো সাথেই পরিচয় নেই। বছর-দেড়েক পর দেখলাম সিলেটে সার্কিট হাউজ পেরিয়ে বড় এক গাছভর্তি ফুল, মৌমাছি আর প্রজাপতির উড়াউড়ি। নাম জানা নেই। কত নাম অজানা রয়ে যায়! লক্ষ্মীপুর মাদাম ব্রীজের উত্তর পাশে একটা যোয়ান ছাতিমগাছ, তার ফুলেই পুরো গাছ মুড়িয়ে রাখে। দেখতে যেনো বিশাল একটা পুষ্পমঞ্জুরী।
কয়েকদিন আগে মাঠময় ছড়িয়ে পড়া উগ্র-সুবাসিত সন্ধ্যায় একজন জিজ্ঞেস করলেন, ‘কী ফুলের গন্ধ’? হুট করে সেই বড় ইমতিয়াজের কথা মনে পড়লো। মনে-প্রাণে বলতে চাইলাম ছাতিম, বললাম ‘শিরীষ’:|। হিমুর কোন এক বইতে ও,সি সাহেবকে খাগড়াছড়ি বদলী করা হয়। সেই ও,সি সাহেব সন্ধ্যাবেলায় হাতির ভয়ে শিরীষ গাছে ওঠে বসে থাকে। এজন্যই হয়তো ‘শিরীষ’ নামটা মাথায় ছিল। অবশ্য শিরীষ গাছ এখনো চিনি না। ফুল ফুটলে তাও দু-এক জনকে চেনা যায় কিন্তু ফুল না থাকলে কিছু ফলের গাছ বাদে প্রায় সবাই অচেনা।
পুনশ্চঃ ১। গন্ধে টের পাচ্ছি আমাদের লক্ষ্মীপুরে ছাতিমেরা বেশ ভালো সংখ্যাতেই আছে। এমন-কি ঘরে বসেও পাওয়া যায় ‘মধু-গন্ধের ভাগ’। যদিও জানালা আজীবন বন্ধই রাখলাম তবু অপেক্ষায় আছি ব্যালকনি অব্দি পৌঁছতে পারে কি-না সুপ্ত ছাতিমের দল।আমার বাড়ীর দুপাশে দুটো ছাতিম রেখে শুধু ঘ্রাণে ব্যকুল হবো বলে।
২। ছাতিমের বৈজ্ঞানিক নাম Alstonia scholaris
৩। বিজ্ঞজনের মতে দুই জাতের ছাতিম আছে আমাদের দেশে। জাত নিয়ে যাদের ‘যাতাযাতি’ আছে তাঁরা নিজ দায়িত্বে খুঁজে নেবেন।
Facebook Comments
Share

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন, উপশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ।

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

বার্তা সম্পাদক :এ.এইচ.এম.শাহ্জাহান

বিশেষ প্রতিনিধি:মাকসুদা লিসা

 

 

 

 

ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Design & Developed BY ThemesBazar.Com