‘টাকা দিয়ে ছাত্র প্রতিনিধি এর নাম কি রাজনীতি’

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো ছাত্রলীগের কমিটি বাতিলের দাবিতে গণস্বাক্ষর কর্মসূচি পালন করেছেন নেতাকর্মীরা। গতকাল লাগাতার আন্দোলনের ৫ম দিন পার করলেন পদবঞ্চিতরা। সকাল থেকে বিক্ষোভ মিছিল, প্রতিবাদ সভা ও গণস্বাক্ষর কর্মসূচি পালন করেছেন তারা। সাধারণ সম্পাদককে বহিষ্কারের দাবি জানান তারা।

সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটক থেকে পদবঞ্চিতরা বিক্ষোভ মিছিল বের করেন। মিছিল ও সংক্ষিপ্ত সমাবেশ শেষে ঝাল চত্বরে গণস্বাক্ষর সংগ্রহ করেন তারা। সাবেক নেতা শিশির ইসলাম বাবু, মাসুদ, লালন ও আরাফাতের নেতৃত্বে তিন শতাধিক কর্মী বিক্ষোভে অংশ নেন। পরে তারা ভিসি ড. রাশিদ আসকারীর কাছে একই দাবিতে সাক্ষাৎ করতে যান। সেখানে তারা ভিসিকে আবারো ৪৮ ঘণ্টা সময় বেঁধে দেন। এর মধ্যে শাখা ছাত্রলীগ সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম রাকিবকে বহিষ্কার না করলে ক্যাম্পাস অচল করে দেয়ার হুমকি দেন নেতারা। এদিকে গণস্বাক্ষর চলাকালে বিক্ষোভ সমাবেশ অব্যাহত রাখেন তারা।

এ সময় রাকিবের নামে অর্থ দিয়ে নেতা হওয়া, নিয়োগ বাণিজ্য, নারী কেলেঙ্কারিসহ বিভিন্ন অভিযোগ তুলে ধরেন তারা। সাদা কাপড়ে গণস্বাক্ষরে কর্মীরা প্রশাসন ও সাবেক প্রক্টর মাহবুবর রহমানের মাধ্যমে রাকিব নেতা হয়েছে বলে লিখিত অভিযোগ করেন। একই সঙ্গে প্রশাসন থেকে টাকা নিয়েই সে নেতা হয়েছে বলেও বেশ কয়েকজন কর্মী অভিযোগ দিয়ে স্বাক্ষর করে। অন্য এক ছাত্রলীগ কর্মী লিখেন, ‘টাকা দিয়ে ছাত্র প্রতিনিধি, এর নাম কি ছাত্র রাজনীতি?’ এ ধরনের প্রায় ৩ শতাধিক মন্তব্য ও স্বাক্ষর দেন নেতাকর্মীরা।

এ বিষয়ে ভিসি ড. রাশিদ আসকারী বলেন, ‘ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে তার বিরুদ্ধে আমরা কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারবো না। তবে বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন সাধারণ ছাত্র হিসেবে তার নিয়োগ-বাণিজ্যে জড়িত থাকার প্রমাণ পাওয়া গেলে আমরা ব্যবস্থা নেবো। আমি পরিবহন শাখায় তলব করেছি, ড্রাইভার নিয়োগ কেন্দ্রিক কোনো বিজ্ঞপ্তি আছে কি না? তারা রিপোর্ট দিলে আমরা পরবর্তী পদক্ষেপ নেবো।’মানবজমিন

Facebook Comments
Share

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» যুক্তরাজ্যে কন্টেইনার থেকে ৩৯ লাশ উদ্ধার

» গ্রামীণ জনগণ প্রকৃত উপজেলার সুফল থেকে বঞ্চিত: জি এম কাদের

» রাজধানীতে টানা দুই ঘণ্টা বৃষ্টি

» শিক্ষকরা ছত্রভঙ্গ, আহত ১০

» পদ হারিয়ে কাওসার বললেন, রাজনীতি করলে ভুল-ত্রুটি থাকতেই পারে

» জরিপভিত্তিক সংস্থাগুলোর প্রতিবেদনের সঙ্গে একমত নই: তথ্যমন্ত্রী

» শায়েস্তাগঞ্জে কালোবাজারীর দখলে ট্রেনের টিকেট

» কাশ্মীরের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বিগ্ন আমেরিকা!

» গাছ কেটে ভাইরাল হওয়া সেই নারী আটক

» একজন নেতার জন্য ১৪ দল ভাঙতে পারে না: ওবায়দুল কাদের

উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন, উপশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ।

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : শেখ মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

বার্তা সম্পাদক :এ.এইচ.এম.শাহ্জাহান

 

 

 

 

ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...
,

‘টাকা দিয়ে ছাত্র প্রতিনিধি এর নাম কি রাজনীতি’

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো ছাত্রলীগের কমিটি বাতিলের দাবিতে গণস্বাক্ষর কর্মসূচি পালন করেছেন নেতাকর্মীরা। গতকাল লাগাতার আন্দোলনের ৫ম দিন পার করলেন পদবঞ্চিতরা। সকাল থেকে বিক্ষোভ মিছিল, প্রতিবাদ সভা ও গণস্বাক্ষর কর্মসূচি পালন করেছেন তারা। সাধারণ সম্পাদককে বহিষ্কারের দাবি জানান তারা।

সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটক থেকে পদবঞ্চিতরা বিক্ষোভ মিছিল বের করেন। মিছিল ও সংক্ষিপ্ত সমাবেশ শেষে ঝাল চত্বরে গণস্বাক্ষর সংগ্রহ করেন তারা। সাবেক নেতা শিশির ইসলাম বাবু, মাসুদ, লালন ও আরাফাতের নেতৃত্বে তিন শতাধিক কর্মী বিক্ষোভে অংশ নেন। পরে তারা ভিসি ড. রাশিদ আসকারীর কাছে একই দাবিতে সাক্ষাৎ করতে যান। সেখানে তারা ভিসিকে আবারো ৪৮ ঘণ্টা সময় বেঁধে দেন। এর মধ্যে শাখা ছাত্রলীগ সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম রাকিবকে বহিষ্কার না করলে ক্যাম্পাস অচল করে দেয়ার হুমকি দেন নেতারা। এদিকে গণস্বাক্ষর চলাকালে বিক্ষোভ সমাবেশ অব্যাহত রাখেন তারা।

এ সময় রাকিবের নামে অর্থ দিয়ে নেতা হওয়া, নিয়োগ বাণিজ্য, নারী কেলেঙ্কারিসহ বিভিন্ন অভিযোগ তুলে ধরেন তারা। সাদা কাপড়ে গণস্বাক্ষরে কর্মীরা প্রশাসন ও সাবেক প্রক্টর মাহবুবর রহমানের মাধ্যমে রাকিব নেতা হয়েছে বলে লিখিত অভিযোগ করেন। একই সঙ্গে প্রশাসন থেকে টাকা নিয়েই সে নেতা হয়েছে বলেও বেশ কয়েকজন কর্মী অভিযোগ দিয়ে স্বাক্ষর করে। অন্য এক ছাত্রলীগ কর্মী লিখেন, ‘টাকা দিয়ে ছাত্র প্রতিনিধি, এর নাম কি ছাত্র রাজনীতি?’ এ ধরনের প্রায় ৩ শতাধিক মন্তব্য ও স্বাক্ষর দেন নেতাকর্মীরা।

এ বিষয়ে ভিসি ড. রাশিদ আসকারী বলেন, ‘ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে তার বিরুদ্ধে আমরা কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারবো না। তবে বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন সাধারণ ছাত্র হিসেবে তার নিয়োগ-বাণিজ্যে জড়িত থাকার প্রমাণ পাওয়া গেলে আমরা ব্যবস্থা নেবো। আমি পরিবহন শাখায় তলব করেছি, ড্রাইভার নিয়োগ কেন্দ্রিক কোনো বিজ্ঞপ্তি আছে কি না? তারা রিপোর্ট দিলে আমরা পরবর্তী পদক্ষেপ নেবো।’মানবজমিন

Facebook Comments
Share

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন, উপশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ।

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : শেখ মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

বার্তা সম্পাদক :এ.এইচ.এম.শাহ্জাহান

 

 

 

 

ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Design & Developed BY ThemesBazar.Com