ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে ভোট প্রস্তুতি

ডেস্ক রিপোর্ট : সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনকে ঘিরে রাজধানী ঢাকা ও চট্টগ্রাম মহানগরের ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে শুরু হয়েছে ভোট প্রস্তুতি। ঢাকা মহানগরে মোট ১৩২টি ওয়ার্ড রয়েছে। এর মধ্যে দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে ৭৫টি এবং উত্তর সিটি করপোরেশনে ৫৭টি ওয়ার্ড রয়েছে। ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের পাশাপাশি বিএনপি, জাতীয় পার্টিসহ অন্যান্য রাজনৈতিক দলের সম্ভাব্য কাউন্সিলর প্রার্থীরা এরই মধ্যে প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছেন। ওয়ার্ড পর্যায়ে বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানেও দেখা মিলছে তাদের। দিবসভিত্তিক কর্মসূচিতেও শোডাউন করছেন কেউ কেউ। বিভিন্ন দিবসের শুভেচ্ছা বার্তা দিয়ে স্থানীয়ভাবে পোস্টার সাঁটানো হচ্ছে। এখন ওয়ার্ড পর্যায়ে ভোটের হাওয়া লেগেছে। গত সিটি নির্বাচনে যারা প্রার্থী হয়েছিলেন তারা এবারও প্রার্থী হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে রয়েছেন। আবার অনেক ওয়ার্ডে নতুন মুখও আসতে পারে। প্রতিটি ওয়ার্ডেই প্রধান দুই দল আওয়ামী লীগ ও বিএনপির একাধিক প্রার্থী রয়েছেন। ঢাকা উত্তর সিটিতে ২৮ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ফোরকান আওয়ামী লীগ মনোনীত। তিনি বলেন, দল চাইলে আবারও আমি প্রার্থী হতে চাই। বিশাল এলাকাজুড়ে আমার ওয়ার্ড। এক মেয়াদে নির্বাচিত হয়ে সব সমস্যার সমাধান করা যায় না। সে জন্য ধারাবাহিকতা দরকার। আমি সেভাবেই কাজ করছি। বাকিটা আমার দল ও এলাকার জনগণের সিদ্ধান্ত মাথা পেতে নেব।বাংলাদেশ প্রতিদিন

এদিকে বর্তমান কাউন্সিলরের পাশাপাশি সমানতালে কাজ করছেন থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকরাও। ওয়ারী থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি চৌধুরী আশিকুর রহমান লাভলু ৩৮ নম্বর ওয়ার্ডে গতবার দলীয় মনোনয়ন পাননি। এবার তিনি সার্বিক বিবেচনায় এগিয়ে থাকবেন বলে মনে করেন। তার মতে, দীর্ঘদিন এই ওয়ার্ড ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও আওয়ামী লীগের দায়িত্ব পালন করেছি। নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি না হয়েও তাদের জন্য রাত-দিন কাজ করছি। আশা করছি, বঙ্গবন্ধুকন্যা আমাকে যথাযথ মূল্যায়ন করবেন। উত্তর সিটির ৬ নং ওয়ার্ডে গেল বছর বিএনপির প্রার্থী ছিলেন মাহফুজুর রহমান সুমন। এবারও তিনি নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছেন। তবে ওই ওয়ার্ডে বেল্লাল হোসেন, মাহবুব আলম মন্টু, হাবিবুর রহমান হাবিব ও ইকবাল হোসেন নামে আরও চারজন বিএনপি নেতা নিজেদের প্রার্থী হিসেবে জানান দিচ্ছেন। সবাই তাকিয়ে আছেন দলের সিদ্ধান্তের দিকে। বেল্লাল হোসেন বলেন, আমি এলাকার জনগণের পাশে আছি। দল আমাকে মনোনয়ন দিলে সর্বাত্মক চেষ্টা চালাব। দক্ষিণ সিটির ৩৯ নম্বর ওয়ার্ডে বিএনপি সমর্থিত দুই প্রার্থী সাব্বির আহমেদ আরিফ ও মোজাম্মেল হক মুক্তা ভোটের প্রস্তুতি নিচ্ছেন। দল কাকে মনোনয়ন দেবে তা নিশ্চিত নয়। এ প্রসঙ্গে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে বিএনপির সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থী প্রকৌশলী ইশরাক হোসেন বলেন, ‘আমাদের প্রতিটি ওয়ার্ডে একাধিক যোগ্য প্রার্থী রয়েছেন। ভোটের সুষ্ঠু পরিবেশ পেলে ধানের শীষের যে কোনো প্রার্থীই বিপুল ভোটে বিজয়ী হবেন। কিন্তু সরকারের কর্মকাে মনে হয় না, দেশে আর সুষ্ঠু ভোট হবে।’

Facebook Comments
Share

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» যুক্তরাজ্যে কন্টেইনার থেকে ৩৯ লাশ উদ্ধার

» গ্রামীণ জনগণ প্রকৃত উপজেলার সুফল থেকে বঞ্চিত: জি এম কাদের

» রাজধানীতে টানা দুই ঘণ্টা বৃষ্টি

» শিক্ষকরা ছত্রভঙ্গ, আহত ১০

» পদ হারিয়ে কাওসার বললেন, রাজনীতি করলে ভুল-ত্রুটি থাকতেই পারে

» জরিপভিত্তিক সংস্থাগুলোর প্রতিবেদনের সঙ্গে একমত নই: তথ্যমন্ত্রী

» শায়েস্তাগঞ্জে কালোবাজারীর দখলে ট্রেনের টিকেট

» কাশ্মীরের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বিগ্ন আমেরিকা!

» গাছ কেটে ভাইরাল হওয়া সেই নারী আটক

» একজন নেতার জন্য ১৪ দল ভাঙতে পারে না: ওবায়দুল কাদের

উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন, উপশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ।

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : শেখ মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

বার্তা সম্পাদক :এ.এইচ.এম.শাহ্জাহান

 

 

 

 

ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...
,

ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে ভোট প্রস্তুতি

ডেস্ক রিপোর্ট : সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনকে ঘিরে রাজধানী ঢাকা ও চট্টগ্রাম মহানগরের ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে শুরু হয়েছে ভোট প্রস্তুতি। ঢাকা মহানগরে মোট ১৩২টি ওয়ার্ড রয়েছে। এর মধ্যে দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে ৭৫টি এবং উত্তর সিটি করপোরেশনে ৫৭টি ওয়ার্ড রয়েছে। ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের পাশাপাশি বিএনপি, জাতীয় পার্টিসহ অন্যান্য রাজনৈতিক দলের সম্ভাব্য কাউন্সিলর প্রার্থীরা এরই মধ্যে প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছেন। ওয়ার্ড পর্যায়ে বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানেও দেখা মিলছে তাদের। দিবসভিত্তিক কর্মসূচিতেও শোডাউন করছেন কেউ কেউ। বিভিন্ন দিবসের শুভেচ্ছা বার্তা দিয়ে স্থানীয়ভাবে পোস্টার সাঁটানো হচ্ছে। এখন ওয়ার্ড পর্যায়ে ভোটের হাওয়া লেগেছে। গত সিটি নির্বাচনে যারা প্রার্থী হয়েছিলেন তারা এবারও প্রার্থী হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে রয়েছেন। আবার অনেক ওয়ার্ডে নতুন মুখও আসতে পারে। প্রতিটি ওয়ার্ডেই প্রধান দুই দল আওয়ামী লীগ ও বিএনপির একাধিক প্রার্থী রয়েছেন। ঢাকা উত্তর সিটিতে ২৮ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ফোরকান আওয়ামী লীগ মনোনীত। তিনি বলেন, দল চাইলে আবারও আমি প্রার্থী হতে চাই। বিশাল এলাকাজুড়ে আমার ওয়ার্ড। এক মেয়াদে নির্বাচিত হয়ে সব সমস্যার সমাধান করা যায় না। সে জন্য ধারাবাহিকতা দরকার। আমি সেভাবেই কাজ করছি। বাকিটা আমার দল ও এলাকার জনগণের সিদ্ধান্ত মাথা পেতে নেব।বাংলাদেশ প্রতিদিন

এদিকে বর্তমান কাউন্সিলরের পাশাপাশি সমানতালে কাজ করছেন থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকরাও। ওয়ারী থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি চৌধুরী আশিকুর রহমান লাভলু ৩৮ নম্বর ওয়ার্ডে গতবার দলীয় মনোনয়ন পাননি। এবার তিনি সার্বিক বিবেচনায় এগিয়ে থাকবেন বলে মনে করেন। তার মতে, দীর্ঘদিন এই ওয়ার্ড ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও আওয়ামী লীগের দায়িত্ব পালন করেছি। নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি না হয়েও তাদের জন্য রাত-দিন কাজ করছি। আশা করছি, বঙ্গবন্ধুকন্যা আমাকে যথাযথ মূল্যায়ন করবেন। উত্তর সিটির ৬ নং ওয়ার্ডে গেল বছর বিএনপির প্রার্থী ছিলেন মাহফুজুর রহমান সুমন। এবারও তিনি নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছেন। তবে ওই ওয়ার্ডে বেল্লাল হোসেন, মাহবুব আলম মন্টু, হাবিবুর রহমান হাবিব ও ইকবাল হোসেন নামে আরও চারজন বিএনপি নেতা নিজেদের প্রার্থী হিসেবে জানান দিচ্ছেন। সবাই তাকিয়ে আছেন দলের সিদ্ধান্তের দিকে। বেল্লাল হোসেন বলেন, আমি এলাকার জনগণের পাশে আছি। দল আমাকে মনোনয়ন দিলে সর্বাত্মক চেষ্টা চালাব। দক্ষিণ সিটির ৩৯ নম্বর ওয়ার্ডে বিএনপি সমর্থিত দুই প্রার্থী সাব্বির আহমেদ আরিফ ও মোজাম্মেল হক মুক্তা ভোটের প্রস্তুতি নিচ্ছেন। দল কাকে মনোনয়ন দেবে তা নিশ্চিত নয়। এ প্রসঙ্গে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে বিএনপির সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থী প্রকৌশলী ইশরাক হোসেন বলেন, ‘আমাদের প্রতিটি ওয়ার্ডে একাধিক যোগ্য প্রার্থী রয়েছেন। ভোটের সুষ্ঠু পরিবেশ পেলে ধানের শীষের যে কোনো প্রার্থীই বিপুল ভোটে বিজয়ী হবেন। কিন্তু সরকারের কর্মকাে মনে হয় না, দেশে আর সুষ্ঠু ভোট হবে।’

Facebook Comments
Share

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন, উপশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ।

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : শেখ মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

বার্তা সম্পাদক :এ.এইচ.এম.শাহ্জাহান

 

 

 

 

ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Design & Developed BY ThemesBazar.Com