অশ্লীল চক্র

গত ২ মার্চ। রাতে চট্টগ্রাম শহরের নূপুর মার্কেট এলাকার এক ব্যবসায়ীকে কাজীর দেউড়ির এপোলো শপিং সেন্টারের সামনে থেকে ‘পুলিশ পরিচয়ে’ অপহরণ করা হয়। পরে তাকে একটি বাসায় আটকে রেখে বিভিন্ন অপত্তিকর ছবি তুলে তা প্রকাশ করার হুমকি দিয়ে দুই লাখ টাকা দাবি করে। ওই ব্যবসায়ী বিভিন্নভাবে সংগ্রহ করে ৫০ হাজার টাকা দেওয়ার পর তাকে ছেড়ে দেয়। পরে ওই ব্যবসায়ী বিষয়টি পুলিশকে জানান। এরপর অভিযানে নামে পুলিশ। পুলিশ একে একে গ্রেফতার করে পাঁচজনকে। তারা হলো- মো. দিদারুল ইসলাম ওরফে দিদার (৩৫), ফাতেমা ইয়াসমিন নিশি (২৮), বিথিত মাহমুদ মোস্তফা সিফা (২৩), মো. আনোয়ার হোসেন ওরফে আনু (৪৪) ও রাকিব আল ইমরান (২৬)। পুলিশ তাদের জিজ্ঞাসাবাদে জানতে পারে তাদের অপরাধের কাহিনী। পুলিশ জানায়, তারা কখনো পুলিশ, কখনো সাংবাদিক পরিচয় দেয়। তাদের টার্গেট ব্যবসায়ী। ব্যবসায়ীদের বন্ধু বানিয়ে জিম্মি করে। এরপর নারীদের দিয়ে অশ্লীল ছবি তোলে। এরপর ইন্টারনেটে ছেড়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে টাকা আদায় করে নেয়। এই ভয়ঙ্কর চক্রটি পুলিশের খাতায় অশ্লীল চক্র নামে পরিচিত। রাজধানী ঢাকা, বন্দরনগরী চট্টগ্রামসহ বিভিন্ন এলাকায় এই অশ্লীল চক্র সক্রিয়। সংশ্লিষ্টরা জানান, তারা বন্ধু বানাতে না পারলে জোর করে অপহরণ করে নিয়ে যায়। গত পাঁচ বছরে এ ধরনের বেশ কয়েকটি ঘটনা ঘটিয়েছে তারা। সে সময় তারা গ্রেফতারও হয়েছিল। তাদের বিরুদ্ধে অপহরণ ও মুক্তিপণ আদায়ের অভিযোগে মামলাও রয়েছে।

পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতাররা স্বীকার করেছে, তারা বাসায় অবস্থান নিয়ে নিশি ও সিফা বিভিন্ন জনের মোবাইল নম্বর ও ফেসবুক আইডি সংগ্রহ করে হোয়াটস অ্যাপ, ইমো ও সরাসরি ফোনে যোগাযোগ করে বন্ধুত্ব গড়ে তোলে। পরে ওই ব্যক্তিকে প্রলোভন দেখিয়ে বাসায় নিয়ে যায়। সেখানে তাদের দলের কেউ কেউ ‘সাংবাদিক’ পরিচয়ে বাসায় ঢুকে আপত্তিকর ছবি তোলে এবং তা প্রকাশের হুমকি দিয়ে টাকা আদায় করে।

গ্রেফতার দিদার, রাকিব ও পলাতক কামরুল মিলে গত ২ মার্চ ওই ব্যবসায়ীকে বহনকারী অটোরিকশাটি থামিয়ে তাকে ধরে নিয়ে চশমাহিলের একটি বাসায় আটকে রাখে। বাসাটি দিদার ও নিশি স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে ভাড়া নিয়েছিল। ওই বাসায় নিয়ে আটকে রেখে সিফার সঙ্গে ওই ব্যবসায়ীর আপত্তিকর এবং ইয়াবা দিয়ে ছবি তোলে। কামরুল নিজেকে সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে ছবিগুলো বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশ করার হুমকি দিয়ে দুই লাখ দাবি করে।

পুলিশ জানায়, এ ধরনের ঘটনা ঘটছে অহরহ। কিন্তু সামাজিক অবস্থানের কারণে অনেকেই মুখ খোলে না। যে কারণে এই অপরাধের মাত্রা বাড়ছে। এ অবস্থা থেকে নিজেদের রক্ষা পেতে হলে সচেতনতার বিকল্প নেই। প্রেমের মতো সম্পর্ক গড়ে তোলার আগে ভাবতে হবে। জানতে হবে তার সম্পর্কে।

বাংলাদেশ প্রতিদিন

Facebook Comments
Share

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» প্রধানমন্ত্রীর কঠোর অবস্থান, শাস্তির আওতায় মন্ত্রী-এমপিসহ ১০০ নেতা

» জাতীয় পরিচয়পত্র দেখিয়ে টিকিট কাটলেন রেলমন্ত্রী

» শিশুদের জুস ও চকলেটে কাপড়ের রঙ, দুই প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা

» কমলাপুরে টিকিট বিক্রি শুরু, উপচেপড়া ভিড়

» একাধিক স্বাস্থ্য সমস্যা সমাধানে প্রতিদিন খান পেয়ারা

» ৩০ কোটি ডলার ব্যয়ে মার্কিন রণতরী আনছে সৌদি আরব-আমিরাত

» কোন মুসলিম দেশে কবে ঈদ

» আইফেল টাওয়ারে কেনো উঠলেন তিনি?

» উদ্বোধনের আগেই জৈন্তাপুরের চিকারখাল সেতুতে ফাটল

» তলা ফেটে লঞ্চে পানি, রক্ষা পেলেন তিন শতাধিক যাত্রী

উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -আবুল কালাম আজাদ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক

ঢাকা সাব-এডিটরস কাউন্সিল

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : শেখ মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

বার্তা সম্পাদক :এ.এইচ.এম.শাহ্জাহান

 

 

 

 

ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০,০১৯১১৪৯০৫০৫

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...
,

অশ্লীল চক্র

গত ২ মার্চ। রাতে চট্টগ্রাম শহরের নূপুর মার্কেট এলাকার এক ব্যবসায়ীকে কাজীর দেউড়ির এপোলো শপিং সেন্টারের সামনে থেকে ‘পুলিশ পরিচয়ে’ অপহরণ করা হয়। পরে তাকে একটি বাসায় আটকে রেখে বিভিন্ন অপত্তিকর ছবি তুলে তা প্রকাশ করার হুমকি দিয়ে দুই লাখ টাকা দাবি করে। ওই ব্যবসায়ী বিভিন্নভাবে সংগ্রহ করে ৫০ হাজার টাকা দেওয়ার পর তাকে ছেড়ে দেয়। পরে ওই ব্যবসায়ী বিষয়টি পুলিশকে জানান। এরপর অভিযানে নামে পুলিশ। পুলিশ একে একে গ্রেফতার করে পাঁচজনকে। তারা হলো- মো. দিদারুল ইসলাম ওরফে দিদার (৩৫), ফাতেমা ইয়াসমিন নিশি (২৮), বিথিত মাহমুদ মোস্তফা সিফা (২৩), মো. আনোয়ার হোসেন ওরফে আনু (৪৪) ও রাকিব আল ইমরান (২৬)। পুলিশ তাদের জিজ্ঞাসাবাদে জানতে পারে তাদের অপরাধের কাহিনী। পুলিশ জানায়, তারা কখনো পুলিশ, কখনো সাংবাদিক পরিচয় দেয়। তাদের টার্গেট ব্যবসায়ী। ব্যবসায়ীদের বন্ধু বানিয়ে জিম্মি করে। এরপর নারীদের দিয়ে অশ্লীল ছবি তোলে। এরপর ইন্টারনেটে ছেড়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে টাকা আদায় করে নেয়। এই ভয়ঙ্কর চক্রটি পুলিশের খাতায় অশ্লীল চক্র নামে পরিচিত। রাজধানী ঢাকা, বন্দরনগরী চট্টগ্রামসহ বিভিন্ন এলাকায় এই অশ্লীল চক্র সক্রিয়। সংশ্লিষ্টরা জানান, তারা বন্ধু বানাতে না পারলে জোর করে অপহরণ করে নিয়ে যায়। গত পাঁচ বছরে এ ধরনের বেশ কয়েকটি ঘটনা ঘটিয়েছে তারা। সে সময় তারা গ্রেফতারও হয়েছিল। তাদের বিরুদ্ধে অপহরণ ও মুক্তিপণ আদায়ের অভিযোগে মামলাও রয়েছে।

পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতাররা স্বীকার করেছে, তারা বাসায় অবস্থান নিয়ে নিশি ও সিফা বিভিন্ন জনের মোবাইল নম্বর ও ফেসবুক আইডি সংগ্রহ করে হোয়াটস অ্যাপ, ইমো ও সরাসরি ফোনে যোগাযোগ করে বন্ধুত্ব গড়ে তোলে। পরে ওই ব্যক্তিকে প্রলোভন দেখিয়ে বাসায় নিয়ে যায়। সেখানে তাদের দলের কেউ কেউ ‘সাংবাদিক’ পরিচয়ে বাসায় ঢুকে আপত্তিকর ছবি তোলে এবং তা প্রকাশের হুমকি দিয়ে টাকা আদায় করে।

গ্রেফতার দিদার, রাকিব ও পলাতক কামরুল মিলে গত ২ মার্চ ওই ব্যবসায়ীকে বহনকারী অটোরিকশাটি থামিয়ে তাকে ধরে নিয়ে চশমাহিলের একটি বাসায় আটকে রাখে। বাসাটি দিদার ও নিশি স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে ভাড়া নিয়েছিল। ওই বাসায় নিয়ে আটকে রেখে সিফার সঙ্গে ওই ব্যবসায়ীর আপত্তিকর এবং ইয়াবা দিয়ে ছবি তোলে। কামরুল নিজেকে সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে ছবিগুলো বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশ করার হুমকি দিয়ে দুই লাখ দাবি করে।

পুলিশ জানায়, এ ধরনের ঘটনা ঘটছে অহরহ। কিন্তু সামাজিক অবস্থানের কারণে অনেকেই মুখ খোলে না। যে কারণে এই অপরাধের মাত্রা বাড়ছে। এ অবস্থা থেকে নিজেদের রক্ষা পেতে হলে সচেতনতার বিকল্প নেই। প্রেমের মতো সম্পর্ক গড়ে তোলার আগে ভাবতে হবে। জানতে হবে তার সম্পর্কে।

বাংলাদেশ প্রতিদিন

Facebook Comments
Share

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -আবুল কালাম আজাদ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক

ঢাকা সাব-এডিটরস কাউন্সিল

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : শেখ মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

বার্তা সম্পাদক :এ.এইচ.এম.শাহ্জাহান

 

 

 

 

ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০,০১৯১১৪৯০৫০৫

Design & Developed BY ThemesBazar.Com