ছোট ঘরকে বড় দেখানো | ১০টি কৌশল অবলম্বন করুন

ঘর মানেই সবার কাছে শান্তির নীড়। তাই সকলেরই ইচ্ছা থাকে এই শান্তির নীড়টাকে সুন্দর করে সাজিয়ে গুছিয়ে রাখা। কিন্তু এখনকার ফ্লাটগুলো এত ছোট হয় যে এতে প্রয়োজনীয় আসবাবপত্র ধরানোই মুশকিল হয়ে যায়। সেখানে নিজের মতো করে ঘর সাজানো মুশকিল ব্যাপার হয়ে দাঁড়ায়। এই ছোট ঘরকে বড় দেখানো আর হয়ে ওঠে না। তবে আপনি চাইলে কিছু কৌশল খাটিয়ে এই ছোট ঘরকেই কিছুটা বড় দেখাতে পারবেন। আসুন আজ ছোট ঘরকে বড় দেখানো ও এর জন্য এমন ১০টি কৌশল নিয়ে আলোচনা করি।

ছোট ঘরকে বড় দেখানো ও এর কিছু কৌশল

১) দেয়ালের রঙ

প্রথমেই আসি দেয়ালের রঙ প্রসঙ্গে। ছোট ঘরের জন্য সঠিক দেয়ালের রঙ বাছাই করাটা খুবই জরুরী। ছোট ঘরের দেয়ালের জন্য অবশ্যই কোন হালকা অথচ উজ্জ্বল রঙ বাছাই করুন। সাদা, অফ হোয়াইট, হালকা হলুদ ইত্যাদি রংগুলো ছোট ঘরে ভালো মানাবে।

২) ঘরের পর্দা

ছোট ঘরকে বড় দেখানোর জন্য দেয়ালের রঙের সাথে মিলিয়ে ঘরের পর্দা বাছাই - shajgoj.com

এবার আসি পর্দা প্রসঙ্গে। ঘরের পর্দা অবশ্যই দেয়ালের রঙের সাথে মিলিয়ে নিবেন। দেয়ালের রঙ এ অথবা দেয়ালের রঙ এর এক বা দুই শেড গাড় পর্দা ব্যবহার করুন। তবে কখনোই বিপরীত রঙ-এর পর্দা ব্যবহার করবেন না। এতে ঘর আরো ছোট দেখাবে।

৩) ফার্নিচার

ছোট ঘরকে বড় দেখানোর জন্য হালকা এবং নিচু ফার্নিচার বাছাই - shajgoj.com

হালকা এবং নিচু ফার্নিচার ব্যবহার করুন। সবচেয়ে ভালো হয় যদি ফ্লোরিং সিস্টেম করতে পারেন। এতে করে আপনার ছোট ঘরকে যথেষ্ঠ বড় দেখাবে। আবার আপনার কিছু টাকাও বেঁচে যাবে।

৪) অপ্রয়োজনীয় জিনিস রাখবেন না। ঘরের চারপাশে তাকিয়ে দেখুন। যদি মনে হয় আপনার আশেপাশের জিনিসগুলোর মধ্যে কোন একটি জিনিস আপনি এক বছরের বেশি সময় ব্যবহার করেন নি, অথচ সেটি আপনার ঘরের কিছুটা মূল্যবান জায়গা দখল করে বসে আছে, তবে এখনই সময় জিনিসটি ফেলে দেয়ার। হতে পারে সেটি কোন পুরোনো ঘড়ি কিংবা বারান্দার এক কোণে অযত্নে পড়ে থাকা কোন বেতের টুল। যদি ব্যবহার না করেন তবে দান করে দিন। দেখবেন ঘরের জায়গা বেড়ে গেছে।

৫) ঘরের চাদর, পর্দা, সোফার কভার আর কুশন কভার বাছাই করার সময় ছোট প্রিন্ট ব্যবহার করুন। অথবা স্ট্রাইপও ব্যবহার করে দেখতে পারেন।

৬) ঘর সাজাতে আয়না ব্যবহার করুন। আয়না ঘরের আয়তন বড় দেখাতে সাহায্য করে।

ছোট ঘরকে বড় দেখানোর জন্য আয়নার ব্যবহার - shajgoj.com

৭) মাল্টিফাংশনাল ফার্নিচার

ছোট ঘরকে বড় দেখানোর জন্য মাল্টিফাংশনাল ফার্নিচার ব্যবহার - shajgoj.com

মাল্টিফাংশনাল ফার্নিচার ব্যবহার করুন। এগুলো যেমন জায়গা বাচায়, তেমনি খরচও বাচিয়ে দেয়। সেই সাথে মেইনটেনেন্সের ঝামেলাও কমিয়ে দেয়। মাল্টিফাংশনাল ফার্নিচারের সবচেয়ে ভালো উদাহরণ হচ্ছে সোফা কাম বেড। সাধারণ সময়ে এগুলো সোফা হিসেবে ব্যবহার করতে পারবেন। আর বাসায় মেহমান আসলে খুলে খাট হিসেবে ব্যবহার করা যাবে। একটা বিশাল খাটের স্পেস বেঁচে গেল।

৮) সব ফার্নিচার দেয়ালের সাথে লাগাবেন না। ছোট খাটো হালকা কিছু ফার্নিচার একটু অ্যাঙ্গেল করে রাখুন। ঘর সাজানোতে ভিন্নতা আসবে সেই সাথে ঘর একটু বড়ও দেখাবে।

৯) ঘরে প্রচুর আলো ঢোকানোর ব্যবস্থা করুন। বড় বড় জানালা রাখুন। জানালায় গ্লাস ডোর লাগান। আর চেষ্টা করুন দিনের বেশিরভাগ সময় জানালা খোলা রাখার। সূর্যের নরম আলোয় আপনার ঘর এমনিতেই বড় দেখাবে।

১০) দেয়ালে খুব বেশি ছবি বা ফ্রেম রাখবেন না। একটি দেয়ালে দুই থেকে তিনটি ছবিই যথেষ্ঠ।

 

ছবি- সংগৃহীত: সাজগোজ

Facebook Comments
Share

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» তোফায়েল ভাই অভিবাদন

» পেয়ারার যত গুণ

» মৃত্যুর জন্য যে শহরে যান মানুষ!

» মজাদার বাদাম মাটন কোরমা রেসিপি

» যেভাবে চিনবেন পদ্মার ইলিশ

» ইমামের পেছনে সুরা ফাতেহা পড়লে কি গুনাহ হবে?

» ‘আধ্যাত্মিক গুরুর’ ছেলের অফিসে ২০ কোটি ডলার, ৯০ কেজি সোনা!

» সংবাদ সম্মেলনে না থাকার কারণ জানালেন মাশরাফি

» বাংলাদেশ-ভারত টেস্ট দেখতে কলকাতা যাচ্ছেন শেখ হাসিনা

» নারী ও শিশু নির্যাতনের গল্পে তানহা তাসনিয়া

উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন, উপশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ।

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : শেখ মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

বার্তা সম্পাদক :এ.এইচ.এম.শাহ্জাহান

 

 

 

 

ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...
,

ছোট ঘরকে বড় দেখানো | ১০টি কৌশল অবলম্বন করুন

ঘর মানেই সবার কাছে শান্তির নীড়। তাই সকলেরই ইচ্ছা থাকে এই শান্তির নীড়টাকে সুন্দর করে সাজিয়ে গুছিয়ে রাখা। কিন্তু এখনকার ফ্লাটগুলো এত ছোট হয় যে এতে প্রয়োজনীয় আসবাবপত্র ধরানোই মুশকিল হয়ে যায়। সেখানে নিজের মতো করে ঘর সাজানো মুশকিল ব্যাপার হয়ে দাঁড়ায়। এই ছোট ঘরকে বড় দেখানো আর হয়ে ওঠে না। তবে আপনি চাইলে কিছু কৌশল খাটিয়ে এই ছোট ঘরকেই কিছুটা বড় দেখাতে পারবেন। আসুন আজ ছোট ঘরকে বড় দেখানো ও এর জন্য এমন ১০টি কৌশল নিয়ে আলোচনা করি।

ছোট ঘরকে বড় দেখানো ও এর কিছু কৌশল

১) দেয়ালের রঙ

প্রথমেই আসি দেয়ালের রঙ প্রসঙ্গে। ছোট ঘরের জন্য সঠিক দেয়ালের রঙ বাছাই করাটা খুবই জরুরী। ছোট ঘরের দেয়ালের জন্য অবশ্যই কোন হালকা অথচ উজ্জ্বল রঙ বাছাই করুন। সাদা, অফ হোয়াইট, হালকা হলুদ ইত্যাদি রংগুলো ছোট ঘরে ভালো মানাবে।

২) ঘরের পর্দা

ছোট ঘরকে বড় দেখানোর জন্য দেয়ালের রঙের সাথে মিলিয়ে ঘরের পর্দা বাছাই - shajgoj.com

এবার আসি পর্দা প্রসঙ্গে। ঘরের পর্দা অবশ্যই দেয়ালের রঙের সাথে মিলিয়ে নিবেন। দেয়ালের রঙ এ অথবা দেয়ালের রঙ এর এক বা দুই শেড গাড় পর্দা ব্যবহার করুন। তবে কখনোই বিপরীত রঙ-এর পর্দা ব্যবহার করবেন না। এতে ঘর আরো ছোট দেখাবে।

৩) ফার্নিচার

ছোট ঘরকে বড় দেখানোর জন্য হালকা এবং নিচু ফার্নিচার বাছাই - shajgoj.com

হালকা এবং নিচু ফার্নিচার ব্যবহার করুন। সবচেয়ে ভালো হয় যদি ফ্লোরিং সিস্টেম করতে পারেন। এতে করে আপনার ছোট ঘরকে যথেষ্ঠ বড় দেখাবে। আবার আপনার কিছু টাকাও বেঁচে যাবে।

৪) অপ্রয়োজনীয় জিনিস রাখবেন না। ঘরের চারপাশে তাকিয়ে দেখুন। যদি মনে হয় আপনার আশেপাশের জিনিসগুলোর মধ্যে কোন একটি জিনিস আপনি এক বছরের বেশি সময় ব্যবহার করেন নি, অথচ সেটি আপনার ঘরের কিছুটা মূল্যবান জায়গা দখল করে বসে আছে, তবে এখনই সময় জিনিসটি ফেলে দেয়ার। হতে পারে সেটি কোন পুরোনো ঘড়ি কিংবা বারান্দার এক কোণে অযত্নে পড়ে থাকা কোন বেতের টুল। যদি ব্যবহার না করেন তবে দান করে দিন। দেখবেন ঘরের জায়গা বেড়ে গেছে।

৫) ঘরের চাদর, পর্দা, সোফার কভার আর কুশন কভার বাছাই করার সময় ছোট প্রিন্ট ব্যবহার করুন। অথবা স্ট্রাইপও ব্যবহার করে দেখতে পারেন।

৬) ঘর সাজাতে আয়না ব্যবহার করুন। আয়না ঘরের আয়তন বড় দেখাতে সাহায্য করে।

ছোট ঘরকে বড় দেখানোর জন্য আয়নার ব্যবহার - shajgoj.com

৭) মাল্টিফাংশনাল ফার্নিচার

ছোট ঘরকে বড় দেখানোর জন্য মাল্টিফাংশনাল ফার্নিচার ব্যবহার - shajgoj.com

মাল্টিফাংশনাল ফার্নিচার ব্যবহার করুন। এগুলো যেমন জায়গা বাচায়, তেমনি খরচও বাচিয়ে দেয়। সেই সাথে মেইনটেনেন্সের ঝামেলাও কমিয়ে দেয়। মাল্টিফাংশনাল ফার্নিচারের সবচেয়ে ভালো উদাহরণ হচ্ছে সোফা কাম বেড। সাধারণ সময়ে এগুলো সোফা হিসেবে ব্যবহার করতে পারবেন। আর বাসায় মেহমান আসলে খুলে খাট হিসেবে ব্যবহার করা যাবে। একটা বিশাল খাটের স্পেস বেঁচে গেল।

৮) সব ফার্নিচার দেয়ালের সাথে লাগাবেন না। ছোট খাটো হালকা কিছু ফার্নিচার একটু অ্যাঙ্গেল করে রাখুন। ঘর সাজানোতে ভিন্নতা আসবে সেই সাথে ঘর একটু বড়ও দেখাবে।

৯) ঘরে প্রচুর আলো ঢোকানোর ব্যবস্থা করুন। বড় বড় জানালা রাখুন। জানালায় গ্লাস ডোর লাগান। আর চেষ্টা করুন দিনের বেশিরভাগ সময় জানালা খোলা রাখার। সূর্যের নরম আলোয় আপনার ঘর এমনিতেই বড় দেখাবে।

১০) দেয়ালে খুব বেশি ছবি বা ফ্রেম রাখবেন না। একটি দেয়ালে দুই থেকে তিনটি ছবিই যথেষ্ঠ।

 

ছবি- সংগৃহীত: সাজগোজ

Facebook Comments
Share

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন, উপশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ।

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : শেখ মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

বার্তা সম্পাদক :এ.এইচ.এম.শাহ্জাহান

 

 

 

 

ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Design & Developed BY ThemesBazar.Com