আসমানিখবর শুনতে শয়তান ও জিনদের বাধাপ্রাপ্ত হওয়ার ঘটনা

মারুফুল আলম : একসময় শয়তান ও জিন আসমানি খবর পেতো। মহানবী মুহাম্মাদ স. এর আগমনের পর থেকে আসমানি খবর শুনতে বাধাপ্রাপ্ত হয় তারা। এ সম্পর্কে হাদিসে এসেছে-
ইবনু আববাস (রাঃ) বলেন, একদা নবী সা. সাহাবিদের একটি দলের সঙ্গে উকায বাজারের উদ্দেশে রওনা হলেন। তখন আসমানি খবর ও শয়তানদের মাঝে আড়াল সৃষ্টি করা হয়েছে। তাদের প্রতি জ্বলন্ত উল্কাপিণ্ড নিক্ষেপ করা হচ্ছে। শয়তানরা নিজেদের সম্প্রদায়ের কাছে ফিরে এসে বলল, কি ব্যাপার তোমাদের? শয়তানরা বলল, আসমানে আমাদেরকে বাধাপ্রাপ্ত করা হচ্ছে, আমাদের প্রতি জ্বলন্ত উল্কাপিণ্ড নিক্ষেপ করা হচ্ছে। তারা বলল, তোমাদেরকে আসমানে বাধাপ্রাপ্ত হওয়ার নিশ্চয়ই কোন নতুন কারণ আছে। সুতরাং পৃথিবীর প্রাচ্য ও প্রতীচ্য ভ্রমণ করে দেখ, কিসে তোমাদেরকে আসমানে বাধাপ্রাপ্ত করছে? সুতরাং তাদের যে দলটি তিহামার দিকে যাত্রা করেছিল, তারা রাসূল সা. এর প্রতি আকৃষ্ট হল। তিনি তখন উকায বাজারের যাত্রাপথে নাখলা নামক জায়গায় সাহাবিগণকে নিয়ে ফজরের সালাত আদায় করছিলেন। কুরআন শুনতে পেয়ে তারা তখন মনোযোগ সহকারে শুনতে লাগল। অতঃপর বলল, এটাই তোমাদেরকে আসমানে বাধাপ্রাপ্ত করছে? সুতরাং তারা (সেখানে ঈমান এনে) নিজেদের সম্প্রদায়ের কাছে ফিরে গিয়ে বলল, আমরা তো এক বিস্ময়কর কুরআন শ্রবণ করেছি। যা সঠিক পথ-নির্দেশ করে। ফলে আমরা তাতে বিশ্বাস স্থাপন করেছি। আর আমরা কখনো আমাদের প্রতিপালকের সঙ্গে কোনকিছু শরীক করব না (সুরা জ্বিন ৭২/১-২)।

অতপর মহান আল্লাহ স্বীয় নবীর উপর উক্ত সুরা জিন অবতীর্ণ করলেন। আর তা ছিল জিনদের কথা (বুখারী হা/৪৯২১; মুসলিম ১০৩৪)।

একদা ওমর রা. জাহেলি যুগের এক গণককে জিজ্ঞেস করলেন, তোমার জিন্নিয়াহ (মহিলা জিন) যেসব কথা বা ঘটনা তোমার কাছে আনয়ন করেছে, তার মধ্যে সবচেয়ে বেশি বিস্ময়কর কী ছিল? সে বলল, আমি একদিন বাজারে ছিলাম। তখন সে আমার নিকট এল, আর তার মধ্যে ভীতি ছিল। সে প্রশ্ন করলো, তুমি কি জ্বিনদের নৈরাশ্য, স্বস্তির পরে তাদের হতাশা এবং যুবতী উটনী ও তার জিনপোশের সাথে তাদের (মদীনায়) মিলিত হওয়া দেখতে পাওনি? (অর্থাৎ তারা এক সময় স্বস্তির সাথে আসমানের খবর শুনত। এখন তাদেরকে বাধা দেয়া হয়। ফলে তারা নিরাশ হয়ে গেছে এবং তারা মদিনার দিকে নবী সা. এর প্রতি যাত্রা শুরু করেছে)। ওমর (রাঃ) বলেন, ও ঠিকই বলেছে। আমি একদিন ওদের দেবতাদের কাছে ঘুমিয়ে ছিলাম। ইত্যবসরে এক লোক একটি বাছুর নিয়ে এসে যবেহ করল। এমন সময় একজনের এমন চিৎকার-ধ্বনি শুনতে পেলাম, ইতিপূর্বে তার চাইতে বিকট চিৎকার আমি কখনও শুনিনি। সে বলল, ওহে জালীহ! একটি সফল ব্যাপার সত্বর সংঘটিত হবে, একজন বক্তা বলবেন, আল্লাহ ছাড়া কোন সত্যিকার উপাস্য নেই। এ কথা শুনে লোকেরা লাফিয়ে উঠল। আমি বললাম, এ ঘোষণার রহস্য জানার অপেক্ষায় থাকব। অতঃপর আবার ঘোষণা দিল, ওহে জালীহ! একটি সফল ব্যাপার সত্ত্বর সংঘটিত হবে, কজন বক্তা বলবেন, আল্লাহ ছাড়া কোন সত্যিকার উপাস্য নেই। অতপর আমি উঠে দাঁড়ালাম। তারপর কিছুদিন অপেক্ষা করতেই বলা হল, ইনিই নবী (বুখারী হা/৩৮৬৬)।

রাসূল সা. এর উপর অহী অবতীর্ণ হওয়ার পর থেকে জিন ও শয়তানরা আসমানের কথা শুনতে পেত না। অপরদিকে একদল জিন কুরআনের অমিয় বাণী শুনে অভিভূত হয়ে তারা ঈমান আনয়ন করে। তাই অভ্রান্ত সত্যের উৎস পবিত্র কুরআন ও সহিহ হাদিসের আলোকে আমাদের জীবন ঢেলে সাজানোর তাওফিক দান করুন-আমীন! আত-তাহরীক

আমাদের সময় ডটকম

Facebook Comments
Share

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» টস জিতে বোলিংয়ে ইংল্যান্ড

» রাইচ মিলের ধানের বস্তায় মিলল আগ্নেয়াস্ত্র

» আড়িয়াল বিলে বিমানবন্দর স্থাপনে মাহীর অনুরোধ

» রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনে তালা

» দক্ষিণ আফ্রিকায় বাংলাদেশি যুবককে গুলি করে হত্যা

» বাংলাদেশ এখন অনন্য উচ্চতায় : স্পিকার

» মাশরাফি-সাকিবদের নৈপুন্যে বিশেষ সুযোগ সুবিধার ঘোষণা প্রধানমন্ত্রীর

» নতুন চিপসেট আনল হুয়াওয়ে

» ভারতীয় সেনাদের ফাঁদে ফেলতে সুন্দরী নারীর ‘হানিট্র্যাপ’

» ঝিনাইদহে অস্ত্র-গুলিসহ সন্ত্রাসী গ্রেফতার

উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -আবুল কালাম আজাদ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক

ঢাকা সাব-এডিটরস কাউন্সিল

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : শেখ মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

বার্তা সম্পাদক :এ.এইচ.এম.শাহ্জাহান

 

 

 

 

ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০,০১৯১১৪৯০৫০৫

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...
,

আসমানিখবর শুনতে শয়তান ও জিনদের বাধাপ্রাপ্ত হওয়ার ঘটনা

মারুফুল আলম : একসময় শয়তান ও জিন আসমানি খবর পেতো। মহানবী মুহাম্মাদ স. এর আগমনের পর থেকে আসমানি খবর শুনতে বাধাপ্রাপ্ত হয় তারা। এ সম্পর্কে হাদিসে এসেছে-
ইবনু আববাস (রাঃ) বলেন, একদা নবী সা. সাহাবিদের একটি দলের সঙ্গে উকায বাজারের উদ্দেশে রওনা হলেন। তখন আসমানি খবর ও শয়তানদের মাঝে আড়াল সৃষ্টি করা হয়েছে। তাদের প্রতি জ্বলন্ত উল্কাপিণ্ড নিক্ষেপ করা হচ্ছে। শয়তানরা নিজেদের সম্প্রদায়ের কাছে ফিরে এসে বলল, কি ব্যাপার তোমাদের? শয়তানরা বলল, আসমানে আমাদেরকে বাধাপ্রাপ্ত করা হচ্ছে, আমাদের প্রতি জ্বলন্ত উল্কাপিণ্ড নিক্ষেপ করা হচ্ছে। তারা বলল, তোমাদেরকে আসমানে বাধাপ্রাপ্ত হওয়ার নিশ্চয়ই কোন নতুন কারণ আছে। সুতরাং পৃথিবীর প্রাচ্য ও প্রতীচ্য ভ্রমণ করে দেখ, কিসে তোমাদেরকে আসমানে বাধাপ্রাপ্ত করছে? সুতরাং তাদের যে দলটি তিহামার দিকে যাত্রা করেছিল, তারা রাসূল সা. এর প্রতি আকৃষ্ট হল। তিনি তখন উকায বাজারের যাত্রাপথে নাখলা নামক জায়গায় সাহাবিগণকে নিয়ে ফজরের সালাত আদায় করছিলেন। কুরআন শুনতে পেয়ে তারা তখন মনোযোগ সহকারে শুনতে লাগল। অতঃপর বলল, এটাই তোমাদেরকে আসমানে বাধাপ্রাপ্ত করছে? সুতরাং তারা (সেখানে ঈমান এনে) নিজেদের সম্প্রদায়ের কাছে ফিরে গিয়ে বলল, আমরা তো এক বিস্ময়কর কুরআন শ্রবণ করেছি। যা সঠিক পথ-নির্দেশ করে। ফলে আমরা তাতে বিশ্বাস স্থাপন করেছি। আর আমরা কখনো আমাদের প্রতিপালকের সঙ্গে কোনকিছু শরীক করব না (সুরা জ্বিন ৭২/১-২)।

অতপর মহান আল্লাহ স্বীয় নবীর উপর উক্ত সুরা জিন অবতীর্ণ করলেন। আর তা ছিল জিনদের কথা (বুখারী হা/৪৯২১; মুসলিম ১০৩৪)।

একদা ওমর রা. জাহেলি যুগের এক গণককে জিজ্ঞেস করলেন, তোমার জিন্নিয়াহ (মহিলা জিন) যেসব কথা বা ঘটনা তোমার কাছে আনয়ন করেছে, তার মধ্যে সবচেয়ে বেশি বিস্ময়কর কী ছিল? সে বলল, আমি একদিন বাজারে ছিলাম। তখন সে আমার নিকট এল, আর তার মধ্যে ভীতি ছিল। সে প্রশ্ন করলো, তুমি কি জ্বিনদের নৈরাশ্য, স্বস্তির পরে তাদের হতাশা এবং যুবতী উটনী ও তার জিনপোশের সাথে তাদের (মদীনায়) মিলিত হওয়া দেখতে পাওনি? (অর্থাৎ তারা এক সময় স্বস্তির সাথে আসমানের খবর শুনত। এখন তাদেরকে বাধা দেয়া হয়। ফলে তারা নিরাশ হয়ে গেছে এবং তারা মদিনার দিকে নবী সা. এর প্রতি যাত্রা শুরু করেছে)। ওমর (রাঃ) বলেন, ও ঠিকই বলেছে। আমি একদিন ওদের দেবতাদের কাছে ঘুমিয়ে ছিলাম। ইত্যবসরে এক লোক একটি বাছুর নিয়ে এসে যবেহ করল। এমন সময় একজনের এমন চিৎকার-ধ্বনি শুনতে পেলাম, ইতিপূর্বে তার চাইতে বিকট চিৎকার আমি কখনও শুনিনি। সে বলল, ওহে জালীহ! একটি সফল ব্যাপার সত্বর সংঘটিত হবে, একজন বক্তা বলবেন, আল্লাহ ছাড়া কোন সত্যিকার উপাস্য নেই। এ কথা শুনে লোকেরা লাফিয়ে উঠল। আমি বললাম, এ ঘোষণার রহস্য জানার অপেক্ষায় থাকব। অতঃপর আবার ঘোষণা দিল, ওহে জালীহ! একটি সফল ব্যাপার সত্ত্বর সংঘটিত হবে, কজন বক্তা বলবেন, আল্লাহ ছাড়া কোন সত্যিকার উপাস্য নেই। অতপর আমি উঠে দাঁড়ালাম। তারপর কিছুদিন অপেক্ষা করতেই বলা হল, ইনিই নবী (বুখারী হা/৩৮৬৬)।

রাসূল সা. এর উপর অহী অবতীর্ণ হওয়ার পর থেকে জিন ও শয়তানরা আসমানের কথা শুনতে পেত না। অপরদিকে একদল জিন কুরআনের অমিয় বাণী শুনে অভিভূত হয়ে তারা ঈমান আনয়ন করে। তাই অভ্রান্ত সত্যের উৎস পবিত্র কুরআন ও সহিহ হাদিসের আলোকে আমাদের জীবন ঢেলে সাজানোর তাওফিক দান করুন-আমীন! আত-তাহরীক

আমাদের সময় ডটকম

Facebook Comments
Share

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -আবুল কালাম আজাদ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক

ঢাকা সাব-এডিটরস কাউন্সিল

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : শেখ মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

বার্তা সম্পাদক :এ.এইচ.এম.শাহ্জাহান

 

 

 

 

ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০,০১৯১১৪৯০৫০৫

Design & Developed BY ThemesBazar.Com