বাচ্চা ঘুমাতে চায় না? জেনে নিন, ঘুম আনার সহজ উপায়

শিশুর ঘুম নিয়ে নাজেহাল প্রায় সব বাবা-মা। বেশিরভাগ অভিভাবকের অভিযোগ, তার সন্তানকে ঘুম পাড়ানো খুবই কঠিন কাজ! সে নাকি রাতে মোটেও ঘুমোতেই চায় না। এর প্রভাব পড়ে বাবা-মায়ের ওপরেও। তারাও জেগে থাকতে বাধ্য হন। কিন্তু কিছু সহজ উপায় অবলম্বন করলেই শিশু ঘুমোয় ঠিক সময়ে এবং পর্যাপ্ত। দেখে নিন সেসব।

শিশুর ঘুমনোর একটা নির্দিষ্ট সময় ঠিক করুন প্রথমেই। নিজেদের যত কাজই থাক, শিশুর ঘুমের সেই সময়ের হেরফের করবেন না। তাতে শিশুর বায়োলজিক্যাল ক্লক ঠিক থাকে। কিছু দিন অভ্যাসের পর ওই নির্দিষ্ট সময় মেনেই তার ঘুম আসবে।

মনোবিদদের মতে, অনেক অভিভাবকই শিশুকে ঘুমের উপযুক্ত পরিবেশ দেন না। ঘরে চড়া আলো বা টিভি, সাউন্ড সিস্টেমের আওয়াজ তাদের ঘুমের দফারফা করে। শিশুও না ঘুমিয়ে সেসবে মন দিতে শুরু করে। কাজেই সন্তানকে ঘুম পাড়ানোর আগে তার ঘুমের পরিবেশ আনুন ঘরে। রাতে খাওয়া-দাওয়ার পর সন্তানকে ঘুম পাড়াতে গান বা গল্পের আশ্রয় নিন। গানের সুর, গল্পের গতি এসব শিশুর মস্তিষ্কের হাইপোথ্যালামাস ও থ্যালামাসকে প্রভাবিত করে। তাকে শান্ত করে। গান বা গল্প শুনতে শুনতে তাই ঘুমিয়ে পড়া অনেক শিশুরই অভ্যাস।

সন্তানকে ঘুম পাড়াতে গিয়ে আপনি মোবাইল ঘাঁটতে শুরু করেন কি? তা হলে সেই অভ্যাসে রাশ টানুন আজই। শিশুকেও ঘুমানোর আগে মোবাইলে হাত দিতে দেবেন না। অনেক বাবা-মা সন্তানকে রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে মোবাইলে গেম খেলতে দেন। এতে তার মস্তিষ্কের স্নায়ু উদ্দীপ্ত হয় এবং ঘুম বাধা পায়।

শিশুকে তো নির্দিষ্ট সময় ঘুম পাড়াতেই হবে, সঙ্গে ঘুমানোর সময় যদি তার হাতের কাছে প্রিয় কোনো খেলনা বা বস্তু দেন, তার সংস্পর্শে এসে শিশু ঘুমোয় অনেক তাড়াতাড়ি। মনোবিদদের মতে, শিশু ঘুমানোর সময় পছন্দের বস্তু পেলে তার গন্ধে, স্পর্শে শিশুর মস্তিষ্কে চাপমুক্তির হরমোন ক্ষরণ করে, শিশু দ্রুত
ঘুমোয়।

সন্তান একটু বড় হলে, তার সারাদিনের রুটিনে কিছুটা সময় রাখুন শরীরচর্চার জন্যও। ডায়েট মেনে খাওয়া ও শরীরচর্চার মধ্যে থাকলে শরীরের সমস্যা দূরে থাকে, মানসিক চাপ কমে ও শিশু পর্যাপ্ত ঘুমোয়। সাঁতার, জিমন্যাস্টিক বা দৌড়োদৌড়ি করে খেলা যায় এমন কিছু তার রুটিনে থাকলে সে অনেক সুস্থও থাকে।

Facebook Comments
Share

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» বখাটে যুবকদের মোটরসাইকেলে পুলিশি হর্ণ -আতঙ্কে পথচারীরা

» কৃষকদের লোকসান মিল মালিকেরা লাভবান

» চুয়েট স্টাফ এসোসিয়েশনের সাধারণ সভা ও ইফতার মাহফিল সম্পন্ন

» হালদায় অভিযান চালিয়ে জব্দ করা মিটার জালে আগুন

» মণিরামপুরে দাফনের এক মাস পর কবর থেকে তোলা হলো গৃহবধূর লাশ

» চালু হচ্ছে বেকার ভাতা!

» শেষ ওয়ানডেতে টস হেরে ফিল্ডিংয়ে পাকিস্তান

» নূর হোসেনের বিরুদ্ধে সাক্ষী দিতে আদালতে যায়নি কেউ

» শেখ হাসিনা আরামকে হারাম করে দেশের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছেন

» গৌরনদীতে প্রবাসী স্বামীর কাছে স্ত্রীর নগ্ন ছবি পাঠিয়ে যুবক ধরা

উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -আবুল কালাম আজাদ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক

ঢাকা সাব-এডিটরস কাউন্সিল

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : শেখ মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

বার্তা সম্পাদক :এ.এইচ.এম.শাহ্জাহান

 

 

 

 

ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০,০১৯১১৪৯০৫০৫

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...
,

বাচ্চা ঘুমাতে চায় না? জেনে নিন, ঘুম আনার সহজ উপায়

শিশুর ঘুম নিয়ে নাজেহাল প্রায় সব বাবা-মা। বেশিরভাগ অভিভাবকের অভিযোগ, তার সন্তানকে ঘুম পাড়ানো খুবই কঠিন কাজ! সে নাকি রাতে মোটেও ঘুমোতেই চায় না। এর প্রভাব পড়ে বাবা-মায়ের ওপরেও। তারাও জেগে থাকতে বাধ্য হন। কিন্তু কিছু সহজ উপায় অবলম্বন করলেই শিশু ঘুমোয় ঠিক সময়ে এবং পর্যাপ্ত। দেখে নিন সেসব।

শিশুর ঘুমনোর একটা নির্দিষ্ট সময় ঠিক করুন প্রথমেই। নিজেদের যত কাজই থাক, শিশুর ঘুমের সেই সময়ের হেরফের করবেন না। তাতে শিশুর বায়োলজিক্যাল ক্লক ঠিক থাকে। কিছু দিন অভ্যাসের পর ওই নির্দিষ্ট সময় মেনেই তার ঘুম আসবে।

মনোবিদদের মতে, অনেক অভিভাবকই শিশুকে ঘুমের উপযুক্ত পরিবেশ দেন না। ঘরে চড়া আলো বা টিভি, সাউন্ড সিস্টেমের আওয়াজ তাদের ঘুমের দফারফা করে। শিশুও না ঘুমিয়ে সেসবে মন দিতে শুরু করে। কাজেই সন্তানকে ঘুম পাড়ানোর আগে তার ঘুমের পরিবেশ আনুন ঘরে। রাতে খাওয়া-দাওয়ার পর সন্তানকে ঘুম পাড়াতে গান বা গল্পের আশ্রয় নিন। গানের সুর, গল্পের গতি এসব শিশুর মস্তিষ্কের হাইপোথ্যালামাস ও থ্যালামাসকে প্রভাবিত করে। তাকে শান্ত করে। গান বা গল্প শুনতে শুনতে তাই ঘুমিয়ে পড়া অনেক শিশুরই অভ্যাস।

সন্তানকে ঘুম পাড়াতে গিয়ে আপনি মোবাইল ঘাঁটতে শুরু করেন কি? তা হলে সেই অভ্যাসে রাশ টানুন আজই। শিশুকেও ঘুমানোর আগে মোবাইলে হাত দিতে দেবেন না। অনেক বাবা-মা সন্তানকে রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে মোবাইলে গেম খেলতে দেন। এতে তার মস্তিষ্কের স্নায়ু উদ্দীপ্ত হয় এবং ঘুম বাধা পায়।

শিশুকে তো নির্দিষ্ট সময় ঘুম পাড়াতেই হবে, সঙ্গে ঘুমানোর সময় যদি তার হাতের কাছে প্রিয় কোনো খেলনা বা বস্তু দেন, তার সংস্পর্শে এসে শিশু ঘুমোয় অনেক তাড়াতাড়ি। মনোবিদদের মতে, শিশু ঘুমানোর সময় পছন্দের বস্তু পেলে তার গন্ধে, স্পর্শে শিশুর মস্তিষ্কে চাপমুক্তির হরমোন ক্ষরণ করে, শিশু দ্রুত
ঘুমোয়।

সন্তান একটু বড় হলে, তার সারাদিনের রুটিনে কিছুটা সময় রাখুন শরীরচর্চার জন্যও। ডায়েট মেনে খাওয়া ও শরীরচর্চার মধ্যে থাকলে শরীরের সমস্যা দূরে থাকে, মানসিক চাপ কমে ও শিশু পর্যাপ্ত ঘুমোয়। সাঁতার, জিমন্যাস্টিক বা দৌড়োদৌড়ি করে খেলা যায় এমন কিছু তার রুটিনে থাকলে সে অনেক সুস্থও থাকে।

Facebook Comments
Share

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -আবুল কালাম আজাদ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক

ঢাকা সাব-এডিটরস কাউন্সিল

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : শেখ মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

বার্তা সম্পাদক :এ.এইচ.এম.শাহ্জাহান

 

 

 

 

ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০,০১৯১১৪৯০৫০৫

Design & Developed BY ThemesBazar.Com