অফিসে ঘুম ঘুম ভাব, কি করবেন?

মাত্র অফিস শুরু করলেন। কিন্তু কাজের মধ্যেই হঠাৎ প্রচণ্ড ঘুম ঘুম ভাব। যেন কাজের টেবিলে মাথা নুয়ে দিয়ে একটা ঘুম দিতে পারলে আহ! কি আরামই না হতো। কিন্তু অফিস বলে কথা, আরামের কারণে আপনার চাকরিটাই হারাতে পারেন।

চাকরি বাঁচাতে আপনাকে ঘুমকে দূর করতেই হবে। কিন্তু কীভাবে কাটাবেন এই অস্বস্তিকর অবস্থা? ঘুম কাটানোর দাওয়াই কি? আর কোনো চিন্তা নেই, কারণ এমন কিছু উপায় আছে, যা আপনার ঘুম কাটাতে সাহায্য করবে।

দুপুরে অল্প খাবার খান: আমাদের দেশে দুপুরবেলা ভারী খাবার খাওয়ার চল আছে। অফিসে থাকলেও এর ব্যতিক্রম হয় না। এর ফলে খাওয়ার পরপরই ঝিমুনি ধরে, ঘুম চলে আসে। তাই খুব সামান্য পরিমাণে পুষ্টিকর খাবার খাওয়ার চেষ্টা করুন। এতে শরীর সুস্থ থাকবে এবং ঘুমও আসবে না।

বিরক্তিকর কাজগুলো কিছুক্ষণ এড়িয়ে চলুন: খাবার খাওয়ার পর বিরক্তিকর কাজগুলো এড়িয়ে চলুন। কারণ, বিরক্তিকর কাজগুলো মানসিকভাবে কাজের প্রতি অনীহা তৈরি করে, যার ফলে কাজ করার উৎসাহ হারিয়ে যায় এবং বারবার ঘুম পায়। এ সময়টাতে আপনার যে কাজ করতে ভালো লাগে, সেরকম কাজ করুন। এতে কাজে মন বসবে এবং ঘুম ঘুম ভাব চলে যাবে।

সহকর্মীদের সঙ্গে কিছুটা সময় কাটান: কাজের ফাঁকে কিছুটা সময় সহকর্মীদের সঙ্গে কাটান। চা খাওয়ার অবসরে বা দুপুরে খাওয়ার সময় গল্প করুন। শেষ কী সিনেমা দেখলেন, সেটা নিয়ে আলোচনা করুন; কিন্তু একেবারেই অফিসের কথা বা কাজের কথা তুলবেন না।

হাঁটাহাটি করুন: টানা এক জায়গায় বসে থাকলে ঘুম তো পাবেই। একটু হাঁটাহাঁটি করে নিন। ৫ মিনিট হাঁটলেই ঘুম পালাবে।

পানি পান করুন: এক নিঃশ্বাসে শেষ করুন এক গ্লাস পানি। এতেই দেখবেন ঘুম ঘুম ভাব একটু কম হবে। চোখে মুখেও পানি ছিটিয়ে দিতে পারেন। বেশ তরতাজা ভাব আসবে।

চা বা কফি নয়: দুপুরের খাবার পরেই চা বা কফি পান করবেন না। খুব নেশা থাকলে অন্তত ৩০ মিনিট বা ১ ঘণ্টা পরে চা বা কফির অর্ডার দিন।

গ্রিন টি খান: কাজের ফাঁকে এক কাপ গ্রিন টি খেতে পারেন। এতে ঘুমের রেশ কেটে যাবে এবং নতুন করে কাজ করার শক্তি পাবেন।

চিনি এড়িয়ে চলুন: চিনি অথবা চিনি জাতীয় যে কোনও খাবারের কারণে বেশি ঘুম পায়। তাই অফিসে যাওয়ার পর এ ধরনের খাবার থেকে দূরে থাকুন। তাহলে ঘুম আসার সম্ভাবনা কমবে।

এক ঘণ্টা অন্তর মুখ ধোয়ার চেষ্টা করুন: সারাদিন সতেজ ও কর্মক্ষম থাকার জন্য অন্তত এক ঘণ্টা পর পর মুখ ধুয়ে ফেলুন। এতে ঘুমের ভাব অনেকটা দূর হবে। ত্বকও ভালো থাকবে, আবার সতেজও লাগবে।

ঘরে জোরালো আলো জ্বালান: আপনার অফিস রুমটিতে যদি আবছা অন্ধকার থাকে, তবে ঘুম তো আসবেই। আলো জ্বালুন বা আলো আসার ব্যবস্থা করুন। সূর্যের উজ্জ্বল আলো অফিস ঘরে ঢুকলে ঘুম এমনিও আসবে না।

বাংলাদেশ জার্নাল

Facebook Comments
Share

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» তোফায়েল ভাই অভিবাদন

» পেয়ারার যত গুণ

» মৃত্যুর জন্য যে শহরে যান মানুষ!

» মজাদার বাদাম মাটন কোরমা রেসিপি

» যেভাবে চিনবেন পদ্মার ইলিশ

» ইমামের পেছনে সুরা ফাতেহা পড়লে কি গুনাহ হবে?

» ‘আধ্যাত্মিক গুরুর’ ছেলের অফিসে ২০ কোটি ডলার, ৯০ কেজি সোনা!

» সংবাদ সম্মেলনে না থাকার কারণ জানালেন মাশরাফি

» বাংলাদেশ-ভারত টেস্ট দেখতে কলকাতা যাচ্ছেন শেখ হাসিনা

» নারী ও শিশু নির্যাতনের গল্পে তানহা তাসনিয়া

উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন, উপশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ।

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : শেখ মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

বার্তা সম্পাদক :এ.এইচ.এম.শাহ্জাহান

 

 

 

 

ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
পরীক্ষামূলক প্রচার...
,

অফিসে ঘুম ঘুম ভাব, কি করবেন?

মাত্র অফিস শুরু করলেন। কিন্তু কাজের মধ্যেই হঠাৎ প্রচণ্ড ঘুম ঘুম ভাব। যেন কাজের টেবিলে মাথা নুয়ে দিয়ে একটা ঘুম দিতে পারলে আহ! কি আরামই না হতো। কিন্তু অফিস বলে কথা, আরামের কারণে আপনার চাকরিটাই হারাতে পারেন।

চাকরি বাঁচাতে আপনাকে ঘুমকে দূর করতেই হবে। কিন্তু কীভাবে কাটাবেন এই অস্বস্তিকর অবস্থা? ঘুম কাটানোর দাওয়াই কি? আর কোনো চিন্তা নেই, কারণ এমন কিছু উপায় আছে, যা আপনার ঘুম কাটাতে সাহায্য করবে।

দুপুরে অল্প খাবার খান: আমাদের দেশে দুপুরবেলা ভারী খাবার খাওয়ার চল আছে। অফিসে থাকলেও এর ব্যতিক্রম হয় না। এর ফলে খাওয়ার পরপরই ঝিমুনি ধরে, ঘুম চলে আসে। তাই খুব সামান্য পরিমাণে পুষ্টিকর খাবার খাওয়ার চেষ্টা করুন। এতে শরীর সুস্থ থাকবে এবং ঘুমও আসবে না।

বিরক্তিকর কাজগুলো কিছুক্ষণ এড়িয়ে চলুন: খাবার খাওয়ার পর বিরক্তিকর কাজগুলো এড়িয়ে চলুন। কারণ, বিরক্তিকর কাজগুলো মানসিকভাবে কাজের প্রতি অনীহা তৈরি করে, যার ফলে কাজ করার উৎসাহ হারিয়ে যায় এবং বারবার ঘুম পায়। এ সময়টাতে আপনার যে কাজ করতে ভালো লাগে, সেরকম কাজ করুন। এতে কাজে মন বসবে এবং ঘুম ঘুম ভাব চলে যাবে।

সহকর্মীদের সঙ্গে কিছুটা সময় কাটান: কাজের ফাঁকে কিছুটা সময় সহকর্মীদের সঙ্গে কাটান। চা খাওয়ার অবসরে বা দুপুরে খাওয়ার সময় গল্প করুন। শেষ কী সিনেমা দেখলেন, সেটা নিয়ে আলোচনা করুন; কিন্তু একেবারেই অফিসের কথা বা কাজের কথা তুলবেন না।

হাঁটাহাটি করুন: টানা এক জায়গায় বসে থাকলে ঘুম তো পাবেই। একটু হাঁটাহাঁটি করে নিন। ৫ মিনিট হাঁটলেই ঘুম পালাবে।

পানি পান করুন: এক নিঃশ্বাসে শেষ করুন এক গ্লাস পানি। এতেই দেখবেন ঘুম ঘুম ভাব একটু কম হবে। চোখে মুখেও পানি ছিটিয়ে দিতে পারেন। বেশ তরতাজা ভাব আসবে।

চা বা কফি নয়: দুপুরের খাবার পরেই চা বা কফি পান করবেন না। খুব নেশা থাকলে অন্তত ৩০ মিনিট বা ১ ঘণ্টা পরে চা বা কফির অর্ডার দিন।

গ্রিন টি খান: কাজের ফাঁকে এক কাপ গ্রিন টি খেতে পারেন। এতে ঘুমের রেশ কেটে যাবে এবং নতুন করে কাজ করার শক্তি পাবেন।

চিনি এড়িয়ে চলুন: চিনি অথবা চিনি জাতীয় যে কোনও খাবারের কারণে বেশি ঘুম পায়। তাই অফিসে যাওয়ার পর এ ধরনের খাবার থেকে দূরে থাকুন। তাহলে ঘুম আসার সম্ভাবনা কমবে।

এক ঘণ্টা অন্তর মুখ ধোয়ার চেষ্টা করুন: সারাদিন সতেজ ও কর্মক্ষম থাকার জন্য অন্তত এক ঘণ্টা পর পর মুখ ধুয়ে ফেলুন। এতে ঘুমের ভাব অনেকটা দূর হবে। ত্বকও ভালো থাকবে, আবার সতেজও লাগবে।

ঘরে জোরালো আলো জ্বালান: আপনার অফিস রুমটিতে যদি আবছা অন্ধকার থাকে, তবে ঘুম তো আসবেই। আলো জ্বালুন বা আলো আসার ব্যবস্থা করুন। সূর্যের উজ্জ্বল আলো অফিস ঘরে ঢুকলে ঘুম এমনিও আসবে না।

বাংলাদেশ জার্নাল

Facebook Comments
Share

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



উপদেষ্টা – আনোয়ার হোসেন জীবন, উপশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ।

উপদেষ্টা – মো: মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, ঢাকা মহানগর উত্তরঃ (দপ্তর সম্পাদক)

উপদেষ্টা -মাকসুদা লিসা

সম্পাদক ও প্রকাশক :মো সেলিম আহম্মেদ

ভারপ্রাপ্ত,সম্পাদক : শেখ মোঃ আতাহার হোসেন সুজন

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ মো: শফিকুল ইসলাম আরজু

নির্বাহী সম্পাদকঃ আনিসুল হক বাবু

সহযোগী সম্পাদকঃ মোঃ ফারুক হোসেন

বার্তা সম্পাদক :এ.এইচ.এম.শাহ্জাহান

 

 

 

 

ই-মেইল : dhakacrimenewsbd@gmail.com

মোবাইল : ০১৫৩৫১৩০৩৫০

Design & Developed BY ThemesBazar.Com