ইসলামী নিয়মে রাস্তায় টাকা পেলে করণীয় কি? জেনে নিন

ইসলামী নিয়মে রাস্তায় টাকা পেলে- রাস্তায় টাকা-পয়সা পাওয়া গেলে খোঁজা খুঁজির পরও মালিকের সন্ধান না পেলে কি করা যায়। এ ব্যাপারে অনেকেই বলে থাকেন ওই টাকা মসজিদে দিয়ে দেওয়া যায়।

কিন্তু বিজ্ঞ আলেমরা বলছেন, রাস্তা-ঘাটে পাওয়া টাকা-পয়সার ক্ষেত্রে শরীয়তের বিধান হল, যদি টাকার পরিমাণ এত কম হয় যে, মালিক তা অনুসন্ধান করবে না বলে মনে হয় তবে কোনো ফকীরকে তা সদকা করে দিবে।

আর যদি অনেক টাকা বা মূল্যবান কোনো বস্তু পাওয়া যায় এবং মালিক এর খোঁজে থাকবে বলে মনে হয় তাহলে ঐ স্থান ও আশপাশ এবং নিকটবর্তী জন-সমাগমের স্থানে

(যথা মসজিদের সামনে, বাজারে, স্টেশনে ইত্যাদিতে) প্রাপ্তির ঘোষণা দিতে থাকবে এবং প্রকৃত মালিক পেলে তার কাছে হস্তান্তর করে দিবে।

কিন্তু এরপরও যদি মালিক না পাওয়া যায় এবং মালিকের সন্ধান পাওয়া যাবে না বলে প্রবল ধারণা হয় তাহলে তা কোনো গরীব-মিসকীনকে সদকা করে দিবে। প্রাপক দরিদ্র হলে সে নিজেও তা রেখে দিতে পারবে।

আর কুড়িয়ে পাওয়া টাকা মসজিদে দেওয়া যাবে না। কেউ মসজিদে দিয়ে দিতে বললে সেটা ঠিক নয়।

সূত্র: ফাতাওয়া হিন্দিয়া ২/২৮৯; আদ্দুররুল মুখতার ৪/২৭৮; ফাতহুল কাদীর ২/২০৮; আলমুহীতুল বুরহানী ৮/১৭১

আরও পড়ুন…শুধু তিন শ্রেণির মানুষের রয়েছে আংটি পরার অনুমতি…

হজরত রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াল্লাম- এর আমল থেকে যতটুক বোঝ যায়, তা হলো পুরুষের জন্য শুধু রুপার আংটি ব্যবহার করা জায়েজ। তবে কোনো কারণ ছাড়া আংটি না পরাই ভালো। কারণ আমাদের মহানবী (সা.) প্রয়োজনের থাকায় আংটি ব্যবহার করেছেন।

প্রয়োজন সৃষ্টি হওয়ার আগ পর্যন্ত তিনি কোনো আংটি ব্যবহার করেননি। তাই কোনো কোনো তাবেঈ থেকে বর্ণিত আছে যে, কেবলমাত্র তিন শ্রেণির মানুষই আংটি পরিধান করবে। এক. রাজা-বাদশা। দুই.বিচরক। তিন. বেকুফ। বেকুফ বলতে সেই ব্যক্তিকে বোঝানো হয়েছে যে বিনা প্রয়োজনে আংটি ব্যবহার করে। (ফতওয়ায়ে শামী)

হজরত রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম পিতল এবং লোহার আংটি ব্যবহার করতে নিষেধ করেছেন। (আবু দাউদ) তবে লোহার উপর যদি রুপার পাত মোড়ানো থাকে তাহলে সেটা ব্যবহার করা যেতে পারে।

উল্লেখ্য, এই বিধান নারী-পুরুষ উভয়ের জন্যই। (ফতওয়ায়ে শামী)

পুরুষের জন্য নিয়ম হলো আংটির অলংকিত দিকটি ভিতরের দিকে রাখতে হবে। তবে মেয়েরা বাইরের দিকেও রাখতে পারবে। (ফতওয়ায়ে শামী)

পুরুষের জন্য রুপার তৈরি আংটি ছাড়া অন্য কোনো আংটি ব্যবহার করা জায়েজ নেই। তবে ইচ্ছা করলে রুপার আংটিতে পাথর কিংবা কাচ স্থাপন করতে পারে। (দুররে মুখতার)

অবশ্য রুপার আংটির ক্ষেত্রেও রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম শর্ত দিয়েছেন, তা হলো আংটি সাড়ে চার মাশার চাইতে ওজনে কম হতে হবে। (আবু দাউদ) আর এটাই হানাফি ফকিহগণের মত। (মিরকাত)

Facebook Comments
Share

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» হাতীবান্ধায় বন্যার্তদের পাশে উজ্জ্বল  পাটোয়ারী 

» গ্রামীন জনগোষ্ঠীর জীবন ও জীবিকার উন্নয়নে কমিউনিটি রেডিও শীর্ষক সংলাপ অনুষ্ঠিত

» লটারীর মাধ্যমে ভাগ্য খুলছে ৫১২ কৃষকের

» শিবগঞ্জ সীমান্তে ফেনসিডিলসহ আটক ১

» তাহিরপুরে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলের ত্রাণসামগ্রী ও জরুরী ওষুধপত্র বিতরণ

» ভারতীয় হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ডাঃ দেবী শেঠীর নারায়ণা হেলথের তথ্যসেবা কেন্দ্র এখন খুলনায়

» বৃষ্টি আসলেই লালমনিরহাট পৌরবাসী ভোগান্তিতে নতুন মাত্রা যোগ হয়

» ময়মনসিংহে বোন হত্যার দায়ে ভাইয়ের যাবজ্জীবন কারাদন্ড

» শৈলকুপায় বাদাম বিক্রেতা বৃদ্ধ প্রতিবন্ধীর পাশে ইউএনও উসমান গনি

» মণিরামপুরে নিত্যপণ্যের দাম বৃদ্ধি, দিশেহারা সীমিত আয়ের মানুষ

উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -আবুল কালাম আজাদ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক

ঢাকা সাব-এডিটরস কাউন্সিল

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : শেখ মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

বার্তা সম্পাদক :এ.এইচ.এম.শাহ্জাহান

 

 

 

 

ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০,০১৯১১৪৯০৫০৫

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...
,

ইসলামী নিয়মে রাস্তায় টাকা পেলে করণীয় কি? জেনে নিন

ইসলামী নিয়মে রাস্তায় টাকা পেলে- রাস্তায় টাকা-পয়সা পাওয়া গেলে খোঁজা খুঁজির পরও মালিকের সন্ধান না পেলে কি করা যায়। এ ব্যাপারে অনেকেই বলে থাকেন ওই টাকা মসজিদে দিয়ে দেওয়া যায়।

কিন্তু বিজ্ঞ আলেমরা বলছেন, রাস্তা-ঘাটে পাওয়া টাকা-পয়সার ক্ষেত্রে শরীয়তের বিধান হল, যদি টাকার পরিমাণ এত কম হয় যে, মালিক তা অনুসন্ধান করবে না বলে মনে হয় তবে কোনো ফকীরকে তা সদকা করে দিবে।

আর যদি অনেক টাকা বা মূল্যবান কোনো বস্তু পাওয়া যায় এবং মালিক এর খোঁজে থাকবে বলে মনে হয় তাহলে ঐ স্থান ও আশপাশ এবং নিকটবর্তী জন-সমাগমের স্থানে

(যথা মসজিদের সামনে, বাজারে, স্টেশনে ইত্যাদিতে) প্রাপ্তির ঘোষণা দিতে থাকবে এবং প্রকৃত মালিক পেলে তার কাছে হস্তান্তর করে দিবে।

কিন্তু এরপরও যদি মালিক না পাওয়া যায় এবং মালিকের সন্ধান পাওয়া যাবে না বলে প্রবল ধারণা হয় তাহলে তা কোনো গরীব-মিসকীনকে সদকা করে দিবে। প্রাপক দরিদ্র হলে সে নিজেও তা রেখে দিতে পারবে।

আর কুড়িয়ে পাওয়া টাকা মসজিদে দেওয়া যাবে না। কেউ মসজিদে দিয়ে দিতে বললে সেটা ঠিক নয়।

সূত্র: ফাতাওয়া হিন্দিয়া ২/২৮৯; আদ্দুররুল মুখতার ৪/২৭৮; ফাতহুল কাদীর ২/২০৮; আলমুহীতুল বুরহানী ৮/১৭১

আরও পড়ুন…শুধু তিন শ্রেণির মানুষের রয়েছে আংটি পরার অনুমতি…

হজরত রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াল্লাম- এর আমল থেকে যতটুক বোঝ যায়, তা হলো পুরুষের জন্য শুধু রুপার আংটি ব্যবহার করা জায়েজ। তবে কোনো কারণ ছাড়া আংটি না পরাই ভালো। কারণ আমাদের মহানবী (সা.) প্রয়োজনের থাকায় আংটি ব্যবহার করেছেন।

প্রয়োজন সৃষ্টি হওয়ার আগ পর্যন্ত তিনি কোনো আংটি ব্যবহার করেননি। তাই কোনো কোনো তাবেঈ থেকে বর্ণিত আছে যে, কেবলমাত্র তিন শ্রেণির মানুষই আংটি পরিধান করবে। এক. রাজা-বাদশা। দুই.বিচরক। তিন. বেকুফ। বেকুফ বলতে সেই ব্যক্তিকে বোঝানো হয়েছে যে বিনা প্রয়োজনে আংটি ব্যবহার করে। (ফতওয়ায়ে শামী)

হজরত রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম পিতল এবং লোহার আংটি ব্যবহার করতে নিষেধ করেছেন। (আবু দাউদ) তবে লোহার উপর যদি রুপার পাত মোড়ানো থাকে তাহলে সেটা ব্যবহার করা যেতে পারে।

উল্লেখ্য, এই বিধান নারী-পুরুষ উভয়ের জন্যই। (ফতওয়ায়ে শামী)

পুরুষের জন্য নিয়ম হলো আংটির অলংকিত দিকটি ভিতরের দিকে রাখতে হবে। তবে মেয়েরা বাইরের দিকেও রাখতে পারবে। (ফতওয়ায়ে শামী)

পুরুষের জন্য রুপার তৈরি আংটি ছাড়া অন্য কোনো আংটি ব্যবহার করা জায়েজ নেই। তবে ইচ্ছা করলে রুপার আংটিতে পাথর কিংবা কাচ স্থাপন করতে পারে। (দুররে মুখতার)

অবশ্য রুপার আংটির ক্ষেত্রেও রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম শর্ত দিয়েছেন, তা হলো আংটি সাড়ে চার মাশার চাইতে ওজনে কম হতে হবে। (আবু দাউদ) আর এটাই হানাফি ফকিহগণের মত। (মিরকাত)

Facebook Comments
Share

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -আবুল কালাম আজাদ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক

ঢাকা সাব-এডিটরস কাউন্সিল

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : শেখ মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

বার্তা সম্পাদক :এ.এইচ.এম.শাহ্জাহান

 

 

 

 

ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০,০১৯১১৪৯০৫০৫

Design & Developed BY ThemesBazar.Com